ইয়ান গোল্ড

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ইয়ান গোল্ড
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামইয়ান জেমস গোল্ড
জন্ম (১৯৫৭-০৮-১৯) ১৯ আগস্ট ১৯৫৭ (বয়স ৬১)
ট্যাপলো, বাকিংহ্যামশায়ার, ইংল্যান্ড
ডাকনামগানার
ব্যাটিংয়ের ধরনবামহাতি
ভূমিকাউইকেট-রক্ষক, আম্পায়ার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ৬৯)
১৫ জানুয়ারি ১৯৮৩ বনাম নিউজিল্যান্ড
শেষ ওডিআই২২ জুন ১৯৮৩ বনাম ভারত
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৭৫-১৯৮০, ১৯৯৬মিডলসেক্স
১৯৮১-১৯৯০সাসেক্স
১৯৮০অকল্যান্ড
আম্পায়ারিং তথ্য
টেস্ট আম্পায়ার৫৩ (২০০৮–বর্তমান)
ওডিআই আম্পায়ার১১৪ (২০০৬–বর্তমান)
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ১৮ ২৯৮ ৩১৫
রানের সংখ্যা ১৫৫ ৮৭৫৬ ৪৩৭৭
ব্যাটিং গড় ১২.৯১ ২৬.০৫ ১৯.১১
১০০/৫০ ০/০ ৪/৪৭ ০/২০
সর্বোচ্চ রান ৪২ ১২৮ ৮৮
বল করেছে ৪৭৮ ২০
উইকেট
বোলিং গড় ৫২.১৪ ১৬.০০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ৩/১০ ১/০
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১৫/৩ ৫৩৬/৬৭ ২৪২/৩৭
উৎস: ক্রিকইনফো, ২৭ আগস্ট ২০১৬

ইয়ান জেমস গোল্ড (ইংরেজি: Ian James Gould; জন্ম: ১৯ আগস্ট, ১৯৫৭) বাকিংহ্যামশায়ারের ট্যাপলো এলাকায় জন্মগ্রহণকারী সাবেক ইংরেজ ক্রিকেটার। বর্তমানে ইয়ান গোল্ড আইসিসি’র সেরা আম্পায়ার তালিকায় অন্যতম ক্রিকেট আম্পায়ার হিসেবে খেলা পরিচালনা করছেন। এছাড়াও পূর্বে তিনি ইংল্যান্ডের বার্নহ্যাম ফুটবল ক্লাবের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

বামহাতি ব্যাটসম্যানরূপে মিডলসেক্স, সাসেক্স এবং অকল্যান্ডের পক্ষ হয়ে উইকেট-রক্ষকের দায়িত্ব পালন করেন। তন্মধ্যে, ১৯৮৭ সালে সাসেক্স দলের অধিনায়ক ছিলেন গোল্ড। এছাড়াও, ১৯৭৫-১৯৮০ এবং ১৯৯৬ সালে মিডলসেক্সের ক্রিকেটার এবং একই দলে ১৯৯১-২০০০ সাল পর্যন্ত কাউন্টি ক্রিকেট কোচের ভূমিকায়ও ছিলেন তিনি। ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের পক্ষ হয়ে ১৮টি একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেছেন। তন্মধ্যে ১৯৮৩ সালের বিশ্বকাপ ক্রিকেটেও অংশ নিয়েছেন তিনি।

পুত্র মাইকেল গোল্ড সাসেক্সের দ্বিতীয় একাদশে ক্রিকেট খেলছেন।

আম্পায়ারিত্ব[সম্পাদনা]

২০০৭ সালে ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপ ক্রিকেটের ৩টি খেলায় আম্পায়ারের দায়িত্ব পালন করেন ইয়ান গোল্ড। ১৯-২২ নভেম্বর, ২০০৮ তারিখে ব্লুমফনটেইনের স্প্রিংবক পার্কে অনুষ্ঠিত দক্ষিণ আফ্রিকা বনাম বাংলাদেশের মধ্যকার প্রথম টেস্টে আম্পায়ার হিসেবে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষিক্ত হন। এরপর ২০০৯ সালে আইসিসি’র সেরা আম্পায়ার তালিকায় উত্তোরণ ঘটে তাঁর।[১]

২০১৫ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপ প্রতিযোগিতায় খেলা পরিচালনার জন্য ২০জন আম্পায়ারের একজন হিসেবে মনোনীত হন তিনি।[২] তন্মধ্যে অস্ট্রেলিয়া-শ্রীলঙ্কার মধ্যকার গ্রুপ পর্বের খেলা পরিচালনার মধ্য দিয়ে আম্পায়ার হিসেবে তিনি তাঁর শততম একদিনের আন্তর্জাতিকের খেলা পরিচালনা করেন।[৩]

আম্পায়ার পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

২৭ আগস্ট, ২০১৬ তারিখ অনুযায়ী ইয়ান গোল্ড খেলা পরিচালনা করেন:

প্রথম সর্বশেষ মোট
টেস্ট  দক্ষিণ আফ্রিকা বাংলাদেশ, ব্লুমফন্তেইন, নভেম্বর, ২০০৮  দক্ষিণ আফ্রিকা নিউজিল্যান্ড, সেঞ্চুরিয়ন, আগস্ট, ২০১৬ ৫৩
ওডিআই  ইংল্যান্ড শ্রীলঙ্কা, দি ওভাল, জুন, ২০০৬  জিম্বাবুয়ে ভারত, হারারে, জুন, ২০১৬ ১১৪
টি২০আই  ইংল্যান্ড শ্রীলঙ্কা, সাউদাম্পটন, জানুয়ারি, ২০০৬  ভারত ওয়েস্ট ইন্ডিজ, মুম্বই, মার্চ, ২০১৬ ৩৭

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Gould and Hill join ICC Elite
  2. "ICC announces match officials for ICC Cricket World Cup 2015"। ICC Cricket। ২ ডিসেম্বর ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 
  3. "Ian Gould officiates his 100th ODI in Australia-Sri Lanka match in ICC Cricket World Cup 2015"। Cricket Country। ৮ মার্চ ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৮ মার্চ ২০১৫ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

ক্রীড়া অবস্থান
পূর্বসূরী
জন বার্কলে
সাসেক্স কাউন্টি ক্রিকেট অধিনায়ক
১৯৮৭
উত্তরসূরী
পল পার্কার