লিন রেডগ্রেভ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
লিন রেডগ্রেভ
Lynn Redgrave
Lynn Redgrave 1999.jpg
১৯৯৯ সালে রেডগ্রেভ
জন্ম
লিন রেচেল রেডগ্রেভ

(১৯৪৩-০৩-০৮)৮ মার্চ ১৯৪৩
মেরিলবোন, লন্ডন, ইংল্যান্ড
মৃত্যু২ মে ২০১০(2010-05-02) (বয়স ৬৭)
সমাধিলিথগো, নিউ ইয়র্ক, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
নাগরিকত্বব্রিটিশ, মার্কিন
পেশাঅভিনেত্রী
কার্যকাল১৯৬২-২০০৯
দাম্পত্য সঙ্গীজন ক্লার্ক
(বি. ১৯৬৭; বিচ্ছেদ. ২০০০)
সন্তান
পিতা-মাতামাইকেল রেডগ্রেভ (পিতা)
রেচেল কেমসন (মাতা)
পরিবাররেডগ্রেভ পরিবার

লিন রেচেল রেডগ্রেভ, ওবিই (ইংরেজি: Lynn Rachel Redgrave; ৮ মার্চ ১৯৪৩ - ২ মে ২০১০)[১] ছিলেন একজন ইংরেজ ও মার্কিন অভিনেত্রী। রেডগ্রেভ পরিবারের সদস্য লিন লন্ডনে অভিনয়ের প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন এবং ১৯৬২ সালে মঞ্চে অভিনয় শুরু করেন। ১৯৬০-এর দশকের মাঝামাঝি সময়ে তিনি কয়েকটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করে খ্যাতি অর্জন করেন, তন্মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল টম জোন্স (১৯৬৩) ও জর্জি গার্ল (১৯৬৬)। দ্বিতীয় চলচ্চিত্রটিতে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে অস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন ও সেরা সঙ্গীতধর্মী বা হাস্যরসাত্মক চলচ্চিত্র অভিনেত্রী বিভাগে গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার মনোনয়ন লাভ করেন।

১৯৬৭ সালে ব্রডওয়ে মঞ্চে তার অভিষেক ঘটে ও তিনি নিউ ইয়র্কের কয়েকটি মঞ্চ নাটকে কাজ করেন, পাশাপাশি লন্ডনের ওয়েস্ট এন্ডেও কাজ করেন। তিনি তার বোন ভানেসার সাথে লন্ডনে থ্রি সিস্টার্স মঞ্চনাটকে এবং ১৯৯১ সালে হোয়াট এভার হ্যাপেনড টু বেবি জেন? টিভি নাটকে বেবি জেন হাডসন চরিত্রে অভিনয় করেন। ১৯৯০-এর দশকের শেষভাগে তিনি চলচ্চিত্রে ফিরে আসেন এবং শাইন (১৯৯৬) ও গডস অ্যান্ড মনস্টার্স (১৯৯৮) ছবিতে অভিনয় করেন। দ্বিতীয় কাজটির জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে অস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন ও সেরা পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার লাভ করেন। লিন রেডগ্রেভ একমাত্র ব্যক্তি যিনি 'প্রধান চার' মার্কিন বিনোদন পুরস্কারের (অস্কার, এমি, গ্র্যামি ও টনি) মনোনয়ন লাভ করেছেন, কিন্তু কোনটাই জিততে পারেননি।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Lynn Redgrave"বায়োগ্রাফি (ইংরেজি ভাষায়)। এঅ্যান্ডই টেলিভিশন নেটওয়ার্কস। ২৩ মার্চ ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ মার্চ ২০১৯ 
  2. পটার, স্টিভ (৩ আগস্ট ২০১৬)। "City Scene: Gone but not forgotten"দ্য ডেইলি টেলিগ্রাফ। সংগ্রহের তারিখ ৮ মার্চ ২০১৯ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]