সাউথ পার্ক স্ট্রিট সেমিট্রি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সাউথ পার্ক স্ট্রিট সেমিট্রি
South-Park-Street-Cemetery-1.jpg
সাউথ পার্ক স্ট্রিট সেমিট্রি, কলকাতা
বিস্তারিত
স্থাপিত১৭৬৭
অবস্থানমাদার টেরিজা সরণি, কলকাতা
দেশভারত
কবরের সংখ্যা১৬০০ কবর ও সমাধিসৌধ

সাউথ পার্ক স্ট্রিট সেমিট্রি হল কলকাতার একটি খ্রিস্টান কবরখানা। এটি মাদার টেরিজা সরণিতে অবস্থিত। মাদার টেরিজা সরণির আদি নাম "পার্ক স্ট্রিট"। সেই অনুসারেই এই কবরখানাটির নামকরণ করা হয়েছিল। উল্লেখ্য, এই কবরখানার অবস্থানের জন্য পার্ক স্ট্রিটেরও আদি নাম ছিল "বেরিয়াল গ্রাউন্ড রোড"।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

পার্ক স্ট্রিট সেমিট্রি হল বিশ্বের প্রাচীনতম নন-চার্চ সেমিট্রিগুলির একটি। ঊনবিংশ শতাব্দীতে সম্ভবত এটিই ছিল ইউরোপমার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে বিশ্বের বৃহত্তম খ্রিস্টান কবরখানা।

সাউথ পার্ক স্ট্রিট সেমিট্রি চালু হয়েছিল ১৭৬৭ সালে। এই কবরখানার জমিখণ্ডটি আগে ছিল জলাভূমি এলাকা। ১৮৩০ সাল পর্যন্ত এটি ব্যবহার করা হয়েছিল। এখন আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়া (এএসআই) এটির রক্ষনাবেক্ষণ করে। শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত পুরনো কবরখানাটির উপর থেকে চাপ কমাতে এই কবরখানাটি চালু হয়। কবরখানার সামনের রাস্তাটির নাম রাখা হয়েছিল “বেরিয়াল গ্রাউন্ড রোড”। পরে নাম পাল্টে রাখা হয় “পার্ক স্ট্রিট”। ১৭৮৫ সালে কবরখানাটি পার্ক স্ট্রিটের উত্তর অংশ পর্যন্ত প্রসারিত করা হয়। ১৮৪০ সালে লোয়ার সার্কুলার রোডের (অধুনা আচার্য জগদীশচন্দ্র বসু রোড) পূর্ব অংশে একটি বড়ো কবরখানা চালু হয়। ১৭৯০ সাল থেকে ইউরোপীয়েরা আর এই কবরখানা খুব একটা ব্যবহার করত না। তাই কবরখানার প্রধান ফটকের পাশে শ্বেতপাথরের ফলকে লেখা আছে, “সাউথ পার্ক স্ট্রিট, ওপেনড: ১৭৬৭, ক্লোজড: ১৭৯০”।

গোরস্থানে সাবধান চলচ্চিত্রটির শ্যুটিং এই কবরখানায় হয়েছিল। ছবিটি সত্যজিৎ রায়ের উপন্যাস অবলম্বনে তৈরি।

গুরুত্বপূর্ণ সমাধিসৌধ[সম্পাদনা]

