আইসিসি বিশ্ব একাদশ টেস্ট ক্রিকেটারদের তালিকা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান

অত্র নিবন্ধটি আইসিসি বিশ্ব একাদশ টেস্ট ক্রিকেটারদের তালিকা সম্পর্কিত। টেস্ট খেলা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলা হিসেবে পরিচিত। এতে শীর্ষস্থানীয় ক্রিকেটভূক্ত দেশগুলো অংশগ্রহণ করে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল কর্তৃপক্ষ ছয়-দিনের সুপার টেস্ট আয়োজনের কথা ঘোষণা করেছিল। নির্দিষ্ট সময়ে আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপের পয়েন্ট তালিকায় শীর্ষস্থানীয় দলের বিপক্ষে পৃথিবীর বাদ-বাকী দেশগুলোর শীর্ষস্থানীয় ক্রিকেটারগণ খেলবেন। এ খেলাটি আনুষ্ঠানিকভাবে টেস্টের মর্যাদা দেয়ার কথাও ঘোষণা করা হয়।

প্রেক্ষাপট[সম্পাদনা]

১৪-১৯ অক্টোবর, ২০০৫ তারিখে খেলাটি অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এরপূর্বে তিনটি একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলাও অনুষ্ঠিত হয়। এতে আইসিসি একদিনের আন্তর্জাতিক চ্যাম্পিয়নশীপের পয়েন্ট তালিকায় শীর্ষস্থানীয় দলের বিপক্ষে বহিঃবিশ্ব একাদশ অংশগ্রহণ করে ও খেলাগুলো ওডিআই মর্যাদা পায়। সবগুলো খেলাই কোমল পানীয় কোম্পানি জনি ওয়াকারের সৌজন্যে অনুষ্ঠিত হয়। এরফলে এটি জনি ওয়াকার সুপার সিরিজ নামে পরিচিতি পায়। খেলাগুলো অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত হয়। একদিনের সিরিজসহ সুপার টেস্ট জয় করে অস্ট্রেলিয়া দল। কিন্তু টেস্টের পরিসংখ্যানে অন্তর্ভুক্তির বিষয়ে কিছু ক্রিকেট পরিসংখ্যানবিদের কাছে খেলাগুলোকে ঘিরে বিতর্কের সৃষ্টি হয়।

প্ররম্ভিকভাবে প্রতি চার বছর অন্তর সুপার সিরিজ আয়োজনের কথা বলা হয়। কিন্তু প্রথম টেস্ট আয়োজনের অল্পকিছুদিন পরই আইসিসি প্রধান নির্বাহী ম্যালকম স্পিড নিয়মিত আইসিসি আয়োজনের সূচীপত্র থেকে এ বিষয়টি বাদ দেন। তিনি বলেছেন যে, যখন ভবিষ্যতে প্রকৃত অর্থেই বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন দল নির্ধারিত হবে, কেবল তখনই এ ধরনের খেলা আয়োজন করা হবে।[১]

দল নির্বাচক[সম্পাদনা]

ঐ সময়ে আইসিসি’র টেস্ট ও একদিনের চ্যাম্পিয়নশীপের পয়েন্ট তালিকায় অস্ট্রেলিয়া দল শীর্ষস্থানে অবস্থান করছিল। এরফলে দলটি বহিঃবিশ্ব একাদশের বিপক্ষে খেলার যোগ্যতা লাভ করে।

বিশ্ব একাদশ গঠনকল্পে নির্বাচকমণ্ডলী একটি সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রণয়ন করে। দলে ১১জন টেস্ট খেলোয়াড়ের নাম ঘোষণা করা হয়। দল নির্বাচনে নিম্নবর্ণিত সদস্য ছিলেন:-

