বিভা সরফ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বিভা সরফ
Vibha Saraf.JPG
২০১৮ সালে বিভা সরফ গান পরিবেশন করছেন
প্রাথমিক তথ্য
উদ্ভবগায়ক, জম্মু ও কাশ্মীর, ভারত
ধরনকাশ্মীরি ফোক
পেশাগায়ক
গীতিকার
বাদ্যযন্ত্রসমূহগাওয়া
কার্যকাল২০১৭–বর্তমান

বিভা সরফ একজন ভারতীয় গায়ক-গীতিকার এবং বলিউড নেপথ্য সঙ্গীতশিল্পী। তিনি লোকসঙ্গীত পরিবেশন করেন এবং সাউন্ডট্র্যাকের জন্য মূলত কাশ্মীরি লোক-অনুপ্রাণিত গানের সুর ও সংগীত পরিবেশন করেন। ৬৪তম ফিল্মফেয়ার পুরস্কার অনুষ্ঠানে সেরা চলচ্চিত্রের পুরস্কার অর্জন করা ছবি রাজি এবং ২০১৯ সালে চতুর্থ সর্বোচ্চ আয় করা বলিউড চলচ্চিত্র গল্লি বয় এর জন্য তাঁর করা গান সাউন্ডট্র্যাকগুলিতে শোনানো হয়েছে। ২০১৯ সালে তিনি হর্ষদীপ কৌরের সাথে যৌথভাবে ৬৪তম ফিল্মফেয়ার পুরস্কারে শ্রেষ্ঠ মহিলা নেপথ্য সঙ্গীতশিল্পীর এবং ২০১৮ সালে নাটক/রোমাঞ্চকর নাটক বা গল্পের চলচ্চিত্র রাজি তে ‍দিলবার গানের জন্য ২০ তম আন্তর্জাতিক ভারতীয় চলচ্চিত্র অ্যাকাডেমি পুরস্কারে শ্রেষ্ঠ মহিলা নেপথ্য সঙ্গীতশিল্পী মনোনীত হন।

প্রারম্ভিক জীবন ও শিক্ষা[সম্পাদনা]

বিভা সরফ ভারতের জম্মু ও কাশ্মীরের শ্রীনগরের ফতেহ কাদল পাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন। সরফের বয়স তিন বছরের সময় ঐ অঞ্চল থেকে কাশ্মীরী পণ্ডিতদের অভিনিষ্ক্রমণের সময় তাঁর পরিবার নতুন ঠিকানা হিসেবে ভারতের নয়াদিল্লিতে চলে আসে।[১][২]

তিনি পাঁচ বছর পপ সংগীত অধ্যয়নের আগে চার বছর ধরে হিন্দুস্তানী শাস্ত্রীয় সংগীত অধ্যয়ন করে শ্রীরাম ভারতীয় কলা কেন্দ্রে ক্লাস নেওয়া শুরু করেন। সরফ পাঁচ বছর ব্যবস্থাপনা পরামর্শদাতা হিসাবে কাজ করার পর তা ছেড়ে দিয়ে সংগীতের দিকে ঝুঁকে পড়েন।[৩]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

২০১৩ সালে সংগীতে তাঁর কর্মজীবন অন্বেষণ করার জন্য সরফ মুম্বাই চলে যান।[২] এক বছর পর অরিজিৎ সিংয়ের সঙ্গে যৌথভাবে তিনি টিটু এমবিএ চলচ্চিত্রের জন্য "ও সোনিয়ে" গানটি প্রথম সাউন্ডট্র্যাকে রেকর্ড করেছিলেন। পরের বছর ২০১৫ সালে, তিনি গুঞ্জনভাই দ্য গ্রেট চলচ্চিত্রের জন্য অদ্বৈত নেমলেকারের সাথে "ফিলিং অবনবী" গানটি করেন।

তিনি ২০১৬ সালে তাঁর প্রথম একক অ্যালবাম "হারমোখ বার্তাল" প্রকাশ করেন। কাশ্মীরের সংস্কৃতি এবং সংগীতকে সকলের সামনে তুলে ধরার জন্য সরফ কাশ্মীরের একটি ভজন কে বেছে নিয়েছিলেন। সরফ গানটি ভাষান্তরিত করেন, এতে তাপস রিলিয়া সুর প্রদান করেন। অশ্বিন শ্রীনিবাসন এই গানের জন্য বাঁশি বাজিয়েছিলেন এবং অঙ্কুর মুখার্জি গিটার বাজিয়েছিলেন।[২][৩]

২০১৮ সালে, সরফ রাজি চলচ্চিত্রের জন্য "দিলবার" পরিবেশন করেন। গানটি লিখেছিলেন শঙ্কর-এহসান-লায় এবং এটি লিখতে তিনি কাশ্মীরি আঞ্চলিক বিবাহের গান "খানমোজ কুর" দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়েছিলেন।[১] ২০১৯ সালে তাঁর পরিবেশিত গানের জন্য তিনি আন্তর্জাতিক ভারতীয় চলচ্চিত্র একাডেমি পুরস্কারের জন্য মনোনীত হন।[৪]

