ফিরিঙ্গি কালীবাড়ি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ফিরিঙ্গি কালীবাড়ি
Kolkata Bowbazar 2.jpg
নাম
পরিপূর্ণ নামশ্রীশ্রীসিদ্ধেশ্বরী কালীমন্দির
(ফিরিঙ্গি কালীবাড়ি)
ভূগোল
অবস্থান২৪৪, বিপিন বিহারী গাঙ্গুলি স্ট্রিট, বউবাজার, কলকাতা
সংস্কৃতি
প্রধান দেবতাকালী
স্থাপত্য
স্থাপত্য শৈলীচাঁদনি, বঙ্গীয় স্থাপত্যশৈলী
ইতিহাস ও প্রশাসন
নির্মাণকালঅজ্ঞাত
সৃষ্টিকারীঅজ্ঞাত

শ্রীশ্রীসিদ্ধেশ্বরী কালীমন্দির বা ফিরিঙ্গি কালীবাড়ি হল কলকাতার বউবাজার অঞ্চলে অবস্থিত একটি প্রাচীন কালী মন্দির। এটি স্থানীয় বিপিন বিহারী গাঙ্গুলি স্ট্রিটে অবস্থিত। স্থানীয় জনশ্রুতি অনুযায়ী, মন্দিরটি ৫০০ বছরের পুরনো। অ্যান্টনি ফিরিঙ্গি এই মন্দিরে আসতেন বলে এই মন্দিরটি ফিরিঙ্গি কালীবাড়ি নামে পরিচিত হয়।[১]

নামকরণ[সম্পাদনা]

ফিরিঙ্গি কালীবাড়িতে প্রতিষ্ঠিত কালীমূর্তিটি "শ্রীশ্রীসিদ্ধেশ্বরী কালীমাতা ঠাকুরানি" নামে পূজিত হয়। পর্তুগিজ-বংশোদ্ভুত কবিয়াল অ্যান্টনি ফিরিঙ্গি হিন্দুধর্মের প্রতি অনুরক্ত হয়ে এই মন্দিরে যাতায়াত করতেন। সেই জন্য লোকমুখে এই মন্দিরের কালীমূর্তিটির নাম হয় "ফিরিঙ্গি কালী" এবং মন্দিরটি "ফিরিঙ্গি কালীবাড়ি" নামে পরিচিত হয়।[২]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৪৩৭ খ্রিস্টাব্দে ভাগীরথী নদীর অদূরে একটি শ্মশানের মধ্যে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল শিব ও কালিকার বিগ্রহ।[৩] মন্দিরের তখনও প্রতিষ্ঠা হয়নি। ফিরিঙ্গি কালীবাড়ির সঠিক প্রতিষ্ঠাকাল জানা যায় না। মন্দিরের সামনের দেওয়াল ফলকে লেখা আছে, "ওঁ শ্রীশ্রীসিদ্ধেশ্বরী কালীমাতা ঠাকুরাণী/ স্থাপিত ৯০৫ সাল, ফিরিঙ্গী কালী মন্দির"। এর থেকে অনুমান করা হয়, মন্দিরটি ৯০৫ বঙ্গাব্দে স্থাপিত হয়েছিল।[২] মন্দিরটি প্রথমে ছিল শিব মন্দির। ১৮২০ খ্রিস্টাব্দ থেকে ১৮৮০ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত শ্রীমন্ত পণ্ডিত এই মন্দিরের প্রধান পুরোহিত ছিলেন।[৩] তিনি নিঃসন্তান হওয়ায় ১৮৮০ সালে শশিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়কে ৬০ টাকায় দেবোত্তর সম্পত্তি হিসেবে মন্দিরটি বিক্রি করে দেন। বন্দ্যোপাধ্যায় পরিবার এখনও মন্দিরের সেবায়েত।[২]

পূজা[সম্পাদনা]

ফিরিঙ্গি কালীবাড়ি একটি চাঁদনি স্থাপত্যের মন্দির। এই মন্দিরের কালীমূর্তিটি মাটির তৈরি। এটি প্রায় সাড়ে পাঁচ ফুট লম্বা সবসনা ত্রিনয়না মূর্তি।[২][৩] কালীমূর্তি ছাড়াও মন্দিরে আছে শীতলা, মনসা, দুর্গা, শিবনারায়ণের মূর্তি। মন্দিরে প্রতি অমাবস্যায় কালীপূজা ও প্রতি পূর্ণিমায় সত্যনারায়ণ পূজা হয়।[২]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

পাদটীকা[সম্পাদনা]

  1. মিত্র, স্বাতী (২০১১)। Kolkata:Guide Book (ইংরাজি ভাষায়)। গুডআর্থ পাবলিকশন। পৃষ্ঠা ৮৪। 
  2. পশ্চিমবঙ্গের কালী ও কালীক্ষেত্র, দীপ্তিময় রায়, মণ্ডল বুক হাউস, কলকাতা, ১৪১৪ বঙ্গাব্দ, পৃ. ৬০-৬১
  3. আইচ, দেবাশিস (১২ অক্টোবর ২০১৪)। "জয় কালী কলকাতা-ওয়ালি"আনন্দবাজার পত্রিকা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জানুয়ারি ২০১৫