সোনু নিগম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সোনু নিগম
SonuNigam02.jpg
সোনু নিগম ২০১৩
প্রাথমিক তথ্যাদি
জন্ম (১৯৭৩-০৭-৩০) ৩০ জুলাই ১৯৭৩ (বয়স ৪২)
ফরিদাবাদ, হরিয়ানা, ভারত
ধরন পপ, রক, ক্লাসিক্যাল, গজল, প্লেব্যাক সিংগার
পেশা শিল্পী, মিউজিশিয়ান, কম্পোজার, অভিনেতা, সঙ্গীত পরিচালক, টেলিভিশন উপস্থাপক
বাদ্যযন্ত্র ভোকাল
লেবেল সনি মিউজিক, টি-সিরিজ, টিপস, সারেগামা, ভেনাস রেকর্ড এন্ড টেপস
সহযোগী শিল্পী শ্রেয়া ঘোষাল,
ওয়েবসাইট sonunigam.in

সোনু নিগম (ইংরেজি: Sonu Nigam; জন্ম: ৩০শে জুলাই, ১৯৭৩)[১] হলেন একজন ভারতীয় জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী যিনি সাধারণত হিন্দি এবং কন্নড় ভাষায় গান করে থাকেন। এছাড়াও তিনি অসংখ্য উড়িয়া, তামিল, অসমীয়া, পাঞ্জাবী, বাংলা, মালায়ালাম, মারাঠি, তেলুগু এবং নেপালী ছবিতে গান গেয়েছেন। তিনি তার মুক্তিপ্রাপ্ত ভারতীয় পপ অ্যালবাম সহ কয়েকটি ছবিতে অভিনয় করেছেন। তিনি তার নামের শেষের অক্ষর নিগম থেকে নিগামে পরিবর্তন করেছিলেন কিন্তু পরবর্তীতে আবার তার প্রকৃত নামে ফিরে আসেন।[২]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

নিগম ফরিদাবাদ শহরে এক কায়স্থ পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেছিলেন।[৩][৪] তিনি তাঁর পিতা আগাম কুমার নিগমের সঙ্গে মহম্মদ রফির "ক্যা হুয়া তেরে বাধা, ও কসম ও ইরাদা" গানটি দিয়ে মাত্র চার বছর বয়সে স্টেজে গান গান গাওয়া শুরু করেছিলেন। তারপর থেকে সোনু তার পিতার সঙ্গে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে গান গাওয়া শুরু করেন। তিনি তাঁর পিতার সাথে উনিশ বছর বয়সে বলিউডে গান গাওয়ার জন্য মুম্বই শহরে চলে আসেন।[৫] তিনি বিখ্যাত ক্লাসিক্যাল শিল্পী ওস্তাদ গোলাম মোস্তফা খান এর কাছে সঙ্গীতের তালিম নিয়েছিলেন।

গানের যাত্রা[সম্পাদনা]

২০১৩ সালের একটি গান রেকর্ডিং এর সময়ে সোনু নিগম

সোনু মুম্বই শহরে প্রথম দিকের বছরগুলিতে প্রথমে নিজেকে প্রমাণ করার চেষ্টা করছিলেন। টি-সিরিজের কর্ণধার গুলশন কুমার মহম্মদ রফির গাওয়া গানগুলিকে নিয়ে "রফি কি ইয়াদে" অ্যালবাম প্রকাশ করে তাঁকে শ্রোতাদের কাছে পৌছানোর সুযোগ দিয়েছিলেন। ১৯৯২ সালে তিনি জানম চলচ্চিত্রে প্রথম গান গাওয়ার সুযোগ পেলেও গানগুলি আনুষ্ঠানিকভাবে মুক্তি পায়নি। এরপর তিনি বেতারে বিজ্ঞাপনের কাজে সংযুক্ত হন।

