ক্যামেরন ডিয়াজ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
ক্যামেরন ডিয়াজ
Cameron Diaz WE 2012 Shankbone 2.JPG
জন্ম ক্যামেরন মিশেল ডিয়াজ
(১৯৭২-০৮-৩০) ৩০ আগস্ট ১৯৭২ (বয়স ৪৫)
সান ডিয়াগো, ক্যালিফোর্নিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
বাসস্থান লস এঞ্জেলেস, ক্যালিফোর্নিয়া
পেশা অভিনেত্রী, প্রযোজক, সাবেক মডেল
কার্যকাল ১৯৮৮–বর্তমান
উচ্চতা ৫ ফু ৯ ইঞ্চি (১.৭৫ মি)[১]
দাম্পত্য সঙ্গী বেনজি ম্যাডেন (বি. ২০১৫)

ক্যামেরন মিশেল ডিয়াজ (জন্ম ৩০ আগস্ট, ১৯৭২) একজন আমেরিকান অভিনেত্রী, প্রযোজক এবং সাবেক ফ্যাশন মডেল, তিনি অনেকগুলো চলচ্চিত্রেই নানাবিধ ভূমিকায় অভিনয় করে ব্যাপক খ্যাতি অর্জন করেছেন। দ্য মাস্ক (১৯৯৪), মাই বেস্ট ফ্রেন্ডস ওয়েডিং (১৯৯৭) এবং দেয়ার'ম সামথিং এভাউট মেরি (১৯৯৮), এবং শেরেক সিরিজ (২০০১-১০) এ রাজকুমারী ফিয়োনা কন্ঠ চরিত্রে অভিনয় করার জন্যও পরিচিত। অন্যান্য উচ্চ প্রফাইল ক্রেডিট অন্তর্ভুক্ত চলচ্চিত্রগুলো হল চার্লি'স এঞ্জেলস (২০০০) এবং তার ধারাবাহিক চার্লি'স এঞ্জেলস: ফোর থ্রটলে (২০০৩), দ্য সুইটেস্ট থিং (২০০২), ইন হার সুজ (২০০৫), দ্য হলিডে (২০০৬), হোয়াট হ্যাপেনস ইন ভেগাস (২০০৮), মাই সিস্টার'স কিপার (২০০৯), নাইট অ্যান্ড ডে (২০১০), দ্য গ্রিন হর্নেট (২০১১), ব্যাড টিচার (২০১১), হোয়াট টু এক্সপেক্ট হোয়েন ইউ আর এক্সপেক্টিং (২০১২), দ্য কাউন্সেলর (২০১৩), দ্য আদার উইম্যান, সেক্স টেপ, এবং এনি (সব ২০১৪)। ডিয়াজ চারটি গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার মনোনয়ন পেয়েছেন জন মারকোভিচ (১৯৯৯), 'ভেনিলা স্কাই (২০০১), গ্যাং অফ নিউইয়র্ক (২০০২) এবং দেয়ার'স সামথিং অ্যাবাউট মেরি (১৯৯৮) চলচ্চিত্রের জন্য, যার জন্য পরবর্তীতে তিনি জিতেছেন নিউ ইয়র্ক ফিল্ম ক্রাইটিক্স বেস্ট লিড এক্ট্রেস অ্যাওয়ার্ড। ২০১৩ সালে ৪০ বছরের অধিক বয়োজ্যেষ্ঠ অভিনেত্রীদের মধ্যে সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পাওয়া অভিনেত্রী হিসেবে তাকে গন্য করা হয়।[২] ২০১৫ সালের হিসাবে, মার্কিন ঘরোয়া বক্স অফিসে ডিয়াজের চলচ্চিত্রের মোট আয় ৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেশি, বিশ্বব্যাপী ৭ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে যাবার পর তাকে তৃতীয় সর্বোচ্চ মার্কিন ডলারের বক্স অফিস অভিনেত্রী (স্কারলেট ইয়োহান্সন এবং এমা ওয়াটসন এর পরে) হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করে।[৩][৪]

প্রারম্ভের জীবন[সম্পাদনা]