২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারিতে সরফ রণবীর সিংয়ের সাথে একটি দ্বৈতসঙ্গীত "কব সে কব তক" প্রকাশ করেন।[১] সরফ ২০১৯ সালের গ্রীষ্মে প্রকাশিত মিশন মঙ্গল ছবির জন্য বেনী দয়ালের সাথে "দিল মেঁ মার্স হ্যায়" গানটি করেন।[৫] একই বছর রণবীর সিংয়ের সঙ্গে জুটি বেঁধে গল্লি বয় চলচ্চিত্রে "কব সে কব তক" দ্বৈতসংগীত পরিবেশন করেন।[৬]

সরফ নিউক্লেয়ার জন্য সংগীত রচনা করেছেন, তাঁর সাথে তিনি একটি বিমানবন্দরে গিগের (সংগীত) পর সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য সাক্ষাত করেছিলেন। দু'জনেই হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে সুর বিনিময় করেছিলেন এবং সরফ গানের কথা লিখেছিলেন। তিনি তারপর থেকে নিউক্লেয়ার জন্য দুটি গান লিখেছেন এবং একটি পরিবেশন করেছেন, এই "বেহকা" গানটি পরে হাই জ্যাক চলচ্চিত্রে ব্যবহৃত হয়েছিল।[৩]

সংগীতে প্রভাব[সম্পাদনা]

সরফের সংগীত কাশ্মীর, জম্মু ও লাদাখের ঐতিহ্যবাহী সংগীত দ্বারা প্রভাবিত। সরফ তাঁর দাদা-দাদী এবং মায়ের গাওয়া গান শুনে বেড়ে উঠেছেন, তাঁর মধ্যে কাশ্মীরি সংগীতকে "অবচেতনভাবে" ধারণ করেছেন।[১] তিনি চাইতেন আরও মানুষ গানের সুফিবাদ যেন বুঝতে পারে। হাব্বা খাতুন এবং লাল্লেশ্বরীর কবিতা সহ তিনি কাশ্মীরি সাহিত্য থেকেও অনুপ্রেরণা পান।[১]

২০১৯ সালে, দ্য হিন্দুকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে, সরফ কাশ্মীর-অনুপ্রাণিত লোক সংগীতকে বিস্তৃত শ্রোতৃমন্ডলীর সামনে নিয়ে আসা প্রসঙ্গে তাঁর আগ্রহকে বর্ণনা করেছিলেন। তিনি বলেছিলেন যে "আমাদের শিকড়কে ধারণ করা"টা দায়িত্ব হিসাবে "আমাদের প্রজন্মের উপর পড়ে"। সাক্ষাৎকারে পাঞ্জাবি সংগীত সংরক্ষণ এবং জনপ্রিয়তার জন্য তিনি প্রশংসা করেন।[১]

পুরস্কার[সম্পাদনা]

২০১৯ সালের ১৮ই সেপ্টেম্বর, বিভা সরফ ভারতের মুম্বাইয়ের অনুষ্ঠিত ২০ তম আইআইএফএ পুরস্কার অনুষ্ঠানে রাজি চলচ্চিত্রের দিলবার গানের জন্য শ্রেষ্ঠ মহিলা নেপথ্য সঙ্গীতশিল্পীর[৭] পুরস্কার লাভ করেন।

সরফ এবং হর্ষদীপ কৌর যৌথভাবে রাজি চলচ্চিত্রের দিলবার গানের জন্য ২০১৯ সালের রিল চলচ্চিত্র পুরস্কার অনুষ্ঠানে সেরা মহিলা নেপথ্য সঙ্গীতশিল্পীর[৮] পুরস্কার এবং একই গানের জন্য জি সিনে অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে শ্রেষ্ঠ নেপথ্য সঙ্গীতশিল্পী - মহিলা[৯] বিভাগে পুরস্কার জিতেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Akundi, Sweta (২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯)। "Kashmiri music has subconsciously always been in me, says 'Gully Boy' singer Vibha Saraf"The Hindu (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০১৯ 
  2. Chakraborty, Riddhi (১৬ মার্চ ২০১৬)। "Watch: Mumbai Singer Vibha Saraf's Captivating Tribute to Kashmir, 'Harmokh Bartal' -"My Site। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০১৯ 
  3. Saksena, Shalini। "'Want to carry forward traditions'"The Pioneer (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০১৯ 
  4. "IIFA 2019 nominations list out: Andhadhun bags 13 noms, Raazi and Padmaavat get 10 noms each"Hindustan Times (ইংরেজি ভাষায়)। ২৮ আগস্ট ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০১৯ 
  5. "Inspirational track 'Dil Mei Mars Hai' from 'Mission Mangal' is out!"Big News Network (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০১৯ 
  6. Chauhan, Guarang। "Gully Boy Music Review: A one of its kind blend of melodious songs and powerful raps"Times Now (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০১৯ 
  7. "IIFA 2019 full winners list: Alia Bhatt's Raazi wins big"India Today (ইংরেজি ভাষায়)। Ist। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-১৬ 
  8. "REEL Movie Awards 2019: Harshdeep Kaur and Vibha Saraf win Best Playback Singer Female for Dilbaro from Raazi"News18। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-১৬ 
  9. "Zee Cine Awards full winners list: Ranbir Kapoor and Deepika Padukone win big"India Today (ইংরেজি ভাষায়)। Ist। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-১৬