২০০৯ আইসিসি বিশ্ব টুয়েন্টি২০

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(২০০৯ বিশ্ব টুয়েন্টি২০ থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
২০০৯ আইসিসি বিশ্ব টুয়েন্টি২০
Icc-world-twenty20-2009.png
২০০৯ আইসিসি বিশ্ব টুয়েন্টি২০ লোগো
তারিখ৫ জুন – ২১ জুন ২০০৯
ব্যবস্থাপকআন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল
ক্রিকেটের ধরনটুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক
প্রতিযোগিতার ধরনগ্রুপ পর্বনক-আউট
আয়োজক ইংল্যান্ড
বিজয়ী পাকিস্তান (১ম শিরোপা)
অংশগ্রহণকারী১২ (১৬ দল থেকে)
খেলার সংখ্যা২৭
প্রতিযোগিতার সেরা
খেলোয়াড়
শ্রীলঙ্কা তিলকরত্নে দিলশান
সর্বোচ্চ রানশ্রীলঙ্কা তিলকরত্নে দিলশান (৩১৭)
সর্বোচ্চ উইকেটপাকিস্তান উমর গুল (১৩)
প্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইটhttp://cricket.yahoo.com

২০০৯ আইসিসি বিশ্ব টুয়েন্টি২০ প্রতিযোগিতা জুন, ২০০৯ সালে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত হয়।[১] সেপ্টেম্বর, ২০০৭ সালে আইসিসি বিশ্ব টুয়েন্টি২০ প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী আসর দক্ষিণ আফ্রিকায় অনুষ্ঠিত হবার পর এটি হচ্ছে দ্বিতীয় আসর।[২] প্রতিযোগিতায় ১০টি টেস্টভূক্ত দেশের মধ্যে ৯টি দেশের পুরুষ দলসহ বাছাই পর্বে যোগ্যতা অর্জনকারী তিনটি সহযোগী সদস্য এতে অংশগ্রহণ করে। লন্ডনের লর্ড’স এবং ওভাল ও নটিংহ্যামের ট্রেন্ট ব্রিজে সবগুলো খেলা অনুষ্ঠিত হয়। মহিলাদের প্রতিযোগিতাটিও একই সময়ে অনুষ্ঠিত হয়। ২১ জুন লর্ডসে চূড়ান্ত খেলা অনুষ্ঠিত হয়। শ্রীলঙ্কাকে ৮ উইকেটে হারিয়ে পাকিস্তান এবং মহিলাদের প্রতিযোগিতায় নিউজিল্যান্ডকে ৬ উইকেটে হারিয়ে ইংল্যান্ড মহিলা ক্রিকেট দল চ্যাম্পিয়ন হয়।[৩][৪]

সময়সূচী[সম্পাদনা]

ব্রিটিশ গ্রীষ্মকালীন সময় (ইউটিসি+০১) সময়সূচী মোতাবেক।

প্রস্তুতিমূলক খেলা[সম্পাদনা]

প্রস্তুতিমূলক খেলা
১৩/১৪ মে ২০০৯
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
১৩৩/৯ (২০ ওভার)
বাংলাদেশ বাংলাদেশ এ
১৩৪/৪ (১৯.৪ ওভার)
  • বাংলাদেশ টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২০ মে ২০০৯
স্কোরকার্ড
সালমান বাট ৬০ (৫৩)
ওয়াহাব রিয়াজ ১/১৬ (৩ ওভার)
  • চেয়ারম্যান একাদশ টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২৬ মে ২০০৯
১৫:০০
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
১৪৬/৬ (২০ ওভার)
 নিউজিল্যান্ড
১৪৭/৬ (২০ ওভার)
নিউজিল্যান্ড ৪ উইকেটে বিজয়ী
স্যার পল গেটিজ গ্রাউন্ড, ওর্মসলে
  • বাংলাদেশ টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২৭ মে ২০০৯
১৪:০০
স্কোরকার্ড
আয়ারল্যান্ড 
১৫২/৫ (২০ ওভার)
 নিউজিল্যান্ড
১৫৩/৩ (১৭ ওভার)
জেরেমি ব্রে ৪৮ (৪৩)
জেসি রাইডার ৩/৪ (২ ওভার)
রস টেলর ৭৪* (৩৬)
পিটার কনেল ২/১৯ (৩ ওভার)
  • নিউজিল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২৮ মে ২০০৯
১২:০০
স্কোরকার্ড
আয়ারল্যান্ড 
১৩৯/৯ (২০ ওভার)
জন মুনি ৫৭ (৪৩)
পিটার সাচ ৩/১৭ (৪ ওভার)
  • আয়ারল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২৮ মে ২০০৯
১২:০০
স্কোরকার্ড
ওয়েস্ট ইন্ডিজ 
143/6 (২০ ওভার)
 স্কটল্যান্ড
129/9 (২০ ওভার)
কলিন স্মিথ ৪০ (৪০)
ড্যারেন স্যামি ৩/২৫ (৩ ওভার)
  • স্কটল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২৮ মে ২০০৯
১৩:৩০
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
২০৬/৬ (২০ ওভার)
 নেদারল্যান্ডস
১৪২ (১৭ ওভার)
পিটার বোরেন ৪০ (২২)
রুবেল হোসেন ৪/১৯ (৩ ওভার)
  • নেদারল্যান্ডস টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২৯ মে ২০০৯
স্কোরকার্ড
নেদারল্যান্ডস 
১৬৭/৫ (২০ ওভার)
  • পিসিএ মাস্টার্স একাদশ টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।


