বোল্লা কালীমন্দির

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বোল্লা‌ কালী মন্দির

বোল্লা মা কালী দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার একটি বিখ্যাত কালী মন্দির ।বালুরঘাট-মালদা মহাসড়কের বালুরঘাট শহর থেকে ২০ কিলোমিটার দূরে বোল্লা গ্রামে অবস্থিত।[১]

ইতিকথা[সম্পাদনা]

৪০০ বছর আগে এলাকার জমিদার ছিলেন বল্লভ চৌধুরি। তাঁর নাম অনুসারেই এলাকার নাম হয়েছে বোল্লা। সেসময় এক মহিলা স্বপ্নাদেশে একটি কালো পাথরখণ্ড কুড়িয়ে পেয়ে সেটিকে প্রথম মাতৃরূপে পুজো শুরু করেছিলেন। এরপর জমিদার মুরারী মোহন চৌধুরি ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির সঙ্গে মামলায় জড়িয়ে যান।তারপর তিনি বোল্লা মায়ের কাছে মানত করে মামলায় জয় লাভ করেন। দেবী কালি তার উদ্ধারের জন্য এসেছিলেন এবং পরবর্তী দিনই জমিদার মুক্তি পেয়েছিলেন। কৃতজ্ঞতার প্রতীক হিসাবে তিনি দেবী কালির একটি মন্দির নির্মাণ করেছিলেন ।সেই বছর থেকে রাস পূর্ণিমার পরের শুক্রবার ঘটা করে পুজোর আয়োজন শুরু হয়।[২]

পুজা ও মেলা[সম্পাদনা]

বোল্লা‌ কালী মা

রাস পূর্ণিমার পর দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বোল্লা কালীপুজো অনুষ্ঠিত হয়।পশ্চিমবঙ্গ সহ বিভিন্ন রাজ্য এমনকি বাংলাদেশ থেকেও বহু দর্শনার্থী এই পুজোয় অংশ নেন। সেইসঙ্গে চারদিন ব্যাপী বিরাট মেলাও বসে। উত্তরবঙ্গের দ্বিতীয় বৃহত্তম মেলা হল বোল্লা মেলা। মা কালীর পুজোকে কেন্দ্র করে এই মেলা হলেও এতে হিন্দুদের পাশাপাশি মুসলিম ও অন্যান্য সম্প্রদায়ের মানুষও অংশগ্রহণ করে। চারদিনের এই মেলায় ১০ লক্ষেরও বেশি মানুষের সামগম হয়। দিল্লি, মুম্বই এমনকী বিদেশ থেকেও পূণ্যার্থীরা পুজো দিতে মন্দিরে ভিড় জমান। প্রতিবার পুজোর রাতে ৬০০০’র বেশি পাঁঠা বলি হয়। অন্যদিকে, প্রায় শতাধিক ছোট-বড় মানতের কালীর পুজো হয় মণ্ডপ চত্বরে। [৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "আনন্দবাজার পত্রিকা - উত্তরবঙ্গ"archives.anandabazar.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-০৭ 
  2. "BOLLA KALI TEMPLE - WEST BENGAL TOURISM"wbtourismgov.in। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-২৪ 
  3. "ঐতিহ্যবাহী বোল্লা মেলায় উপচে পড়ল ভিড়, সারারাত ধরে চলল পুজো"bartamanpatrika.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-২৪