১৯৯৫ সালে নিগম "সা রে গা মা" নামক জনপ্রিয় টিভি শোতে সঞ্চালকের ভূমিকা নেন। ঐ বছর তিনি বেওয়াফা সনম চলচ্চিত্রে "আচ্ছা সিলা দিয়া" গানটি গান।[৫] তার প্রথম বড় ধরনে সফলতার পেছনে ছিল বর্ডার চলচ্চিত্রে অনু মালিকের সুরে গাওয়া "সন্দেশে আতি হে" গানটি। সোনুর দিওয়ানা অ্যালবামটি মুক্তি পায় ১৯৯৯ সালে টি-সিরিজের ব্যানারে, অ্যালবামটিতে তার রোমান্টিক গান গাওয়ার প্রতিভা প্রকাশ পেয়েছিল। দিওয়ানা অ্যালবামটি ভারতীয় পপ এ্যালবামের জগতে অন্যতম একটি ব্যাবসাসফল এ্যালবাম বলে বিবেচনা করা হয়।। তিনি নিজেকে সৃষ্টি করলেন একটি ব্যতিক্রমি একজন শিল্পী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেন এবং ভারতীয় ভোকাল গানের জগতে একটি রোল মডেল হিসেবে মর্যাদা লাভ করেন।[৫]

পপ অ্যালবাম এবং কনসার্ট[সম্পাদনা]

সোনুর মুক্তিপ্রাপ্ত পপ অ্যালবাম গুলি হল হিন্দী, ওড়িয়া, পাঞ্জাবী এবং কন্নড় ভাষায়। তার সম্প্রতি মুক্তিপ্রাপ্ত হিন্দী গানের সংকলন "ক্ল্যাসিক্যাল মাইল্ড" একটি সেমি ক্লাসিক্যাল এ্যালবাম"[৬] তিনি কয়েকটি হিন্দু এবং ইসলামিক ভক্তিমূলক এ্যালবামেও কাজ করেছেন। তিনি গৌতম বুদ্ধের শিক্ষার ওপর বুদ্ধা হি বুদ্ধা হ্যায় (পার্ট ১ ও ২) এ্যালবাম এবং ভীমরাও রামজি আম্বেডকরের ওপর মারাঠি ভাষায় জিওয়ালা জিয়াচ দান (পার্ট ১ ও ২) নামক অ্যালবামেও গান করেন। এছাড়াও ২০০৭ সালে মহম্মদ রফির স্মরণে কাল আজ অউর কাল নামক একশটি গানের এ্যালবামেও তিনি কাজ করেন।[৭] ২০০৮ সালের ক্ল্যাসিক্যাল মাইল্ড এ্যালবামটি মুক্তির পরে তিনি পাঞ্জাবি রিলিজ নামক একটি একক পাঞ্জাবি গান[৮] এবং রফি রিসারাক্টেড নামক অ্যালবামে গান করেন।

সোনু নিগম ২০১৩ সালের একটি কনসার্টে গান গাইছেন

নিগম তার ফেসবুক ফ্যানদের সঙ্গে জ্যাকসনের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে একটি গানে কন্ঠ দেন যা "দ্য বিট অব আয়ার হার্টস নামক বিশ্বের ১৮টি গানের সংকলনে স্থান পায়।[৯] নিগম ব্রিটনি স্পিয়ার্সের সাথে "আই ওয়ানা গো" গানটিতেও কাজ করেন।[১০]

তার সঙ্গীত জীবনে তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, ইংল্যান্ড, ফ্রান্স, জার্মানী, বেলজিয়াম, নেদারল্যান্ডস, স্পেন, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, পাকিস্তান, নেপাল, বাংলাদেশ, রাশিয়া, আফগানিস্তান, সংযুক্ত আরব আমিরাত, কুয়েত, সৌদি আরব, থাইল্যান্ড, ইন্দোনেশিয়া, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, মরিশাস, নাইজেরিয়া এবং দক্ষিণ আফ্রিকা প্রভৃতি দেশে গান করেছেন। ২০০৭ সালের মে তিনি আশা ভোঁসলে, কুনাল গাঞ্জাওয়ালা এবং কৈলাশ খেরের সাথে উত্তর আমেরিকার "দ্য ইনক্রেডিবল" নামক বিখ্যাত শোতে অংশগ্রহণ করেন। একই বছরের সেপ্টেম্বর/অক্টোবরে তিনি করেন "সিম্পলি সোনু" নামে এক অনুষ্ঠানে কানাডা এবং জার্মানীতে এবং প্রথম ভারতীয় শিল্পী হিসেবে একক অনুষ্ঠান করেন।[১১] ২০১১ সালে সোনু এবং লক্ষ্মীকান্ত-প্যারেলাল এবং কাকাস এন্টারটেইনমেন্টের সাথে "মায়েস্ত্রো" কনসার্টে মহম্মদ রফির গানগুলি গান।[১২]

