ভারতের রাজ্যসমূহ ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলসমূহ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ভারতের রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলসমূহ
India dark grey.svg
শ্রেণিযুক্তরাষ্ট্রীয় রাজ্য
অবস্থানভারতীয় প্রজাতন্ত্র
সংখ্যা২৮টি রাজ্য
৮টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল
জনসংখ্যারাজ্য: সিক্কিম - ৬১০,৫৭৭ (সর্বনিম্ন); উত্তরপ্রদেশ - ১৯৯,৮১২,৩৪১ (সর্বাধিক)
কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল: লক্ষদ্বীপ - ৬৪,৪৭৩ (সর্বনিম্ন); দিল্লি - ১৬,৭৮৭,৯৪১ (সর্বাধিক)
আয়তনরাজ্য: ৩,৭০২ কিমি (১,৪২৯ মা) গোয়া – ৩,৪২,২৬৯ কিমি (১,৩২,১৫১ মা) রাজস্থান
কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল: ৩২ কিমি (১২ মা) লক্ষদ্বীপ – ৫৯,১৪৬ কিমি (২২,৮৩৬ মা) লাদাখ
সরকাররাজ্য সরকার, কেন্দ্রীয় সরকার (কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল)
বিভাগজেলা, বিভাগ
Emblem of India.svg
এই নিবন্ধটি
ভারতের রাজনীতি ও সরকার
ধারাবাহিকের অংশ

ভারত হল ২৮টি রাজ্য ও ৮টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল নিয়ে গঠিত একটি যুক্তরাষ্ট্রীয় রাজ্যসংঘ।[১] এই দেশের প্রথম স্তরের প্রশাসনিক বিবাগের সংখ্যা ৩৬। রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলি আবার জেলা ও ক্ষুদ্রতর প্রশাসনিক বিভাগে বিভক্ত।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯৫১ সালে ভারতের প্রশাসনিক বিভাগসমূহ

প্রাক্-স্বাধীনতা যুগ[সম্পাদনা]

অতীতে ভারতীয় উপমহাদেশ শাসিত হয়েছিল ভিন্ন ভিন্ন জাতিগোষ্ঠী কর্তৃক। প্রতিটি জাতিগোষ্ঠীই এই ভূখণ্ডের প্রশাসনিক বিভাগ-সংক্রান্ত নিজস্ব নীতি কার্যকর করেছিল।[২][৩][৪][৫][৬][৭][৮][৯][১০][১১][১২] ব্রিটিশ আমলে পূর্ববর্তী (মুঘল) প্রশাসনিক কাঠামোটি মোটামুটি অক্ষুণ্ণ ছিল। সেই যুগে ভারত বিভক্ত হয়েছিল একাধিক প্রেসিডেন্সি ও প্রদেশ এবং দেশীয় রাজ্যে। প্রেসিডেন্সি ও প্রদেশগুলি ব্রিটিশদের দ্বারা প্রত্যক্ষভাবে শাসিত হত। ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের অনুগত স্থানীয় রাজারা ছিলেন দেশীয় রাজ্যগুলির নামমাত্র শাসক। এই রাজ্যগুলির সার্বভৌমত্ব (অধিরাজত্ব) কার্যত ব্রিটিশ সম্রাটের হাতেই ন্যস্ত ছিল।

১৯৪৭–১৯৫০[সম্পাদনা]

তালিকা[সম্পাদনা]

রাজ্যসমূহ[সম্পাদনা]

