মাইক ব্রিয়ারলি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মাইক ব্রিয়ারলি
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামজন মাইকেল ব্রিয়ারলি
জন্ম (১৯৪২-০৪-২৮) ২৮ এপ্রিল ১৯৪২ (বয়স ৭৬)
হ্যারো, মিডলসেক্স, ইংল্যান্ড, যুক্তরাজ্য
ডাকনামব্রিয়ার্স, স্ক্যাগ
উচ্চতা৫ ফুট ১১ ইঞ্চি (১.৮০ মিটার)
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৪৬৫)
৩ জুন ১৯৭৬ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
শেষ টেস্ট২৭ আগস্ট ১৯৮১ বনাম অস্ট্রেলিয়া
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ৩৮)
২ জুন ১৯৭৭ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ ওডিআই২২ জানুয়ারি ১৯৮০ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৬১-১৯৮৩মিডলসেক্স
১৯৬১-১৯৬৮কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ৩৯ ২৫ ৪৫৫ ২৭২
রানের সংখ্যা ১৪৪২ ৫১০ ২৫১৮৬ ৬১৩৫
ব্যাটিং গড় ২২.৮৮ ২৪.২৮ ৩৭.৮১ ২৬.৪৪
১০০/৫০ ০/৯ ০/৩ ৪৫/১৩৪ ৩/৩৭
সর্বোচ্চ রান ৯১ ৭৮ ৩১২* ১২৪*
বল করেছে ৩১৫ ৪৮
উইকেট
বোলিং গড় ৬৪.০০ ১৫.০০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ১/৬ ২/৩
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৫২/– ১২/– ৪১৮/১২ ১১১/–
উৎস: ক্রিকইনফো, ৮ আগস্ট ২০১৭

জন মাইকেল "মাইক" ব্রিয়ারলি, ওবিই (ইংরেজি: Mike Brearley; জন্ম: ২৮ এপ্রিল, ১৯৪২) মিডলসেক্সের হ্যারো এলাকায় জন্মগ্রহণকারী সাবেক ইংরেজ ক্রিকেটারইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের হয়ে টেস্টএকদিনের আন্তর্জাতিকে খেলেছেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটিং করতেন ও দলের প্রয়োজনে ডানহাতে মিডিয়াম বোলিংয়ে পারদর্শী ছিলেন। এছাড়াও, মাইক ব্রিয়ারলি প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটার হিসেবে ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়, মিডলসেক্স ও ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের অধিনায়কত্ব করেছেন। মেরিলেবোন ক্রিকেট ক্লাবের সভাপতিরও দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

ব্রিয়ারলি সিটি অব লন্ডন স্কুলে অধ্যয়ন করেন। সেখানে তাঁর বাবা ও প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটার হোরেস শিক্ষক ছিলেন। কেমব্রিজের সেন্ট জন’স কলেজে অধ্যয়নকালীন ক্রিকেটের প্রতি তাঁর ব্যাপক আসক্তি জন্মে। তখন তিনি উইকেট-রক্ষক/ব্যাটসম্যান হিসেবে মাঠেন নামতেন। উইকেট-রক্ষক হিসেবে তিনি প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষিক্ত হন ও ৭৬ রান করেন।[১] ১৯৬১ থেকে ১৯৬৮ সাল পর্যন্ত কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় ক্রিকেট ক্লাবে খেলেন। তন্মধ্যে ১৯৬৪ থেকে দলের অধিনায়ক ছিলেন তিনি। কেমব্রিজে থাকাকালীনই এমসিসি’র সদস্য হিসেবে ১৯৬৪-৬৫ মৌসুমে দক্ষিণ আফ্রিকা সফর করেন। ১৯৬৬-৬৭ মৌসুমে এমসিসি অনূর্ধ্ব-২৫ দলের হয়ে পাকিস্তান সফরে দলের নেতৃত্ব দেন। সেখানে তিনি উত্তর অঞ্চলের বিপক্ষে ৩১২* রানে অপরাজিত ছিলেন যা তাঁর প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রান।[২] এছাড়াও তিনি পাকিস্তান অনূর্ধ্ব-২৫ দলের বিপক্ষে ২২৩ রান সংগ্রহ করেছিলেন।[৩] ছয় খেলায় ১৩২.০০ রান গড়ে ৭৯৩ সংগ্রহের মাধ্যমে সফর শেষ করেন ব্রিয়ারলি।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের হয়ে ৩৯টি টেস্টে অংশগ্রহণ করেন। তন্মধ্যে ৩১ টেস্টেই অধিনায়ক ছিলেন ব্রিয়ারলি। জয়ের পরিসংখ্যান - ১৭ জয় ও ৪টিতে পরাজয়।

অবসর পরবর্তী সময়ে ২০০৭-০৮ মৌসুমে মেরিলেবোন ক্রিকেট ক্লাব (এমসিসি)’র সভাপতি ছিলেন তিনি। পেশাদার ক্রিকেট থেকে অবসর নেয়ার পর তিনি ক্রীড়া লেখক হন ও মনোবিদ হিসেবে কাজ করছেন। ২০০৮-১০ মেয়াদে তিনি ব্রিটিশ সাইকোএনালাইটিক্যাল সোসাইটিরও সভাপতিত্ব করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]


ক্রীড়া অবস্থান
পূর্বসূরী
টনি গ্রেগ

ইয়ান বোথাম
ইংরেজ ক্রিকেট অধিনায়ক
১৯৭৭-১৯৮০
(১৯৭৭-৭৮ জিওফ্রে বয়কট সহকারী)
১৯৮১
উত্তরসূরী
ইয়ান বোথাম

কিথ ফ্লেচার
পূর্বসূরী
পিটার পারফিট
মিডলসেক্স কাউন্টি ক্রিকেট অধিনায়ক
১৯৭১-১৯৮২
উত্তরসূরী
মাইক গ্যাটিং
পূর্বসূরী
ডগ ইনসোল
মেরিলেবোন ক্রিকেট ক্লাবের সভাপতি
২০০৭-২০০৮
উত্তরসূরী
ডেরেক আন্ডারউড