আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সাকিব আল হাসানের পাঁচ-উইকেট লাভের তালিকা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সাকিব আল হাসান ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে আছে
সাকিব আল হাসান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রাহক।

ক্রিকেটে পাঁচ-উইকেট লাভ বলতে বুঝায় একজন বোলার কর্তৃক একটি ইনিংসে পাঁচ বা তার বেশি উইকেট নেওয়া। এটিকে একটি উল্লেখযোগ্য কৃতিত্ব হিসাবে গণ্য করা হয়[১] এবং এই পর্যন্ত ৪৫ জন খেলোয়াড় তাদের ক্রিকেট ক্যারিয়ারের আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ১৫ বার পাঁচ বা তার বেশি উইকেট নিয়েছেন।[২] বাংলাদেশী বোলার সাকিব আল হাসান যিনি একজন স্লো বামহাতি অর্থোডক্স স্পিনার, বাংলাদেশের হয়ে জুন ২০১৯ সাল পর্যন্ত ২১ বার পাঁচ উইকেট নেওয়ার কৃতিত্ব লাভ করেছেন। যার মধ্যে ১৮টি টেস্টে, ২টি ওডিআই ক্রিকেট ও ১টি টি২০আই ক্রিকেটে নিয়েছেন। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সকল ফরম্যাটে ২১টি পাঁচ-উইকেট শিকারের মাধ্যমে, তিনি সর্বকালের মোট তালিকায় ২৪ তম স্থানে আছেন[২] এবং তার দেশের খেলোয়াড়ের মধ্যে প্রথমে আছেন।[ক] এছাড়া তিনি স্যার রিচার্ড হ্যাডলির পর টেস্ট ইতিহাসের দ্বিতীয় ক্রিকেটার হিসেবে একাধিক ম্যাচে একইসাথে ১০ উইকেট ও অর্ধশতক করেন।[৪]

সাকিব আল হাসানের টেস্ট অভিষেক হয় ভারতের বিপক্ষে চট্টগ্রামে। এর দেড় বছর পর অক্টোবর ২০০৮ সালে চট্টগ্রামেই নিউজিলান্ডের বিপক্ষে টেস্টে প্রথম পাঁচ বা তার বেশি উইকেট নেন। তিনি প্রথম ইনিংসে ২৫.৫ ওভার বল করে ৩৬ রানের বিনিময়ে ৭ উইকেট নেয়। যেটি এখন পর্যন্ত তার ক্যারিয়ারের সেরা বোলিং। একই বছর তিনি পরের ৩ টেস্টে পর পর ৩ বার পাঁচ উইকেট নিয়ে বছর শেষ করেন; যার ২টি দক্ষিণ আফ্রিকা ও ১টি শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। ২০১৪ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২য় টেস্টে টেস্ট ক্রিকেট ইতিহাসের তৃতীয় ক্রিকেটার হিসাবে এক ম্যাচে সেঞ্চুরি ও ১০ উইকেট লাভ করেন।[৫] টেস্ট ক্রিকেটে, তিনি চতুর্থ বোলার হিসেবে সকল টেস্ট খেলুড়ে দেশের বিপক্ষে পাঁচ উইকেট লাভ করেছেন।[খ][৭] তার ১৭টি পাঁচ উইকেটে লাভের মধ্যে ৩টি এসেছে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। এছাড়া অস্ট্রেলিয়া, শ্রীলঙ্কা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, দক্ষিণ আফ্রিকা, নিউজিল্যান্ড ও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দুইবার করে পাঁচ উইকেট লাভ করেছেন।

অপরদিকে একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পাঁচ-উইকেট লাভ করতে সাকিব আল হাসানকে দীর্ঘদিন অপেক্ষা করতে হয়। মে ২০০৭ সালে টেস্টে অভিষেক হওয়ার এক বছর আগে ২০০৬ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় তার। এর ৯ বছর পর ২০১৫ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেই প্রথমবারের মত পাঁচ-উইকেট লাভ করেন।[৮] তিনি ৪৭ রানের বিনিময়ে পাঁচ উইকেট নেন এবং তার দল সেই ম্যাচ ১৪৫ রানে বিজয়ী হয়। পুনরায় ২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ২৯ রানে ৫ উইকেট শিকার করে জয়ের মুখ দেখিয়ে কৃতিত্ব লাভ করেন।

একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের মত টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পাঁচ-উইকেট লাভ করতে সাকিব আল হাসানকে দীর্ঘদিন অপেক্ষা করতে হয়। ২০০৬ সালের নভেম্বরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তার টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অভিষেক হয়। এর একযুগ পর ২০ ডিসেম্বর ২০১৮ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ বিপক্ষে আন্তর্জাতিক টুয়েন্টি২০ খেলায় প্রথমবারের মত পাঁচ-উইকেট লাভ করেন।[৯]

নির্দেশিকা[সম্পাদনা]

শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম
সাকিব আল হাসান তার ২১টি পাঁচ-উইকেট লাভের মধ্যে ৯টি শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম, মিরপুরে নেন।
  • তারিখ – টেস্ট ম্যাচ শুরুর তারিখ, যে তারিখে ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছিল
  • ইনিংস –ম্যাচের যে ইনিংসে পাঁচ উইকেট লাভ করেন
  • ওভার – সেই ইনিংসে যত ওভার বল করেছিলেন
  • রান – সেই ইনিংসে যত রান দিয়েছেন
  • গড় – সেই ইনিংসের বোলিং ইকোনমি রেট (ওভার প্রতি গড় রান)
  • উইকেট – সেই ইনিংসে গৃহীত উইকেটের সংখ্যা
  • ব্যাটসম্যান – সেই ব্যাটসম্যানগণ যাদের উইকেট পাঁচ-উইকেট অর্জন করার সময় নিয়েছেন
  • ফলাফল – সেই ম্যাচে বাংলাদেশ দলের ফলাফল
  • ♣ – সাকিব আল হাসান ম্যাচ সেরা হিসাবে নির্বাচিত হয়েছেন
  • * – ম্যাচে দশ উইকেট বা তার বেশি উইকেট নিয়েছেন

টেস্ট[সম্পাদনা]