ক্যামেরন সান ডিয়াগো, ক্যালিফোর্নিয়াতে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর মা, বিলি (জন্ম তারিখ ১ঙ১ আগস্ট, ১৯৫০), একজন আমদানি / রপ্তানিকারক এজেন্ট এবং তার বাবা এমিলিও (কসো) ডায়াজ (৩ জুলাই, ১৯৪৯ - এপ্রিল ১৫, ২০০৮), ক্যালিফোর্নিয়ার একটি তেল কোম্পানির ফোরম্যান হিসাবে কাজ করতেন।[৫][৬][৭] ডিয়াজের একজন বড় বোন রয়েছে তার নাম চিমেনি (জন্ম ৫ জুন, ১৯৭০)। তার বাবার পরিবার কিউবান, এবং ডিয়াজের পূর্বপুরুষরা মূলত স্পেন থেকে কিউবাতে চলে এসেছিল। পরে তারা ইম্বেল সিটি, টাম্পায় বসতি স্থাপন করে, ক্যালিফোর্নিয়া যাওয়ার আগে, তার পিতা এমিলিও সেখানে জন্মগ্রহণ করেন।[৮][৯] ডিয়াজের মায়ের পূর্বপুরুষগন ইংরেজ, স্কট-আইরিশ, জার্মান এবং চেরোকি বংশোদ্ভূত।[১০][১১][১২] ডিয়াজ বড় হয়েছেন লং বিচে এবং লস সিরিটস এলিমেন্টারি স্কুল এবং এরপর লং বিচ পলিটেকনিক হাই স্কুলে ভর্তি হন;[১৩] যেখানে তিনি র‍্যাপার স্নাপ ডগ এর সঙ্গে স্কুলে পড়াশুনা করেন।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

মডেলিং এবং চলচ্চিত্রে আত্মপ্রকাশ[সম্পাদনা]

তিনি ১৬ বছর বয়সে একজন ফ্যাশন মডেল হিসেবে তার কর্মজীবন শুরু করেন এবং একটি মডেলিং এজেন্সি, এলিট মডেল ম্যানেজমেন্টের সাথে চুক্তি করেন। পরের মাসে, তিনি বিশ্বজুড়ে অনেকগুলো কোম্পানির সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হন, এদের মধ্যে জনপ্রিয় প্রতিষ্ঠান ক্যালভিন ক্লেইন এবং লিভাই'স ও রয়েছে। ১৭ বছর বয়সে ইস্যু অব সেভেনটিন এর জুলাই ১৯৯০ সংখ্যার প্রথম প্রচ্ছেদে তিনি স্থান পান।[১৪] ডিয়াজ এছাড়াও অস্ট্রেলিয়াতে ২ থেকে ৩ মাসের জন্য মডেলিং করেছিলেন এবং ১৯৯১ সালে সিডনিতে কোকা-কোলা জন্য একটি বাণিজ্যিক বিজ্ঞাপনও করেছেন।[১৫][১৬][১৭] ১৯৯২ সালে ডিয়াজ ১৯ বছর বয়সে জন রটার এবং ক্লিফোর্ড এডওয়ার্ড রাইট যারা পারফেক্ট টেন এর ফটোগ্রাফার ও প্রযোজক ছিলেন তারা এস এন্ড এম কোম্পানির মহিলাদের অন্তর্বাসের বিজ্ঞাপন সম্পাদনার জন্য তার ফটোগ্রাফ নেন।[১৮][১৯][২০][২১] তবে তা কখনো মুক্তি পায়নি। রটার ২০০৩ সালে চার্লি এঞ্জেলস: সম্পূর্ণ থ্রট্ললের মুক্তির আগে ডিয়াজ আসেন, তার কাছে সম্ভাব্য ক্রেতাদের কাছে বিক্রি করার চেষ্টা করার আগে তার ছবি এবং ভিডিওটি $ ৩.৫মিলিয়ন বিক্রি করার প্রস্তাব দেয়। তিনি বলেন যে তিনি তাদের অস্বীকার করার তার প্রথম অধিকার প্রস্তাব ছিল; তিনি চেষ্টা হিসাবে এটি ব্ল্যাকমেল হিসাবে দেখেছি এবং তাকে মামলা দায়ের। জুলাই ২০০৪ সালে, রাশিয়ান ওয়েবসাইটে প্রকাশিত ছবিটির ৩০-মিনিট ভিডিওটি হিরের নো এঞ্জেল নামের একটি ভিডিওশট প্রকাশ করা হয়।[২২][২৩][২৪][২৫] রটার এটিকে মুক্ত করতে অস্বীকার করেন।[২৬] ২০০৬ সালের ২৬ জুলাই রাদারকে গ্র্যান্ড চুরি, জালিয়াতি ও মিথ্যা সাক্ষ্য দেওয়ার জন্য দোষী সাব্যস্ত করা হয়। ২০০৬ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর রুট্টারকে তিন বছরের কারাদন্ড দেওয়া হয়েছিল।

