প্রবেশদ্বার:চলচ্চিত্র

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

Intro

একটি ১৬ মিমি স্প্রিং-অউন্ড বোলেক্স এইচ১৬ রিফ্লেক্স ক্যামেরা। চলচ্চিত্রের স্কুলগুলোতে প্রথমে এই ক্যামেরা দিয়ে পরিচয় করানো হয়।

চলচ্চিত্র এক প্রকারের দৃশ্যমান বিনোদন মাধ্যম। চলমান চিত্র তথা "মোশন পিকচার" থেকে চলচ্চিত্র শব্দটি এসেছে। এটি একটি বিশেষ শিল্প মাধ্যম। বাস্তব জগতের চলমান ছবি ক্যামেরার মাধ্যমে ধারণ করে বা এনিমেশনের মাধ্যমে কাল্পনিক জগৎ তৈরি করে চলচ্চিত্র নির্মাণ করা হয়। চলচ্চিত্রের ধারণা অনেক পরে এসেছে, ঊনবিংশ শতকএর শেষ দিকে। আর এনিমেশন চিত্রের ধারণা এসেছে আরও পরে। বাংলায় চলচ্চিত্রের প্রতিশব্দ হিসেবে ছায়াছবি, সিনেমা, মুভি বা ফিল্ম শব্দগুলো ব্যবহৃত হয়।

চলচ্চিত্রের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে থাকে সাংস্কৃতিক উপাদানসমূহ। যে সংস্কৃতিতে তা নির্মিত হয় তাকেই প্রতিনিধিত্ব করে চলচ্চিত্রটি। শিল্পকলার প্রভাবশালী মাধ্যম, শক্তিশালী বিনোদন মাধ্যম এবং শিক্ষার অন্যতম সেরা উপকরণ হিসেবে খ্যাতি রয়েছে চলচ্চিত্রের। ছায়াছবির সাথে ভিজ্যুয়াল বিশ্বের সমন্বয় থাকায় সাধারণ মানুষের সাথে সবচেয়ে ভাল যোগাযোগ স্থাপন করতে পারে। অন্য কোন শিল্পমাধ্যম সাধারণের সাথে এতোটা যোগাযোগ স্থাপনে সক্ষম নয়। অন্য ভাষার চলচ্চিত্রের ডাবিং বা সাবটাইটেল করার মাধ্যমে নিজ ভাষায় নিয়ে আসার প্রচলন রয়েছে। (সম্পূর্ণ নিবন্ধ...)

Cartella blu.jpg

Article blue with a globe icon.png
বিশেষ নিবন্ধ
Angelina-Jolie.jpg

অ্যাঞ্জেলিনা জোলি একজন জনপ্রিয় মার্কিন চলচ্চিত্র অভিনেত্রীযুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া’র লস অ্যাঞ্জেলেসের একটি সংস্কৃতিমনা পরিবারে এই অস্কারজয়ী অভিনেত্রীর জন্ম। তাঁর বাবা জন ভট নিজেও একজন অস্কারজয়ী অভিনেতা। ১৯৮২ সালে লুকিন’ টু গেট আউট ‌ছবিতে একটি শিশু চরিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে রূপালী পর্দায় জোলির আবির্ভাব হয়। তবে পেশাদার চলচ্চিত্র অভিনেত্রী হিসেবে তাঁর অভিষেক ঘটে স্বল্প বাজেটের ছবি সাইবর্গ ২ (১৯৯৩)-এ অভিনয়ের মাধ্যমে, এবং চলচ্চিত্র জগতে তাঁর অনিরূদ্ধ উত্থান শুরু হয় হ্যাকারস (১৯৯৫) ছবিটির মধ্য দিয়ে। নব্বইয়ের দশকে শুরু হওয়া তাঁর এই তুঙ্গস্পর্শী জনপ্রিয়তা আজও সমান তালে বিদ্যমান। ১৯৯২ সালে গার্ল, ইন্টারাপ্টেড চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য লাভ করেন চলচ্চিত্রের সর্বোচ্চ স্বীকৃতি অ্যাকাডেমি পুরস্কার। এছাড়াও তাঁর প্রাপ্ত অন্যান্য উল্লেখযোগ্য পুরস্কারের মধ্যে আছে তিনটি গোল্ডেন গ্লোব ও দুইটি স্ক্রিন অ্যাক্টরস গিল্ডসহ আরও বহু পুরস্কার। অভিনয়ের পাশাপাশি তাঁর বিভিন্ন কর্মকাণ্ড, এবং ব্যক্তিজীবনও সাধারণ মানুষের আকর্ষণের বিষয়। বর্তমানে হলিউডের অন্যতম সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক-প্রাপ্ত এই অভিনেত্রী অভিনয়ের সাথে তাল মিলিয়ে মানবহিতৈষী কর্মকাণ্ডেও যথেষ্ট সক্রিয়; বিশেষ করে বিশ্বজুড়ে শরণার্থীদের জন্য কাজ করার জন্য জোলি বিশেষভাবে সমাদৃত। এ সুবাদেই ২০০১ সাল থেকে তিনি জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থার একজন শুভেচ্ছাদূত। (বাকি অংশ পড়ুন...)

