আলভিন কালীচরণ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
আলভিন কালীচরণ
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম আলভিন আইজ্যাক কালীচরণ
জন্ম (১৯৪৯-০৩-২১) ২১ মার্চ ১৯৪৯ (বয়স ৬৮)
জর্জটাউন, ব্রিটিশ গায়ানা
ডাকনাম কালী
উচ্চতা ১.৬৪ মিটার (৫ ফুট ৫ ইঞ্চি)
ব্যাটিংয়ের ধরন বামহাতি
বোলিংয়ের ধরন ডানহাতি অফ-ব্রেক
ভূমিকা ব্যাটসম্যান
সম্পর্ক ডি. আই. কালীচরণ (ভাই), এম. ভি. নাগামুতু (ভাইপো)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ১৪৪)
৬ এপ্রিল ১৯৭২ বনাম নিউজিল্যান্ড
শেষ টেস্ট ৪ জানুয়ারি ১৯৮১ বনাম পাকিস্তান
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ )
৫ সেপ্টেম্বর ১৯৭৩ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ ওডিআই ৪ ফেব্রুয়ারি ১৯৮১ বনাম ইংল্যান্ড
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছর দল
১৯৬৭-১৯৮১ গায়ানা
১৯৭১-১৯৯০ ওয়ারউইকশায়ার
১৯৭২-১৯৭৪ বারবাইস
১৯৭৭-১৯৭৮ কুইন্সল্যান্ড
১৯৮১-১৯৮৪ ট্রান্সভাল
১৯৮৪-১৯৮৮ অরেঞ্জ ফ্রি স্টেট
১৯৮৪-১৯৮৭ ইম্পালাস
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ৬৬ ৩১ ৫০৫ ৩৮৩
রানের সংখ্যা ৪৩৯৯ ৮২৬ ৩২৬৫০ ১১৩৩৬
ব্যাটিং গড় ৪৪.৪৩ ৩৪.৪১ ৪৩.৬৪ ৩৪.৬৬
১০০/৫০ ১২/২১ ০/৬ ৮৭/১৬০ ১৫/৭১
সর্বোচ্চ রান ১৮৭ ৭৮ ২৪৩* ২০৬
বল করেছে ৪০৬ ১০৫ ৭১৩৩ ২২৯৪
উইকেট ৮৪ ৪২
বোলিং গড় ৩৯.৫০ ২১.৩৩ ৪৭.৯৭ ৪৩.৪০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট -
সেরা বোলিং ২/১৬ ২/১০ ৫/৪৫ ৬/৩২
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৫১/০ ৮/০ ৩২৩/- ৮৬/-
উৎস: ক্রিকইনফো, ৬ জুন ২০১৬

আলভিন আইজ্যাক কালীচরণ (ইংরেজি: Alvin Kallicharran; জন্ম: ২১ মার্চ, ১৯৪৯) ব্রিটিশ গায়ানার (বর্তমানে - গায়ানা) জর্জটাউনে জন্মগ্রহণকারী বিখ্যাত ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান ক্রিকেটারইন্দো-গায়ানা বংশোদ্ভূত আলভিন কালীচরণ ১৯৭২ থেকে ১৯৮১ সময়কালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দলের বিখ্যাত ব্যাটসম্যান হিসেবে পরিচিত ছিলেন। পাশাপাশি দলের অধিনায়কেরও দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। দৃষ্টিনন্দন ব্যাটিং ক্রীড়াশৈলী ও মার্জিত রুচির পরিচয় বহন করেছেন খেলার মাঠে। খেলায় তিনি মূলতঃ বামহাতি ব্যাটসম্যান হলেও প্রয়োজনমাফিক ডানহাতে অফ-স্পিন বোলিং করতেন।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

১৯৭৫ সালে প্রবর্তিত ক্রিকেট বিশ্বকাপে শিরোপা জয়ী ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন কালীচরণ। এছাড়াও ১৯৭৯ সালেও বিশ্বকাপ জয় করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল। ১৯৭৮-৭৯ মৌসুমে ভারত সফরে তিনি তাঁর সর্বোচ্চ ১৮৭ রান সংগ্রহ করেন ভারতের বিপক্ষে। ইংরেজ কাউন্টি ক্রিকেটে ওয়ারউইকশায়ার দলেই তিনি সর্বাধিক সফলতা প্রদর্শন করেছেন। ১৯৮৪ সালে ন্যাটওয়েস্ট ট্রফির একদিনের ক্রিকেট প্রতিযোগিতায় মাইনর কাউন্টি দল অক্সফোর্ডশায়ারের বিপক্ষে ২০৬ রানসহ ৩২ রানে ৬ উইকেট লাভ করেছিলেন।[১] ১৯৭৩ সালে তিনি উইজডেন কর্তৃক বর্ষসেরা ক্রিকেটারের মর্যাদায় অভিষিক্ত হন।

অন্যতম স্মরণীয় ইনিংস হিসেবে রয়েছে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১৫৮ রান সংগ্রহ করা। প্রথম দিনের শেষ বলে টনি গ্রেগ কর্তৃক রান আউট হবার পর বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন।[২] বিশ্ব সিরিজ ক্রিকেটে অংশ নিতে চাইলেও ব্যর্থ হন তিনি। ১৯৭৭-৭৮ মৌসুমে ক্যারি প্যাকার সংক্রান্ত বিষয়ে ক্লাইভ লয়েড অধিনায়ত্ব থেকে পদত্যাগ করলে তাঁকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়কের দায়িত্ব দেয়া হয়। পরবর্তীকালে দক্ষিণ আফ্রিকায় অনুষ্ঠিত বিদ্রোহী দলের অনানুষ্ঠানিক সফরে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

তাঁর ভাই ডেরেক গায়ানা দল ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট খেলেছেন। বর্তমানে তিনি ল্যাশিংস বিশ্ব একাদশ দলের ম্যানেজারের দায়িত্বে রয়েছেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছেন তিনি ও কোচিংয়ে জড়িত থেকে সেখানকার যুবকদেরকে ক্রিকেটে তালিম দিচ্ছেন। এছাড়াও, ইন্টারনেটভিত্তিক নেটওয়ার্ক ইউআইটিভি কানেক্টের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর মনোনীত হয়েছেন তিনি।[৩][৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Warwickshire v Oxfordshire at Birmingham, 4 Jul 1984"। Uk.cricinfo.com। সংগৃহীত ১৯ জানুয়ারি ২০১২ 
  2. Bateman, Colin (1993). If The Cap Fits. Tony Williams Publications. pp. 82–83. আইএসবিএন ১-৮৬৯৮৩৩-২১-X.
  3. [১]
  4. [২]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]


পূর্বসূরী
ক্লাইভ লয়েড
ওয়েস্ট ইন্ডিজ টেস্ট ক্রিকেট অধিনায়ক
১৯৭৭/৭৮-১৯৭৮/৭৯
উত্তরসূরী
ডেরেক মারে