জাকিয়া বারী মম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
জাকিয়া বারী মম
জন্ম জাকিয়া বারী মম
(১৯৮৫-০৮-১৪) ১৪ আগস্ট ১৯৮৫ (বয়স ৩২)
ব্রহ্মপুর, ঢাকা, বাংলাদেশ
বাসস্থান ঢাকা, বাংলাদেশ
জাতীয়তা বাংলাদেশী
অন্য নাম মম
জাতিসত্তা বাঙালি
নাগরিকত্ব বাংলাদেশি
শিক্ষা নাট্য এবং নাট্যতত্ত্ব
শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়
পেশা অভিনেত্রী এবং মডেল
কার্যকাল ২০০৬ – বর্তমান
যে জন্য পরিচিত লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার প্রতিযোগিতা
উল্লেখযোগ্য কাজ
আদি শহর ব্রাহ্মণবাড়িয়া, বাংলাদেশ
ধর্ম ইসলাম
দাম্পত্য সঙ্গী এজাজ মুন্না
সন্তান উদ্ভাস (ছেলে)
পিতা-মাতা মজিবুল বারী (বাবা)
আয়েশা আক্তার (মা)
পুরস্কার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার
মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার

জাকিয়া বারী মম (জন্ম: ১৪ আগস্ট, ১৯৮৫) একজন বাংলাদেশী অভিনেত্রী এবং মডেল। তিনি ২০০৬ সালে লাক্স চ্যানেল আই সুপারস্টার সৌন্দর্য্য প্রতিযোগিতায় জয়লাভ করেন। ২০০৭ সালে তৌকির আহমেদ পরিচালিত দারুচিনি দ্বীপ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্র জগতে তার আবির্ভাব ঘটে। চলচ্চিত্রে অভিনয়ের পাশাপাশি তিনি টেলিভিশন নাটকেও কাজ করেছেন।[১]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

জাকিয়া বারী মম ১৯৮৫ সালের ১৪ আগস্ট বাংলাদেশের ঢাকার বাহরামপুরে জন্মগ্রহন করেন। তার বাবা মজিবুল বারী ও মা আয়েশা আক্তার। তার শৈশব কাটে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায়। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আলাউদ্দিন খাঁ সঙ্গীতাঙ্গনে নাচ শিখেন কবিরুল ইসলাম রতনের কাছে। প্রথম টেলিভিশনে আবির্ভূত হন ১৯৯৫ সালে। তিনি বাংলাদেশ টেলিভিশনের নতুন কুড়ি প্রতিযোগিতায় পুরুষ্কার লাভ করেন। এরপর ২০০৬ সালে লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার সৌন্দর্য্য প্রতিযোগিতায় জয়লাভ করেন।[২]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

জাকিয়া বারী মম ২০০৬ সালে লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার সৌন্দর্য্য প্রতিযোগিতায় জয়লাভের ফলে, হুমায়ূন আহমেদ রচিত ও তৌকির আহমেদ পরিচালিত দারুচিনি দ্বীপ চলচ্চিত্রে প্রধান চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ পান মম।[২] এই চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন।[৩] এরপর তিনি নাটকে অভিনয় করা শুরু করেন। তার অভিনীত স্বর্ণমায়া, বিবর, নীড় নাটকগুলো তাকে জনপ্রিয়তা এনে দেয়।

২০১৩ সালে সঙ্গীতশিল্পী তাহসানের বিপরীতে নীলপরী নীলাঞ্জনাএক্লিপস নাটকে অভিনয় করেন। পাশাপাশি ভালোবাসার চতুষ্কোণ ধারাবাহিক নাটকে কাজ করেন। ২০১৪ সালে যায়েদ খানের বিপরীতে প্রেম করব তোমার সাথে চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। ২০১৫ সালে দীর্ঘদিন পর দ্বিতীয় কুসুম ধারাবিহিক নাটকে অভিনয় করেন। পাশাপাশি ব্যস্ত ছিলেন শিহাব শাহীন পরিচালিত ছুঁয়ে দিলে মন চলচ্চিত্র নিয়ে।[৪] রোমান্টিক ঘরানার এ চলচ্চিত্রে তার বিপরীতে অভিনয় করেন আরিফিন শুভ। এই চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি মেরিল প্রথম আলো পুরস্কার-এ শ্রেষ্ঠ অভিনয়শিল্পী (নারী) বিভাগে তারকা জরিপ ও সমালোচক পুরস্কার অর্জন করেন।

২০১৬ সালে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মদিনে বেসরকারী চ্যানেল আরটিভির জন্য নির্মিত অপরিচিতা নাটকে তাকে দেখা যায়। নাট্যকার সুমন আনোয়ারের নির্দেশনায় তার বিপরীতে অভিনয় করেন রওনক হাসান[৫] এই বছর ঈদুল ফিতর উপলক্ষে নাট্যকার সুমন আনোয়ার নির্মিত পাঁচটি নাটকে অভিনয় করেন। নাটকগুলো হল ফুলমতি, আশার আলো, হলুদ বসন্ত, নীল দুপুর, আবর্ত[৬] এছাড়াও ঈদুল ফিতর উপলক্ষে তাহসানের বিপরীতে তিন বছর পর নাগরিক মানুষের জীবন নিয়ে চিত্রিত এখন আর রূপকথা হয় না নাটকে অভিনয় করেন।[৭]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