অন্যান্য প্রকল্প[সম্পাদনা]

নিগম "স্প্রিরিট আনফোল্ডিং" নামক ইংরেজী ভাষার এ্যালবাম[১৩] এবং "টাইম ট্রাভেল" নামে একটি প্রকল্পে কাজ করেন [১৪] তিনি দুইবার ইউএস টপচার্টে ১ নং শিল্পী ছিলেন।(সেপ্টেম্বর ০৭ এবং অক্টোবর ০৫, ২০১৩ তারিখে)[১৫][১৬]

টেলিভিশন[সম্পাদনা]

১৯৯৯ সালে "সা রে গা মা" শোতে নিগম সঞ্চালকের ভূমিকা পালন করেন।[১৭] ২০০৭ সালের অক্টোবরে সারেগামাপা লি'ল চ্যামস ইন্টারন্যাশনাল অনুষ্ঠানে তাকে বিচারক হিসেবে অন্তর্ভূক্ত করা হয়। নিগম ছিলেন সারেগামাপা মেগা চ্যালেঞ্জ অনুষ্ঠানের ১০০০ তম পর্বে অনুষ্ঠানে গ্রান্ড ফাইনালের বিচারক। নিগম আলাদিন চলচ্চিত্রের হিন্দী ভাষায় অনূদিত ভার্সনের প্রধান চরিত্র আলাদিনের কণ্ঠ প্রদান করেন।[১৮] তিনি সঞ্জয় লীলা বানসালি এবং শ্রেয়া ঘোষালের সাথে যুগ্মভাবে এক্স ফ্যাক্টর (ইন্ডিয়া) অনুষ্ঠানের প্রথম সিজনের বিচারক ছিলেন।[১৭]

অভিনয় জীবন[সম্পাদনা]

নিগম ১৯৮৩ সালে বেতাব নামক হিন্দী চলচ্চিত্রে অভিনয় জীবন শুরু করেন।[১৯]। তার পরিণত বয়সে অভিনিত ছবিগুলোর মধ্যে জানি দুশমন: এক আনোখি কাহানি, কাশ আপ হামারে হোতে উল্লেখযোগ্য। যদিও তার কোন ছবিই বক্ম অফিসে তেমন ব্যবসায়িক ভাবে সফল হয়নি, তবে তার অভিনয় নজর কেড়েছিল। তিনি তার লাভ ইন নেপাল ছবির পরে আর আর কোন ছবিতে ফিরে আসেননি কিন্তু সম্প্রতি একজন অন্ধ গায়কের ভূমিকায় আখো আখো মে চলচ্চিত্রে কাজ করছেন।[২০]

অন্যান্য কাজ[সম্পাদনা]

রেডিও[সম্পাদনা]

২০০৬ সালে রেডিওসিটি ৯১.১ এফএম রেডিওতে "লাইফ কি ধুন উইথ সোনু নিগম" নামক অনুষ্ঠানে তিনি সঞ্চালকের ভূমিকা নেন। এই অনুষ্ঠানে তিনি লতা মঙ্গেশকর সহ বিভিন্ন সঙ্গীত শিল্পীদের সাক্ষাতকার নেন।[২১]

অ্যানিমেটেড ছবি[সম্পাদনা]

ছবির নাম মৌলিক কন্ঠস্বর চরিত্র দ্বৈত ভাষা মৌলিক ভাষা মৌলিক মুক্তি দ্বৈত মুক্তি উল্লেখযোগ্য
আলাদিন[২২] স্কট ওয়েঙ্গার
ব্রাড ক্যালেব কেনে (কণ্ঠ)
আলাদিন হিন্দী ইংরেজী ১৯৯২ ২০০৫ এই ছবিতে আলাদিনে সমস্ত কণ্ঠস্বর দিয়েছেন।
রিও জেসি এইসেনবার্গ ব্লু হিন্দী ইংরেজী ২০১১ ২০১১

ব্যক্তিগত জীবন এবং স্বেচ্ছাসেবক কাজ[সম্পাদনা]