২০০২ সালে ক্যানস ফিল্ম ফেস্টিভালে মার্টিন স্কর্সেস এবং লিওনার্দো ডি ক্যাপ্রিও এর সাথে ডিয়াজ

২১ বছর বয়সে, ডিইজ দ্য মাস্ক চলচ্চিত্রের জন্য অডিশন দিয়েছিলেন,[২৭] এলিটের এজেন্টের সুপারিশের ভিত্তিতে, তিনি চলচ্চিত্রের প্রযোজকদের সাথে দেখা করেছিলেন যখন কিনা তারা প্রধান অভিনেত্রীর খোঁজে ছিলেন। কোনও পূর্বের অভিনয়ের অভিজ্ঞতা ছাড়াই, নির্বাচিত হওয়ার পরই তিনি অভিনয়ের অনুশীলন শুরু করেন। দ্য মাস্ক চলচ্চিত্রটি ১৯৯৪ এর শীর্ষ দশটি সর্বোচ্চ আয় করা চলচ্চিত্রগুলির অন্যতম হয়ে হয়েছে।[২৮] এবং ডিয়াজকে যৌন প্রতীক হিসেবে ডাকা হয়।[২৯][৩০]


তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Smith, Caroline J.। Cosmopolitan Culture and Consumerism in Chick Lit। Routledge। পৃ: ১৫৪। আইএসবিএন 978-0415806268 
  2. Siegel, Tatiana (জুন ৫, ২০১৩)। "From Cameron Diaz to Sandra Bullock, the A-list of actresses is aging along with the moviegoer as their clout (and salaries) skyrocket, and Hollywood fails to groom another generation amid franchise fever."The Hollywood Reporter। সংগৃহীত অক্টোবর ২৬, ২০১৩ 
  3. http://www.boxofficemojo.com/people/?view=Actor&sort=sumgross&p=.htm
  4. "People Index"Box Office Mojo। সংগৃহীত মার্চ ২১, ২০১১ 
  5. "Cameron Diaz Biography (1972–)"। FilmReference.com। "Cameron Michelle Diaz; born August 30, 1972, in Long Beach (some sources say San Diego), CA" 
  6. Kappes, Serena (মে ২০, ২০০৪)। "Becoming ... Cameron Diaz: Family Ties"। (slide show; slide 3) People.com। সংগৃহীত মার্চ ৫, ২০১০ 
  7. Stein, Joel (সেপ্টেম্বর ২২, ২০০৯)। "Leaders & Visionaries - Cameron Diaz"Time। ডিসেম্বর ২৫, ২০১৪-এ মূল থেকে আর্কাইভ। সংগৃহীত ডিসেম্বর ২৪, ২০১৪। "...where her dad worked on pipelines for Unocal..." 
  8. "YouTube interview about her Spanish-Cuban roots"। Youtube.com। জুন ২৮, ২০১১। সংগৃহীত নভেম্বর ১৬, ২০১২ 
  9. Fischer, Paul (n.d.)। "Cameron Diaz: A Life Less Ordinary: Interview"। Urbancinefile.com.au। অক্টোবর ২৮, ২০১৪-এ মূল থেকে আর্কাইভ। সংগৃহীত মার্চ ৫, ২০১০ 
  10. Jenkins, David (জানুয়ারি ৯, ২০০৩)। "Girl, interrupted"The Daily Telegraph (UK)। অক্টোবর ২৯, ২০১৪-এ মূল থেকে আর্কাইভ। সংগৃহীত মার্চ ৬, ২০০৮ 
  11. "Cameron Diaz: Hollywood crowd-pleaser"BBC News। জুলাই ২৯, ২০০৫। অক্টোবর ৮, ২০১৪-এ মূল থেকে আর্কাইভ। সংগৃহীত জানুয়ারি ১২, ২০০৮ 
  12. Hawk, Mason (১৯৯৮)। "A Cheap Date With Cameron Diaz"NYRock। সংগৃহীত জানুয়ারি ১২, ২০০৮ 
  13. "Cameron Diaz"Yahoo! Moviesআসল থেকে এপ্রিল ১০, ২০০৬-এ আর্কাইভ করা। সংগৃহীত জুন ৯, ২০১১ 
