বারাসাত স্টেডিয়াম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বিদ্যাসাগর ক্রীড়াঙ্গন
বারাসাত স্টেডিয়াম
অবস্থানবারাসাত, উত্তর চব্বিশ পরগনা, বৃহত্তর কলকাতা
স্থানাঙ্ক২২°৪৩′০৩.৬৮৭″ উত্তর ৮৮°২৮′৪৩.১২″ পূর্ব / ২২.৭১৭৬৯০৮৩° উত্তর ৮৮.৪৭৮৬৪৪৪° পূর্ব / 22.71769083; 88.4786444স্থানাঙ্ক: ২২°৪৩′০৩.৬৮৭″ উত্তর ৮৮°২৮′৪৩.১২″ পূর্ব / ২২.৭১৭৬৯০৮৩° উত্তর ৮৮.৪৭৮৬৪৪৪° পূর্ব / 22.71769083; 88.4786444
মালিকভারতীয় ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন
ধারণক্ষমতা২২,০০০
আয়তন১০৫ x ৬৮ মিটার
উপরিভাগঅ্যাস্ট্রো-টার্ফ[১]
ভাড়াটে
মোহনবাগান এসি
ইস্ট বেঙ্গল
মোহামেডান এসসি

বারাসাত জেলা ক্রীড়া স্টেডিয়াম বা বিদ্যাসাগর ক্রীড়াঙ্গন পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার বারাসাত শহরে অবস্থিত একটি ফুটবল মাঠ। এটি মূলত সিএফএল এবং আই-লীগ ম্যাচের জন্য ব্যবহৃত হয়। এছাড়া এটি বিভিন্ন জেলা পর্যায়, রাজ্য পর্যায় ও প্রায়ই জাতীয় পর্যায়ের টুর্নামেন্টের জন্য ব্যবহৃত হয়। এই স্টেডিয়ামের দর্শক ধারণ ক্ষমতা ২২,০০০ জন। স্টেডিয়ামটিতে চারটি ফ্লাডলাইট টাওয়ার এবং বিভিন্ন শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ব্যবস্থা ও পোশাক পরিবর্তনের কক্ষ রয়েছে।[২] স্টেডিয়ামের কৃত্রিম ঘাসের মাঠ ফিফা থেকে দুই তারকা রেটিং অর্জন করেছে।[৩]

White gate with stone pillars and a tree
বারাসাত স্টেডিয়ামের প্রবেশদ্বার

২০১৪-১৫ মৌসুম থেকে স্টেডিয়ামটি আই লিগ ও সিএফএল-এ মোহনবাগান এসি ও ইস্টবেঙ্গলের ঘরোয়া ম্যাচ আয়োজন করে। ২০১৭ সালের যুব ফুটবল বিশ্বকাপের প্রস্ততি ম্যাচের মাঠ হিসাবে স্টেডিয়ামটি ব্যবহৃত হয়।

২০২০ সালে কোভিড-১৯ বা করোনা রোগে আক্রান্ত রুগীদের সেফ হোম প্রকল্পের অধীনে রাজ্য সরকার থেকে বারাসাত স্টেডিয়ামে রাখার ব্যবস্থা করা হয়।[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "SPO Bengal's Barasat stadium gets two star grading from FIFA"chennaionline.com। সংগ্রহের তারিখ ১৭ নভেম্বর ২০১৩ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  2. "Vidyasagar Krirangan likely to host I-League matches next season"indiansoccerlive.com। ২৭ মার্চ ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ নভেম্বর ২০১৩ 
  3. "Barasat Turf granted Two-star grading"the-aiff.com। ২৮ মার্চ ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ নভেম্বর ২০১৩ 
  4. "উত্তর ২৪ পরগনা: বারাসত স্টেডিয়ামে এবার সেফ হোম"। eisamay.indiatimes.com। এই সময়। ২১ জুলাই ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ১২ ডিসেম্বর ২০২০