টেস্ট ক্রিকেট অভিষেকে ৫ উইকেট লাভকারী দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটারদের তালিকা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

যখন একজন বোলার কোন একটি ইনিংসে পাঁচ বা ততোধিক ব্যাটসম্যানকে আউট করতে সক্ষম হন, তখন ক্রিকেটের পরিভাষায় তা ‘পাঁচ-উইকেট অর্জন’ নামে পরিচিতি পায়। পাঁচ-উইকেট অর্জনকে ‘ফাইভ-ফর’ বা ‘ফিফার’ নামেও ডাকা হয়ে থাকে।[১][২] টেস্ট ক্রিকেট খেলায় এটি একটি অন্যতম সম্পর্কযুক্ত বিষয় কিন্তু অসাধারণ অর্জন হিসেবে বিবেচনা করা হয়ে থাকে।[৩] ২২ মার্চ, ২০২০ তারিখ পর্যন্ত টেস্ট ক্রিকেট অভিষেকে বিশ্বের ১৫৬ জন ক্রিকেটার পাঁচ-উইকেট অর্জন করতে পেরেছেন।[৪] তন্মধ্যে চব্বিশজন দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটার পাঁচ-উইকেট পেয়েছেন।[৫] ছয়টি ভিন্ন প্রতিপক্ষের বিপক্ষে এ পাঁচ-উইকেটগুলো এসেছে। পনেরবারই এসেছে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে।[৬] বাইশ টেস্টে এগুলো আসলেও বারোবারই পরাজয়ের সম্মুখীন হয় দক্ষিণ আফ্রিকা দল। ছয় জয়সহ বাদ-বাকী চারটি টেস্ট ড্র হয়। এগারোটি ভিন্ন মাঠে পাঁচ-উইকেট আসলেও কেপ টাউনের নিউল্যান্ডস ক্রিকেট গ্রাউন্ডে এসেছে ছয়বার।[৭]

প্রথম দক্ষিণ আফ্রিকান হিসেবে টেস্ট ক্রিকেট অভিষেকে পাঁচ-উইকেট পেয়েছেন আলবার্ট রোজ-ইন্স১৮৮৮-৮৯ মৌসুমে সফরকারী ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৪৩ রানের বিনিময়ে তিনি লাভ করেছিলেন পাঁচ-উইকেট।[ক] সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে গবো অ্যাশলে ৯৫ রানে ৭ উইকেট পেলেও তিনি টেস্ট ক্রিকেটে এক টেস্টের বিস্ময়কারীরূপে চিহ্নিত হয়ে আছেন।[৯] আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে নির্বাসন শেষে ১৯৯১ সালে প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে ফিরে আসে দক্ষিণ আফ্রিকা দল। ল্যান্স ক্লুজনার প্রথম টেস্ট অভিষেকধারী হিসেবে পাঁচ-উইকেট তুলে নেন।[খ] নভেম্বর, ১৯৯৬ সালে তিনি ৬৪ রান খরচায় ৮ উইকেট পান। ভারতের বিপক্ষে তার এ বোলিং পরিসংখ্যান অদ্যাবধি যে-কোন দক্ষিণ আফ্রিকানের সেরা বোলিং।[গ] ডিসেম্বর, ২০১৬ সাল পর্যন্ত সিডনি বার্কআল্ফ হল অভিষেকে ১০ বা ততোধিক উইকেট লাভের কীর্তিগাঁথা রচনা করেছেন।[ঘ][১৩] ২০০২ সালে উইজডেন ক্রিকেটার্স অ্যালমেনাক কর্তৃক প্রণীত সর্বকালের শীর্ষ ১০০ বোলিংশৈলী প্রদর্শনের তালিকায় ক্লুজনারের বোলিং পরিসংখ্যানটিকে জর্জ বিসেটের ৫/৩৭-এর সাথে অন্তর্ভূক্ত করা হয়।[১৪]

সাম্প্রতিককালে বিউরেন হেনড্রিক্স এ কীর্তিগাঁথায় জড়িয়ে আছেন। জানুয়ারি, ২০২০ সালে সফরকারী ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তিনি ৬৪ রানে ৫ উইকেট দখল করেন।[৫]