রাজ্য যানবাহন
সংকেত
রাজধানী বৃহত্তম শহর রাজ্য প্রতিষ্ঠার তারিখ জনসংখ্যা[১৩] আয়তন
(বর্গ কি.মি.)
রাজ্য-পর্যায়ের
সরকারী ভাষা[১৪]
অতিরিক্ত রাজ্য-পর্যায়ের
সরকারী ভাষা[১৪]
অন্ধ্রপ্রদেশ IN-AP AP হায়দ্রাবাদ (আইনত)
অমরাবতী (কার্যত) টীকা ১[১৫][১৬]
বিশাখাপত্তনম ১ অক্টোবর ১৯৫৩ ৪৯,৫০৬,৭৯৯ ১৬০,২০৫ তেলুগু
অরুণাচল প্রদেশ IN-AR AR ইটানগর ২০ ফেব্রুয়ারি ১৯৮৭ ১,৩৮৩,৭২৭ ৮৩,৭৪৩ ইংরেজি
আসাম IN-AS AS দিসপুর গুয়াহাটি ২৬ জানুয়ারি ১৯৫০ ৩১,২০৫,৫৭৬ ৭৮,৫৫০ অসমীয়া বাংলা
বিহার IN-BR BR পাটনা ২৬ জানুয়ারি ১৯৫০ ১০৪,০৯৯,৪৫২ ৯৪,১৬৩ হিন্দি উর্দু
ছত্তিশগড় IN-CT CG নয়া রায়পুর রায়পুর ১ নভেম্বর ২০০০ ২৫,৫৪৫,১৯৮ ১৩৫,১৯৪ হিন্দি
গোয়া IN-GA GA পানাজি ভাস্কো দা গামা ৩০ মে ১৯৮৭ ১,৪৫৮,৫৪৫ ৩,৭০২ কোঙ্কণী মারাঠি
গুজরাত IN-GJ GJ গান্ধীনগর আহমদাবাদ ১ মে ১৯৬০ ৬০,৪৩৯,৬৯২ ১৯৬,০২৪ গুজরাতি
হরিয়ানা IN-HR HR চণ্ডীগড় ফরিদাবাদ ১ নভেম্বর ১৯৬৬ ২৫,৩৫১,৪৬২ ৪৪,২১২ হিন্দি পাঞ্জাবি[১৭][১৮]
হিমাচল প্রদেশ IN-HP HP শিমলা (গ্রীষ্মকালীন)

ধর্মশালা (শীতকালীন)

শিমলা ২৫ জানুয়ারি ১৯৭১ ৬,৮৬৪,৬০২ ৫৫,৬৭৩ হিন্দি ইংরেজি
ঝাড়খণ্ড IN-JH JH রাঁচি জামশেদপুর ১৫ নভেম্বর ২০০০ ৩২,৯৮৮,১৩৪ ৭৪,৬৭৭ হিন্দি উর্দু[১৯]
কর্ণাটক IN-KA KA বেঙ্গালুরু ১ নভেম্বর ১৯৫৬ ৬১,০৯৫,২৯৭ ১৯১,৭৯১ কন্নড়
কেরল IN-KL KL তিরুবনন্তপুরম কোচি ১ নভেম্বর ১৯৫৬ ৩৩,৪০৬,০৬১ ৩৮,৮৬৩ মালয়ালম
মধ্য প্রদেশ IN-MP MP ভোপাল ইন্দোর ১ নভেম্বর ১৯৫৬ ৭২,৬২৬,৮০৯ ৩০৮,২৫২ হিন্দি
মহারাষ্ট্র IN-MH MH মুম্বই ১ মে ১৯৬০ ১১২,৩৭৪,৩৩৩ ৩০৭,৭১৩ মারাঠি
মণিপুর IN-MN MN ইম্ফল ২১ জানুয়ারি ১৯৭২ ২,৮৫৫,৭৯৪ ২২,৩৪৭ মেইতেই ইংরেজি
মেঘালয় IN-ML ML শিলং ২১ জানুয়ারি ১৯৭২ ২,৯৬৬,৮৮৯ ২২,৭২০ ইংরেজি খাসি[ক]
মিজোরাম IN-MZ MZ আইজল ২০ ফেব্রুয়ারি ১৯৮৭ ১,০৯৭,২০৬ ২১,০৮১ ইংরেজি, হিন্দি, মিজো
নাগাল্যান্ড IN-NL NL কোহিমা ডিমাপুর ১ ডিসেম্বর ১৯৬৩ ১,৯৭৮,৫০২ ১৬,৫৭৯ ইংরেজি
ওড়িশা IN-OR OD ভূবনেশ্বর ২৬ জানুয়ারি ১৯৫০ ৪১,৯৭৪,২১৮ ১৫৫,৮২০ ওড়িয়া
পাঞ্জাব IN-PB PB চণ্ডীগড় লুধিয়ানা ১ নভেম্বর ১৯৬৬ ২৭,৭৪৩,৩৩৮ ৫০,৩৬২ পাঞ্জাবি
রাজস্থান IN-RJ RJ জয়পুর ১ নভেম্বর ১৯৫৬ ৬৮,৫৪৮,৪৩৭ ৩৪২,২৬৯ হিন্দি ইংরেজি
সিকিম IN-SK SK গ্যাংটক ১৬ মে ১৯৭৫ ৬১০,৫৭৭ ৭,০৯৬ ইংরেজি ভুটিয়া, গুরুং, লেপচা, লিম্বু, মাংগার, মুখিয়া, নেওয়ারি, রাই, শেরপা, তামাং
তামিলনাড়ু IN-TN TN চেন্নাই ২৬ জানুয়ারি ১৯৫০ ৭২,১৪৭,০৩০ ১৩০,০৫৮ তামিল ইংরেজি
তেলঙ্গানা IN-TG TS হায়দ্রাবাদটীকা ১ ২ জুন ২০১৪ ৩৫,১৯৩,৯৭৮[২০] ১১৪,৮৪০[২০] তেলুগু, উর্দু[২১]
ত্রিপুরা IN-TR TR আগরতলা ২১ জানুয়ারি ১৯৭২ ৩,৬৭৩,৯১৭ ১০,৪৯২ বাংলা, ককবরক, ইংরেজি
উত্তর প্রদেশ IN-UP UP লখনউ কানপুর ২৬ জানুয়ারি ১৯৫০ ১৯৯,৮১২,৩৪১ ২৪৩,২৮৬ হিন্দি উর্দু
উত্তরাখণ্ড IN-UT UK দেরাদুনটীকা ২ ৯ নভেম্বর ২০০০ ১০,০৮৬,২৯২ ৫৩,৪৮৩ হিন্দি সংস্কৃত[২২]
পশ্চিমবঙ্গ IN-WB WB কলকাতা ২৬ জানুয়ারি ১৯৫০ ৯১,২৭৬,১১৫ ৮৮,৭৫২ বাংলা, নেপালি[খ] হিন্দি, উর্দু, সাঁওতালি, ওড়িয়া এবং পাঞ্জাবি
  • ^টীকা ১ ২০১৪ সালে ২রা জুন তারিখে অন্ধ্র প্রদেশকে দুইটি রাজ্যে ভাগ করা হয়; একটি হল তেলঙ্গানা এবং অবশিষ্টাংশের নাম অন্ধ্র প্রদেশ রাখা হয়।[২৩][২৪][২৫] হায়দ্রাবাদ শহরটি সম্পূর্ণরূপে তেলঙ্গানার সীমানার ভেতরে পড়লেও কিছু সময়ের জন্য (সর্বোচ্চ ১০ বছর) উভয় রাজ্যের রাজধানীর দায়িত্ব পালন করবে।[২৬] ২০১৭ সালের প্রথমার্ধে অন্ধ্র প্রদেশের সরকার ও বিধানসভা রাজ্যটির পরিকল্পিত নতুন রাজধানী শহর অমরাবতীতে অস্থায়ী কাঠামোসমূহের স্থানান্তর সম্পন্ন করে।[১৫]
  • ^টীকা ২ দেরাদুন উত্তরাখণ্ডের অস্থায়ী রাজধানী। গৈরসৈণ শহরটিকে রাজ্যের নতুন রাজধানী শহর বানানোর পরিকল্পনা আছে।

কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলসমূহ[সম্পাদনা]

কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল আইএসও ৩১৬৬-২:আইএন যানবাহন
সংকেত
রাজধানী বৃহত্তম শহর জনসংখ্যা[১৩] আয়তন
(বর্গ কি.মি.)
অঞ্চল-পর্যায়ের
সরকারী ভাষা[১৪]
অতিরিক্ত অঞ্চল-পর্যায়ের
সরকারী ভাষা[১৪]
আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ IN-AN AN পোর্ট ব্লেয়ার ৩৮০,৫৮১ ৮,২৪৯ হিন্দি, ইংরেজি
চণ্ডীগড় IN-CH CH চণ্ডীগড় [গ] ১,০৫৫,৪৫০ ১১৪ ইংরেজি ভাষা
দাদরা ও নগর হাভেলি এবং দমন ও দিউ IN-DD DD দমন ৫৮৬,৯৫৬ ৬০৩ হিন্দি, ইংরেজি, গুজরাটি, কোঙ্কণী[ঘ]
দিল্লি IN-DL DL নতুন দিল্লি [ঙ] ১৬,৭৮৭,৯৪১ ১,৪৯০ হিন্দি ভাষা পাঞ্জাবী, উর্দু[২৭]
লক্ষদ্বীপ IN-LD LD কাবারট্টি ৬৪,৪৭৩ ৩২ ইংরেজি ভাষা হিন্দি ভাষা
পুদুচেরি IN-PY PY পুদুচেরি ১,২৪৭,৯৫৩ ৪৯২ ইংরেজি ভাষা,[২৮] তামিল মালয়ালম, তেলুগু
জম্মু ও কাশ্মীর IN-JK JK শ্রীনগর (গ্রীষ্মকালীন)
জম্মু (শীতকালীন)
শ্রীনগর ১২,৫৪১,৩০২ ২২২,২৩৬
১০১,৩৮৭টীকা ১
উর্দু
লাদাখ IN-LA LA লেহ, কার্গিল লেহ ২,৯২,৪৯২ ১,৭৪,৮৫২টীকা ৩ লাদাখি বাল্ট
  • ^টীকা ১ ভারতের দাবী অনুযায়ী জম্মু ও কাশ্মীরের আয়তন ২২২,২৩৬ বর্গকিলোমিটার; এর মধ্যে ১০১,৩৮৭ বর্গকিলোমিটার এলাকা ভারতীয় প্রশাসনের অধীনে পরিচালিত হচ্ছে।

