ভবতারণ শিব মন্দির

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ভবতারণ শিব মন্দির
ভবতারণ শিব মন্দির.jpg
ভবতারণ শিব মন্দির
ধর্ম
অন্তর্ভুক্তিহিন্দুধর্ম
অবস্থান
অবস্থাননবদ্বীপ, নদিয়া, পশ্চিমবঙ্গ
স্থাপত্য
ধরনবাংলার মন্দির স্থাপত্য, অষ্টকোনাকৃতি শিখর মন্দির
সৃষ্টিকারীমহারাজ গিরিশচন্দ্র

ভবতারণ শিব মন্দির নবদ্বীপ শহরের দ্বিশতাধিক প্রাচীন একটি শিব মন্দির। নবদ্বীপের পোড়ামাতলায় এই মন্দিরের পাশেই পোড়ামা কালী মন্দিরমা ভবতারিণী মন্দির অবস্থিত। ভবতারণ মন্দিরটি বিরলরীতির অষ্টকোনাকৃতি শিখর মন্দির।[১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ভবতারণ শিব লিঙ্গ

নবদ্বীপে গৌরীপট্ট সম্বলিত ব্রাহ্মণ্য-সংস্কৃতির প্রথম শিব মূর্তিটি ১৬৮৩ থেকে ১৬৯৪ খ্রিস্টাব্দের মধ্যে রাজা রুদ্র রায় স্থাপন করেছিলেন।[২] রাজা রাঘব গণেশ মূর্তি স্থাপনের সঙ্গে একটি শিবলিঙ্গও সেই সময়েই স্থাপন করেন। তখন সেটি রাঘবেশ্বর শিব নামে পরিচিত ছিল। কিন্তু ১৭৬০ খ্রিস্টাব্দের গঙ্গার ভাঙনে এই মন্দিরসহ মূর্তিটি গঙ্গাগর্ভে নিমজ্জিত হয়। তার প্রায় ৬৫ বছর পর রাজা গিরিশচন্দ্র ১৮২৫ খ্রিস্টাব্দে পোড়ামাতলায় শিব মূর্তিটি ভবতারণ মানে পুন:স্থাপিত করেন, যা বর্তমানে ভবতারণ শিব নামে পরিচিত।[৩]

অষ্টকোণাকৃতি শিখর স্থাপত্যের এই মন্দির সমগ্র বাংলায় খুবই কম দেখা যায়। এই সম্পর্কে নবদ্বীপ পুরাতত্ত্ব পরিষদের সম্পাদক শান্তিরঞ্জন দেব বলেছেন,

মন্দিরের সংস্কার[সম্পাদনা]

ভবতারণ মন্দিরটি বর্তমানে সংস্কৃত না হলেও ১৯১১ থেকে ১৯২৮ খ্রিস্টাব্দের মধ্যে রাজা ক্ষৌণীশচন্দ্রের সময় মন্দিরটি সংস্কৃত হয়।

বর্তমান অবস্থা[সম্পাদনা]

প্রায় দুশো বছরের অধিক এই প্রাচীন মন্দিরটিকে তত্সংলগ্ন একটি প্রাচীন বটগাছ আষ্টেপৃষ্টে আবৃত আছে। এই বটগাছের গোড়াতেই ঘট স্থাপন করে পোড়ামা পূজিত হওয়ায় বর্তমানে বটগাছের কোনো ক্ষতিসাধন করে মন্দিরের কোনো বৃহত সংস্কার বর্তমানে সম্ভবপর নয়।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. নবদ্বীপের ইতিবৃত্ত। নবদ্বীপ, নদিয়া: মৃত্যুঞ্জয় মণ্ডল। জানুয়ারি ২০১৩। পৃষ্ঠা ৩৩৪। 
  2. গেরেট, জে. এইচ. (১৯১০)। Nadia District Gazeteers। কলকাতা: বেঙ্গল সেক্রেটারিয়েট বুক ডিপো। পৃষ্ঠা ১৫৫। 
  3. সংবাদদাতা, নিজস্ব। "ভবতারিণী মন্দির সংস্কারে ভক্তেরাই"আনন্দবাজার পত্রিকা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-১২-১৩ 
  4. বন্দ্যোপাধ্যায়, দেবাশিস। "প্রাচীন মন্দির ঢেকেছে বটের ঝুরিতে"anandabazar.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১২-২৭