ম্যালকম ওয়ালার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ম্যালকম ওয়ালার
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামম্যালকম নোয়ের ওয়ালার
জন্ম (1984-09-28) ২৮ সেপ্টেম্বর ১৯৮৪ (বয়স ৩৪)
হারারে, জিম্বাবুয়ে
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি অফ ব্রেক
সম্পর্কঅ্যান্ডি ওয়ালার (বাবা), নাথান ওয়ালার (কাকাতো ভাই)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
একমাত্র টেস্ট
(ক্যাপ ৮২)
১ নভেম্বর ২০১১ বনাম নিউজিল্যান্ড
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১০২)
১৯ জানুয়ারি ২০০৯ বনাম বাংলাদেশ
শেষ ওডিআই৩১ আগস্ট ২০১৩ বনাম পাকিস্তান
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ৩৮ ৫৩ ৮৬
রানের সংখ্যা ৩৮৬ ৭৫৩ ৩,২২৩ ১,৬৬৫
ব্যাটিং গড় ২৫.৭৩ ২৩.৫৩ ৩৮.৩৬ ২৫.২২
১০০/৫০ ০/৩ ০/৪ ৬/১৭ ০/১১
সর্বোচ্চ রান ৭২* ৯৯* ২০৮* ৯৯*
বল করেছে ১৮ ২৫২ ২,৭১৩ ১,০৮১
উইকেট ৩৫ ৩৮
বোলিং গড় ৮৪.৬৬ ৪২.৯৭ ২৫.৩৯
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট n/a n/a
সেরা বোলিং ১/১৭ ৫/৪৮ ৪/২৯
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৬/– ১১/– ৩৮/– ৩৫/–
উৎস: Cricinfo, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৩

ম্যালকম নোয়েল ওয়ালার (জন্ম: ২৮ সেপ্টেম্বর, ১৯৮৪) হারারেতে জন্মগ্রহণকারী জিম্বাবুয়ের বিশিষ্ট ক্রিকেটারজিম্বাবুয়ে জাতীয় ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ম্যালকম ওয়ালার মাঝারি-সারির ব্যাটসম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। পাশাপাশি অফ-স্পিনার হিসেবেও পরিচিতি রয়েছে তার।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

লোগান কাপের মাধ্যমে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এরপর এপ্রিল, ২০০৮ সালে বাংলাদেশ সফরের জন্য জিম্বাবুয়ের জাতীয় দলে ডাক পান।[১] ১৯ জানুয়ারি, ২০০৯ তারিখ একদিনের আন্তর্জাতিকে অংশগ্রহণের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অঙ্গনে অভিষেক ঘটে। ১২৮ রানের জয়ের লক্ষ্যমাত্রায় দল ৪৪ রানে ৬ উইকেট হারালে তিনি মাঠে নামেন ও প্রথম বলেই চার রান তুলে নেন। খেলায় তিনি ২৪ রান করে দলের সর্বোচ্চ রানসংগ্রহকারী হন। রে প্রাইসের বিনোদনধর্মী শট নেয়ার মাধ্যমে জিম্বাবুয়ে দলে ২ উইকেটের ব্যবধানে জয় পায়।[২]

জিম্বাবুয়ে দল তাদের একদিনের আন্তর্জাতিকের ইতিহাসে সর্বোচ্চ ৩২৮ রান তাড়া করার পেছনে ওয়ালারের ভূমিকা অপরিসীম। এ খেলার মাধ্যমেই তিনি খ্যাতির তুঙ্গে আরোহণ করেন। বুলাওয়েতে অনুষ্ঠিত সিরিজের তৃতীয় খেলায় নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তার অপরাজিত ৯৯ রান সংগ্রহের প্রেক্ষিতে প্রথমবারের মতো জিম্বাবুয়ে ৩০০ রানেরও অধিক লক্ষ্যমাত্রা অতিক্রম করতে সক্ষম হয়।[৩]

২০১১ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে অনুষ্ঠিত টেস্টে ওয়ালারের অভিষেক ঘটে।[৪] ১ নভেম্বর, ২০১১ তারিখে বুলাওয়েতে অনুষ্ঠিত একমাত্র টেস্টে ওয়ালার ৭২ রানে অপরাজিত ছিলেন। এরফলে তিনি অভিষেকে একাদশ জিম্বাবুয়ের খেলোয়াড় হিসেবে পঞ্চাশ বা তদূর্দ্ধ রান সংগ্রহ করেন।[৫]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

ওয়ালারের পিতা অ্যান্ডি ওয়ালার ১৯৮০ ও ১৯৯০-এর দশকে জিম্বাবুয়ে দলে খেলেছেন। তার পিতাও অভিষেক টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে পঞ্চাশ রান করেছিলেন।[৬] তার কাকাতো ভাই নাথান ওয়ালার জিম্বাবুয়ের অনূর্ধ্ব-১৯ দলে প্রতিনিধিত্ব করছেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Waller and Mutizwa named for Bangladesh tour
  2. "All-round Price seals last-over thriller"CricInfo। সংগ্রহের তারিখ ৬ নভেম্বর ২০১১ 
  3. "Waller takes Zimbabwe to record win"CricInfo। সংগ্রহের তারিখ ৬ নভেম্বর ২০১১ 
  4. "Zim vs NZ only test"CricInfo। সংগ্রহের তারিখ ৬ নভেম্বর ২০১১ 
  5. "Zimbabwean test debutants scoring 50 or above"CricInfo। সংগ্রহের তারিখ ৬ নভেম্বর ২০১১ 
  6. "England in Zimbabwe Test Series, 1st Test, 1996"CricInfo। সংগ্রহের তারিখ ৬ নভেম্বর ২০১১ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]