মাইক গ্যাটিং

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মাইক গ্যাটিং
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামমাইকেল উইলিয়াম গ্যাটিং
জন্ম (1957-06-06) ৬ জুন ১৯৫৭ (বয়স ৬১)
কিংসবারি, লন্ডন, ইংল্যান্ড
ডাকনামগ্যাট, গ্যাটস, দ্য গ্রেট গ্যাটসবাই, গ্যাট-গান
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম
ভূমিকাব্যাটসম্যান
সম্পর্কজেএস গ্যাটিং (ভাইপো), স্টিভ গ্যাটিং (ভাই)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৪৭৭)
১৮ জানুয়ারি ১৯৭৮ বনাম পাকিস্তান
শেষ টেস্ট৭ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৫ বনাম অস্ট্রেলিয়া
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ৪৩)
২৩ ডিসেম্বর ১৯৭৭ বনাম পাকিস্তান
শেষ ওডিআই১২ জানুয়ারি ১৯৯৫ বনাম অস্ট্রেলিয়া এ
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৭৫-১৯৯৮মিডলসেক্স
১৯৭৮-১৯৮৭এমসিসি
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ৭৯ ৯২ ৫৫১ ৫৫১
রানের সংখ্যা ৪৪০৯ ২০৯৫ ৩৬৫৪৯ ১৪৪৭৬
ব্যাটিং গড় ৩৫.৫৫ ২৯.৫০ ৪৯.৫২ ৩৩.৭৪
১০০/৫০ ১০/২১ ১/৯ ৯৪/১৮১ ১২/৮৭
সর্বোচ্চ রান ২০৭ ১১৫* ২৫৮ ১৪৩*
বল করেছে ৭৫২ ৩৯২ ১০০৬১ ৬২৩৪
উইকেট ১০ ১৫৮ ১৭৫
বোলিং গড় ৭৯.২৫ ৩৩.৬০ ২৯.৭৬ ২৭.৫২
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ১/১৪ ৩/৩২ ৫/৩৪ ৬/২৬
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৫৯/– ২২/– ৪৯৩/– ১৭৭/–
উৎস: ক্রিকইনফো, ৬ জুলাই ২০১৭

মাইকেল মাইক উইলিয়াম গ্যাটিং, ওবিই (ইংরেজি: Mike Gatting; জন্ম: ৬ জুন, ১৯৫৭) লন্ডনের কিংসবারিতে জন্মগ্রহণকারী ইংল্যান্ডের সাবেক প্রথিতযশা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার[১] ১৯৭৭ থেকে ১৯৯৫ সাল পর্যন্ত ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। ১৯৮৬ থেকে ১৯৮৮ মেয়াদকালে ইংল্যান্ডের টেস্ট দলে নেতৃত্ব দেন। প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে মিডলসেক্সের পক্ষে ১৯৭৫ থেকে ১৯৯৮ সাল পর্যন্ত খেলেন ও ১৯৮৩ থেকে ১৯৯৭ পর্যন্ত অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও তিনি ১৯৯০ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় বিদ্রোহী দলের সফরে দলনেতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছিলেন। বর্তমানে তিনি ইসিবি’র ক্রিকেট অংশীদার বিভাগে পরিচালকের দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়াও মেরিলেবোন ক্রিকেট ক্লাবের প্রেসিডেন্ট হিসেবে ছিলেন মাইক গ্যাটিং[২]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

পেশাদারী ক্রিকেটে অংশগ্রহণের পূর্বে ওয়াটফোর্ড ইউনাইটেড দলের হয়ে ফুটবল খেলতেন। তবে, অধিকাংশ সময়েই তিনি সংরক্ষিত খেলোয়াড় ছিলেন।[৩] কুইন্স পার্ক রেঞ্জার্সের হয় অনুশীলনী খেলায় চৌদ্দ বছর বয়সী গোলরক্ষক হিসেবে গ্যাটিং বলেছিলেন যে, তিনি ছিলেন খুবই খাঁটো ও মোটা। পরবর্তীতে ক্রীড়া ভবিষ্যৎ জীবন গড়তে তিনি ক্রিকেটের দিকে ঝুঁকে পড়েন। এরফলে কুইন্স পার্ক রেঞ্জার্স দল ঐ দিনই ফিল পার্কস নামক একজন ফুটবলারকে দলে চুক্তিবদ্ধ করায়।[১]

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

ঘরোয়া ক্রিকেটে গ্যাটিং তাঁর সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে বেশ সফলকাম ছিলেন। কিন্তু ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলে খেলার জন্য তাঁকে বেশ কয়েক বছর সক্ষমতা যাচাই করতে হয়েছে। টেস্ট ক্রিকেটের ন্যায় উঁচু স্তরের ক্রিকেটে অবস্থান করে অর্ধ-শতক রানকে শতকে রূপান্তর করতে শুরুতে তাঁকে বেশ কষ্ট করতে হয়েছে। সেঞ্চুরি করার জন্য তাঁকে তাঁর ৫৪তম টেস্ট ইনিংস পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়।[১] তিনি সর্বসাকুল্যে ১০টি সেঞ্চুরি হাঁকান। মাদ্রাজের এম. এ. চিদাম্বরম স্টেডিয়ামে তিনি নিজস্ব সর্বোচ্চ ২০৭ রান করেন। এ দ্বি-শতক রানটি ছিল যে-কোন ইংরেজ ক্রিকেটারের ভারতের মাটিতে দ্বিতীয় ঘটনা। ঘটনাক্রমে একই ইনিংসে গ্রেইম ফাওলার ইংল্যান্ডের পক্ষে প্রথম দ্বি-শতক হাঁকিয়েছিলেন। ১৯৮৬-৮৭ মৌসুমে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে অ্যাশেজ সিরিজ বিজয়ী ইংল্যান্ড দলের অধিনায়ক ছিলেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Bateman, Colin (১৯৯৩)। If The Cap Fits। Tony Williams Publications। পৃষ্ঠা 74–75। আইএসবিএন 1-869833-21-X 
  2. "Gatting to be next MCC president"। Wisden India। ১ মে ২০১৩। ১২ জুলাই ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মার্চ ২০১৪ 
  3. Sundaysun.co.uk

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

ক্রীড়া অবস্থান
পূর্বসূরী
মাইক ব্রিয়ারলি
মিডলসেক্স কাউন্টি ক্রিকেট অধিনায়ক
১৯৮৩-১৯৯৭
উত্তরসূরী
মার্ক রামপ্রকাশ
পূর্বসূরী
ডেভিড গাওয়ার
ইংরেজ ক্রিকেট অধিনায়ক
১৯৮৬-১৯৮৮
উত্তরসূরী
জন এম্বুরি