  • রোজ এইলমার (মৃত্যু ১৮০০)
  • এলিজাবেথ বারওয়েল (মৃত্যু ১৭৭৯)
  • জর্জ বগেল (১৭৪৬-১৭৮১), কূটনীতিবিদ
  • লেফটানেন্ট জেনারেল স্যার জন ক্লেভারিং (১৭২২-১৭৭৭), সামরিক আধিকারিক
  • অগাস্টাস ক্লিভল্যান্ড (মৃত্যু ১৭৮৪), প্রশাসক
  • হেনরি লুই ভিভিয়ান ডিরোজিও, (১৮০৯-১৮৩১), শিক্ষক ও কবি
  • স্যার এলাইজা ইম্পে (১৭৩২-১৮০৯), বিচারক
  • স্যার উইলিয়াম জোন্স (১৭৪৬-১৭৯৪), ভারততত্ত্ববিদ, এশিয়াটিক সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা
  • কর্নেল রবার্ট কিড (১৭৪৬-১৭৯৩), উদ্ভিদতত্ত্ববিদ
  • লেফটানেন্ট জেনারেল কলিন ম্যাকেঞ্জি (১৭৫৪-১৮২১), সার্ভেয়ার জেনারেল অফ ইন্ডিয়া
  • স্যার জন ডি'ওইলে, ষষ্ঠ ব্যারনেট (১৭৫৪-১৮১৮), রাজনীতিবিদ
  • মেজির জেনারেল চার্লস স্টুয়ার্ট (১৭৫৮-১৮১৮), সামরিক আধিকারিক ও ভারতপ্রেমিক।

সাউথ পার্ক স্ট্রিট সেমিট্রির সমাধিসৌধগুলিতে ক্ল্যাসিকাল স্থাপত্য ও ভাস্কর্যের প্রভাব দেখা যায়। এপিটাফগুলি থেকে জানা যায় সমাধিস্থ ব্যক্তিরা পশুপাল, জেলরক্ষক, রুপোর স্যাঁকরা, স্কুলশিক্ষক, স্থপতি, অনুবাদক, চিত্রকর, পার্ক সুপারইন্টেন্ডেন্ট, পোস্টমাস্টার, শল্য চিকিৎসক ইত্যাদি পেশায় নিযুক্ত ছিলেন।

৩৬৩ নং কবর[সম্পাদনা]

৩৬৩ নং কবরের এপিটাফে শুধু লেখা আছে “আ ভারচুয়াস মাদার (ডাইড ১৮২৫)”। এই কবরে সমাধিস্থ ব্যক্তির কোনো নামের উল্লেখ পাওয়া যায় না।

বৈশিষ্ট্য[সম্পাদনা]

কবরগুলিতে গথিক স্থাপত্য ও ইন্দো-সারাসেনীয় শৈলীর মিশ্রণ দেখা যায়। ইন্দো-সারাসেনীয় শৈলীর কবরগুলির মধ্যে একটি কবর হিন্দু পঞ্চরত্ন ও রেখ দেউল স্থাপত্যের সংমিশ্রণে নির্মিত। শুধু তাই নয় কবরের সামনের কালো ব্যাসাল্টের খোদাইলিপি থেকে সমাধিস্থ ব্যক্তির হিন্দুধর্ম-প্রীতির কথাও জানা যায়।

নর্থ পার্ক স্টিট সেমিট্রি[সম্পাদনা]

সাবেক নর্থ পার্ক স্ট্রিট সেমিট্রির জায়গায় এখন দাঁড়িয়ে আছে অ্যাসেম্বলি অফ গড চার্চ স্কুল ও মার্সি হাসপাতাল। এখানে একটিমাত্র কবর সাবেক সমাধিক্ষেত্রটির স্মৃতি বহন করছে। লোয়ার সার্কুলার রোড কবরখানাটি এখনও ব্যবহারযোগ্য। তবে এখানে স্থাপত্যের সংখ্যা অনেক কম।

চিত্রকক্ষ[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

The South Park Street Cemetery, Calcutta, published by the Association for the Preservation of Historical Cemeteries in India, 5th ed. (2009)

বহিঃদসংযোগ[সম্পাদনা]

স্থানাঙ্ক: ২২°৩২′৪৮″ উত্তর ৮৮°২১′৩৭″ পূর্ব / ২২.৫৪৬৫৬৮° উত্তর ৮৮.৩৬০৩৯০° পূর্ব / 22.546568; 88.360390