নং. তারিখ মাঠ বিপক্ষ ইনিংস ওভার রান গড় উইকেট ব্যাটসম্যান ফলাফল
&10000000000000001000000 02008-১০-17১৭ অক্টোবর ২০০৮ জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম, চট্টগ্রাম  নিউজিল্যান্ড ২৫.৫ ৩৬ ১.৩৯ হার[১০]
&10000000000000001000000 02008-১১-19১৯ নভেম্বর ২০০৮ আউটসুরেন্স ওভাল, ব্লুমফন্টেইন  দক্ষিণ আফ্রিকা ৩৮ ১৩০ ৩.৪২ হার[১১]
&10000000000000001000000 02008-১১-26২৬ নভেম্বর ২০০৮ সুপারস্পোর্ট পার্ক, সেঞ্চুরিয়ান  দক্ষিণ আফ্রিকা ২৮ ৯৯ ৩.৫৩ হার[১২]
♣ ৪ &10000000000000001000000 02008-১২-26২৬ ডিসেম্বর ২০০৮ শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম, মিরপুর  শ্রীলঙ্কা ২৮.৪ ৭০ ২.৪৪ হার[১৩]
♣ ৫ &10000000000000001000000 02009-০৭-17১৭ জুলাই ২০০৯ জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম, সেন্ট জর্জেস  ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২৪.৫ ৭০ ২.৮১ জয়[১৪]
&10000000000000001000000 02010-০১-17১৭ জানুয়ারি ২০১০ জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম, চট্টগ্রাম  ভারত ২৯.৫ ৬২ ২.০৭ হার[১৫]
&10000000000000001000000 02010-০৬-04৪ জুন ২০১০ ওল্ড ট্রাফোর্ড ক্রিকেট গ্রাউন্ড, ম্যানচেস্টার  ইংল্যান্ড ৩৭.৩ ১২১ ৩.২২ হার[১৬]
&10000000000000001000000 02011-১০-29২৯ অক্টোবর ২০১১ শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম, মিরপুর  ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৩৪.৪ ৬৩ ১.৮১ হার[১৭]
♣ ৯ &10000000000000001000000 02011-১২-17১৭ ডিসেম্বর ২০১১ শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম, মিরপুর  পাকিস্তান ৪০.৫ ৮২ ২.০০ হার[১৮]
১০ &10000000000000001000000 02013-১০-21২১ অক্টোবর ২০১৩ শের-ই-বাংলা জাতীয় স্টেডিয়াম, মিরপুর  নিউজিল্যান্ড ৪৩.০ ১০৩ ২.৩৯ ড্র[১৯]
১১ &10000000000000001000000 02014-০২-04৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম, চট্টগ্রাম  শ্রীলঙ্কা ৩৪.০ ১৪৮ ৪.৩৫ ড্র[২০]
১২ &10000000000000001000000 02014-১০-25২৫ অক্টোবর ২০১৪ শের-ই-বাংলা জাতীয় স্টেডিয়াম, মিরপুর  জিম্বাবুয়ে ২৪.৫ ৫৯ ২.৩৭ জয়[২১]
♣ * ১৩ &10000000000000002000000 02014-১১-03৩ নভেম্বর ২০১৪ শেখ আবু নাসের স্টেডিয়াম, খুলনা  জিম্বাবুয়ে ৪১ ৮০ ১.৯৫ জয়[২২]
♣ * ১৪ &10000000000000004000000 02014-১১-03৩ নভেম্বর ২০১৪ শেখ আবু নাসের স্টেডিয়াম, খুলনা  জিম্বাবুয়ে ১৮ ৪৪ ২.৪৪ জয়[২২]
১৫ 02016-১০-23২৩ অক্টোবর ২০১৬ জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম, চট্টগ্রাম  ইংল্যান্ড ৩৩ ৮৫ ২.৫৭ হার[২৩]
♣ * ১৬ 02017-০৮-27২৭ আগস্ট ২০১৭ শের-ই-বাংলা জাতীয় স্টেডিয়াম, মিরপুর  অস্ট্রেলিয়া ২৫.৫ ৬৮ ২.৬৩ জয়[২৪]
♣ * ১৭ 02017-০৮-27২৭ আগস্ট ২০১৭ শের-ই-বাংলা জাতীয় স্টেডিয়াম, মিরপুর  অস্ট্রেলিয়া ২৮ ৮৫ ৩.০৩ জয়[৪]
১৮ 02018-০৭-12১২ জুলাই ২০১৮ সাবিনা পার্ক, কিংস্টন  ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৭ ৩৩ ১.৯৪ হার[২৫]

একদিনের আন্তর্জাতিক[সম্পাদনা]

নং. তারিখ মাঠ বিপক্ষ ইনিংস ওভার রান গড় উইকেট ব্যাটসম্যান ফলাফল
&10000000000000001000000 02015-১১-07৭ নভেম্বর ২০১৫ শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম, মিরপুর  জিম্বাবুয়ে ১০ ৪৭ ৪.৭০ জয়[২৬]
&10000000000000001000000 02019-০৬-25২৫ জুন ২০১৯, বিশ্বকাপ হ্যাম্পশায়ার বোল, সাউদাম্পটন, ইংল্যান্ড  আফগানিস্তান ১০ ২৯ ২.৯০ জয়[২৭]

টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক[সম্পাদনা]

নং. তারিখ মাঠ বিপক্ষ ইনিংস ওভার রান গড় উইকেট ব্যাটসম্যান ফলাফল
02018-১২-20২০ ডিসেম্বর ২০১৮ double-dagger শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম, মিরপুর  ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২১ ৫.২৫ জয়[২৮]

টীকা[সম্পাদনা]

  1. ২০১৯ অনুযায়ী, সাকিব আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাংলাদেশীদের মধ্যে শীর্ষস্থানীয় উইকেট শিকারী হিসেবে আছেন।[৩]
  2. অন্যরা হলেন মুত্তিয়া মুরালিধরন, রঙ্গনা হেরাথডেল স্টেইন[৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