নির্দেশনাসমূহ[সম্পাদনা]

  • তারিখ – খেলা আয়োজনের তারিখ। টেস্ট খেলার শুরুর তারিখ।
  • ওভার – ইনিংসে বোলিং করা ওভার সংখ্যা।
  • রান – প্রদেয় রান
  • উইকেটউইকেট সংগ্রহের সংখ্যা।
  • ব্যাটসম্যান – পাঁচ-উইকেট অর্জনে সম্পৃক্ত ব্যাটসম্যানের নাম।
  • ইকোনোমিবোলিং ইকোনোমি রেট (প্রতি ওভারে গড় রান)।
  • ইনিংস – খেলার যে ইনিংসে পাঁচ-উইকেট লাভ করা হয়েছে।
  • ফলাফল – খেলায় অস্ট্রেলিয়া দলের ফলাফল।
  • ♠ – ম্যান অব দ্য ম্যাচ হিসেবে নির্বাচিত বোলার।
  • * – খেলায় ১০ বা ততোধিক উইকেট লাভ।

পাঁচ-উইকেট অর্জনের তালিকা[সম্পাদনা]

নং বোলার তারিখ স্থান প্রতিপক্ষ ইনিংস ওভার রান উইকেট ইকোনোমি ব্যাটসম্যান ফলাফল
আলবার্ট রোজ-ইন্স ১২ মার্চ ১৮৮৯ ক্রুসেডার্স গ্রাউন্ড, সেন্ট জর্জেস পার্ক, পোর্ট এলিজাবেথ  ইংল্যান্ড ১৮.০ ৪৩ ৩.৫৮ পরাজয়[১৫]
গবো অ্যাশলে ২৫ মার্চ ১৮৮৯ নিউল্যান্ডস, কেপ টাউন  ইংল্যান্ড ৪৩.১ ৯৫ ৩.২৯ পরাজয়[১৬]
বোনর মিডলটন ১৩ ফেব্রুয়ারি ১৮৯৬ ক্রুসেডার্স গ্রাউন্ড, সেন্ট জর্জেস পার্ক, পোর্ট এলিজাবেথ  ইংল্যান্ড ২৫.৪ ৬৪ ২.৯৭ পরাজয়[১৭]
জর্জ রো ২ মার্চ ১৮৯৬ ওল্ড ওয়ান্ডেরার্স, জোহেন্সবার্গ  ইংল্যান্ড ৪৯.০ ১১৫ ২.৮১ পরাজয়[১৮]
আল্ফ হল double-dagger ১ জানুয়ারি ১৯২৩ নিউল্যান্ডস, কেপ টাউন  ইংল্যান্ড ৩৭.৩ ৬৩ ১.৬৮ পরাজয়[১৯]
জর্জ পার্কার ১৪ জুন ১৯২৪ এজবাস্টন, বার্মিংহাম  ইংল্যান্ড ৩৭.০ ১৫২ ৪.১০ পরাজয়[২০]
হেনরি প্রমিৎজ ২৪ ডিসেম্বর ১৯২৭ ওল্ড ওয়ান্ডেরার্স, জোহেন্সবার্গ  ইংল্যান্ড ৩৭.০ ৫৮ ১.৫৬ পরাজয়[২১]
জর্জ বিসেট ৩১ ডিসেম্বর ১৯২৭ নিউল্যান্ডস, কেপ টাউন  ইংল্যান্ড ১৭.০ ৩৭ ২.১৭ পরাজয়[২২]
স্যান্ডি বেল ২৯ জুন ১৯২৯ লর্ড’স, লন্ডন  ইংল্যান্ড ৩০.৪ ৯৯ ৩.২২ ড্র[২৩]