প্রাক্তন রাজ্যসমূহ[সম্পাদনা]

১৯৫১ সালের ভারত
মানচিত্র রাজ্য রাজধানী বছর উত্তরাধিকারী রাজ্য(সমূহ)
Madhya Bharat in India (1951).svg মধ্য ভারত গোয়ালিয়র (শীতকালীন)
ইন্দোর (গ্রীষ্মকালীন)
১৯৪৭–১৯৫৬ মধ্য প্রদেশ
পূর্ব রাজ্যসংঘ রায়পুর ১৯৪৭–১৯৪৮ বিহার, ওড়িশা, মধ্য প্রদেশ
South Indian territories.svg মাদ্রাজ রাজ্য মাদ্রাজ ১৯৫০–১৯৬৯ তামিল নাড়ু
Mysore in India (1951).svg মহীশূর রাজ্য মহীশূর ১৯৪৭–১৯৭৩ কর্ণাটক
PEPSU in India (1951).svg পাতিয়ালা এবং পূর্ব পাঞ্জাব রাজ্যসংঘ পাতিয়ালা ১৯৪৮–১৯৫৬ পাঞ্জাব, ভারত
Bombay in India (1951).svg বোম্বে রাজ্য বোম্বে ১৯৪৭–১৯৬০ মহারাষ্ট্র, গুজরাত
Bhopal in India (1951).svg ভোপাল রাজ্য ভোপাল ১৯৪৯–১৯৫৬ মধ্য প্রদেশ
Saurashtra in India (1951).svg সৌরাষ্ট্র রাজকোট ১৯৪৮–১৯৫৬ বোম্বে রাজ্য
Coorg in India (1951).svg কুর্গ রাজ্য মাদিকেরি ১৯৫০–১৯৫৬ মহীশূর রাজ্য
Travancore-Cochin in India (1951).svg তিরু-কোচিন তিরুবনন্তপুরম ১৯৪৯–১৯৫৬ কেরল, মাদ্রাজ রাজ্য
200px হায়দ্রাবাদ রাজ্য হায়দ্রাবাদ ১৯৪৮–১৯৫৬ অন্ধ্র প্রদেশ
Vindhya Pradesh in India (1951).svg বিন্ধ্য প্রদেশ রেওয়া ১৯৪৮–১৯৫৬ মধ্যপ্রদেশ
Kutch in India (1951).svg কচ্ছ রাজ্য ভুজ ১৯৪৭–১৯৫৬ বোম্বে রাজ্য
Bilaspur in India (1951).svg বিলাসপুর রাজ্য বিলাসপুর ১৯৪৮–১৯৫৪ হিমাচল প্রদেশ
Cooch Behar from 1931 Imperial Gazetteer.jpg কুচবিহার রাজ্য কুচবিহার ১৯৪৯ পশ্চিমবঙ্গ
Ajmer in India (1951).svg আজমির রাজ্য আজমির ১৯৪৭–১৯৫৬ রাজস্থান
Kashmir map.svg জম্মু ও কাশ্মীর শ্রীনগর (গ্রীষ্মকালীন)
জম্মু (শীতকালীন)
১৯৫০-২০১৯

টীকা[সম্পাদনা]

