শারমীন জোহা শশী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
শারমীন জোহা শশী
জন্ম
জাতীয়তাবাংলাদেশী
পেশামডেল অভিনেত্রী
কর্মজীবন১৯৯৯–বর্তমান
উচ্চতা৫ ফুট ৩ ইঞ্চি (১.৬০ মিটার)
পিতা-মাতা
  • শামসুজ্জোহা বাবলু (পিতা)
  • হোসনে আরা বেগম (মাতা)

শারমীন জোহা শশী বাংলাদেশের একজন মডেল ও চলচ্চিত্র অভিনেত্রী। বাংলা চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে তিনি অভিনয় জীবন শুরু করেন। হাজার বছর ধরে চলচ্চিত্র অভিনয় করে তিনি ২০০৫ সালে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী হিসেবে মেরিল প্রথম আলো পুরস্কার বিজয়ী হন। চলচ্চিত্র ছাড়াও তিনি বেশ কিছু টিভি নাটকে অভিনয় করেছেন। [১]

প্রাথমিক ও শিক্ষা জীবন[সম্পাদনা]

শশীর পিতামহের বাড়ি ঢাকা জেলার সাভারে। তার পিতা শামসুজ্জোহা বাবলু ও মা হোসনে আরা বেগমের চাকরির কারণে তার শৈশবকাল ও স্কুলজীবন কেটেছে রংপুরের নানার বাড়িতে। রংপুরের টিচার্স ট্রেনিং কলেজ এলাকায় বাচ্চু বাবলুর বাড়ির মেয়ে শশী। শশী স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটি থেকে আইন বিষয়ে স্নাতক ও এলএলএম সম্পন্ন করেন।[২]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

শশী পরিচালক কোহিনূর আক্তার সুচন্দা পরিচালিত হাজার বছর ধরে চলচ্চিত্রে টুনী চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে চলচ্চিত্র অঙ্গনে পরিচিতি পান। এর আগে ১৯৯ সালে কে আমার বাবা চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে চলচ্চিত্র অঙ্গনে পা রাখেন। চলচ্চিত্র শিল্পে আসার পূর্বে নাচ শিখেন এবং স্কুল জীবনে ৭ম শ্রেণিতে থাকাবস্থায় আয়শা মঙ্গল নামে একটি নাটকে শিশু চরিত্রে অভিনয় করেন। নাটকটির পরিচালক ছিলেন মোস্তফা সরওয়ার ফারুকী। নাটকে তিনি অভিনেত্রী বন্যা মির্জার মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করেন। ২০১৩ সালে শফিকুল ইসলাম পরিচালিত ‘সোয়াচান পাখি’ ছবির কাজ শুরু করেন। বিজ্ঞাপনের মডেল হিসেবে ২০১৫ সালে কাজ শুরু করেন। অক্টোবর ২০১৬ তারিখে বিজ্ঞাপনের মডেল হন। ২০১৭ সালে ডিটারজেন্ট পাউডারের বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করেন। ২০০৭ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মতিউর রহমানের জীবনী ও আত্মত্যাগের কাহিনী নিয়ে চলচ্চিত্র অস্তিত্বে আমার দেশ মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক চলচ্চিত্রে মিলি রহমান নামে এতে অভিনয় করেন। [১][৩] শশী কয়েকটি টিভি নাটকে অভনয় করেন। এরমধ্যে রয়েছে অনেক কার্তিক একটি অগ্রাহয়ণ, ‘গাড়িয়াল ভাই’ ‘নেকলেস’ ‘শেষ পাতা’ ‘ঘুরে দাঁড়াবার স্বপ্ন’।[৪]

চলচ্চিত্রের তালিকা[সম্পাদনা]

বছর চলচ্চিত্র ভূমিকা পরিচালক সহশিল্পী টীকা
২০০৫ হাজার বছর ধরে শশী মনতাজুর রহমান আকবর অভি মেরিল প্রথম আলো পুরস্কার প্রাপ্ত শশীর চলচ্চিত্র
২০০৭ অস্তিত্বে আমার দেশ শশী আবদুল মান্নান শাকিব খান শশী অভিনীত বীর শ্রেষ্ঠ মতিউর রহমানের গল্পের ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক চলচ্চিত্র
১৯৯৯ কে আমার বাবা শশী আবদুল মান্নান শাকিব খান শশী অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র

পুরস্কার ও মনোনয়ন[সম্পাদনা]

মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার
বছর মনোনীত কর্ম বিভাগ ফলাফল সূত্র
২০০৬ শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র অভিনেত্রী (সমালোচক) হাজার বছর ধরে বিজয়ী [৫]
আরটিভি স্টার অ্যাওয়ার্ড
বছর মনোনীত কর্ম বিভাগ ফলাফল সূত্র
২০১৯ ভাষা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ ও দেশপ্রেম ভিত্তিক নাটকে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী - কেন্দ্রীয় চরিত্র অগ্নিঝরা দিনগুলি মনোনীত [৬]

আরো পড়ুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "সপ্তম শ্রেণীতেই প্রেমে পড়েছিলাম: শশী"দৈনিক প্রথম আলো। ১৯ এপ্রিল ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুন ২০১৯ 
  2. "শশী (সাক্ষাতকার)"দৈনিক ইত্তেফাক। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুলাই ২০১৯ 
  3. "নতুন বিজ্ঞাপনে শশী"দৈনিক ইনকিলাব। ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুন ২০১৯ 
  4. "টুনির মতো চরিত্রের অপেক্ষায় শশী"। দৈনিক যায়যায়দিন। ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুলাই ২০১৯ 
  5. "Meril-Prothom Alo awards for 2005 given"দ্য ডেইলি স্টার। ১৩ মে ২০০৬। সংগ্রহের তারিখ ৩০ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  6. "৯ম আরটিভি স্টার এ্যাওয়ার্ড ২০১৯"আরটিভি অনলাইন। সংগ্রহের তারিখ ২৯ ডিসেম্বর ২০১৯