শ্রেয়া ঘোষাল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
শ্রেয়া ঘোষাল
Shreya Ghoshal at Filmfare Awards South.jpg
জন্ম শ্রেয়া ঘোষাল
(১৯৮৪-০৩-১২) ১২ মার্চ ১৯৮৪ (বয়স ৩৪)[১]
বহরমপুর, মুর্শিদাবাদ, পশ্চিমবঙ্গ, ভারত[২]
জাতীয়তা ভারতীয়
জাতিসত্তা বাঙালি
পেশা গায়িকা
কার্যকাল ১৯৯৭–বর্তমান
আদি শহর বহরমপুর
দাম্পত্য সঙ্গী শিলাদিত্য মুখপাধ্যায় (বি. ২০১৫)
সঙ্গীত কর্মজীবন
ধরন
বাদ্যযন্ত্রসমূহ কণ্ঠ
লেবেল সাগরিকা
ওয়েবসাইট shreyaghoshal.com

শ্রেয়া ঘোষাল (জন্ম: ১২ই মার্চ ১৯৮৪) একজন ভারতীয় বাঙালি নেপথ্য গায়িকা। তিনি বলিউডের বহু চলচ্চিত্রে গান গেয়েছেন। হিন্দি ভাষা ছাড়াও তিনি বাংলা, নেপালি, তামিল, ভোজপুরি, তেলুগু, ওড়িয়া,[৩] গুজরাতি, মলয়ালম্, মারাঠি, কন্নড়, পাঞ্জাবিঅসমীয়া ভাষায় গান গেয়েছেন।

জিটিভির ‘সা রে গা মা পা’ সঙ্গীত প্রতিযোগিতা জয়ের মাধ্যমে শ্রেয়া ঘোষালের ক্যারিয়ার শুরু হয়। ২০০২ সালে বলিউডের দেবদাস চলচ্চিত্রে নেপথ্য কণ্ঠদানের মাধ্যমে তাঁর চলচ্চিত্রে প্লেব্যাকের অভিষেক ঘটে। এ চলচ্চিত্রের গানগুলোতে কণ্ঠ দিয়েই তিনি সেরা গায়িকা হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার, ফিল্মফেয়ার পুরস্কার, ফিল্মফেয়ার আর ডি বর্মন পুরস্কারসহ নানা পুরস্কার অর্জন করেন।[৪] তখন থেকে তিনি ৩৫০টিরও বেশি চলচ্চিত্রে কাজ করেছেন এবং শ্রেষ্ঠ প্লেব্যাক গায়িকা হিসেবে চারবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ও চারবার ফিল্মফেয়ার পুরস্কার, সাতবার ফিল্মফেয়ার পুরস্কার (দক্ষিণ) পেয়েছেন।

জীবনচরিত[সম্পাদনা]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

শ্রেয়া ঘোষাল পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুরে এক বাঙালি ব্রাহ্মণ পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন । তাঁর পূর্বপুরুষেরা বাংলাদেশের বিক্রমপুরের হাসাড়া গ্রামের অধিবাসী । তিনি রাজস্থানের কোটার কাছে রাওয়াতভাতা শহরে বড় হন । তাঁর বাবা বিশ্বজিৎ ঘোষাল পারমাণবিক শক্তি কেন্দ্রের একজন প্রকৌশলী ছিলেন । তাঁর মা সাহিত্যে পোস্ট গ্র্যাজুয়েট।[৫]

চার বছর বয়স থেকেই শ্রেয়া তাঁর মার কাছে হারমোনিয়াম বাজানোয় সঙ্গ দিতেন । কোটাতেই তিনি ভারতীয় আধুনিক সঙ্গীতের প্রশিক্ষণ নেন ।[৬] জিটিভির ‘সা রে গা মা পা’ সঙ্গীত প্রতিযোগিতার শিশুদের বিশেষ পর্বে জয়ের মাধ্যমে শ্রেয়া বিখ্যাত সুরকার কল্যাণজী বীরজী শাহ'র নজর কাড়েন । কল্যাণজী ছিলেন এই প্রতিযোগিতার বিচারক । তাঁর পরামর্শেই শ্রেয়ার পরিবার মুম্বাইয়ে চলে আসেন । শ্রেয়া কল্যাণজীর কাছে দেড় বছর প্রশিক্ষণ নেন এবং এর পরও আধুনিক সঙ্গীতের প্রশিক্ষণ গ্রহণ চালিয়ে যান ।[৭]

শ্রেয়া ঘোষাল রাওয়াতভাতা ও মুম্বাইয়ের অণুশক্তিনগরে অ্যাটমিক এনার্জি সেন্ট্রাল স্কুলে (AECS) পড়াশোনা করেন এবং পরে এস আই ই এস কলেজে ভর্তি হন ।[৫]

ক্যারিয়ার[সম্পাদনা]

