ফুলবাড়িয়া উপজেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ফুলবাড়িয়া
উপজেলা
ফুলবাড়িয়া বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
ফুলবাড়িয়া
ফুলবাড়িয়া
বাংলাদেশে ফুলবাড়িয়া উপজেলার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৪°৩৮′১৪″ উত্তর ৯০°১৬′১″ পূর্ব / ২৪.৬৩৭২২° উত্তর ৯০.২৬৬৯৪° পূর্ব / 24.63722; 90.26694স্থানাঙ্ক: ২৪°৩৮′১৪″ উত্তর ৯০°১৬′১″ পূর্ব / ২৪.৬৩৭২২° উত্তর ৯০.২৬৬৯৪° পূর্ব / 24.63722; 90.26694 উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
দেশ বাংলাদেশ
বিভাগময়মনসিংহ বিভাগ
জেলাময়মনসিংহ জেলা
সরকার
আয়তন
 • মোট৩৯৯ কিমি (১৫৪ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১১)[১]
 • মোট৪,৪৮,৪৬৭
 • জনঘনত্ব১১০০/কিমি (২৯০০/বর্গমাইল)
সাক্ষরতার হার
 • মোট%
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
পোস্ট কোড২২১৬ উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
ওয়েবসাইটপ্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট Edit this at Wikidata

ফুলবাড়িয়া বাংলাদেশের ময়মনসিংহ জেলার অন্তর্গত একটি উপজেলা

অবস্থান[সম্পাদনা]

ময়মনসিংহ-ফুলবাড়িয়া সড়ক, কাৎলাসেনে উপজেলার স্বাগতম স্মারক।

ময়মনসিংহ জেলা সদর থেকে ২০ কিলমিটার দূরত্বে ফুলবাড়িয়া উপজেলার অবস্থান।

ভৌগলিক পরিচিতি[সম্পাদনা]

ফুলবাড়ীয়া উপজেলার উত্তরে ময়মনসিংহ সদর; দক্ষিণে ভালুকাটাংগাইল জেলার ঘাটাইল উপজেলা, পূর্বে ত্রিশাল, পশ্চিমে মুক্তাগাছা ও টাংগাইল জেলার মধুপুর উপজেলা অবস্থিত।

প্রশাসনিক এলাকা[সম্পাদনা]

১৮৬৪ সালে প্রশাসনিকভাবে ফুলবাড়ীয়া থানা প্রতিষ্ঠিত হয়। কিন্তু কিছু জটিলতার কারনে থানার সীমানা নির্ধারণ হয় ১৮৬৭ সালে। ১৯৮৩ সালের ০২ জুলাই ফুলবাড়ীয়া উপজেলা পরিষদ প্রতিষ্ঠিত হয়। ফুলবাড়িয়া উপজেলার আয়তন ৩৯৯ বর্গ কিলোমিটার। উপজেলাটি ১৩ টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত। ইউনিয়নগুলো হল - নাওগাঁও ইউনিয়ন, পুটিজানা ইউনয়ন, কুশমাইল, বালিয়ান, দেওখোলা, ফুলবাড়ীয়া, বাক্তা, রাংগামাটিয়া, এনায়েতপুর, কালাদহ, রাধাকানাই, আছিম পাটুলী এবং ভবানীপুর ইউনিয়ন পরিষদ।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ঐতিহাসিকদের মতে প্রাচীনকালে ফুলবাড়ীয়ায় ফুলখড়ি এক ধরণের লাকড়ী জাতীয় গাছ জন্মাত। যা অত্র এলাকার মানুষ লাকড়ী হিসাবে ব্যবহার করত। ফুলবাড়ীয়ার পূর্ব নাম ছিল গোবিন্দগঞ্জ। ধারণা করা হয়ে থাকে ফুলখড়ি থেকেই ফুলবাড়ীয়া নামের উৎপত্তি হয়েছে।

মুক্তিযুদ্ধে অবদান[সম্পাদনা]

ফুলবাড়িয়া মুক্তদিবস হল ৮ ডিসেম্বর। এ অঞ্চল মুক্তিযুদ্ধের সময় ১১ নাম্বার সেক্টরের অধীনে ছিল। ১৩ জুই সংঘটিত হওয়া লক্ষীপুর যুদ্ধ ফুলবাড়িয়ার মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে বিশেষভাবে স্মরণীয়। এতে শেখ মোজাফফর আলী এবং বাবু মান্নানের নেতৃত্বে এক প্লাটুন মুক্তিযুদ্ধা অংশ নেন। নিজেদের কোন রকম ক্ষয়ক্ষতি ছাড়াই ২৭ জন পাকসেনাকে খতম করা হয়। এছাড়াও ফুলবাড়িয়াতে সংঘটিত হওয়া উল্লেখযোগ্য যুদ্ধের মধ্যে রয়েছে রাঙ্গামাটিয়া যুদ্ধ (১৭ জুন), আছিম যুদ্ধ (১৩ নভেম্বর), কেশরগঞ্জ যুদ্ধ ইত্যাদি।[২]

