গৌতম গম্ভীর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
গৌতম গম্ভীর
Gauti.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
জন্ম (1981-10-14) ১৪ অক্টোবর ১৯৮১ (বয়স ৩৮)
নয়াদিল্লি, ভারত
উচ্চতা৫ ফুট ৬ ইঞ্চি (১.৬৮ মিটার)
ব্যাটিংয়ের ধরনবামহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি লেগ ব্রেক
ভূমিকাউদ্বোধনী ও শীর্ষসারির ব্যাটসম্যান
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ২৪৯)
৩ নভেম্বর ২০০৪ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ টেস্ট১৭ ডিসেম্বর ২০১২ বনাম ইংল্যান্ড
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১৪৯)
১১ এপ্রিল ২০০৩ বনাম বাংলাদেশ
শেষ ওডিআই২৭ জানুয়ারি ২০১৩ বনাম ইংল্যান্ড
টি২০আই অভিষেক
(ক্যাপ ১২)
১৩ সেপ্টেম্বর ২০০৭ বনাম স্কটল্যান্ড
শেষ টি২০আই২৮ ডিসেম্বর ২০১২ বনাম পাকিস্তান
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৯৯/০০-বর্তমানদিল্লি
২০০৮-২০১০দিল্লি ডেয়ারডেভিলস
২০১১-বর্তমানকলকাতা নাইট রাইডার্স
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ৫৪ ১৪৭ ১৪১ ২৫৭
রানের সংখ্যা ৪,০২১ ৫,২৩৮ ১১,২৭৪ ৮,৮১৫
ব্যাটিং গড় ৪৪.১৮ ৩৯.৬৮ ৫১.৪৭ ৩৭.৯৯
১০০/৫০ ৯/২১ ১১/৩৪ ৩৩/৫০ ১৯/৫৪
সর্বোচ্চ রান ২০৬ ১৫০* ২৩৩* ১৫০*
বল করেছে ১২ ৩৯৭ ৩৭
উইকেট
বোলিং গড় ৪০.১৪ ৩৬.০০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট -
সেরা বোলিং ৩/১২ ১/৭
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৩৮/– ৩৬/– ৮৭/– ৬৮/–
উৎস: Cricinfo, ১৩ মার্চ ২০১৩

গৌতম গম্ভীর (এই শব্দ সম্পর্কেউচ্চারণ ; জন্ম: ১৪ অক্টোবর, ১৯৮১) নয়াদিল্লিতে জন্মগ্রহণকারী ভারতের একজন প্রাক্তন ক্রিকেটার এবং রাজনীতিবিদ। ২০১৯ সাল থেকে তিনি লোকসভার বর্তমান সদস্য। গৌতি ডাকনামে তিনি সমর্থকদের কাছে পরিচিত হয়ে আসছেন। বামহাতি উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে তিনি মাঠে নামতেন। ২০১০ সালের শেষার্ধ্ব থেকে ২০১১ সালের শেষার্ধ্ব পর্যন্ত একদিনের ক্রিকেটে অধিনায়কত্ব করেছেন। এক সময় তিনি ভারতের পক্ষ হয়ে টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিকে শীর্ষ রান সংগ্রহকারী ও একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নবম সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারীর ভূমিকায় অবস্থান করছেন।[১][২] সহ-খেলোয়াড় বীরেন্দ্র শেওয়াগ তাকে সুনীল গাভাস্কারের পর সেরা উদ্বোধনী ব্যাটসম্যানরূপে উল্লেখ করেছেন।[৩]

একজন ক্রিকেটার হিসাবে, তিনি ছিলেন বাঁ-হাতি উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান, যিনি দিল্লির হয়ে ঘরোয়া ক্রিকেট খেলতেন এবং ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) কলকাতা নাইট রাইডার্স এবং পরবর্তীকালে দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের অধিনায়কও ছিলেন। ২০০৩ সালে তিনি বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডে আন্তর্জাতিক (ওয়ানডে) আত্মপ্রকাশ করেছিলেন এবং ঠিক পরের বছর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তিনি প্রথম টেস্ট ক্রিকেট আত্মপ্রকাশ করেন। ২০১০ এর শেষ থেকে ২০১১ সালের শেষদিকে অবধি, তিনি ভারতীয় দলের অধিনায়ক থাকাকালীন ভারত ছয়টি ওয়ানডে খেলে এবং প্রত্যেকটিতে জয়ী হয়েছিল। ২০০৭ সালের বিশ্বকাপ টি-টোয়েন্টিতে (মাত্র ৫৪ বল থেকে ৭৫ রান) এবং ২০১১ ক্রিকেট ওয়ানডে বিশ্বকাপে (১২২ বলে ৯৭ রান)) উভয়ের ফাইনালে তিনি ভারতের মহাকাব্য জয়ের এক অবিচ্ছেদ্য অংশীদার ছিলেন। গম্ভীরের নেতৃত্বে কলকাতা নাইট রাইডার্স ২০১২ সালে তাদের প্রথম আইপিএল শিরোপা জিতেছিল এবং আরও একবার ২০১৪ সালে শিরোপা জিতেছিল।