সাধারণ
নির্দিষ্ট
  1. Pervez, M. A. (২০০১)। A Dictionary of Cricket। Orient Blackswan। পৃষ্ঠা ৩১। আইএসবিএন 978-81-7370-184-9 
  2. "Combined Test, ODI and T20I records: Most five-wicket hauls in a career"ইএসপিএন ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ৩০ আগস্ট ২০১৭ 
  3. "Records / Combined Test, ODI and T20I records / Bowling records / Most wickets in career"। ইএসপিএন ক্রিকইনফো। ১৬ নভেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ নভেম্বর ২০১৫ 
  4. "একজন সাকিব না থাকলে কী হতো!"দৈনিক প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ৩০ আগস্ট ২০১৭ 
  5. "সাকিবের আরও এক অবিশ্বাস্য কীর্তি!"দৈনিক প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ৭ নভেম্বর ২০১৪ 
  6. Sundararaman, Gaurav (২৮ আগস্ট ২০১৭)। "Shakib emulates Murali, Steyn and Herath"। ইএসপিএন ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ৩০ আগস্ট ২০১৭ 
  7. "ওয়ার্নেরও যে রেকর্ড নেই, সেটাই করলেন সাকিব"দৈনিক প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০১৭ 
  8. "নয় বছর পেরিয়ে এসে সাকিবের প্রথম 'পাঁচ'!"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ৮ নভেম্বর ২০১৫ 
  9. "সাকিবের সামনে দাঁড়াতে পারল না ওয়েস্ট ইন্ডিজ"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  10. "1st Test: Bangladesh v New Zealand at Chittagong, Oct 17-21, 2008"ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ২১ আগস্ট ২০১৪ 
  11. "1st Test: South Africa v Bangladesh at Bloemfontein, Nov 19-22, 2008"ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ২১ আগস্ট ২০১৪ 
  12. "2nd Test: South Africa v Bangladesh at Centurion, Nov 26-28, 2008 | ESPN Cricinfo"ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ২১ আগস্ট ২০১৪ 
  13. "1st Test: Bangladesh v Sri Lanka at Dhaka, Dec 26-31, 2008"ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ২১ আগস্ট ২০১৪ 
  14. "2nd Test: West Indies v Bangladesh at St George's, Jul 17-20, 2009"ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ২১ আগস্ট ২০১৪ 
  15. "1st Test: Bangladesh v India at Chittagong, Jan 17-21, 2010"ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ২১ আগস্ট ২০১৪ 
  16. "2nd Test: England v Bangladesh at Manchester, Jun 4-6, 2010"ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ২১ আগস্ট ২০১৪ 
  17. "2nd Test: Bangladesh v West Indies at Dhaka, Oct 29-Nov 2, 2011"ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ২১ আগস্ট ২০১৪ 
  18. "2nd Test: Bangladesh v Pakistan at Dhaka, Dec 17-21, 2011"ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ২১ আগস্ট ২০১৪ 
  19. "2nd Test: Bangladesh v New Zealand at Dhaka, Oct 21-25, 2013"ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ২১ আগস্ট ২০১৪ 
  20. "2nd Test: Bangladesh v Sri Lanka at Chittagong, Feb 4-8, 2014"ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ২১ আগস্ট ২০১৪ 
  21. "1st Test: Bangladesh v Zimbabwe at Dhaka, Oct 25-29, 2014"ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ২৫ অক্টোবর ২০১৪ 
  22. "2st Test: Bangladesh v Zimbabwe at Khulna, Nov 3-7, 2014"ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ৭ নভেম্বর ২০১৪ 
  23. "1st Test: Bangladesh v England at Chittagong, Oct 20-24, 2016"ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ২৪ অক্টোবর ২০১৬ 
  24. "1st Test, Australia tour of Bangladesh at Dhaka, Aug 27-31 2017"। ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০১৭ 
  25. "2nd Test, bangladesh tour of West Indies and United States at kingston, Jamaica, July 12-15 2018"। ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ১২ জুলাই ২০১৮ 
  26. "1st ODI: Bangladesh v Zimbabwe at Dhaka, Nov 7, 2015"ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ৭ নভেম্বর ২০১৫ 
  27. "ICC Cricket World Cup 2019 Match 31, Mon 24 June, 10:30 Local (15:30 BDT) Hampshire Bowl, Southampton, England"আইসিসি। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুন ২০১৯ 
  28. "2nd T20I: Bangladesh v West Indies at Dhaka, Dec 20, 2018"। ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ২০ ডিসেম্বর ২০১৮