বিলাসপুর রাজ্য (১৯৫০-৫৪)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বিলাসপুর প্রদেশ (১৯৪৮-১৯৫০)
বিলাসপুর রাজ্য (১৯৫০-১৯৫৪)
बिलासपुर
ভারত রাজ্য
১৯৫০–১৯৫৪
Bilaspur in India (1951).svg
ভারতের ১৯৫১ সালের মানচিত্রে বিলাসপুর রাজ্যের অবস্থান
আয়তন 
• ১৯৩১
১,১৬০ বর্গকিলোমিটার (৪৫০ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা 
• ১৯৩১
100994
ইতিহাস 
• ভারতের স্বাধীনতা
১৯৫০
• হিমাচল প্রদেশের সঙ্গে সংযুক্তি
১৯৫৪
পূর্বসূরী
উত্তরসূরী
Kahlur
Himachal Pradesh
বর্তমানে যার অংশহিমাচল প্রদেশ, ভারত

১৯৫০ থেকে ১৯৫৪ সাল পর্যন্ত বিলাসপুর রাজ্য ছিল ভারতের একটি রাজ্য। এই রাজ্যের রাজধানী ছিল বিলাসপুর টাউন। ১৯৪৮ সালে দেশীয় রাজ্য বিলাসপুর একই নামে একটি প্রদেশে পরিণত হয়।[১] পরে তা রাজ্যের মর্যাদা লাভ করে। ৩১তম বিলাসপুর রাজ্যটি প্রথমে ছিল মুখ্য কমিশনারের অধীনস্থ একটি পৃথক প্রশাসনিক অঞ্চল। ১৯৫৪ সালের ১ জুলাই রাজ্যটি হিমাচল প্রদেশের অন্তর্ভুক্ত হয় এবং উক্ত রাজ্যের একটি জেলায় পরিণত হয়।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ব্রিটিশ যুগের কাহলুর বা বিলাসপুর দেশীয় রাজ্যের ভূখণ্ড নিয়ে বিলাসপুর রাজ্যটি গঠিত হয়েছিল। ১৯৪৮ সালের ১২ অক্টোবর বিলাসপুরের রাজা আনন্দ চন্দ অন্তর্ভুক্তির সনদে সাক্ষর করার পর রাজ্যটি ভারত অধিরাজ্যের অন্তর্ভুক্ত হয়। প্রথমে এটি ছিল ভারতের একটি প্রদেশ। ১৯৫০ সালের ২৬ জানুয়ারি বিলাসপুর রাজ্য নামে এটি ভারতীয় প্রজাতন্ত্রের "গ" শ্রেণির রাজ্যে পরিণত হয়। এই "গ" শ্রেণির রাজ্যগুলি কেন্দ্রীয় সরকারের প্রত্যক্ষ শাসনাধীনে ছিল।[১][২]

অবলুপ্তি[সম্পাদনা]

১৯৫৪ সালের ভারতীয় সংসদে হিমাচল প্রদেশ ও বিলাসপুর (নতুন রাজ্য) আইন পাস হলে[৩] সেই বছরই ১ জুলাই বিলাসপুর রাজ্য অবলুপ্ত হয় এবং এই রাজ্যের অন্তর্গত ১০৬,৮৪৮ হেক্টর এলাকা বিলাসপুর জেলা হিসেবে হিমাচল প্রদেশের অন্তর্ভুক্ত হয়।[১][৪]

হিমাচল প্রদেশ রাজ্যটি ছিল উপরাজ্যপালের অধীনস্থ অপর একটি গ-শ্রেণির রাজ্য। প্রথম দিকে এই রাজ্যের বিধানসভা ছিল ৩৬ সদস্যবিশিষ্ট এবং বিধানসভার প্রথম নির্বাচন আয়োজিত হয় ১৯৫২ সালে। ১৯৫৪ সালে বিলাসপুর হিমাচল প্রদেশের অন্তর্ভুক্ত হলে বিধানসভার সদস্য সংখ্যা বেড়ে হয় ৪১।[৫]

কমিশনারগণ[সম্পাদনা]

বিলাসপুর রাজ্যের মুখ্য কমিশনারগণ ছিলেন:[১][২][১]

  • রাজা আনন্দ চন্দ (১২ অক্টোবর, ১৯৪৮ - ২ এপ্রিল, ১৯৪৯)
  • শ্রীচন্দ ছাবড়া (২ এপ্রিল, ১৯৪৯ – ৪ নভেম্বর, ১৯৫৩)
  • কুমার শ্রী হিম্মৎসিংজি (৪ নভেম্বর, ১৯৫৩ – ১ জুলাই, ১৯৫৪)

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Bilaspur State : Chief Commissioners
  2. Social, cultural, and economic history of Himachal Pradesh By Manjit Singh Ahluwalia
  3. The Himachal Pradesh and Bilaspur (New State) Act, 1954
  4. Bilaspur History ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২০ নভেম্বর ২০১১ তারিখে
  5. "1 Vidhan Sabha"। ৩০ আগস্ট ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ সেপ্টেম্বর ২০১১