১০ নরম্যান গর্ডন ২৪ ডিসেম্বর ১৯৩৮ ওল্ড ওয়ান্ডেরার্স, জোহেন্সবার্গ  ইংল্যান্ড ৩৩.৪ ১০৩ ২.৩০ ড্র[২৪]
১১ লিন্ডসে টাকেট ৭ জুন ১৯৪৭ ট্রেন্ট ব্রিজ, নটিংহাম  ইংল্যান্ড ৩৭.০ ৬৮ ১.৮৩ ড্র[২৫]
১২ কুয়ান ম্যাকার্থি ১৬ ডিসেম্বর ১৯৪৮ কিংসমিড, ডারবান  ইংল্যান্ড ১২.০ ৪৩ ২.৬৮ পরাজয়[২৬]
১৩ মাইকেল মেল ১০ ফেব্রুয়ারি ১৯৫০ এলিস পার্ক, জোহেন্সবার্গ  অস্ট্রেলিয়া ৩৩.০ ১১৩ ২.৫৬ ড্র[২৭]
১৪ ডেভিড আয়রনসাইড ২৪ ডিসেম্বর ১৯৫৩ এলিস পার্ক, জোহেন্সবার্গ  নিউজিল্যান্ড ১৯.০ ৫১ ২.০১ জয়[২৮]
১৫ পিটার হেইন ২৩ জুন ১৯৫৫ লর্ডস, লন্ডন  ইংল্যান্ড ২৫.০ ৬০ ২.৪০ পরাজয়[২৯]
১৬ পিটার পোলক ৮ ডিসেম্বর ১৯৬১ কিংসমিড, ডারবান  নিউজিল্যান্ড ২০.৩ ৩৮ ১.৮৫ জয়[৩০]
১৭ সিডনি বার্ক double-dagger ১ জানুয়ারি ১৯৬২ নিউল্যান্ডস, কেপ টাউন  নিউজিল্যান্ড ৫৩.৫ ১২৮ ২.৩৭ পরাজয়[৩১]
১৮ ল্যান্স ক্লুজনার ২৭ নভেম্বর ১৯৯৬ ইডেন গার্ডেন্স, কলকাতা  ভারত ১৯.০ ৬৪ ১.৭৩ জয়[৩২]
১৯ চার্ল ল্যাঙ্গেভ্যাল্ট ২ জানুয়ারি ২০০৫ নিউল্যান্ডস, কেপ টাউন  ইংল্যান্ড ১৬.০ ৪৬ ২.৮৭ জয়[৩৩]
২০ ভার্নন ফিল্যান্ডার ছুরি ৯ নভেম্বর ২০১১ নিউল্যান্ডস, কেপ টাউন  অস্ট্রেলিয়া ৭.০ ১৫ ২.১৪ জয়[৩৪]
২১ মার্চেন্ট ডি ল্যাঞ্জ ২৬ ডিসেম্বর ২০১১ কিংসমিড, ডারবান  শ্রীলঙ্কা ২৩.২ ৮১ ৩.৪৭ পরাজয়[৩৫]
২২ কাইল অ্যাবট ছুরি ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ সুপারস্পোর্ট পার্ক, সেঞ্চুরিয়ন  পাকিস্তান ১১.৪ ২৯ ২.৪৮ জয়[৩৬]
২৩ লুঙ্গি এনগিডি ছুরি ১৩ জানুয়ারি ২০১৮ সুপারস্পোর্ট পার্ক, সেঞ্চুরিয়ন  ভারত ১২.২ ৩৯ ৩.১৬ জয়[৩৭]
২৪ বিউরেন হেনড্রিক্স ২৪ জানুয়ারি ২০২০ ওয়ান্ডারার্স স্টেডিয়াম, জোহেন্সবার্গ  ইংল্যান্ড ১৫.৩ ৬৪ ৪.১২ পরাজয়[৩৮]

পাদটীকা[সম্পাদনা]