শ্রেয়া ঘোষাল দ্বিতীয়বারের মতো জিটিভির ‘সা রে গা মা পা’ সঙ্গীত প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের সময় বিখ্যাত চলচ্চিত্র পরিচালক সঞ্জয় লীলা বনসালীর নজর কাড়েন; এরফলে ২০০২ সালে তিনি শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় রচিত বিখ্যাত উপন্যাস দেবদাস অবলম্বনে সঞ্জয় লীলা ভন্সালী পরিচালিত দেবদাস চলচ্চিত্রের গানে পার্বতী চরিত্রে (ঐশ্বরিয়া রাই অভিনীত) কন্ঠ দেওয়ার সুযোগ পান।[৪] এ ছবিতে পাঁচটি গানে তিনি কন্ঠ দেন এবং তাঁর নৈপুণ্যের সুবাদে ২০০৩ সালে নতুন সঙ্গীত মেধা হিসেবে ফিল্মফেয়ার আর. ডি. বর্মন পুরস্কার পান। ডোলা রে গানটিতে কন্ঠ দেওয়ার জন্য কবিতা কৃষ্ণমূর্তির সাথে যৌথভাবে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার, আইফা অ্যাওয়ার্ড, জি সিনে অ্যাওয়ার্ড লাভ করেন। এছাড়া ব্যারি পিয়া গানটির জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন।[৮] শ্রেয়া ঘোষাল অস্কারজয়ী সুরকার এ আর রহমানের সুরে হিন্দি, তামিল ও তেলেগু ভাষার চলচ্চিত্রের গানে কন্ঠ দিয়েছেন । তিনি এ আর রহমানের সুরে হিন্দি গুরু চলচ্চিত্রে বারসো রে গানটিতে কন্ঠ দিয়ে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার, আইফা অ্যাওয়ার্ড, জি সিনে অ্যাওয়ার্ড, স্ক্রিন অ্যাওয়ার্ড লাভ করেন । তাঁর সুরেই তামিল সিল্লুনু ওরু কাধাল ছবিতে মানবে ভা গানটির জন্য ফিল্মফেয়ার পুরস্কার (দক্ষিণ) ও তামিলনাড়ু রাজ্য পুরস্কার লাভ করেন ।[৯] মালয়ালম চলচ্চিত্র আনোয়ার-এ তাঁর কন্ঠ দেওয়া গানগুলো বেশ জনপ্রিয় হয়েছিল। শ্রেয়া ঘোষাল প্রিতম, দেবী শ্রী প্রসাদ, বিশাল-শেখর সহ আরো অনেক প্রখ্যাত সুরকারের সাথে কাজ করেছেন । [১০] উত্তর ভারতের শিল্পী হয়েও শ্রেয়া শ্রেষ্ঠ প্লেব্যাক গায়িকা হিসেবে দক্ষিণের তামিলনাড়ু ও কেরালা রাজ্য পুরস্কার লাভ করেছেন । মাতৃভাষা বাংলায় তাঁর বেশ কয়েকটি আধুনিক গানের অ্যালবাম রয়েছে । ২০১০ সালে শ্রেয়া ইংরেজি হোয়েন হ্যারি ট্রাইস টু ম্যারি চলচ্চিত্রেও কন্ঠ দেন । শ্রেয়া ঘোষাল স্টার ভয়েস অব ইন্ডিয়া - ছোটে উস্তাদ গানের প্রতিযোগিতায় গায়ক কুনাল গাঞ্জাওয়ালা ও সুরকার প্রিতমের সাথে বিচারকের ভূমিকা পালন করেছেন । মিউজিক রিয়েলিটি শো এক্স-ফ্যাক্টর-এ গায়ক সোনু নিগম ও চলচ্চিত্র পরিচালক সঞ্জয় লীলা বানসালির সাথে বিচারকের দায়িত্ব পালন করেছেন ।[১১] ২০১৩ সালে, শ্রেয়া ঘোষাল বিশাল দাদলানি ও শেখর রাভজিয়ানির সাথে ভারতীয় আইডল জুনিয়র প্রথম বছরে বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন ।[১২]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

শ্রেয়া তার পরিচিত বন্ধু শিলাদিত্য মুখোপাধ্যায় এর সাথে ২০১৫ সালে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।

বাংলা গানের অ্যালবাম[সম্পাদনা]

  • বেঁধেছি বীণা (১৯৯৮)
  • ও তোতা পাখি রে (১৯৯৮)
  • একটি কথা (১৯৯৯)
  • মুখর পরাগ (২০০০)
  • রুপসী রাতে (২০০০)
  • বনমালী রে (২০০২)
  • যাব তেপান্তর (২০০৩)
  • আকাশের মুখোমুখি (২০০২)
  • স্বপ্নের পাখা (২০০৩)
  • ঠিকানা (২০০৬)
  • কৃষ্ণ বিনা আছে কে (২০০৭)
  • যেতে দাও আমায় (২০০৮)
  • এই আকাশ তোমারই
  • মিলন পিয়াসী
  • রিম ঝিম
  • তুমি বলো আমি শুনি
  • "মেঘের পালক "
  • "মন কেমনের স্টেশন"

