রুথ গর্ডন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
রুথ গর্ডন
Ruth-Gordon-1930.jpg
১৯৩০ সালে রুথ গর্ডন
স্থানীয় নাম
Ruth Gordon
জন্ম
রুথ গর্ডন জোন্স

(১৮৯৬-১০-৩০)৩০ অক্টোবর ১৮৯৬
মৃত্যুআগস্ট ২৮, ১৯৮৫(1985-08-28) (বয়স ৮৮)
এডগারটাউন, ম্যাসাচুসেটস, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
পেশাঅভিনেত্রী, লেখক
কার্যকাল১৯১৫–১৯৮১ (অব.)
দাম্পত্য সঙ্গীগ্রেগ্ররি কেলি
(বি. ১৯২১; মৃ. ১৯২৭)

গারসন ক্যানিন
(বি. ১৯৪২; মৃ. ১৯৮৫)
সন্তানজোন্স হ্যারিস (জ. ১৯২৯)

রুথ গর্ডন জোন্স (ইংরেজি: Ruth Gordon Jones; ৩০ অক্টোবর ১৮৯৬২৮ আগস্ট ১৯৮৫) ছিলেন একজন মার্কিন অভিনেত্রী, চিত্রনাট্যকার ও নাট্যকার। তিনি চলচ্চিত্র, মঞ্চ ও টেলিভিশন – এই তিন মাধ্যমেই অভিনয় করেছেন। গর্ডন ১৯ বছর বয়সে ব্রডওয়ে মঞ্চে তার অভিনয় জীবন শুরু করেন। নাকি কণ্ঠ ও বহুমাত্রিক ব্যক্তিত্বের জন্য পরিচিত রুথ সত্তর ও আশির দশকে তার চলচ্চিত্র ভূমিকার জন্য আন্তর্জাতিকভাবে খ্যাতি অর্জন করেন। তার উল্লেখযোগ্য কাজের মধ্যে রয়েছে রোজাম্যারিস বেবি (১৯৬৮), হ্যারল্ড অ্যান্ড মড (১৯৭১), ও ক্লিন্ট ইস্টউড পরিচালিত এভরি হুইচ ওয়ে বাট লুজ (১৯৭৮) ও অ্যানি হুইচ ওয়ে ইউ ক্যান (১৯৮০)।[১]

অভিনয়ের পাশাপাশি গর্ডন একাধিক নাটক, চলচ্চিত্রের পাণ্ডুলিপি, ও বই রচনা করেছেন। তার উল্লেখযোগ্য রচনা হল ১৯৪৯ সালের অ্যাডাম্‌স রিব চলচ্চিত্রের চিত্রনাট্য। অভিনয়ের জন্য গর্ডন একটি একাডেমি পুরস্কার, একটি এমি পুরস্কার এবং দুটি গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার অর্জন করেন এবং লেখনীর জন্য তিনটি একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

রুথ গর্ডন জোন্স ১৮৯৬ সালের ২৮শে আগস্ট ম্যাসাচুসেটসের কুয়েন্সি শহরের ৩১ ম্যারিয়ন স্ট্রিটে জন্মগ্রহণ করেন।[২] তিনি তার পিতা ক্লিনটন জোন্স ও মাতা অ্যানি ট্যাপলির (প্রদত্ত নাম: জিগলার) একমাত্র সন্তান। এপিসকোপালিয়ান ধর্মাবলম্বী হিসেবে তার অভিসিঞ্চন হয়।[৩][৪]