  1. খেলায় অংশগ্রহণের ফলে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তাঁর।[৮]
  2. সরকারের বর্ণবৈষম্য নীতি প্রবর্তনের ফলে ১৯৭০ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল দক্ষিণ আফ্রিকার উপর নিষেধাজ্ঞা প্রদান করে।[১০][১১]
  3. মার্চ, ২০১৭ সাল পর্যন্ত এ পরিসংখ্যানটি অভিষেকে যে-কোন বোলারের চতুর্থ সেরা বোলিং পরিসংখ্যান।[১২]
  4. খেলায় হলের ১১২ রান খরচায় ১১ উইকেট প্রাপ্তি অভিষেকে যে-কোন দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটারের সেরা বোলিং নৈপুণ্য।[৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Buckle, Greg (৩০ এপ্রিল ২০০৭)। "Pigeon's almost perfect sendoff"Canberra Times। ১৫ আগস্ট ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ অক্টোবর ২০০৯McGrath didn't get the five-for that he had hoped for... 
  2. "Swinging it for the Auld Enemy – An interview with Ryan Sidebottom"The Scotsman। ১৭ আগস্ট ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ৩০ অক্টোবর ২০০৯... I'd rather take fifers (five wickets) for England ... 
  3. Pervez, M. A. (২০০১)। A Dictionary of Cricket। Orient Blackswan। পৃষ্ঠা 31। আইএসবিএন 978-81-7370-184-9 
  4. "Bowling records: Test matches"ESPN Cricinfo। ৫ জুলাই ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৪ 
  5. "Bowling records: Test matches (South Africa)"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৪ 
  6. "Statistics / Statsguru / Test matches / Bowling records / South Africa / Career Debut / Greater than or equal to 5"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২০ জানুয়ারি ২০১৫ 
  7. "Statistics / Statsguru / Test matches / Bowling records / Ground Averages"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২০ জানুয়ারি ২০১৫ 
  8. "Albert Rose-Innes"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৮ জানুয়ারি ২০১৫ 
  9. "Gobo Ashley"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৫ অক্টোবর ২০১৩ 
  10. André M. Louw (২০১০)। Sports Law in South Africa। Kluwer Law International। পৃষ্ঠা 9–9। আইএসবিএন 978-90-411-3314-4 
  11. Vashi, Ashish (২৬ মার্চ ২০০৯)। "Gandhi fought SA's racism in cricket"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 
  12. "Records / Test matches / Bowling records / Best figures in a innings on debut"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৪ অক্টোবর ২০১৩ 
  13. "Statistics / Statsguru / Test matches / Bowling records / South Africa / Debut / wickets taken (descending)"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৮ জানুয়ারি ২০১৫ 
  14. "Top 100 Bowlers of all time"Rediff.com। সংগ্রহের তারিখ ৪ অক্টোবর ২০১৩ 
  15. "1st Test: England tour of South Africa, 1888/89"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  16. "2nd Test: England tour of South Africa, 1888/89"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  17. "1st Test: England tour of South Africa, 1895/96"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  18. "2nd Test: England tour of South Africa, 1895/96"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  19. "2nd Test: England tour of South Africa, 1922/23"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  20. "1st Test: South Africa tour of England, 1924"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  21. "1st Test: England tour of South Africa, 1927/28"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  22. "2nd Test: England tour of South Africa, 1927/28"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  23. "2nd Test: South Africa tour of England, 1929"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  24. "1st Test: England tour of South Africa, 1938/39"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  25. "1st Test: South Africa tour of England, 1947"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  26. "1st Test: England tour of South Africa, 1948/49"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  27. "4th Test: Australia tour of South Africa, 1949/50"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  28. "2nd Test: New Zealand tour of South Africa, 1953/54"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  29. "2nd Test: South Africa tour of England, 1955"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  30. "1st Test: New Zealand tour of South Africa, 1961/62"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  31. "3rd Test: New Zealand tour of South Africa, 1961/62"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  32. "2nd Test: South Africa tour of India, 1996/97"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  33. "3rd Test: England tour of South Africa, 2004/05"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  34. "1st Test: Australia tour of South Africa, 2011/12"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  35. "2nd Test: Sri Lanka tour of South Africa, 2011/12"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  36. "3rd Test: Pakistan tour of South Africa, 2012/13"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  37. "2nd Test, India tour of South Africa at Centurion, Jan 13-17 2018"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জানুয়ারি ২০১৮ 
  38. "4th Test, ICC World Test Championship at Johannesburg, Jan 24-28 2020"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জানুয়ারি ২০২০