উল্লেখযোগ্য পুরস্কার ও স্বীকৃতি[সম্পাদনা]

• ২০১০ সালের ২৬ জুন যুক্তরাষ্ট্রের ওহাইও রাজ্যে দিনটিকে শ্রেয়া ঘোষাল দিবস হিসেবে ঘোষণা করা হয় । • নতুন সঙ্গীত মেধা হিসেবে ফিল্মফেয়ার আর. ডি. বর্মন পুরস্কার : ২০০৩

উল্লেখযোগ্য শ্রেষ্ঠ প্লেব্যাক গায়িকার পুরস্কারের তালিকা[সম্পাদনা]

শ্রেয়া ঘোষাল শ্রেষ্ঠ প্লেব্যাক গায়িকা হিসেবেই সবচেয়ে বেশি পুরস্কার পেয়েছেন। ভারতের ইতিহাসে মাত্র ২৬ বছর বয়সে চারবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া একমাত্র গায়িকা হলেন তিনি । শ্রেষ্ঠ প্লেব্যাক গায়িকা হিসেবে শ্রেয়া ঘোষালের প্রাপ্ত পুরস্কারের তালিকা নিচে দেওয়া হলো ।

তালিকা নির্দেশনাঃ

  • পুরস্কার পাওয়া বছরগুলো বোল্ড আকৃতির করা হয়েছে ।
  • যে সকল পুরস্কার শ্রেয়া সর্বাধিকবার পেয়েছেন সেগুলোর ব্যাকগ্রাউন্ড সবুজ রঙয়ের ।

পুরস্কারের নাম পুরস্কার প্রাপ্তির সংখ্যা মনোনয়নের সংখ্যা (বছর)
ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০০৩, ২০০৬, ২০০৮, ২০০৯
রাজ্য চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০০৬তামিলনাড়ু, ২০০৯কেরালা, ২০১১কেরালা
ফিল্মফেয়ার পুরস্কার ১৮ (২০০৩, ২০০৪, ২০০৬, ২০০৭, ২০০৮, ২০০৯, ২০১০, ২০১১, ২০১২, ২০১৩, ২০১৪)
ফিল্মফেয়ার পুরস্কার (দক্ষিণ) ২১+ (২০০৬(তামিল), ২০০৮(কন্নড়), ২০০৯, ২০১০(মালয়ালম, তামিল), ২০১১(কন্নড়, মালয়ালম, তেলুগু), ২০১২)
আইফা অ্যাওয়ার্ড ১৬(২০০৩, ২০০৪, ২০০৬, ২০০৭, ২০০৮, ২০০৯, ২০১০, ২০১১, ২০১২, ২০১৩, ২০১৪)
জি সিনে অ্যাওয়ার্ড ৭ (২০০৩, ২০০৬, ২০০৭, ২০০৮, ২০১২, ২০১৩, ২০১৪)
স্ক্রিন অ্যাওয়ার্ড ১২ (২০০৪, ২০০৬, ২০০৭, ২০০৮, ২০০৯, ২০১০, ২০১১, ২০১২, ২০১৩, ২০১৪)

গ্যালারি[সম্পাদনা]

পাদটীকা[সম্পাদনা]

  1. "Playlist: Best songs of birthday girl Shreya Ghoshal"
  2. Gupta, Priya (25 December 2013)। "I like my father being the boss in my life: Shreya"Times of India। সংগ্রহের তারিখ ১১ মার্চ ২০১৪ 
  3. Shreya Ghoshal (১৭ জানুয়ারি ২০১২)। "Twitter status update"। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মার্চ ২০১২ 
  4. Priyanka Dasgupta (২১ জুলাই ২০০২)। "Singing in Devdas was God's greatest gift: Shreya Ghoshal"Times of India। সংগ্রহের তারিখ ২০০২-০৭-২১ 
  5. "Shreya Ghoshal's Profile". Sa Re Ga Ma. Retrieved 7 January 2011.
  6. "Singer Interview: Shreya Ghoshal"। hindisong.com। 
  7. "'I simply closed my eyes and sang'"। rediff.com। 
  8. http://profiles.incredible-people.com/shreya-ghoshal/
  9. "'Munbe Va' will come to Hindi"। Top10Cinema। জানুয়ারি ৩, ২০১১। 
  10. "Shreya Ghoshal's Filmography". Bollywoodhungama. Retrieved 13 August 2011.
  11. "Sanjay-Sonu's conflict over eviction!"The Times of India। TNN। ২০১১-০৭-১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-১০-০৯ 
  12. "The Indian Idol Junior Audtions"। ১৩ জুলাই ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ৮ এপ্রিল ২০১৩ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]