  14. "Covers Throughout the Years – Historic Seventeen Magazine Covers"। Seventeen। অক্টোবর ৩০, ২০১০। সংগৃহীত ফেব্রুয়ারি ২২, ২০১১ 
  15. "Cameron Diaz: 34 fun facts"Live Well Network। অক্টোবর ৬, ২০১৪-এ মূল থেকে আর্কাইভ। সংগৃহীত ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৪ 
  16. "Cameron Diaz got alcohol poisoning in Sydney"। সংগৃহীত ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৪ 
  17. Meares, Joel (এপ্রিল ১৬, ২০১৪)। "The Other Woman's Cameron Diaz debunks myths about monogamy and living in Australia"The Sydney Morning Herald। Fairfax। সংগৃহীত এপ্রিল ১৬, ২০১৪ 
  18. "Cameron Diaz furious over S&M video"। Female First। সংগৃহীত মার্চ ২৪, ২০০৫ 
  19. "Man who blackmailed Cameron Diaz over topless photos faces jail"। The Daily Telegraph। জুলাই ২৭, ২০০৫। সংগৃহীত আগস্ট ১৩, ২০১৬ 
  20. "Diaz photographer convicted"। The Guardian। জুলাই ২৬, ২০০৫। সংগৃহীত আগস্ট ১৩, ২০১৬ 
  21. "Cameron Diaz photographer jailed"। BBC News। সেপ্টেম্বর ১৬, ২০০৫। সংগৃহীত আগস্ট ১৩, ২০১৬ 
  22. "Cameron Diaz S&M film hits the Web; Beyonce mistaken identity; Usher moons London"। SF Gate। জুলাই ৮, ২০০৪। সংগৃহীত আগস্ট ১৩, ২০১৬ 
  23. "Hot Sex video shocked Cameron Diaz" (German ভাষায়)। Bild। জুন ২৮, ২০১৪। সংগৃহীত আগস্ট ১৩, ২০১৬ 
  24. "Topless Diaz hits internet"। News24.com। জুলাই ৯, ২০০৪। আসল থেকে এপ্রিল ২৮, ২০০৬-এ আর্কাইভ করা। সংগৃহীত আগস্ট ১৩, ২০১৬ 
  25. "Kinky Cameron Diaz video hits web"। China Daily। জুলাই ৯, ২০০৪। সংগৃহীত আগস্ট ১৩, ২০১৬ 
  26. "Diaz fit to be tied over video on web"। New York Daily News। জুলাই ৮, ২০০৪। সংগৃহীত আগস্ট ১৩, ২০১৬ 
  27. "Actress of the week – Cameron Diaz" askmen.com. Retrieved November 20, 2006.
  28. ""1994 DOMESTIC GROSSES, #1–50", Box Office Mojo"। Boxofficemojo.com। সংগৃহীত নভেম্বর ১৬, ২০১২ 
  29. "Cameron Diaz: being a sex symbol is limiting"। Topcelebrityheadlines.com। মে ১৮, ২০০৯। সংগৃহীত জুলাই ২১, ২০১১ 
  30. "The 100 Greatest Sex Symbols"। Channel 4। ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০০৯। সংগৃহীত জুলাই ২১, ২০১১ 


বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

পূর্বসূরী
ডেভিড ডাচোভনি
স্যাটারডে নাইট লাইভ উপস্থাপক
সেপ্টেম্বর ২৬, ১৯৯৮
উত্তরসূরী
ক্যালসি গ্রামার
পূর্বসূরী
ইয়ান ম্যাককেলেন
স্যাটারডে নাইট লাইভ উপস্থাপক
এপ্রিল ৬, ২০০২
উত্তরসূরী
দি রক
পূর্বসূরী
এষ্টন কার্টচার
স্যাটারডে নাইট লাইভ উপস্থাপক
এপ্রিল ৯, ২০০৫
উত্তরসূরী
টম ব্রেডি
পূর্বসূরী
উডি হ্যারেলসন
স্যাটারডে নাইট লাইভ উপস্থাপক
নভেম্বর ২২, ২০১৪
উত্তরসূরী
জেমস ফ্রাঙ্কো