ক্লাইভ লয়েড

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ক্লাইভ লয়েড
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামক্লাইভ হুবার্ট লয়েড
জন্ম (১৯৪৪-০৮-৩১) ৩১ আগস্ট ১৯৪৪ (বয়স ৭৪)
কুইন্সটাউন, জর্জটাউন, ডেমেরারা, ব্রিটিশ গায়ানা
ডাকনামবিগ সি, হুবার্ট, সুপার ক্যাট
উচ্চতা৬ ফুট ৪ ইঞ্চি (১.৯৩ মিটার)
ব্যাটিংয়ের ধরনবামহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম
ভূমিকাব্যাটসম্যান, অধিনায়ক
সম্পর্কল্যান্স গিবস (কাকাতো ভাই)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ১২৫)
১৩ ডিসেম্বর ১৯৬৬ বনাম ভারত
শেষ টেস্ট৩০ ডিসেম্বর ১৯৮৪ বনাম অস্ট্রেলিয়া
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ )
৫ সেপ্টেম্বর ১৯৭৩ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ ওডিআই৬ মার্চ ১৯৮৫ বনাম পাকিস্তান
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৬৮–১৯৮৬ল্যাঙ্কাশায়ার
১৯৬৪–১৯৮৩গায়ানা/ব্রিটিশ গায়ানা
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ১১০ ৮৭ ৪৯০ ৩৭৮
রানের সংখ্যা ৭,৫১৫ ১,৯৭৭ ৩১,২৩২ ১০,৯১৫
ব্যাটিং গড় ৪৬.৬৭ ৩৯.৫৪ ৪৯.২৬ ৪০.২৭
১০০/৫০ ১৯/৩৯ ১/১১ ৭৯/১৭২ ১২/৬৯
সর্বোচ্চ রান ২৪২* ১০২ ২৪২* ১৩৪*
বল করেছে ১,৭১৬ ৩৫৮ ৯,৬৯৯ ২,৯২৬
উইকেট ১০ ১১৪ ৭১
বোলিং গড় ৬২.২০ ২৬.২৫ ৩৬.০০ ২৭.৫৭
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ২/১৩ ২/৪ ৪/৪৮ ৪/৩৩
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৯০/– ৩৯/– ৩৭৭/– ১৪৬/–
উৎস: ক্রিকেটআর্কাইভ, ১০ আগস্ট ২০১৬

ক্লাইভ লয়েড ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিখ্যাত ক্রিকেট খেলোয়াড়। সত্তুর ও আশির দশকের ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের দলনেতা ছিলেন। ১৯৭৫ এবং ১৯৭৯ সালে তার নেতৃত্বে ওয়েস্ট ইন্ডিজ পরপর দুবার বিশ্বকাপ জয় করে। বর্তমানে আইসিসি’র প্রতিনিধি হিসেবে আন্তর্জাতিক ম্যাচগুলোতে ম্যাচ রেফারির দায়িত্ব পালন করেন।

এছাড়াও ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটের ইতিহাসে অন্যতম সফল স্পিন বোলার ল্যান্স গিবস সম্পর্কে তাঁর কাকাতো ভাই। তাঁর সাথেও একত্রে অনেকবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে খেলেছেন তিনি।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]