গম্ভীর একমাত্র ভারতীয় এবং চারজন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারের মধ্যে একজন যিনি টানা পাঁচটি টেস্ট ম্যাচে শতরান করার নজির গড়েন।[৪] আবার তিনিই একমাত্র ভারতীয় ব্যাটসম্যান যিনি টানা চারটি টেস্ট সিরিজে ৩০০ রানেরও বেশি রান করেছেন। এপ্রিল ২০১৮ সাল পর্যন্ত, টি-টোয়েন্টি আন্তর্জাতিক ম্যাচেে তিনি ভারতের পক্ষে ষষ্ঠ সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী ক্রিকেটার ছিলেন।[৫] ২০০৮ সালে তাঁর ভারতীয় এবং আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তাঁর অবদানের জন্য অর্জুন পুরস্কার লাভ করেন, ভারতের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ক্রীড়া পুরস্কার।[৬] ২০০৯ সালে, তিনি আইসিসি টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ে প্রথম স্থান অধিকারী ব্যাটসম্যান ছিলেন। [৭][৮] একই বছর তিনি আইসিসির টেস্ট প্লেয়ার অফ দ্য ইয়ার পুরষ্কার লাভ করেন। ২০১৯ সালে, তিনি ভারত সরকারের দ্বারা পদ্মশ্রী পুরস্কারে ভূষিত হন, ভারতের চতুর্থ সর্বোচ্চ বেসামরিক পুরস্কার।[৯][১০]

২০১৮ সালের অক্টোবরে, ২০১৮–১৯ বিজয় হাজারে ট্রফির কোয়ার্টার ফাইনালের সময়, তিনি প্রথম শ্রেণী ক্রিকেটে তাঁর ১০,০০০ তম রান সম্পূর্ণ করেন[১১] এবং সেই বছরের ডিসেম্বর, সকল প্রকার ক্রিকেট থেকে তাঁর অবসরের কথা ঘোষণা করেছিলেন।[১২]

২০১৯ সালে, তিনি ভারতীয় জনতা পার্টিতে যোগ দিয়েছিলেন এবং পূর্ব দিল্লি থেকে লোকসভা ভোটে জয়লাভ করে বর্তমান তিনি লোকসভার একজন সদস্য।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

টেক্সটাইল ব্যবসায়ী দীপক গম্ভীর পিতা ও গৃহিণী সীমা গম্ভীরের সন্তান গৌতম গম্ভীর ১৪ অক্টোবর, ১৯৮১ তারিখে নয়াদিল্লিতে জন্মগ্রহণ করেন। একতা নাম্নী তার ছোট বোন রয়েছে।[৩] নয়াদিল্লির মডার্ন স্কুলে ভর্তি হন। পরবর্তীতে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে হিন্দু কলেজ থেকে স্নাতক ডিগ্রী লাভ করেন।[৩]

২৮ অক্টোবর, ২০১১ তারিখে নাতাশা জৈন নাম্নী বিখ্যাত ব্যবসায়ী পরিবারের কন্যার পাণিগ্রহণ করেন তিনি।[১৩] বর্তমানে তারা দিল্লির রাজেন্দ্রনগরে বসবাস করছে।[৩]

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

২০০৩ সালে বাংলাদেশ দলের বিপক্ষে একদিনের আন্তর্জাতিকের মাধ্যমে অভিষেক ঘটে তার। পরের বছর অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টেস্টে অভিষিক্ত হন। একমাত্র ভারতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে ধারাবাহিকভাবে চারটি টেস্ট সিরিজে তিন শতাধিক রান করেছেন। এছাড়াও, আন্তর্জাতিক পর্যায়ের চারজন ব্যাটসম্যানের একজন হিসেবে ধারাবাহিকভাবে পাঁচটি টেস্টে পাঁচটি শতক হাকিয়েছেন।[১৪]

স্বীকৃতি[সম্পাদনা]

টেস্টে ধারাবাহিকভাবে অর্ধ-শতক লাভকারী ক্রিকেটার
দক্ষিণ আফ্রিকা এবি ডি ভিলিয়ার্স
১২
ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ ভিভ রিচার্ডস
১১
ভারত গৌতম গম্ভীর
১১
ভারত বীরেন্দ্র শেওয়াগ
১১
বাংলাদেশ মমিনুল হক
১১
ইংল্যান্ড জন এডরিচ
১১
ভারত শচীন তেন্ডুলকর
১০