২৯ মে ২০০৯
স্কোরকার্ড
স্কটল্যান্ড 
১৪১/৭ (২০ ওভার)
 বাংলাদেশ
১৪২/২ (১৮.৪ ওভার)
  • বাংলাদেশ টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

৩০ মে ২০০৯
স্কোরকার্ড
আয়ারল্যান্ড 
১১৯ (১৯.২ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
১২০/৫ (১৭.৫ ওভার)
  • আয়ারল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

৩০ মে ২০০৯
স্কোরকার্ড
নিউজিল্যান্ড 
১৯৪/৮ (২০ ওভার)
 নেদারল্যান্ডস
১০৪ (১৯.৩ ওভার)
নিউজিল্যান্ড ৯০ রানে বিজয়ী
স্যার পল গেটিজ গ্রাউন্ড, ওর্মসলে
  • নিউজিল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

৩০ মে ২০০৯
স্কোরকার্ড
স্কটল্যান্ড 
১৬০/৬ (২০ ওভার)
জেসন গালিয়ান ৫০ (৩৬)
মজিদ হক ২/১৮ (৪ ওভার)
  • স্কটল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১ জুন ২০০৯
১৩:৩০
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
২১৯/৬ (২০ ওভার)
 বাংলাদেশ
১৮১/৭ (২০ ওভার)
সাকিব আল হাসান ৫৪ (২৯)
মিচেল জনসন ৩/২১ (৪ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ৩৮ রানে বিজয়ী
ট্রেন্ট ব্রিজ, নটিংহ্যাম
আম্পায়ার: নাইজেল লংআমিশ সাহেবা
  • অস্ট্রেলিয়া টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১ জুন ২০০৯
১৩:৩০
স্কোরকার্ড
নেদারল্যান্ডস 
১৩৫/৯ (২০ ওভার)
 আয়ারল্যান্ড
১৩৫/৭ (২০ ওভার)
আন্দ্রে বোথা ৩৫ (৩২)
পিটার সিলার ৩/২৮ (৪ ওভার)
  • নেদারল্যান্ডস টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১ জুন ২০০৯
১৭:৩০
স্কোরকার্ড
নিউজিল্যান্ড 
১৭০/৭ (২০ ওভার)
 ভারত
১৬১/৬ (২০ ওভার)
রস টেলর ৪১ (৩৩)
ইশান্ত শর্মা ৪/২৫ (৪ ওভার)
নিউজিল্যান্ড ৯ রানে বিজয়ী
লর্ড’স, লন্ডন
আম্পায়ার: রড টাকারমারাইজ ইরাসমাস
  • ভারত টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১ জুন ২০০৯
১৭:৩০
স্কোরকার্ড
দক্ষিণ আফ্রিকা 
১৮৬/৭ (২০ ওভার)
 পাকিস্তান
১২৭ (১৯.৪ ওভার)
গ্রেইম স্মিথ ৭০ (৫২)
সাঈদ আজমল ২/২৪ (৪ ওভার)
আহমেদ শেহজাদ ৩১ (২৬)
যোহন বোথা ২/১৯ (৪ ওভার)
দক্ষিণ আফ্রিকা ৫৯ রানে বিজয়ী
ট্রেন্ট ব্রিজ, নটিংহ্যাম
আম্পায়ার: নাইজেল লংআমিশ সাহেবা
  • দক্ষিণ আফ্রিকা টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২ জুন ২০০৯
১৩:৩০
স্কোরকার্ড
আয়ারল্যান্ড 
১৩০/৭ (২০ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
১৩৪/১ (২০ ওভার)
জেরেমি ব্রে ৩০ (২৯)
সুলেইমান বেন ২/২৪ (৪ ওভার)
ক্রিস গেইল ৮৮(অপরাজিত (ক্রিকেট)
কাইল ম্যাককলান ১/৩০ (৩ ওভার)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৯ উইকেটে বিজয়ী
দি ওভাল, লন্ডন
আম্পায়ার: মারাইজ ইরাসমাসরড টাকার
  • আয়ারল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২ জুন ২০০৯
১৩:৩০
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
১৫১/৬ (২০ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
১৫২/৬ (১৯.৪ ওভার)
রাকিবুল হাসান ৩৮* (৪০)
ইসুরু উদানা ২/৩০ (৪ ওভার)
শ্রীলঙ্কা ৪ উইকেটে বিজয়ী
ট্রেন্ট ব্রিজ, নটিংহ্যাম
আম্পায়ার: নাইজেল লংআমিশ সাহেবা
  • বাংলাদেশ টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২ জুন ২০০৯
১৭:৩০
স্কোরকার্ড
নিউজিল্যান্ড 
১৪৭ (১৯.৫ ওভার)
 অস্ট্রেলিয়া
১৫১/৩ (১৯.২ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ৭ উইকেটে বিজয়ী
দি ওভাল, লন্ডন
আম্পায়ার: স্টিভ বাকনরস্টিভ ও’শাগনেসি
  • নিউজিল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২ জুন ২০০৯
১৭:৩০
স্কোরকার্ড
স্কটল্যান্ড 
১৩৬/৫ (২০ ওভার)
 ইংল্যান্ড
১৪১/৪ (১৯ ওভার)
কলিন স্মিথ ৪৫ (৩১)
পল কলিংউড ২/১৮ (৩ ওভার)
কেভিন পিটারসন ৫৩* (৩৯)
মাজিদ হক ২/১৯ (৪ ওভার)
ইংল্যান্ড ৬ উইকেটে বিজয়ী
ট্রেন্ট ব্রিজ, নটিংহ্যাম
আম্পায়ার: নাইজেল লংআমিশ সাহেবা
  • স্কটল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