সোনু নিগম ২০ নভেম্বর ২০১১ সালে মুম্বাই শান্তি র‌্যালিতে

সোনু নিগম ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০০২ বাঙালী পরিবারের মেয়ে মধুমিতার সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।[২৩] তাদের নিভান নামে একটি পুত্রসন্তান ২০০৭ সালে জন্মগ্রহণ করে।[২৪] সোনু তার শারীরিক গঠণ ঠিক রাখার নিয়মিত যোগ ও ব্যায়ামচর্চা করে থাকেন এবং তাইকুন্দোতে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত।[২৫] নিগম মূলত ক্যান্সার, কুষ্ঠরোগ, অন্ধত্ব এবং মহিলাদের কল্যানের জন্য সমর্পিত ভারতের বিভিন্ন সমাজসেবক প্রতিষ্ঠানের হয়ে এবং বহির্বিশ্বের সামাজিক প্রতিষ্ঠান ডিগনিটি ফাউন্ডেশনের মত প্রতিষ্ঠানের হয়ে কাজ করে থাকেন।[১]

পুরষ্কার এবং মনোনয়ন[২৬][সম্পাদনা]

  • জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার
    • ২০০৪ - বিজয়ী - [সেরা পুরুষ শিল্পী - "কাল হো নাহো" - কাল হো নাহো
  • ফিল্মফেয়ার পুরস্কার
    • ১৯৯৭ - মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী - "সন্দেশে আতি হে" - বর্ডার (সাথে রুপ কুমার র‌্যাথোড)
    • ১৯৯৯ - মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী - "ইশক বিনা" - তাল (ছবি)
    • ২০০০ - 'মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী - "তু ফিজা হে" - ফিজা
    • ২০০০ - মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী - "পাঞ্চি নদিয়া" - রিফিউজী (চলচ্চিত্র)
    • ২০০১ - মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী - "সুরাজ হুয়া মাধ্যম" - কাভি খুশি কাভি গাম
    • ২০০২ - বিজয়ী - সেরা পুরুষ শিল্পী - "সাথিয়া" - সাথিয়া (চলচ্চিত্র)
    • ২০০৩ - বিজয়ী - সেরা পুরুষ শিল্পী - "কাল হো না হো" - কাল হো না হো
    • ২০০৪ - মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী - "দো পাল রোখা খাব কি দাস্তা " - বীর জারা
    • ২০০৪ - মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী - "ম্যা হুন না" - ম্যা হুন না
    • ২০০৪ - মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী - "তুমছে মিলকে দিল কা ইন্তেজার ম্যা হু না" - ম্যা হুন না
    • ২০০৫ - মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী - "ধীরে জালনা" - প্যাহেলী
    • ২০০৫ - মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী - "পিউ বলে হলে হলে" - পরিণীতা (২০০৫) চলচ্চিত্র
    • ২০০৬ - মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী - "কাভি আলবিদা না কেহনা" - কাভি আলবিদা না কেহনা
    • ২০০৭ - মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী - "ম্যায় আগার কাহু" - ওম শান্তি ওম
    • ২০০৮ - মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী - "ইন লামহো কে" - জোধা আকবর