  1. মেঘালয় রাজ্যের জৈন্তা-খাসি পাহাড়ের জেলাগুলিতে অবস্থিত রাজ্য সরকারের জেলা, উপ-বিভাগ ও ব্লক স্তরের কার্যালয়গুলিতে সমস্ত উদ্দেশ্যে খাসি ভাষাকে সহকারী প্রাতিষ্ঠানিক ভাষা হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে।
  2. দার্জিলিং জেলার দার্জিলিং ও কুরসেওং উপবিভাগগুলিতে বাংলা ও নেপালি প্রাতিষ্ঠানিক ভাষা।
  3. চণ্ডীগড় একই সাথে একটি শহর ও একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল।
  4. রাজ্য/কেন্দ্রের সাথে যোগাযোগ হিন্দি বা ইংরেজিতে করতে বলা হয়েছে।
  5. দিল্লি একই সাথে একটি শহর ও একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. DelhiAugust 5। "States and Union Territories" (ইংরেজি ভাষায়)। Know India Programme। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-২১ 
  2. Krishna Reddy (২০০৩)। Indian History। New Delhi: Tata McGraw Hill। আইএসবিএন 978-0-07-048369-9 
  3. Ramesh Chandra Majumdar (১৯৭৭)। Ancient India। Motilal Banarsidass Publishers। আইএসবিএন 978-81-208-0436-4 
  4. Romila Thapar (১৯৬৬)। A History of India: Part 1বিনামূল্যে নিবন্ধন প্রয়োজন 
  5. V.D. Mahajan (২০০৭)। History of medieval India (10th সংস্করণ)। New Delhi: S Chand। পৃষ্ঠা 121, 122। আইএসবিএন 978-8121903646 
  6. Antonova, K.A.; Bongard-Levin, G.; Kotovsky, G. (১৯৭৯)। A History of India Volume 1। Moscow, USSR: Progress Publishers। 
  7. Gupta Dynasty – MSN Encarta। ১ নভেম্বর ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  8. "India – Historical Setting – The Classical Age – Gupta and Harsha"। Historymedren.about.com। ২ নভেম্বর ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মে ২০১০ 
  9. Nilakanta Sastri, K.A. (২০০২) [1955]। A history of South India from prehistoric times to the fall of Vijayanagar। New Delhi: Indian Branch, Oxford University Press। পৃষ্ঠা 239। আইএসবিএন 978-0-19-560686-7 
  10. Chandra, Satish। Medieval India: From Sultanate to the Mughals। পৃষ্ঠা 202। 
  11. "Regional states, c. 1700–1850"। Encyclopædia Britannica, Inc.। 
  12. Grewal, J. S. (১৯৯০)। "Chapter 6: The Sikh empire (1799–1849)"The Sikh empire (1799–1849)। The New Cambridge History of India। The Sikhs of the Punjab। Cambridge University Press। 
  13. "List of states with Population, Sex Ratio and Literacy Census 2011" 
  14. "Report of the Commissioner for linguistic minorities: 50th report (July 2012 to June 2013)" (PDF)। Commissioner for Linguistic Minorities, Ministry of Minority Affairs, Government of India। ৮ জুলাই ২০১৬ তারিখে মূল (pdf) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ জানুয়ারি ২০১৫ 
  15. http://www.gulte.com/news/56377/After-2200-Years-Amaravati-Gets-Back-Power
  16. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ৩ আগস্ট ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ জানুয়ারি ২০১৮ 
  17. "Haryana grants second language status to Punjabi"Hindustan Times। ২৮ জানুয়ারি ২০১০। 
  18. "Punjabi gets second language status in Haryana"Zee news। ২৮ জানুয়ারি ২০১০। 
  19. http://ierj.in/journal/index.php/ierj/article/viewFile/386/364
  20. "Telangana State Profile" (PDF)। Telangana government portal। পৃষ্ঠা 34। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুন ২০১৪ 
  21. "Urdu Gets First Language Status" 
  22. "Sanskrit: Reviving the language in today’s India – Livemint" 
  23. "Bifurcated into Telangana State and residual Andhra Pradesh State"The Times Of India। ২ জুন ২০১৪। 
  24. "The Gazette of India : The Andhra Pradesh Reorganization Act, 2014" (PDF)Ministry of Law and Justice। Government of India। ১ মার্চ ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ২৩ এপ্রিল ২০১৪ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  25. "The Gazette of India : The Andhra Pradesh Reorganization Act, 2014 Sub-section" (PDF)। ৪ মার্চ ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ২৩ এপ্রিল ২০১৪ 
  26. Sanchari Bhattacharya (১ জুন ২০১৪)। "Andhra Pradesh Minus Telangana: 10 Facts"NDTV 
  27. "Official Language Act 2000" (PDF)। Government of Delhi। ২ জুলাই ২০০৩। ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুলাই ২০১৫ 
  28. http://www.lawsofindia.org/pdf/puducherry/1965/1965Pondicherry3.pdf