ইয়ান অস্টিন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ইয়ান অস্টিন
ক্রিকেট তথ্য
ব্যাটিংয়ের ধরনবামহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা
রানের সংখ্যা ৩৪
ব্যাটিং গড় ৬.৭৯
১০০/৫০ -/-
সর্বোচ্চ রান ১১*
বল করেছে ৪৭৫
উইকেট
বোলিং গড় ৬০.০০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট -
সেরা বোলিং ২/২৫
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং -/-
উৎস: ক্রিকইনফো, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭

ইয়ান ডেভিড অস্টিন (ইংরেজি: Ian Austin; জন্ম: ৩০ মে, ১৯৬৬) ল্যাঙ্কাশায়ারের হ্যাসলিংডেনে জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা সাবেক ইংরেজ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর কাউন্টি ক্রিকেটে ল্যাঙ্কাশায়ারের প্রতিনিধিত্ব করেছেন।[১] দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি মিডিয়াম বোলিং করতেন। পাশাপাশি নিচেরসারিতে বামহাতে ব্যাটিং করতেন ইয়ান অস্টিন

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯৮৭ সালে ল্যাঙ্কাশায়ারের পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এর পূর্বের মৌসুমে সানডে লীগের একটি খেলায় দলটির পক্ষে অংশগ্রহণ করেছিলেন। এরপর থেকেই সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবন এ ক্লাবের পক্ষে অবস্থান করেন। ১২৪ খেলায় অংশ নিয়ে ২৭.৯৮ গড়ে ৩,৭৭৮ রান ও ৩০.৩৫ গড়ে ২৬২ উইকেট দখল করেন।

খেলোয়াড়ী জীবনের শেষদিকে সর্বাপেক্ষা সফলতম মৌসুম কাটে তার। ১৯৯৮ সালে ন্যাটওয়েস্ট ট্রফিসানডে লীগ প্রতিযোগিতার উভয়টিতেই শিরোপা জয় করে তার দল।

একদিনের আন্তর্জাতিক[সম্পাদনা]

এরপর গ্রীষ্মের শেষদিকে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে একদিনের আন্তর্জাতিকে অভিষেক ঘটে তার। এ সকল খেলায় অনন্য সাধারণ ক্রীড়াশৈলী উপস্থাপনার প্রেক্ষিতে ১৯৯৯ সালে উইজডেন কর্তৃক অন্যতম বর্ষসেরা ক্রিকেটার মনোনীত হন তিনি।[২]

১৯৯৯ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপে ইংল্যান্ড দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন ইয়ান অস্টিন। দলের প্রথম খেলায় ড্যারেন গফের সাথে বোলিং উদ্বোধন করতে নামেন। লর্ডসে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২/২৫ লাভ করেন। তবে আর একটি খেলায় অংশ নেয়ার পর তার আন্তর্জাতিক ক্রিকেট জীবনের ইতি ঘটে। একই প্রতিযোগিতায় কেনিয়ার বিপক্ষে সর্বশেষ খেলায় অংশ নেন তিনি।

এরপর খেলোয়াড়ী জীবনের বাদ-বাকি সময় ল্যাঙ্কাশায়ারের পক্ষে কাটান। ২০০০ সালে আর্থিক সুবিধাগ্রহণের মৌসুমে £১৫৫,০০০ পাউন্ড-স্টার্লিং লাভ করেন। জুন, ২০০১ সালের শুরুর দিকে অংশ নেয়ার পর আর কোন প্রথম-শ্রেণীর খেলায় অংশ নেননি। তবে পরের বছর কয়েকটি একদিনের খেলায় অংশ নিয়েছিলেন তিনি।

অবসর[সম্পাদনা]

২০০২ সালে কাম্বারল্যান্ডের পক্ষে কয়েকটি খেলায় অংশগ্রহণের পর ও পরের বছর ল্যাঙ্কাশায়ার লীগের ওরস্লি কাপের চূড়ান্ত খেলায় অংশগ্রহণ শেষে অস্টিন ২০০৩ মৌসুম শেষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটকে বিদায় জানান ইয়ান অস্টিন। শৈশবকালের ব্যাক্সেনডেন ক্লাবকে রিবলসডেল লীগের শিরোপা জয়ে সহায়তার পূর্বে সেন্ট অ্যানসের পক্ষে নর্দার্ন প্রিমিয়ার লীগের মাধ্যমে খেলার জগতে ফিরে আসেন। এরপর ২০১০ মৌসুম শেষে সকল স্তরের ক্রিকেটকে বিদায় জানান।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Lancashire players" (English ভাষায়)। CricketArchive। সংগ্রহের তারিখ ৪ মে ২০১৭ 
  2. "Wisden Cricketers of the Year" (English ভাষায়)। CricketArchive। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০২-২১ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]