তারকেশ্বর, পশ্চিমবঙ্গ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(তারকেশ্বর থেকে পুনর্নির্দেশিত)
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
তারকেশ্বর, পশ্চিমবঙ্গ
তারকেশ্বর
স্থানাঙ্ক: ২২°৫৩′উত্তর ৮৮°০১′পূর্ব / ২২.৮৯° উত্তর ৮৮.০২° পূর্ব / 22.89; 88.02
জনসংখ্যা (2001)
 • মোট ২৮,১৭৮

তারকেশ্বর পশ্চিমবঙ্গের হুগলি জেলার একটি পৌরশহর। এটি উক্ত জেলার আরামবাগ মহকুমার একটি থানাও বটে।[১] তারকেশ্বর একটি প্রসিদ্ধ হিন্দু তীর্থক্ষেত্র। রাজ্যের সর্বাপেক্ষা গুরুত্বপূর্ণ শিবমন্দিরটি এই শহরেই অবস্থিত। এই শহর রাজ্যের রাজধানী কলকাতার থেকে ৫৮ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত।

ভূগোল[সম্পাদনা]

শহরটির অবস্থানের অক্ষাংশ ও দ্রাঘিমাংশ হল ২২°৫৩′উত্তর ৮৮°০১′পূর্ব / ২২.৮৯° উত্তর ৮৮.০২° পূর্ব / 22.89; 88.02[২] সমূদ্র সমতল হতে এর গড় উচ্চতা হল ১৮ মিটার (৫৯ ফুট)।

জনপরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

ভারতের ২০০১ সালের আদমশুমারি অনুসারে তারকেশ্বর শহরের জনসংখ্যা হল ২৮,১৭৮ জন। এর মধ্যে পুরুষ ৫৩%, এবং নারী ৪৭%। এখানে সাক্ষরতার হার ৭২%, । পুরুষদের মধ্যে সাক্ষরতার হার ৭৮%, এবং নারীদের মধ্যে এই হার ৬৬%। সারা ভারতের সাক্ষরতার হার ৫৯.৫%, তার চাইতে তারকেশ্বর এর সাক্ষরতার হার বেশি। এই শহরের জনসংখ্যার ১০% হল ৬ বছর বা তার কম বয়সী।[৩]

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

তারকেশ্বর কৃষিতে বেশ উন্নত। এই শহরে একাধিক হিমঘর রয়েছে। আলু ও লংকা এখানকার প্রধান ফসল। [৪]

তারকেশ্বর মন্দির[সম্পাদনা]

তারকেশ্বর শিবের মন্দির এই শহরের প্রধান পর্যটক আকর্ষণ। মন্দিরটি বাংলা আটচালা শৈলীর মন্দির। মন্দিরের সামনে একটি নাটমন্দির অবস্থিত। অদূরেই কালীলক্ষ্মী-নারায়ণের দুটি মন্দির রয়েছে। মন্দিরের উত্তরে অবস্থিত পুকুরটির নাম দুধপুকুর। লোকবিশ্বাস অনুযায়ী, এই পুকুরে স্নান করলে মনস্কামনা পূর্ণ হয়।

সারাবছরই তারকেশ্বর মন্দিরে পূণ্যার্থীদের ভিড় লেগে থাকে। প্রতি সোমবার ও শ্রাবন মাসে শ্রাবনী মেলাতে প্রচুর জনসমাগম হয়। এছাড়া ফাল্গুন মাসে শিবরাত্রি ও চৈত্র-সংক্রান্তিতে গাজন উৎসবেও বহু মানুষ আসেন। সমগ্র শ্রাবণ মাস জুড়ে প্রতি সোমবার শিবের বিশেষ পূজা হয়ে থাকে।

তারকেশ্বর থেকে ছয় কিলোমিটার দূরে একটি বৌদ্ধ মন্দির। এই স্থানটির নাম দেউলপাড়া। এটি হুগলি জেলার একমাত্র বৌদ্ধ মন্দির।

পরিবহণ[সম্পাদনা]

হাওড়া-তারকেশ্বর লাইনে রেলযোগাযোগ স্থাপিত হয় ১৮৮৫ সালে।[৫] এই রেলপথে তারকেশ্বর রেলওয়ে স্টেশনটি কলকাতা আন্তঃনগরীয় রেল ব্যবস্থার অঙ্গ। অতীতে তারকেশ্বরে বেঙ্গল প্রভিনশিয়াল রেলওয়ের একটি প্রান্তিক স্টেশন ছিল।

যোগাযোগ[সম্পাদনা]

চাঁপাডাঙা এলাকা এক্সচেঞ্জের কোড ০৩২১২ বেগমপুর, ভগবতীপুর, চাঁপাডাঙা, চণ্ডীতলা, ডিহি-বাদপুর, দ্বারহট্ট, একসারা, গোপীনগর, হরিপাল, হরিণখোলা, জাঙ্গিপাড়া,সন্তোষপুর, নছিপুর, জিনপুর, মশাট, নলিপুর, রাজবলহাট, শ্যামপুর ও তারকেশ্বরের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য।[৬]

রাজনীতি[সম্পাদনা]

তারকেশ্বর বিধানসভা কেন্দ্রের বর্তমান বিধায়ক হলেন প্রতীম চট্টোপাধ্যায়। তিনি ২০০৬ ও ২০০১ সালে এই কেন্দ্র থেকে নির্দল প্রার্থী হিসেবে এবং ১৯৯৬ সালে সিপিআইএম প্রার্থী হিসেবে এই কেন্দ্র থেকে জয়ী হন। ১৯৯১ ও ১৯৮৭ সালে নির্দল প্রার্থী শান্তি চট্টোপাধ্যায় এবং ১৯৮২ ও ১৯৭৭ সালে নির্দল প্রার্থী রাম চট্টোপাধ্যায় এখান থেকে নির্বাচিত হয়েছিলেন।[৭]

তারকেশ্বর বিধানসভা কেন্দ্রটি আরামবাগ লোকসভা কেন্দ্রের অংশ।[৮]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. District-wise list of statutory towns
  2. "Tarakeswar"Falling Rain Genomics, Inc (ইংরেজি ভাষায়)। সংগৃহীত অক্টোবর ১৫, ২০০৬ 
  3. "ভারতের ২০০১ সালের জনগণনা" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগৃহীত অক্টোবর ১৫, ২০০৬ 
  4. "List of functioning Cold Storage of West Bengal District wise as on 18.01.07" (ইংরেজি ভাষায়)। West Bengal State Marketing Board। সংগৃহীত ২০০৯-০১-২৮ 
  5. Chaudhuri, Sukanta, The Railway Comes to Calcutta, in Calcutta, the Living City, Vol. I, edited by Sukanta Chaudhuri, p. 239, Oxford University Press, আইএসবিএন ৯৭৮-০-১৯-৫৬৩৬৯৬-৩.
  6. "Adjacent Area Dialling Schemes" (ইংরেজি ভাষায়)। BSNL। সংগৃহীত ২০০৯-০১-২৯ 
  7. "State Elections 2006 - Partywise Comparision for 185-Tarakeswar Constituency of West Bengal" (ইংরেজি ভাষায়)। Election Commission of India। সংগৃহীত ২০০৮-১০-২১ 
  8. "Assembly Constituencies - Corresponding Districts and Parliamentary Constituencies" (PDF)। West Bengal (ইংরেজি ভাষায়)। Election Commission of India। সংগৃহীত ২০০৮-১০-০১ 

টেমপ্লেট:Hooghly District