কুয়েন্সি হাই স্কুল থেকে পাস করার পূর্বে তিনি তার প্রিয় একাধিক অভিনেত্রীর কাছে সাক্ষর সম্বলিত ছবি চেয়ে চিঠি পাঠান। হ্যাজেল ডনের কাছ থেকে একটি চিঠির উত্তর তাকে অভিনয় করতে অনুপ্রাণিত করে, তাকে তিনি দ্য পিংক লেডি মঞ্চনাটকে অভিনয় করতে দেখেছিলেন।[২] যদিও তার পিতা অভিনয়ে তার সফলতার ব্যাপারে সন্দেহ পোষণ করেছিলেন, তিনি ১৯১৪ সালে তাকে নিউ ইয়র্কে নিয়ে যান এবং সেখানে তাকে আমেরিকান একাডেমি অব ড্রামাটিক আর্টসে ভর্তি করান।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

গর্ডন ১৯৩০-এর দশকের শুরুতে স্বল্প সময়ের জন্য মেট্রো-গোল্ডউইন-মেয়ারের সাথে চুক্তিবদ্ধ হন, কিন্তু ১৯৪১ সালে টু-ফেসড ওম্যান চলচ্চিত্রে গ্রেটা গার্বোর সাথে পার্শ্ব চরিত্রে অভিনয়ের পূর্ব পর্যন্ত এই কোম্পানির অধীনে কোন কাজ করেননি। হলিউডের অন্যান্য স্টুডিওতে তার ভাগ্য সুপ্রসন্ন ছিল, এবং তিনি ১৯৪০-এর দশকের শুরুতে কয়েকটি চলচ্চিত্রে পার্শ্ব চরিত্রে অভিনয় করেন, তন্মধ্যে রয়েছে অ্যাব লিংকন ইন ইলিনয় ছবিতে ম্যারি টড লিংকন চরিত্রে, ডক্তর এরলিচ্‌স ম্যাজিক বুলেট ছবিতে মিসেস এরলিচ এবং অ্যাকশন ইন দ্য নর্থ আটলান্টিক ছবি। ১৯৪০-এর দশকে গর্ডনের ব্রডওয়ে মঞ্চে কাজগুলোর মধ্যে রয়েছে পল ভিনসেন্ট ক্যারলের দ্য স্ট্রিংস, মাই লর্ড, আর ফলস মঞ্চনাটকে আইরিস, ক্যাথরিন কর্নেল ও গুথরি ম্যাক্লিন্টিকের নির্দেশনায় আন্তন চেখভের থ্রি সিস্টার্স মঞ্চনাটকে নাতাশা, এবং তার নিজের নাটক, ওভার টুয়েন্টি-ওয়ানদ্য লিডিং লেডি-এর প্রধান চরিত্র। গর্ডন ১৯৪২ সালে গারসন ক্যানিনের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। এটি তার দ্বিতীয় বিবাহ। গর্ডন ও ক্যানিন একত্রে ক্যাথরিন হেপবার্নস্পেন্সার ট্রেসি অভিনীত অ্যাডাম্‌স রিব (১৯৪৯) ও প্যাট অ্যান্ড মাইক (১৯৫২) চলচ্চিত্রে চিত্রনাট্য রচনা করেন। দুটি চলচ্চিত্রই পরিচালনা করেছেন জর্জ কিউকর। গর্ডন ও ক্যানিন দম্পতি হেপবার্ন ও ট্রেসির ঘনিষ্ঠ বন্ধু ছিলেন, এবং তারা এই চলচ্চিত্রগুলোতে তাদের বাস্তব জীবনের ব্যক্তিত্ব তুলে ধরেন। গর্ডন ও ক্যানিন এই দুটি চলচ্চিত্রের চিত্রনাট্যের জন্য একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ফ্রিডম্যান, স্যামুয়েল জি. (২৯ আগস্ট ১৯৮৫)। "RUTH GORDON, THE ACTRESS, DIES AT 88"দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০১৮ 
  2. Current Biography 1943. pp.238–41.
  3. গর্ডন, রুথ (১৯৮৬)। My Side: The Autobiography of Ruth Gordon। D.I. Fine। আইএসবিএন 9780917657818। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০১৮ 
  4. গর্ডন, রুথ (১৯৪৭)। Years Ago: A Play। Viking Press। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০১৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]