স্বাধীনতা পুরস্কার বিজয়ীদের তালিকা (২০২০-২০২৯)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
স্বাধীনতা পুরস্কার
প্রথম পুরস্কৃত১৯৭৭
সর্বশেষ পুরস্কৃত২০২০
ওয়েবসাইটwww.cabinet.gov.bd

স্বাধীনতা পুরস্কার বাংলাদেশের জাতীয় এবং “সর্বোচ্চ বেসামরিক পুরস্কার”।[১] দেশ ও জাতির কল্যাণে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অনন্য অবদানের স্বীকৃতি প্রদানের উদ্দেশ্যে ১৯৭৭ সাল থেকে এই পুরস্কার প্রদাণ করা হচ্ছে।[২] এই তালিকাটি ২০২০ সাল থেকে ২০২৯ সাল পর্যন্ত বিভিন্ন ক্ষেত্রে স্বাধীনতা পুরস্কার প্রাপ্তদের সম্পর্কিত সার-সংক্ষেপণ।

এ বছর সাহিত্যে স্বাধীনতা পদক পেলেও নানা সমালোচনার মুখে বিতর্কিত রইজ উদ্দিনের পদক বাতিল বলে ঘোষণা করা হয়[৩]

২০২০[সম্পাদনা]

২০১৯ সালে ৯ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি ও একটি প্রতিষ্ঠানকে তাদের অসাধারণ অবদানের জন্য স্বাধীনতা পুরস্কারে ভূষিত করা হয়।[৪][৫]

প্রতিকৃতি প্রাপক ক্ষেত্র মন্তব্য
গোলাম দস্তগীর গাজী স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধ
আব্দুর রউফ স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধ (মরণোত্তর)
আনোয়ার পাশা স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধ (মরণোত্তর)
আজিজুর রহমান স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধ
উবায়দুল কবীর চৌধুরী চিকিৎসাবিদ্যা
এ কে এম এ মুক্‌তাদির চিকিৎসাবিদ্যা
এস এম রইজ উদ্দিন আহম্মদ (পরবর্তীতে বাতিল) সাহিত্য
ফেরদৌসী মজুমদার সংস্কৃতি
কালীপদ দাস সংস্কৃতি
ভারতেশ্বরী হোমস শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. সানজিদা খান (জানুয়ারি ২০০৩)। "জাতীয় পুরস্কার: স্বাধীনতা দিবস পুরস্কার"। সিরাজুল ইসলামবাংলাপিডিয়াঢাকা: এশিয়াটিক সোসাইটি বাংলাদেশআইএসবিএন 984-32-0576-6। সংগ্রহের তারিখ ২৫ অক্টোবর ২০১৭স্বাধীনতা দিবস পুরস্কার সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় পুরস্কার। 
  2. "স্বাধীনতা পদকের অর্থমূল্য বাড়ছে"কালেরকন্ঠ অনলাইন। ২ মার্চ ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১৬ অক্টোবর ২০১৭ 
  3. "স্বাধীনতা পদক থেকে বাদ পড়লেন সেই রইজ উদ্দিন"যুগান্তর অনলাইন। ১২ মার্চ ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ১২ মার্চ ২০২০ 
  4. "স্বাধীনতা পদক পাচ্ছেন ৯ বিশিষ্ট ব্যক্তি ও এক প্রতিষ্ঠান"ডেইলি স্টার। সংগ্রহের তারিখ ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 
  5. "কমান্ডার রউফ, আনোয়ার পাশাসহ ১০ জন পাচ্ছেন স্বাধীনতা পদক"bangla.bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০