অ্যালেক স্টুয়ার্ট

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
অ্যালেক স্টুয়ার্ট
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম অ্যালেক জেমস স্টুয়ার্ট
জন্ম (১৯৬৩-০৪-০৮) ৮ এপ্রিল ১৯৬৩ (বয়স ৫৪)
মার্টন পার্ক, ইংল্যান্ড
ডাকনাম দ্য গফার
উচ্চতা ৫ ফুট ১০ ইঞ্চি (১.৭৮ মিটার)
ব্যাটিংয়ের ধরন ডানহাতি
বোলিংয়ের ধরন মাঝে-মধ্যে ডানহাতি মিডিয়াম
ভূমিকা উইকেট-রক্ষক, অধিনায়ক
সম্পর্ক এমজে স্টুয়ার্ট (বাবা)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৫৪৩)
২৪ ফেব্রুয়ারি ১৯৯০ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
শেষ টেস্ট ৮ সেপ্টেম্বর ২০০৩ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১০৪)
১৫ অক্টোবর ১৯৮৯ বনাম শ্রীলঙ্কা
শেষ ওডিআই ২ মার্চ ২০০৩ বনাম অস্ট্রেলিয়া
ওডিআই শার্ট নং
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছর দল
১৯৮১-২০০৩ সারে
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ১৩৩ ১৭০ ৪৪৭ ৫০৪
রানের সংখ্যা ৮৪৬৩ ৪৬৭৭ ২৬১৬৫ ১৪৭৭১
ব্যাটিং গড় ৩৯.৫৪ ৩১.৬০ ৪০.০৬ ৩৫.০৮
১০০/৫০ ১৫/৪৫ ৪/২৮ ৪৮/১৪৮ ১৯/৯৪
সর্বোচ্চ রান ১৯০ ১১৬ ২৭১* ১৬৭*
বল করেছে ২০ ৫০২
উইকেট
বোলিং গড় ১৪৮.৬৬
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ১/৭
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ২৬৩/১৪ ১৫৯/১৫ ৭২১/৩২ ৪৪২/৪৮
উৎস: ক্রিকইনফো, ১৯ মার্চ ২০১৭

অ্যালেক জেমস স্টুয়ার্ট, ওবিই (ইংরেজি: Alec Stewart; জন্ম: ৮ এপ্রিল, ১৯৬৩) মার্টন পার্ক এলাকায় জন্মগ্রহণকারী ইংল্যান্ডের সাবেক ক্রিকেটারইংল্যান্ড ক্রিকেট দলে ডানহাতি ব্যাটসম্যান ও উইকেট-রক্ষক ছিলেন। এছাড়াও তিনি দলের অধিনায়কত্ব করেন। অ্যালেক স্টুয়ার্ট ইংল্যান্ড দলে সর্বাধিকসংখ্যক টেস্ট খেলায় অংশগ্রহণের গৌরব অর্জন করেন।[১] কাউন্টি ক্রিকেটে সারে দলে প্রতিনিধিত্ব করেন তিনি।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

ইংল্যান্ডের সাবেক টেস্ট ক্রিকেটার মিকি স্টুয়ার্টের কনিষ্ঠ সন্তান অ্যালেক স্টুয়ার্ট টেমস নদীর উপকূলে অবস্থিত কিংসটনের টিফিন স্কুলে অধ্যয়ন করেন।[২] ১৯৮১ সালে কাউন্টি ক্রিকেটে সারে দলের পক্ষে অভিষেক ঘটে তাঁর। আক্রমণাত্মক ভঙ্গীমার অধিকারী স্টুয়ার্ট ব্যাটিং উদ্বোধনে নামতেন ও মাঝে-মধ্যে উইকেট-রক্ষকের দায়িত্ব পালন করেন।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

১৯৮৯-৯০ মৌসুমে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে অনুষ্ঠিত প্রথম টেস্টের মাধ্যমে তাঁর টেস্ট অভিষেক ঘটে। নাসের হুসেনও তাঁর সাথে অভিষিক্ত হয়েছিলেন। পরবর্তীকালে অ্যালেক স্টুয়ার্টের কাছ থেকেই অধিনায়কের দায়িত্বভার পান নাসের।

খেলোয়াড়ী জীবনের শুরুতে ইংল্যান্ডের বিশেষজ্ঞ উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে দায়িত্ব পান। তিনি নিয়মিত উইকেট-রক্ষক জ্যাক রাসেলের স্থলাভিষিক্ত হন। কিন্তু দলের ভারসাম্য রক্ষার্থে রাসেলকে প্রায়শঃই দলের বাইরে থাকতে হতো। ফলে ১৯৯৮ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে রাসেল অবসর নিলে তিনিই দলে স্থায়ীভাবে অবস্থান করেন।

৪ জুন, ১৯৯২ তারিখে এজবাস্টনে অনুষ্ঠিত ড্র হওয়া প্রথম টেস্টে সফরকারী পাকিস্তানের বিপক্ষে সর্বোচ্চ ১৯০ রান সংগ্রহ করেন। এ সেঞ্চুরিটি ছিল পাঁচ টেস্টের মধ্যে চতুর্থ সেঞ্চুরি। ১৯৯৪ সালে কেনসিংটন ওভালে সপ্তম ইংরেজ ক্রিকেটার হিসেবে টেস্টের উভয় ইনিংসে সেঞ্চুরি করার কৃতিত্ব অর্জন করেন। ১১৮ ও ১৪৩ রান করায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল ১৯৩৫ সালের পর এ মাঠে প্রথমবারের মতো পরাজিত হয়।[৩]

অধিনায়কত্ব[সম্পাদনা]

অধিনায়ক গ্রাহাম গুচের সহকারী হিসেবে ভারতশ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ১৯৯৩ সালে চার টেস্টে নেতৃত্ব দেন। পরবর্তীতে গুচ অবসর নিলে মাইক অ্যাথারটনকে তাঁর স্থলে দলের দায়িত্বভার দেয়া হয়।

১৯৯৮ সালে অ্যাথারটন পদত্যাগ করলে অবশ্যম্ভাবী হিসেবে স্টুয়ার্টকে অধিনায়ক মনোনীত করা হয়। ৩৫ বছর বয়সে দলের অধিনায়কত্ব লাভকারী স্টুয়ার্টের অধিনায়কের মেয়াদকাল ছিল মাত্র ১২ মাস।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

ক্রীড়া অবস্থান
পূর্বসূরী

গ্রাহাম গুচ
মাইকেল অ্যাথারটন
ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের অধিনায়ক
(ভারপ্রাপ্ত ১৯৯৩)
১৯৯৮-১৯৯৯
উত্তরসূরী

গ্রাহাম গুচ
নাসের হুসেন
পূর্বসূরী
ইয়ান গ্রেগ
সারে দলের অধিনায়ক
১৯৯২-১৯৯৭
উত্তরসূরী
অ্যাডাম হলিউক