৩ জুন ২০০৯
১৩:৩০
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
১০৯/৯ (২০ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
১১৩/৪ (১৯.১ ওভার)
দক্ষিণ আফ্রিকা ৬ উইকেটে বিজয়ী
লর্ড’স, লন্ডন
আম্পায়ার: টনি হিলসাইমন টাওফেল
  • দক্ষিণ আফ্রিকা টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

৩ জুন ২০০৯
১৩:৩০
স্কোরকার্ড
স্কটল্যান্ড 
১২৮/৯ (২০ ওভার)
 নেদারল্যান্ডস
১৩০/৩ (১৯.৩ ওভার)
নেদারল্যান্ড ৭ উইকেটে বিজয়ী
দি ওভাল, লন্ডন
আম্পায়ার: বিলি বাউডেনডেরিল হার্পার
  • নেদারল্যান্ডস টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

৩ জুন ২০০৯
১৭:৩০
স্কোরকার্ড
ওয়েস্ট ইন্ডিজ 
১৪৪/৬ (২০ ওভার)
 ইংল্যান্ড
১৪৫/১ (১৪.১ ওভার)
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজ টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

৩ জুন ২০০৯
১৭:৩০
স্কোরকার্ড
পাকিস্তান 
১৫৮/৬ (২০ ওভার)
 ভারত
১৫৯/১ (১৭ ওভার)
মিসবাহ-উল-হক ৩৭ (৩০)
ইশান্ত শর্মা ১/১১ (৩ ওভার)
রোহিত শর্মা ৮০ (৫৩)
মোহাম্মদ আমির ১/১৮ (৩ ওভার)
  • পাকিস্তান টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

গ্রুপ পর্ব[সম্পাদনা]

গ্রুপ এ[সম্পাদনা]

দল বাছাই খেলা জয় পরাজয় এন.আর এনআরআর পয়েন্ট
 ভারত (১) এ১ +১.২২৭
 আয়ারল্যান্ড (৯) এ২ −০.১৬২
 বাংলাদেশ (৮) −০.৯৬৬
৬ জুন ২০০৯
১৮:০০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ভারত 
১৮০/৫ (২০ ওভার)
 বাংলাদেশ
১৫৫/৮ (২০ ওভার)
গৌতম গম্ভীর ৫০ (৪৬)
নাঈম ইসলাম ২/৩২ (৩ ওভার)
ভারত ৫ রানে বিজয়ী
ট্রেন্ট ব্রিজ, নটিংহ্যাম
আম্পায়ার: বিলি বাউডেন (নিউজিল্যান্ড) ও সাইমন টাওফেল (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: প্রজ্ঞান ওঝা (ভারত)
  • ভারত টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