নির্বাচিত নিবন্ধ

সূর্য দীঘল বাড়ী ১৯৭৯ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত একটি বাংলাদেশী চলচ্চিত্র। ছবিটি যৌথভাবে পরিচালনা করেছেন মসিহউদ্দিন শাকের ও শেখ নিয়ামত আলী। বিশিষ্ঠ গ্রন্থকার আবু ইসহাক এর ১৯৫৫ সালে প্রকাশিত (উপন্যাস) সূর্য দীঘল বাড়ি অবলম্বনে ছবিটি নির্মান করা হয়। এটিই বাংলাদেশের প্রথম সরকারী অনুদান প্রাপ্ত পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। ছবিতে প্রধান প্রধান চরিত্র গুলোতে অভিনয় করেছেন ডলি আনোয়ার, জহিরুল হক, রওশন জামিল, আরিফুল হক, কেরামত মাওল এবং এটিএম শামসুজ্জামান

সূর্য দীঘল বাড়ী ছবিটি ১৯৮০ সালের ম্যানহেইম চলচ্চিত্র উৎসব, জার্মানিতে অংশগ্রহণ করে এবং তিনটি বিভাগে পুরস্কার লাভ করে। এছাড়াও চলচ্চিত্রটি বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক সম্মাননা লাভ করে।

নির্বাচিত চিত্র

ইংমার বারিমান
কৃতিত্ব: Svenska filministitutet

ইংমার বারিমান, ওয়াইল্ড স্ট্রবেরিস (১৯৫৭) চলচ্চিত্র পরিচালনারত অবস্থায় তোলা হয়েছিল। ইংমার বারিমান (সুয়েডীয় এই শব্দ সম্পর্কেIngmar Bergman  ইংমার্‌ ব্যার্‌য়্‌মান্‌, জন্ম জুলাই ১৪, ১৯১৮ - মৃত্যু জুলাই ৩০, ২০০৭) বিখ্যাত সুয়েডীয় চলচ্চিত্র ও মঞ্চ পরিচালক ও নির্দেশক এবং নাট্যকার। তাঁর কাজের বিষয় ছিল মানুষের জীবনের শুন্যতা ও অর্থহীনতা এবং একই সাথে জীবনের আশা ও কৌতুক। তাঁকে বিশ্বচলচ্চিত্রের অন্যতম শ্রেষ্ঠ পরিচালক বলে ধরা হয়।

আপনি জানেন কি?