মম জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নাট্য এবং নাট্যতত্ত্ব বিভাগে ২০১০ সালে স্নাতক আর ২০১২ সালে স্নাতকোত্তর পাশ করেন।[৮] তিনি ২০১০ সালের ৩১ মার্চ এজাজ মুন্নাকে বিয়ে করেছেন। ২০১১ সালে তাদের একমাত্র ছেলে উদ্ভাস জন্মগ্রহণ করে।

চলচ্চিত্র[সম্পাদনা]

বছর চলচ্চিত্র চরিত্র পরিচালক সহশিল্পী ভাষা টীকা
২০০৭ দারুচিনি দ্বীপ জরি তৌকির আহমেদ রিয়াজ, মোশাররফ করিম বাংলা বিজয়ী: জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী
২০১৪ প্রেম করব তোমার সাথে রকিবুল আলম যায়েদ খান, আনিসুর রহমান মিলন বাংলা [৯]
২০১৫ ছুঁয়ে দিলে মন নীলা শিহাব শাহীন আরিফিন শুভ বাংলা বিজয়ী: মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার শ্রেষ্ঠ অভিনয়শিল্পী (নারী) (তারকা জরিপ ও সমালোচক)[১০]

নাটক[সম্পাদনা]

একক নাটক[সম্পাদনা]

  • স্বর্ণমায়া
  • বিবর
  • নীড়
  • একটি স্যুটকেস এবং (২০১২)
  • নীল প্রজাপতি (২০১৩)
  • লুকোচুরি (২০১৩)
  • নীলপরী নীলাঞ্জনা (২০১৩)
  • এক্লিপস (২০১৩)
  • মায়ের জন্য (২০১৩)
  • মেয়েটি কথা বলবে প্রেম করিবে না (২০১৩)
  • রঙতুলি (২০১৩)
  • ছাপাখানায় একটা ভুত থাকে (২০১৩)
  • শুধু একটা মিনিট (২০১৩)
  • ফুচকা (২০১৩)
  • পদ্মবিবির পালা (২০১৪)[১১]
  • ছায়াসঙ্গী (২০১৫)[১২]
  • ফাল্গুনে ভালবাসা বৈশাখে প্রেম[১৩]
  • ফুলমতি (২০১৬)
  • আশার আলো (২০১৬)
  • হলুদ বসন্ত (২০১৬)
  • নীল দুপুর (২০১৬)
  • আবর্ত (২০১৬)
  • এখন আর রূপকথা হয় না (২০১৬)

ধারাবাহিক নাটক[সম্পাদনা]

  • ভালবাসার চতুষ্কোণ (২০১৩)[৯]
  • দ্বিতীয় কুসুম (২০১৫)[১৪]

পুরস্কার ও স্বীকৃতি[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "মম উপাখ্যান"দৈনিক ইত্তেফাক। ৩১ জানুয়ারি ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মে ২০১৬ 
  2. Afroz, Mahmuda (সেপ্টেম্বর ২৪, ২০০৬)। "New Lux Channel i Superstar lands a dream role in Daurchini Dwip"। The Daily Star। সংগ্রহের তারিখ ২৯ নভেম্বর ২০১৩ 
  3. Ahsan, Aureen (সেপ্টেম্বর ২৯, ২০০৮)। "Zakia Bari Momo: Portraying the contemporary Bengali belle"। The Daily Star। সংগ্রহের তারিখ ২৯ নভেম্বর ২০১৩ 
  4. "'ছুয়ে দিলে মন' ছবি পরিচালনা করবেন শিহাব শাহীন"। সংগ্রহের তারিখ ২০ জানুয়ারি ২০১৬ 
  5. "কল্যাণী চরিত্রে মম"ভোরের কাগজ। ১১ মার্চ ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মে ২০১৬ 
  6. মারুফ কিবরিয়া (১৪ মে ২০১৬)। "বিরামহীন মম"দৈনিক মানবজমিন। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মে ২০১৬ 
  7. "তিন বছর পর তাহসান ও মম"দৈনিক জনকণ্ঠ। ১৩ মে ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মে ২০১৬ 
  8. Hossain, Imam (১৬ নভেম্বর ২০১১)। "Mamo's journey to stardom"। Daily Sun, Dhaka। সংগ্রহের তারিখ ২৯ নভেম্বর ২০১৩ 
  9. "অর্ধ যুগ পর চলচ্চিত্রে জাকিয়া বারী মম"দৈনিক মানবকণ্ঠ। ২৫ নভেম্বর ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০ জানুয়ারি ২০১৬ 
  10. "জাকিয়া বারী মম চল্লিশ পোশাকে !"সিসিনিউজ। ৬ মে ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ২০ জানুয়ারি ২০১৬ 
  11. "ট্রেন ফেল করেছে মম"সিসিনিউজ। ৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ২০ জানুয়ারি ২০১৬ 
  12. "মায়ের চরিত্রে জাকিয়া বারী মম"দ্য টাইমস ইনফো। ২৯ মে ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২০ জানুয়ারি ২০১৬ 
  13. মারুফ কিবরিয়া (১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৫)। "ভিন্ন রূপে মম"দৈনিক মানবজমিন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জানুয়ারি ২০১৬ 
  14. "নতুন ধারাবাহিকে মম"দৈনিক প্রথম আলো। নভেম্বর ১২, ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মে ২০১৬ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]