হামিশ রাদারফোর্ড

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
হামিশ রাদারফোর্ড
চিত্র:হামিশ রাদারফোর্ড-টেস্ট.png
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামহামিশ ডানকান রাদারফোর্ড
জন্ম (1989-04-27) ২৭ এপ্রিল ১৯৮৯ (বয়স ৩০)
ডুনেডিন, ওতাগো, নিউজিল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনবামহাতি
বোলিংয়ের ধরনস্লো লেফট-আর্ম অর্থোডক্স
ভূমিকাউদ্বোধনী ব্যাটসম্যান
সম্পর্ককে. আর. রাদারফোর্ড (বাবা)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ২৬০)
৬ মার্চ ২০১৩ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টেস্ট৩ জানুয়ারি ২০১৫ বনাম শ্রীলঙ্কা
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১৭৯)
২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ ওডিআই৩১ অক্টোবর ২০১৩ বনাম বাংলাদেশ
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০০৯-বর্তমানওতাগো (দল নং ৭)
২০১৩এসেক্স
২০১৫-বর্তমানডার্বিশায়ার
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ১৬ ৫৬ ৪৭
রানের সংখ্যা ৭৫৫ ১৫ ৩,৫৩৪ ১,৩৩৮
ব্যাটিং গড় ২৬.৯৬ ৩.৭৫ ৩৫.৬৯ ২৯.০৮
১০০/৫০ ১/১ ০/০ ৮/১৬ ৩/৮
সর্বোচ্চ রান ১৭১ ১১ ২৩৯ ১১০
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১১/– ২/– ৪৩/– ১৩/–
উৎস: ক্রিকইনফো, ২৫ আগস্ট ২০১৫

হামিশ ডানকান রাদারফোর্ড (ইংরেজি: Hamish Rutherford; জন্ম: ২৭ এপ্রিল, ১৯৮৯) আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অঙ্গনে প্রতিনিধিত্বকারী নিউজিল্যান্ডীয় ক্রিকেটারনিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য হামিশ রাদারফোর্ড মূলতঃ বামহাতি উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান ও টুয়েন্টি২০ ক্রিকেট খেলায় অংশগ্রহণ করে থাকেন। এছাড়াও, দলের প্রয়োজনে বামহাতে অফ স্পিন বোলিং করে থাকেন। ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে ওতাগো দলে প্রতিনিধিত্ব করছেন। কাউন্টি ক্রিকেটে এসেক্সের হয়ে খেলছেন। সাবেক নিউজিল্যান্ডীয় টেস্ট ক্রিকেট অধিনায়ক কেন রাদারফোর্ড তার বাবা। এছাড়াও তিনি ইয়ান রাদারফোর্ডের ভাতিজা।[১]

থেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

মার্চ, ২০১৩ সালে ডুনেডিনের ইউনিভার্সিটি ওভালে অনুষ্ঠিত খেলায় ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তার টেস্ট অভিষেক ঘটে। ১৭১ রান করে টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে অভিষেকে সপ্তম-সর্বোচ্চ রান করার কৃতিত্ব দেখান।[২][৩] অভিষেকে বামহাতি ক্রিকেটার ও ইনিংস উদ্বোধনে নেমে তার এ কৃতিত্ব দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। খেলাটি ড্রয়ে পরিণত হয়। উভয় ক্ষেত্রেই জ্যাক রুডল্‌ফ শীর্ষস্থানে রয়েছেন।[৪]

টেস্ট ক্রিকেট সেঞ্চুরি[সম্পাদনা]

হামিশ রাদারফোর্ডের টেস্ট সেঞ্চুরি
নং রান প্রতিপক্ষ টেস্ট মাঠ তারিখ ফলাফল তথ্যসূত্র
১৭১  ইংল্যান্ড ইউনিভার্সিটি ওভাল 02013-০৩-08৮ মার্চ ২০১৩ ড্র [৫]

আন্তর্জাতিক পুরস্কার[সম্পাদনা]

টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক[সম্পাদনা]

ম্যান অব দ্য ম্যাচ[সম্পাদনা]

# সিরিজ মৌসুম খেলায় অবদান ফলাফল
ইংল্যান্ড ব নিউজিল্যান্ড, ইংল্যান্ড ২০১৩ ৬২ (৩৫ বল: ৬x৪, ৪x৬)  নিউজিল্যান্ড ৫ রানে বিজয়ী।[৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Player Profile: Hamish Rutherford"। CricInfo। ফেব্রুয়ারি ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৮-১৩ 
  2. "Rain respite for England after Rutherford 171"। Wisden India। ৮ মার্চ ২০১৩। [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  3. "Highest score on Test debut"। ESPNCricinfo। ৮ মার্চ ২০১৩। 
  4. Hamish Rutherford scores century on debut, New Zealand Vs England 2013[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  5. http://www.espncricinfo.com/new-zealand-v-england-2013/engine/current/match/569243.html
  6. "New Zealand in England T20I Series, 2013 – New Zealand v England Scorecard"ESPNcricinfo। ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ১২ মার্চ ২০১৫ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]