৮ জুন ২০০৯
১৩:৩০
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
১৩৭/৮ (২০ ওভার)
 আয়ারল্যান্ড
১৩৮/৪ (১৮.২ ওভার)
আয়ারল্যান্ড ৬ উইকেটে বিজয়ী
ট্রেন্ট ব্রিজ, নটিংহ্যাম
আম্পায়ার: নাইজেল লং (ইংল্যান্ড) ও সাইমন টাওফেল (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: নায়ল ও’ব্রায়ান (আয়ারল্যান্ড)
  • আয়ারল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা থেকে বিদায় নেয়। ভারত ও আয়ারল্যান্ড সুপার এইট পর্বে উত্তীর্ণ হয়।

১০ জুন ২০০৯
১৭:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
আয়ারল্যান্ড 
১১২/৮ (১৮ ওভার)
 ভারত
১১৩/২ (১৫.৩ ওভার)
রোহিত শর্মা ৫২* (৪৫)
রেগান ওয়েস্ট ১/২৩ (৪ ওভার)
ভারত ৮ উইকেটে বিজয়ী
ট্রেন্ট ব্রিজ, নটিংহ্যাম
আম্পায়ার: ইয়ান গোল্ড (ইংল্যান্ড) ও নাইজেল লং (ইংল্যান্ড)
সেরা খেলোয়াড়: জহির খান (ভারত)
  • ভারত টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • বৃষ্টির জন্য উভয় দলের খেলা ১৮ ওভারে নির্ধারণ করা হয়।

গ্রুপ বি[সম্পাদনা]

দল বাছাই খেলা জয় পরাজয় এন.আর এনআরআর পয়েন্ট
 ইংল্যান্ড (৭) বি২ +১.১৭৫
 পাকিস্তান (২) বি১ +০.৮৫০
 নেদারল্যান্ডস (১০) −২.০২৫
৫ জুন ২০০৯
১৭:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড 
১৬২/৫ (২০ ওভার)
 নেদারল্যান্ডস
১৬৩/৬ (২০ ওভার)
নেদারল্যান্ডস ৪ উইকেটে বিজয়ী
লর্ড’স, লন্ডন
আম্পায়ার: অশোকা ডি সিলভা (শ্রীলঙ্কা) ও স্টিভ ডেভিস (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: টম ডি গ্রুথ (নেদারল্যান্ডস)
  • নেদারল্যান্ডস টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

৭ জুন ২০০৯
১৮:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড 
১৮৫/৫ (২০ ওভার)
 পাকিস্তান
১৩৭/৭ (২০ ওভার)
কেভিন পিটারসন ৫৮ (৩৪)
সাঈদ আজমল ২/২৩ (৪ ওভার)
ইউনুস খান ৪৬* (৩১)
স্টুয়ার্ট ব্রড ৩/১৭ (৩ ওভার)
ইংল্যান্ড ৪৮ রানে বিজয়ী
দি ওভাল, লন্ডন
আম্পায়ার: বিলি ডকট্রোভ (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) ও ড্যারিল হার্পার (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: লুক রাইট (ইংল্যান্ড)
  • পাকিস্তান টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • এ ফলাফলে ইংল্যান্ড সুপার এইট পর্বে উত্তীর্ণ হয়।

৯ জুন ২০০৯
১৩:৩০
স্কোরকার্ড
পাকিস্তান 
১৭৫/৫ (২০ ওভার)
 নেদারল্যান্ডস
৯৩ (১৭.৩ ওভার)
কামরান আকমল ৪১ (৩০)
পিটার সিলার ২/৩৬ (৪ ওভার)
পাকিস্তান ৮২ রানে বিজয়ী
লর্ড’স, লন্ডন
আম্পায়ার: বিলি ডকট্রোভ (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) ও আমিশ সাহেবা (ভারত)
সেরা খেলোয়াড়: কামরান আকমল (পাকিস্তান)
  • পাকিস্তান টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • নেদারল্যান্ডস বিদায় নেয়। এ ফলাফলে পাকিস্তান সুপার এইট পর্বে উত্তীর্ণ হয়।

গ্রুপ সি[সম্পাদনা]