প্রারম্ভিকভাবে সংক্ষিপ্ত তালিকায় নিম্নবর্ণিত খেলোয়াড়গণের অন্তর্ভুক্তি ঘটানো হয়:- অ্যান্ড্রু ফ্লিনটফ (ইংল্যান্ড), স্টিভ হার্মিসন (ইংল্যান্ড), মাইকেল ভন (ইংল্যান্ড), রাহুল দ্রাবিড় (ভারত), বীরেন্দ্র শেওয়াগ (ভারত), শচীন তেন্ডুলকর (ভারত), অনিল কুম্বলে (ভারত), ব্রেন্ডন ম্যাককুলাম (নিউজিল্যান্ড), ড্যানিয়েল ভেট্টোরি (নিউজিল্যান্ড), শোয়েব আখতার (পাকিস্তান), ইনজামাম-উল-হক (পাকিস্তান), ইউনুস খান (পাকিস্তান), মার্ক বাউচার (দক্ষিণ আফ্রিকা), জ্যাক ক্যালিস (দক্ষিণ আফ্রিকা), মাখায়া এনটিনি (দক্ষিণ আফ্রিকা), শন পোলক (দক্ষিণ আফ্রিকা), গ্রেইম স্মিথ (দক্ষিণ আফ্রিকা), মুত্তিয়া মুরালিধরন (শ্রীলঙ্কা), ব্রায়ান লারা (ওয়েস্ট ইন্ডিজ), শিবনারায়ণ চন্দরপল (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)।

১৩জন ক্রিকেটার অস্ট্রেলিয়া সফরে যান। পরবর্তীতে দল নির্বাচকমণ্ডলীর সভাপতি সুনীল গাভাস্কার, দলের মনোনীত পরিচালক, কোচদলের অধিনায়কের সম্বন্বয়ে চূড়ান্ত একাদশ প্রকাশ করেন।

বিশ্ব একাদশের টেস্ট ক্রিকেটার[সম্পাদনা]

বিশ্ব একাদশের টেস্ট ক্রিকেটার ব্যাটিং বোলিং ফিল্ডিং
ক্যাপ নাম সাল খেলা অপঃ রান সর্বোচ্চ গড় বল মেইডেন রান উইঃ সেরা গড় কট স্টাম্প
মার্ক বাউচার ২০০৫ - ১৭ ১৭ ৮.৫০ - - - - - - -
রাহুল দ্রাবিড় ২০০৫ - ২৩ ২৩ ১১.৫০ - - - - - - -
অ্যান্ড্রু ফ্লিনটফ ২০০৫ - ৪১ ৩৫ ২০.৫০ ২০৪ ১০৭ ৪/৫৯ ১৫.২৯ - -
স্টিভ হার্মিসন ২০০৫ - ০.৫০ ১৮৩ ১০১ ৩/৪১ ২৫.২৫ - -
ইনজামাম-উল-হক ২০০৫ - ০.৫০ - - - - - - - -
জ্যাক ক্যালিস ২০০৫ ৮৩ ৪৪ ৮৩.০০ ৬০ ৫৮ ১/৩ ৫৮.০০ -
ব্রায়ান লারা ২০০৫ - ৫০ ৩৬ ২৫.০০ - - - - - - - -
মুত্তিয়া মুরালিধরন ২০০৫ - ১.০০ ৩২৪ ১৫৭ ৩/৫৫ ৩১.৪০ -
বীরেন্দ্র শেওয়াগ ২০০৫ - ৮৩ ৭৬ ৪১.৫০ - - - - - - -
১০ গ্রেইম স্মিথ ২০০৫ - ১২ ১২ ৬.০০ - - - - - - -
১১ ড্যানিয়েল ভেট্টোরি ২০০৫ ৮* ৮.০০ ১৬২ ১১১ ১/৭৩ ১১১.০০ - -

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. English, Peter (১৭ অক্টোবর ২০০৫)। "Super Series' future uncertain"। ESPNcricinfo। সংগৃহীত ২৫ আগস্ট ২০১৩ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]