    • ২০০৯ - মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী - "শুকর আল্লাহ" - কুরবান (সেলিম মার্চেন্ট)
    • ২০১৩ - মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী - "আভি মুজ মে কাহিন" - অগ্নিপথ
  • ফিল্মফেয়ার পুরস্কার
    • ২০০৭ - বিজয়ী - শ্রেষ্ঠ পুরুষ নেপথ্য গায়ক (কন্নাড়) - "নিন্নিনদালে নিন্নিনদালে" - মিলানা
    • ২০০৮ - 'বিজয়ী - শ্রেষ্ঠ পুরুষ নেপথ্য গায়ক (কন্নাড়) - "ইনাগালি মুধে সাগু" - মুসানজিমাতু[২৭]
    • ২০০৮ - মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী (কন্নাটা) - "মায়াভাগিদে মানাসু" - হাগি সুমান্নে
    • ২০১০ - মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী (কন্নাটা) - "হুরুদায়াভে" - কৃষাণ লাভ স্টোরী
    • ২০১১ - মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী (কন্নাটা) - "পরাভাষা নাদিনু" - প্যারামাথমা
    • ২০১১ - মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী (কন্নাটা) - "নিরিনালি সান্না এলে" - হুদুগারু
    • ২০১২ - মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী (কন্নাটা) - "চিদুটিয়া পাক্কাদালি" - হুদুগারু
  • ক্রিন অ্যাওয়ার্ডস
    • ১৯৯৮ - বিজয়ী - সেরা পুরুষ পপ শিল্পী
    • ২০০০ - মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী - "পানছি নাদিয়া" - রিফিউজি
    • ২০০১ - বিজয়ী - শ্রেষ্ঠ পুরুষ নেপথ্য গায়ক - "তানহায়ি" - দিল চাহাতা হে
    • ২০০১ - মনোনীত - শ্রেষ্ঠ পুরুষ নেপথ্য গায়ক - "ইস প্যায়ার কো ম্যয় ক্যঅ নাম দু" - মুঝে কুছ ক্যাহনা হ্যায়
    • ২০০৩ - মনোনীত - শ্রেষ্ঠ পুরুষ নেপথ্য গায়ক - "কাল হো না হো" - কাল হো না হো
    • ২০০৪ - বিজয়ী - শ্রেষ্ঠ পুরুষ নেপথ্য গায়ক - "তুমছে মিলকে দিল কা" - ম্যয় হু না
    • ২০০৫ - বিজয়ী - শ্রেষ্ঠ পুরুষ নেপথ্য গায়ক - "ধীরে জালনা" - প্যাহেলী
    • ২০০৬ - মনোনীত - শ্রেষ্ঠ পুরুষ নেপথ্য গায়ক - "বাউরী পিয়া কি" - বাবুল
  • জি সিনে অ্যাওয়ার্ডস
    • ১৯৯৭- বিজয়ী - শ্রেষ্ঠ পুরুষ নেপথ্য গায়ক - "সান্দেসে আতি হ্যায়" - বর্ডার
    • ২০০১- বিজয়ী - সেরা পুরুষ শিল্পী - "সুরাজ হুয়ার মাধ্যাম" - কাভি খুশি কাভি গাম
    • ২০০১- মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী - "তানহায়ি" - দিল চাহাতা হ্যায়
    • ২০০২- বিজয়ী - সেরা পুরুষ শিল্পী - "সাথিয়া" - সাথিয়া
    • ২০০৩- মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী - "কাল হো না হো" - কাল হো না হো
    • ২০০৪- মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী - "ম্যায় হু না" - ম্যায় হু না
    • ২০০৫- মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী - "পিয়ু বলে" - পরিণীতা
    • ২০০৫- মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী - "ধীরে জালনা" - প্যাহিলী
    • ২০০৬ - মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী - "কাভি আলবিদা না কেহনা" - কাভি আলবিদা না কেহনা