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

শিক্ষা[সম্পাদনা]

তেলীগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয়; এই বিদ্যালটি ফুলবাড়িয়া উপজেলার বালিয়ান ইউনিয়নের তেলীগ্রাম বাজারে অবস্থিত। ইহা ইয়াকুব চেয়ারম্যান বাড়ী সংলগ্ন।

বরুকা উচ্চ বিদ্যালয়, ইহা ফুলবাড়িয়া টু মুক্তাগাছা রোড সংলগ্ন অবস্থা।

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

নদ-নদী[সম্পাদনা]

নাগেশ্বরী নদী, নিম্নস্রোতের দিক, দেওখোলা বাজার, ফুলাবাড়িয়া।

উপজেলার উপর দিয়ে অনেকগুলো নদী প্রবাহিত হয়েছে।। সেগুলো হচ্ছে বাজান নদী, বানার নদী, নাগেশ্বরী নদী, আখিলা নদী, মিয়াবুয়া নদী, কাতামদারী নদী, সিরখালি নদীখিরো নদী[৩][৪]

কৃতী ব্যক্তিত্ব[সম্পাদনা]

দর্শনীয় স্থান[সম্পাদনা]

  • ফুলবাড়ীয়া উপজেলার বালিয়ান ইউনিয়নের ঐতিহাসিক বাসনা ঈদগাহ মাঠ একটি দৃষ্টিনন্দন দর্শনীয় স্থান ।
  • ফুলবাড়ীয়ার আলাউদ্দীন পার্ক বহু লোকের জন্য দৃষ্টিনন্দন পার্ক ।
  • ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া উপজেলার এনায়েতপুর ইউনিয়নের দুলমা গ্রামে অর্কিড গার্ডেন (অরকিডের বাগান) অবস্থিত। মনোমুগ্ধকর এ বাগানে সাত জাতের একুশ ধরনের মোট তিন লাখ অর্কিড রয়েছে। অধিকাংশ অর্কিড বিদেশে রপ্তানী হচ্ছে। বাগানটি জুলাই ২০০২ সালে ১১ একর জায়গার উপর প্রতিষ্ঠিত হয়।এবং একটি বিশাল বড় রাবার বাগান ও আছে,

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান :

১.ফুলবাড়িয়া সরকারী মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়,
২.ফুলবাড়িয়া পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়,

৩.ফুলবাড়িয়া আল-হেরা উচ্চ বিদ্যালয়, ৪.ফুলবাড়িয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ৫.ফুলবাড়িয়া মহিলা ডিগ্রি কলেজ ৬.বেগম ফজিল্লাতুনেছা মুজিব মহিলা কলেজ,

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন (জুন ২০১৪)। "এক নজরে ফুলবাড়ীয়া"। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। সংগ্রহের তারিখ ১০ জুলাই, ২০১৫  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ][স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  2. বাংলাদেশ ব্যাংক ময়মনসিংহ অফিস উদ্বোধন উপলক্ষে স্মারক গ্রন্থ, হাওর জঙ্গল মোষের শিং; নির্মলেন্দু গুণ; হেলাল হাফিজ; রহীম শাহ; ডঃ এম. এ. সাত্তার মন্ডল; প্রফেসর ড. মো. রফিকুল হক; সাযযাদ কাদির; ড. সেীমিত্র শেখর; জগলুল আলম; আনিসুর রহমান আনিস; সুবলকুমার বণিক; ফখরুল ইসলাম হারুণ; জিয়াউর রহমান; মার্জিয়া লিপি; মো. মনজুর-উল-হক; হামিদুল আলম সখা; খন্দকার ইফতেখার হাসান; ফয়সল মোকাম্মেল; মাহফুজুর রহমান (১৬ জানুয়ারি ২০১৩)। যুদ্ধদিনে ময়মনসিংহ - সাযযাদ কাদির। ডিপার্টমেন্ট অব কমিউনিকেশন্স এন্ড পাবলিকেশন্স বাংলাদেশ ব্যাংক।  একের অধিক |লেখক1= এবং |শেষাংশ1= উল্লেখ করা হয়েছে (সাহায্য);
  3. ড. অশোক বিশ্বাস, বাংলাদেশের নদীকোষ, গতিধারা, ঢাকা, ফেব্রুয়ারি ২০১১, পৃষ্ঠা ৩৯৯-৪০০, আইএসবিএন ৯৭৮-৯৮৪-৮৯৪৫-১৭-৯
  4. মানিক, মোহাম্মদ রাজ্জাক (ফেব্রুয়ারি, ২০১৫)। বাংলাদেশের নদনদী: বর্তমান গতিপ্রকৃতি। ঢাকা: কথাপ্রকাশ। পৃষ্ঠা ৬০৭। আইএসবিএন 984-70120-0436-4 |আইএসবিএন= এর মান পরীক্ষা করুন: invalid prefix (সাহায্য)  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]