দল বাছাই খেলা জয় পরাজয় এন.আর এনআরআর পয়েন্ট
 শ্রীলঙ্কা (৬) সি২ +০.৬২৬
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ (১১) সি১ +০.৭১৫
 অস্ট্রেলিয়া (৩) −১.৩৩১
৬ জুন ২০০৯
১৪:০০
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
১৬৯/৭ (২০ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
১৭২/৩ (১৫.৫ ওভার)
ক্রিস গেইল ৮৮ (৫০)
মিচেল জনসন ২/৩৬ (৩.৫ ওভার)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৭ উইকেটে বিজয়ী
দি ওভাল, লন্ডন
আম্পায়ার: আলীম দার (পাকিস্তান) ও আসাদ রউফ (পাকিস্তান)
সেরা খেলোয়াড়: ক্রিস গেইল (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
  • অস্ট্রেলিয়া টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

৮ জুন ২০০৯
১৭:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
১৫৯/৯ (২০ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
১৬০/৪ (১৯ ওভার)
মিচেল জনসন ২৮* (১৩)
অজন্তা মেন্ডিস ৩/২০ (৪ ওভার)
কুমার সাঙ্গাকারা ৫৫* (৪২)
ব্রেট লি ২/৩৯ (৪ ওভার)
শ্রীলঙ্কা ৬ উইকেটে বিজয়ী
ট্রেন্ট ব্রিজ, নটিংহ্যাম
আম্পায়ার: বিলি বাউডেন (নিউজিল্যান্ড) ও ইয়ান গোল্ড (ইংল্যান্ড)
সেরা খেলোয়াড়: কুমার সাঙ্গাকারা (শ্রীলঙ্কা)
  • শ্রীলঙ্কা টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • অস্ট্রেলিয়া বিদায় নেয়। শ্রীলঙ্কা এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ সুপার এইট পর্বে উত্তীর্ণ হয়।

১০ জুন ২০০৯
১৩:৩০
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
১৯২/৫ (২০ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
১৭৭/৫ (২০ ওভার)
শ্রীলঙ্কা ১৫ রানে বিজয়ী
ট্রেন্ট ব্রিজ, নটিংহ্যাম
আম্পায়ার: বিলি বাউডেন (নিউজিল্যান্ড) ও সাইমন টাওফেল (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: সনাথ জয়াসুরিয়া (শ্রীলঙ্কা)
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজ টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

গ্রুপ ডি[সম্পাদনা]

দল বাছাই খেলা জয় পরাজয় এন.আর এনআরআর পয়েন্ট
 দক্ষিণ আফ্রিকা (৫) ডি২ +৩.২৭৫
 নিউজিল্যান্ড (৪) ডি১ +০.৩০৯
 স্কটল্যান্ড (১২) −৫.২৮১
৬ জুন ২০০৯
১০:০০
স্কোরকার্ড
স্কটল্যান্ড 
৮৯/৪ (৭ ওভার)
 নিউজিল্যান্ড
৯০/৩ (৬ ওভার)
নিউজিল্যান্ড ৭ উইকেটে বিজয়ী
দি ওভাল, লন্ডন
আম্পায়ার: বিলি ডকট্রোভ (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) ও ড্যারিল হার্পার (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: ইয়ান বাটলার (নিউজিল্যান্ড)
  • নিউজিল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • খেলা ৭ ওভারে কমিয়ে আনা হয়।

৭ জুন ২০০৯
১৩:৩০
স্কোরকার্ড
দক্ষিণ আফ্রিকা 
২১১/৫ (২০ ওভার)
 স্কটল্যান্ড
৮১ (১৫.৩ ওভার)
এবি ডি ভিলিয়ার্স ৭৯* (৩৪)
মাজিদ হক ২/২৫ (৪ ওভার)
কাইল কোয়েতজার ৪২ (৩২)
আলবি মরকেল ২/১৫ (১.৪ ওভার)
দক্ষিণ আফ্রিকা ১৩০ রানে বিজয়ী
দি ওভাল, লন্ডন
আম্পায়ার: আসাদ রউফ (পাকিস্তান) ও আমিশ সাহেবা (ভারত)
সেরা খেলোয়াড়: এবি ডি ভিলিয়ার্স (দক্ষিণ আফ্রিকা)
  • স্কটল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • স্কটল্যান্ড প্রতিযোগিতা থেকে বিদায় নেয়। দক্ষিণ আফ্রিকা ও নিউজিল্যান্ড সুপার এইট পর্বে উত্তীর্ণ হয়।

৯ জুন ২০০৯
১৭:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
দক্ষিণ আফ্রিকা 
১২৮/৭ (২০ ওভার)
 নিউজিল্যান্ড
১২৭/৫ (২০ ওভার)
গ্রেইম স্মিথ ৩৩ (৩৫)
ইয়ান বাটলার ২/১৩ (৪ ওভার)
দক্ষিণ আফ্রিকা ১ রানে বিজয়ী
লর্ড’স, লন্ডন
আম্পায়ার: আসাদ রউফ (পাকিস্তান) ও ড্যারিল হার্পার (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: রোলফ ফন ডার মারউই (দক্ষিণ আফ্রিকা)
  • নিউজিল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