উৎস: ক্রিকইনফো
যোগ্যতা: খেলোয়াড়ী জীবনে ধারাবাহিকভাবে কমপক্ষে ১০ অর্ধ-শতক

ভারত সরকার প্রদত্ত দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ক্রীড়া সম্মাননা হিসেবে অর্জুন পুরস্কার লাভ করেছেন গৌতম গম্ভীর।[১৫] ২০০৯ সালে আইসিসি প্রবর্তিত টেস্ট র‌্যাঙ্কিং প্রথায় সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য প্রথম স্থানে অধিষ্ঠিত ছিলেন।[১৬][১৭] একই বছর আইসিসি বর্ষসেরা টেস্ট খেলোয়াড়ের পুরস্কারও তিনি লাভ করেছিলেন।[১৮]

রাজনীতি[সম্পাদনা]

২২ শে মার্চ ২০১৯, গম্ভীর কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অরুণ জেটলি এবং রবিশঙ্কর প্রসাদের উপস্থিতিতে ভারতীয় জনতা পার্টিতে (বিজেপি) যোগদান করেছিলেন।[১৯][২০] ২০১২ সালের ভারতীয় সাধারণ নির্বাচনে তিনি পূর্ব দিল্লি থেকে ভারতীয় জনতা পার্টিতে (বিজেপি) দলের প্রার্থী ছিলেন।[২১] তার বিরোধী অতীশী মার্লেনা তাকে এক বিতর্কের মঞ্চে আসবার চ্যালেঞ্জ জানানোর পরে, গম্ভীর তাঁর চ্যালেঞ্জ প্রত্যাখ্যান করে বলেছিলেন যে তিনি "ধর্না এবং বিতর্কে" বিশ্বাস করেন না।[২২] পরবর্তী সময়ে, গম্ভীর তাঁর নিকটবর্তী পার্থীদের থেকে ৬৯৫,১০৯ ভোটে জয়ী হন।[২৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. http://stats.espncricinfo.com/india/engine/records/batting/most_runs_career.html?class=3;id=6;type=team
  2. http://stats.espncricinfo.com/india/engine/records/batting/most_runs_career.html?class=2;id=6;type=team
  3. "A knight's tale"। TOI। ১০ জুন ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ৩ অক্টোবর ২০১২ 
  4. "Records - Test matches - Batting records - Hundreds in consecutive matches - ESPNcricinfo"Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ 
  5. Cricket Records | India | Records | Twenty20 Internationals | Most runs | ESPN Cricinfo ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১৭ নভেম্বর ২০১১ তারিখে. Stats.espncricinfo.com. Retrieved on 23 December 2013.
  6. Gambhir honoured with Arjuna Award | India Cricket News. ESPN Cricinfo. Retrieved on 23 December 2013.
  7. "Gambhir is No. 1 Test batsman"। ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ এপ্রিল ২০১৩ 
  8. "Sangakkara topples Gambhir from top of ICC Test rankings"The Times of India। ২৫ জুলাই ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০০৯ 
  9. "Mountaineer Bachendri Pal conferred with Padma Bhushan; Padma Shri for Gautam Gambhir, Sunil Chhetri - Times of India"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জানুয়ারি ২০১৯ 
  10. "मनोज वाजपेयी, कादर खान, गौतम गंभीर समेत 94 को पद्म श्री, यहां देखें पूरी लिस्ट"Zee News Hindi (ইংরেজি ভাষায়)। ২৬ জানুয়ারি ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জানুয়ারি ২০১৯ 
  11. "Vijay Hazare Trophy: Gautam Gambhir reaches major milestone on 37th birthday"Times Now News। সংগ্রহের তারিখ ১৪ অক্টোবর ২০১৮ 
  12. "Gautam Gambhir retires from all cricket"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৪ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  13. "Gautam Gambhir to marry Natasha Jain today"। ২৮ অক্টো ২০১১। 
  14. in consecutive matches[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  15. http://www.espncricinfo.com/india/content/story/422652.html
  16. Gambhir is No. 1 Test batsman[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  17. "Sangakkara topples Gambhir from top of ICC Test rankings"The Times of India। ২৫ জুলাই ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ১১ আগস্ট ২০০৯ 
  18. "Gambhir ICC Test Player of Year, Dhoni ODI Player"। সংগ্রহের তারিখ Oct 02 2009  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  19. "Ex-cricketer Gautam Gambhir joins BJP"Deccan Chronicle (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১২ মার্চ ২০১৯ 
  20. "Ex-cricketer Gautam Gambhir begins political innings with BJP, says 'impressed by PM Modi's vision'" (ইংরেজি ভাষায়)। ২২ মার্চ ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ২২ মার্চ ২০১৯ 
  21. Tiwari, Vaibhav (২২ এপ্রিল ২০১৯)। "Cricketer-Turned-Politician Gautam Gambhir Is BJP's East Delhi Candidate"NDTV (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৩ এপ্রিল ২০১৯ 
  22. "'Why Enter Politics if You Don't Believe in Debates?' Atishi Slams Gambhir For Declining Her Challenge"News18। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-১২ 
  23. "Gautam Gambhir won from east delhi"NDTV Khabar। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-২৪ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]