"প্রবেশদ্বার:চলচ্চিত্র/আপনি জানেন কি?/৩" নামক কোন পাতার অস্তিত্ব নেই।

নির্বাচিত জীবনী

Riaz at Dhaka Lit Fest 2017 (cropped).jpg
রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ সিদ্দিক হলেন একজন বাংলাদেশী চলচ্চিত্র অভিনেতা। তিনি ১৯৯৫ সালে বাংলার নায়ক চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে চলচ্চিত্র জগতে পদার্পণ করেন। ১৯৯৭ সালে মহম্মদ হান্নান পরিচালিত প্রাণের চেয়ে প্রিয় চলচ্চিত্রে রিয়াজ অভিনয় করেন যা ব্যবসায়িকভাবে সফল হয় এবং একইসঙ্গে রিয়াজকে জনসাধারণের মাঝে জনপ্রিয় করে তোলে। তিনি তিনবার শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন। পুরস্কারপ্রাপ্ত চলচ্চিত্রগুলি যথাক্রমে দুই দুয়ারী (২০০০), দারুচিনি দ্বীপ (২০০৭) এবং কি যাদু করিলা (২০০৮)। এছাড়া তিনি পাঁচবার তারকা জরিপে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র অভিনেতা বিভাগে এবং দুইবার সমালোচকদের বিচারে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র অভিনেতা বিভাগে মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার অর্জন করেন। তার অভিনীত সাম্প্রতিকতম চলচ্চিত্রগুলো হল সুইটহার্টকৃষ্ণপক্ষ (২০১৬)। নানা মাধ্যম ও কাজে সক্রিয় অভিনেতা রিয়াজ চ্যানেল আইয়ের হ্যান্ডসাম দি আলটিমেট ম্যান প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় মৌসুমে প্রধান বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

নির্বাচিত তালিকা

"প্রবেশদ্বার:চলচ্চিত্র/নির্বাচিত তালিকা/১" নামক কোন পাতার অস্তিত্ব নেই।

উইকিপ্রকল্প

নির্বাচিত উক্তি

"প্রবেশদ্বার:চলচ্চিত্র/নির্বাচিত উক্তি/১" নামক কোন পাতার অস্তিত্ব নেই।

নির্বাচিত বিষয়

Featured article star.png

নির্বাচিত নিবন্ধ

নির্বাচিত তালিকা

নির্বাচিত চিত্র

মূল বিষয়াবলি

আপনি কি করতে পারেন

উপবিষয়শ্রেণী

Cartella verde.jpg

Crystal Clear action find.png
বিষয়শ্রেণী অনুসন্ধান

নিচের বিষয়শ্রেণীগুলোর অধীনে সবগুলো নিবন্ধ সাজানো আছে। + চিহ্নে ক্লিক করলেই উপ-বিষয়শ্রেণী দেখতে পাবেন।

- bn.wikipedia তে খোঁজার জন্য গুগল, এখানে ক্লিক করুন

উপপ্রবেশদ্বার

সম্পর্কিত প্রবেশদ্বার

সহযোগী উইকিমিডিয়া

Wikinews-logo.svg
উইকিসংবাদে চলচ্চিত্র
উন্মুক্ত সংবাদ উৎস

Wikiquote-logo.svg
উইকিউক্তিতে চলচ্চিত্র
উক্তি-উদ্ধৃতির সংকলন

Wikisource-logo.svg
উইকিসংকলনে চলচ্চিত্র
উন্মুক্ত পাঠাগার

Wikibooks-logo.png
উইকিবইয়ে চলচ্চিত্র
উন্মুক্ত পাঠ্যপুস্তক ও ম্যানুয়াল

Wikiversity-logo.svg
উইকিবিশ্ববিদ্যালয়ে চলচ্চিত্র
উন্মুক্ত শিক্ষা মাধ্যম

Commons-logo.svg
উইকিমিডিয়া কমন্সে চলচ্চিত্র
মুক্ত মিডিয়া ভাণ্ডার

Wiktprintable without text.svg
উইকিঅভিধানে চলচ্চিত্র
অভিধান ও সমার্থশব্দকোষ

Wikidata-logo.svg
উইকিউপাত্তে চলচ্চিত্র
উন্মুক্ত জ্ঞানভান্ডার

Wikivoyage-Logo-v3-icon.svg
উইকিভ্রমণে চলচ্চিত্র
উন্মুক্ত ভ্রমণ নির্দেশিকা