    • ২০০৭- মনোনীত - সেরা পুরুষ শিল্পী - "ম্যায় হু না" - ওম শান্তি ওম
    • ২০১৩- বিজয়ী - সেরা পুরুষ শিল্পী - "আভি মুঝমে কাহিন" - অগ্নিপথ
  • এমটিভি ইমিস
  • দ্য ব্যাঙ্গালোর টাইমস ফিল্ম অ্যাওয়ার্ডস
    • বিজয়ী : ২০১১-২০১২ - সেরা পুরুষ শিল্পী 'সানজু মথু গীতা' - সানজু ওয়েডস গীতা
    • বিজয়ী : ২০১২-২০১৩ - সেরা পুরুষ শিল্পী 'চেন্দুতিয়া পাক্কাদালী' - ড্রামা [২৮]
  • এমটিভি স্টাইল অ্যাওয়ার্ডস
    • ২০০৩ - স্টাইন আইকন ২০০৩
    • ২০০৫ - স্টাইন আইকন ২০০৫
  • এমটিভি ভিডিও মিউজিক অ্যাওয়ার্ড
    • ১০১৩ - বিজয়ী - সেরা শিল্পী- "আভি মুঝমে কাহিন" - অগ্নিপথ
  • অ্যানুয়াল সেন্ট্রাল ইউরোপিয়ান বলিউড অ্যাওয়ার্ডস
    • ২০০৭- বিজয়ী - সেরা পুরুষ শিল্পী - "ম্যা আগার কাহু" - ওম শান্তি ওম
    • ২০০৮- বিজয়ী - সেরা পুরুষ শিল্পী - "ইন লামহো কে দামান মে" - জোধা আকবর
    • ২০০৯- বিজয়ী - সেরা পুরুষ শিল্পী - "শুকর আল্লাহ" - কুরবান
  • লায়ন্স গোলা অ্যাওয়ার্ড
    • ২০০৫- বিজয়ী - সেরা পুরুষ শিল্পী - "ম্যায় হু না" - ম্যায় হু না
    • ২০০৮- বিজয়ী - সেরা পুরুষ শিল্পী - "ইন লামহো কে দামান মে" - জোধা আকবর
    • ২০১৩- বিজয়ী - সেরা পুরুষ শিল্পী - "আভি মুঝমে কাহিন" - অগ্নিপথ
  • ইন্ডিয়ান টেলিভিশন অ্যাকডেমি অ্যাওয়ার্ডস
    • ২০০৫- শ্রেষ্ঠ পুরুষ নেপথ্য গায়ক - মিলি
    • ২০০৮- শ্রেষ্ঠ পুরুষ নেপথ্য গায়ক - আম্বার ধারা
    • ২০০৯- শ্রেষ্ঠ পুরুষ নেপথ্য গায়ক - দিল মিল গায়ে
  • অন্যান্য পুরষ্কার
    • ১৯৯৭- আশির্বাদ এ্যাওয়ার্ড - শ্রেষ্ঠ পুরুষ শিল্পী - "সান্দেসে আতি হ্যায়" - বর্ডার
    • ১৯৯৭- সানসুই ভিউয়ার্স চয়েজ এ্যাওয়ার্ড - শ্রেষ্ঠ পুরুষ শিল্পী - "সান্দেসে আতি হ্যায়" - বর্ডার
    • ২০০৩- অপ্সরা ফিল্ম প্রডুসার গিল্ড এ্যাওয়ার্ড - শ্রেষ্ঠ পুরুষ নেপথ্য গায়ক - "কাল হো না হো" - কাল হো না হো
    • ২০০৫- সরালয়া ইয়েসুদাস এ্যাওয়ার্ড - সঙ্গীতে অসাধারণ অবদানের জন্য পুরষ্কার
    • ২০০৫- টিচার্স এ্যাসিভমেন্ট এ্যাওয়ার্ড
    • ২০০৬- মনোনীত - গ্লোবাল ইন্ডিয়ান ফিল্ম এ্যাওয়ার্ড - শ্রেষ্ঠ পুরুষ নেপথ্য গায়ক - "কাভি আলবিদা না কেহনা" - কাভি আলবিদা না কেহনা
    • ২০১০- জিমা (গ্লোবাল ইন্ডিয়াম মিউজিক এ্যাওয়ার্ড) - শ্রেষ্ঠ সরাসরি অনুষ্ঠান সম্পাদনকারী গায়ক (পুরুষ)
    • ২০১১- জিমা (গ্লোবাল ইন্ডিয়ান মিউজিক এ্যাওয়ার্ড) এমটিভি মিউজিক ইয়ুথ আইকন
    • ২০১২- বিজয়ী - স্যান্ডালউড স্টার এ্যাওয়ার্ড - শ্রেষ্ঠ পুরুষ নেপথ্য গায়ক (কন্নড) - "পরাভাষা নাদিনু" (পরামাথা চলচ্চিত্র) থেকে
    • ২০১৩ - বিজয়ী - মিরচি মিউজিক এ্যাওয়ার্ড - বছরের শ্রেষ্ঠ পুরুষ গায়ক - "আভি মুঝমে কাহি" - অগ্নিপথ
    • ২০১৩ - বিজয়ী - তইফা - বছরের শ্রেষ্ঠ পুরুষ গায়ক - "আভি মুঝমে কাহি" - অগ্নিপথ