সুপার এইট[সম্পাদনা]

গ্রুপ ই[সম্পাদনা]

দল খেলা জয় পরাজয় এন.আর এনআরআর পয়েন্ট
 দক্ষিণ আফ্রিকা +০.৭৮৭
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ +০.০৬৩
 ইংল্যান্ড −০.৪১৪
 ভারত −০.৪৬৬
১১ জুন ২০০৯
১৭:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড 
১১১ (১৯.৫ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
১১৪/৩ (১৮.২ ওভার)
ওয়াইজ শাহ ৩৮ (৩৩)
ওয়েন পারনেল ৩/১৪ (৩.৫ ওভার)
দক্ষিণ আফ্রিকা ৭ উইকেটে বিজয়ী
ট্রেন্ট ব্রিজ, নটিংহ্যাম
আম্পায়ার: স্টিভ ডেভিস (অস্ট্রেলিয়া) ও টনি হিল (নিউজিল্যান্ড)
সেরা খেলোয়াড়: জ্যাক ক্যালিস (দক্ষিণ আফ্রিকা)
  • ইংল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১২ জুন ২০০৯
১৭:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ভারত 
১৫৩/৭ (২০ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
১৫৬/৩ (১৮.৪ ওভার)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৭ উইকেটে বিজয়ী
লর্ড’স, লন্ডন
আম্পায়ার: আলীম দার (পাকিস্তান) ও রুডি কোয়ের্তজেন (দক্ষিণ আফ্রিকা)
সেরা খেলোয়াড়: ডোয়েন ব্র্যাভো (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
  • ভারত টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১৩ জুন ২০০৯
১৩:৩০
স্কোরকার্ড
দক্ষিণ আফ্রিকা 
১৮৩/৭ (২০ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
১৬৩/৯ (২০ ওভার)
হার্শেল গিবস ৫৫ (৩৫)
জেরোমি টেলর ৩/৩০ (৪ ওভার)
লেন্ডল সিমন্স ৭৭ (৫০)
ওয়েন পারনেল ৪/১৪ (৪ ওভার)
দক্ষিণ আফ্রিকা ২০ রানে বিজয়ী
দি ওভাল, লন্ডন
আম্পায়ার: আলীম দার (পাকিস্তান) ও মার্ক বেনসন (ইংল্যান্ড)
সেরা খেলোয়াড়: ওয়েন পারনেল (দক্ষিণ আফ্রিকা)
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজ টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১৪ জুন ২০০৯
১৭:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড 
১৫৩/৭ (২০ ওভার)
 ভারত
১৫০/৫ (২০ ওভার)
কেভিন পিটারসন ৪৬ (২৭)
হরভজন সিং ৩/৩০ (৪ ওভার)
ইউসুফ পাঠান ৩৩ (১৭)
গ্রেইম সোয়ান ২/২৮ (৪ ওভার)
ইংল্যান্ড ৩ রানে বিজয়ী
লর্ড’স, লন্ডন
আম্পায়ার: স্টিভ ডেভিস (অস্ট্রেলিয়া) ও অশোকা ডি সিলভা (শ্রীলঙ্কা)
সেরা খেলোয়াড়: রায়ান সাইডবটম (ইংল্যান্ড)
  • ভারত টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • দক্ষিণ আফ্রিকা সেমি-ফাইনালে উন্নীত হয় ও ভারত প্রতিযোগিতা থেকে বিদায় নেয়।

১৫ জুন ২০০৯
১৭:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড 
১৬১/৬ (২০ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
৮২/৫ (৮.২ ওভার)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৫ উইকেটে বিজয়ী (ডি/এল)
দি ওভাল, লন্ডন
আম্পায়ার: আলীম দার (পাকিস্তান) ও রুডি কোয়ের্তজেন (দক্ষিণ আফ্রিকা)
সেরা খেলোয়াড়: রামনরেশ সারওয়ান (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
  • ইংল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • বৃষ্টির জন্য ডি/এল পদ্ধতিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের পুণঃলক্ষ্যমাত্রা ৯ ওভারে ৮০।
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজ সেমি-ফাইনালে উত্তীর্ণ ও ইংল্যান্ডের প্রতিযোগিতা থেকে বিদায়।

১৬ জুন ২০০৯
১৭:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
দক্ষিণ আফ্রিকা 
১৩০/৫ (২০ ওভার)
 ভারত
১১৮/৮ (২০ ওভার)
রোহিত শর্মা ২৯ (২৮)
যোহন বোথা ৩/১৬ (৪ ওভার)
দক্ষিণ আফ্রিকা ১২ রানে বিজয়ী
ট্রেন্ট ব্রিজ, নটিংহ্যাম
আম্পায়ার: বিলি বাউডেন (নিউজিল্যান্ড) ও ইয়ান গোল্ড (ইংল্যান্ড)
সেরা খেলোয়াড়: এবি ডি ভিলিয়ার্স (দক্ষিণ আফ্রিকা)
  • দক্ষিণ আফ্রিকা টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

গ্রুপ এফ[সম্পাদনা]

দল খেলা জয় পরাজয় এন.আর এনআরআর পয়েন্ট
 শ্রীলঙ্কা +১.২৬৭
 পাকিস্তান +১.১৮৫
 নিউজিল্যান্ড −০.২৩২
 আয়ারল্যান্ড −২.১৮৩
১১ জুন ২০০৯
১৩:৩০
স্কোরকার্ড
নিউজিল্যান্ড 
১৯৮/৫ (২০ ওভার)
 আয়ারল্যান্ড
১১৫ (১৬.৪ ওভার)
নিউজিল্যান্ড ৮৩ রানে বিজয়ী
ট্রেন্ট ব্রিজ, নটিংহ্যাম
আম্পায়ার: অশোকা ডি সিলভা (শ্রীলঙ্কা) ও মারাইজ ইরাসমাস (দক্ষিণ আফ্রিকা)
সেরা খেলোয়াড়: আরন রেডমন্ড (নিউজিল্যান্ড)
  • আয়ারল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১২ জুন ২০০৯
১৩:৩০
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
১৫০/৭ (২০ ওভার)
 পাকিস্তান
১৩১/৯ (২০ ওভার)
ইউনুস খান ৫০ (৩৭)
লাসিথ মালিঙ্গা ৩/১৭ (৪ ওভার)
শ্রীলঙ্কা ১৯ রানে বিজয়ী
লর্ড’স, লন্ডন
আম্পায়ার: মার্ক বেনসন (ইংল্যান্ড) ও রুডি কোয়ের্তজেন (দক্ষিণ আফ্রিকা)
সেরা খেলোয়াড়: তিলকরত্নে দিলশান (শ্রীলঙ্কা)
  • শ্রীলঙ্কা টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১৩ জুন ২০০৯
১৭:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
নিউজিল্যান্ড 
৯৯ (১৮.৩ ওভার)
 পাকিস্তান
১০০/৪ (১৩.১ ওভার)
স্কট স্টাইরিস ২২ (২৯)
উমর গুল ৫/৬ (৩ ওভার)
পাকিস্তান ৬ উইকেটে বিজয়ী
দি ওভাল, লন্ডন
আম্পায়ার: মার্ক বেনসন (ইংল্যান্ড) ও রড টাকার (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: উমর গুল (পাকিস্তান)
  • নিউজিল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • টুয়েন্টি২০ ক্রিকেটে প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে উমর গুল ৫ উইকেট লাভ করেন।

১৪ জুন ২০০৯
১৩:৩০
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
১৪৪/৯ (২০ ওভার)
 আয়ারল্যান্ড
১৩৫/৭ (২০ ওভার)
জন মুনি ৩১* (২১)
লাসিথ মালিঙ্গা ২/১৯ (৪ ওভার)
শ্রীলঙ্কা ৯ রানে বিজয়ী
লর্ড’স, লন্ডন
আম্পায়ার: মারাইজ ইরাসমাস (দক্ষিণ আফ্রিকা) ও টনি হিল (নিউজিল্যান্ড)
সেরা খেলোয়াড়: মাহেলা জয়াবর্ধনে (শ্রীলঙ্কা)
  • শ্রীলঙ্কা টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • আয়ারল্যান্ড প্রতিযোগিতা থেকে বিদায় নেয়।

১৫ জুন ২০০৯
১৩:৩০
স্কোরকার্ড
পাকিস্তান 
১৫৯/৫ (২০ ওভার)
 আয়ারল্যান্ড
১২০/৯ (২০ ওভার)
পাকিস্তান ৩৯ রানে বিজয়ী
দি ওভাল, লন্ডন
আম্পায়ার: রুডি কোয়ের্তজেন (দক্ষিণ আফ্রিকা) ও রড টাকার (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: কামরান আকমল (পাকিস্তান)
  • পাকিস্তান টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • পাকিস্তান সেমি-ফাইনালে উত্তীর্ণ হয়।