চলচ্চিত্র[সম্পাদনা]

নিগম বিভিন্ন ছবিতে অভিনয় করেছেন।

ছবির নাম চরিত্র বছর
প্যায়ারে দুশমন টিকা সিং ১৯৮০
কামচর সোনু (রাকেশ রোশানের ভাগ্নে) ১৯৮২
উস্তাদ উস্তাদ সে রাজু (শিশু মিঠুন চক্রবর্তী) ১৯৮২
বেতাব সানি (শিশু সানি দেওল) ১৯৮৩
হাম সে জামানা শিভা (শিশু মিঠুন চক্রবর্তী) ১৯৮৩
তকদির (১৯৮৩ ছবি) শিবা (শিশু শত্রুঘ্ন সিনহা) ১৯৮৩
কৃষ্ণ কৃষ্ণ সুধামা ১৯৮৬
জানে দুশমন: এক আনোকি কাহানি বিবেক সাক্সিনা ২০০২
কাশ আপ হামারে হে জয় কুমার ২০০৩
লাভ ইন নেপাল অভি ২০০৪
নভ্রা মাঝা নাভাসা অতিথি ২০০৫

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ১.০ ১.১ "Sonu Nigam Biography"। সংগৃহীত ২০ জানুয়ারি ২০১২ 
  2. "It's Nigam, not Niigaam, Says Sonu"The Times of India। ৮ সেপ্টেম্বর ২০১০। সংগৃহীত ৩ এপ্রিল ২০১২ 
  3. http://articles.timesofindia.indiatimes.com/2013-03-03/news-and-interviews/37390250_1_sonu-nigam-mumbai-singer
  4. India Today: An Encyclopedia of Life in the Republic: An ..., Volume 1
  5. ৫.০ ৫.১ ৫.২ "Sonu Nigam"। সংগৃহীত ২৫ জুলাই ২০০৮ 
  6. "Sonu Niigaam goes Classically Mild"। সংগৃহীত ২৫ জুলাই ২০০৮ 
  7. "Sonu Niigaam pays homage to Mohd Rafi"। www.indiaglitz.com। সংগৃহীত ২৫ জুলাই ২০০৮ 
  8. "Big FM launches Sonu Niigaam single Punjabi Please"। সংগৃহীত ২৫ জুলাই ২০০৮ 
  9. "Michael Jackson Trubute portrait"। সংগৃহীত ১৫ নভেম্বর ২০১০ 
  10. "Sonu Nigam and Britney Spears to sing together"http://www.mid-day.com। সংগৃহীত ১৪ জুলাই ২০১২ 
  11. "Sonu Nigam's Tour to Germany"। সংগৃহীত ২৫ জুলাই ২০০৮ 
  12. http://www.indianexpress.com/news/top-singers-100-musicians-at-laxmikantpyarelal-concert/789055/
  13. "Sonu Nigam to launch English album"The Times Of India। সংগৃহীত ২৫ জুলাই ২০০৮ 
  14. "Time travel"। সংগৃহীত ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১০ 
  15. http://www.billboard.com/charts/2013-09-07/uncharted
  16. http://www.billboard.com/charts/2013-10-05/uncharted
  17. ১৭.০ ১৭.১ Rajini Vaidyanathan (৩০ মে ২০১১)। "Does India have the X factor?"BBC News। সংগৃহীত ২৯ আগস্ট ২০১১ 
  18. "INDIAN TELEVISION PREMIER OF DISNEY'S ALADDIN" 
  19. "Sonu Nigam"। সংগৃহীত ২৫ জুলাই ২০০৮ 
  20. Noyon Jyoti Parasara (৩ জুন ২০০৭)। "Sonu ready to play blind!"DNA। সংগৃহীত ২৯ আগস্ট ২০১১ 
  21. "Life Ki Dhun Sonu Niigaam"। সংগৃহীত ২৫ জুলাই ২০০৮ 
  22. "The Walt Disney Company"। Disney.in। ২০০৫-০২-২৩। সংগৃহীত ২০১২-০৭-১৪ 
  23. "Sonu Nigam weds city belle"The Times Of India। ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০০২। সংগৃহীত ২৫ জুলাই ২০০৮ 
  24. "Indian Singer Sonu Nigam becomes a father"। সংগৃহীত ২৫ জুলাই ২০০৮ 
  25. "I AM: Sonu Nigam"The Times Of India। ১১ নভেম্বর ২০০৭। সংগৃহীত ২৫ জুলাই ২০০৮ 
  26. "Awards @ Sonuniigaam.com" 
  27. "Sonu Nigam receiving Filmfare award for Ninnindale | Watch Latest Videos and Talk Shows, Listen Mp3 and Live Radio Channels"। Pakfiles.com। সংগৃহীত ২০১২-০৭-১৪ 
  28. http://timesofindia.indiatimes.com/entertainment/regional/kannada/news-interviews/Bangalore-Times-Film-Awards-2012-goes-to--/articleshow/21893862.cms
  29. "Anandalok Awards 2004"The Telegraph (Calcutta, India)। ২২ ডিসেম্বর ২০০৫। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]