১৬ জুন ২০০৯
১৩:৩০
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
১৫৮/৫ (২০ ওভার)
 নিউজিল্যান্ড
১১০ (১৭ ওভার)
শ্রীলঙ্কা ৪৮ রানে বিজয়ী
ট্রেন্ট ব্রিজ, নটিংহ্যাম
আম্পায়ার: স্টিভ ডেভিস (অস্ট্রেলিয়া) ও সাইমন টাওফেল (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: অজন্তা মেন্ডিস (শ্রীলঙ্কা)
  • শ্রীলঙ্কা টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • শ্রীলঙ্কা সেমি-ফাইনালে উত্তীর্ণ হয় ও নিউজিল্যান্ড প্রতিযোগিতা থেকে বিদায় নেয়।

নক-আউট পর্ব[সম্পাদনা]

সেমি-ফাইনাল ফাইনাল
১৮ জুন – ট্রেন্ট ব্রিজ
  দক্ষিণ আফ্রিকা ১৪২/৫ (২০.০)  
  পাকিস্তান ১৪৯/৪ (২০.০)  
 
২১ জুন – লর্ড’স
      পাকিস্তান ১৩৯/২ (১৮.৪)
    শ্রীলঙ্কা ১৩৮/৬ (২০.০)
১৯ জুন - দি ওভাল
  শ্রীলঙ্কা ১৫৮/৫ (২০.০)
  ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১০১ (১৭.৪)  

সেমি-ফাইনাল[সম্পাদনা]

১৮ জুন ২০০৯
১৭:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
পাকিস্তান 
১৪৯/৪ (২০ ওভার)
 দক্ষিণ আফ্রিকা
১৪২/৫ (২০ ওভার)
শহীদ আফ্রিদি ৫১ (৩৪)
জেপি ডুমিনি ১/১৪ (২ ওভার)
জ্যাক ক্যালিস ৬৪ (৫৪)
শহীদ আফ্রিদি ২/১৬ (৪ ওভার)
পাকিস্তান ৭ রানে বিজয়ী
ট্রেন্ট ব্রিজ, নটিংহ্যাম
আম্পায়ার: বিলি বাউডেন (নিউজিল্যান্ড) ও স্টিভ ডেভিস (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: শহীদ আফ্রিদি (পাকিস্তান)
  • পাকিস্তান টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

১৯ জুন ২০০৯
১৭:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
১৫৮/৫ (২০ ওভার)
 ওয়েস্ট ইন্ডিজ
১০১ (১৭.৪ ওভার)
শ্রীলঙ্কা ৫৭ রানে বিজয়ী
দি ওভাল, লন্ডন
আম্পায়ার: আলীম দার (পাকিস্তান) ও রুডি কোয়ের্তজেন (দক্ষিণ আফ্রিকা)
সেরা খেলোয়াড়: তিলকরত্নে দিলশান (শ্রীলঙ্কা)
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজ টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • দিলশান দলের ৬০.৭৬% রান করেন ও নতুন রেকর্ড গড়েন। একঘন্টা বাদেই ক্রিস গেইল ৬২.৩৮% রান করে নতুন রেকর্ড গড়েন।
  • ক্রিস গেইল প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে টুয়েন্টি২০ ক্রিকেটে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ব্যাটিং করেন।''

ফাইনাল[সম্পাদনা]

২১ জুন ২০০৯
১৫:০০
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
১৩৮/৬ (২০ ওভার)
 পাকিস্তান
১৩৯/২ (১৮.৪ ওভার)
পাকিস্তান ৮ উইকেটে বিজয়ী
লর্ড’স, লন্ডন
আম্পায়ার: ড্যারিল হার্পার (অস্ট্রেলিয়া) ও সাইমন টাওফেল (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: শহীদ আফ্রিদি (পাকিস্তান)
  • শ্রীলঙ্কা টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ICC World Twenty20 2009 to be held in June ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৭ ফেব্রুয়ারি ২০০৯ তারিখে, Cricinfo. Retrieved 28 November 2007
  2. "ICC events"cricinfo.com। সংগ্রহের তারিখ 2006  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  3. "Pakistan power to Twenty20 glory"BBC Sport। ২১ জুন ২০০৯। ২২ জুন ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ জুন ২০০৯ 
  4. Atherton, Mike (২১ জুন ২০০৯)। "Katherine Brunt leads England to World Twenty20 title"The Times। Times Newspapers। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০০৯ 

পাদটীকা[সম্পাদনা]

  • Miller, Andrew (৪ জুন ২০০৯)। "Bringing the monster back home"CricInfo। ESPN। ৭ জুন ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ জুন ২০০৯ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]