দারুচিনি দ্বীপ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
দারুচিনি দ্বীপ
দারুচিনি দ্বীপ.jpg
ভিসিডি কভার
পরিচালকতৌকির আহমেদ
প্রযোজকফরিদুর রেজা সাগর
ইবনে হাসান খান
চিত্রনাট্যকারহুমায়ূন আহমেদ
উৎসহুমায়ূন আহমেদ কর্তৃক 
দারুচিনি দ্বীপ
শ্রেষ্ঠাংশে
সুরকারএস আই টুটুল
চিত্রগ্রাহকএ আর স্বপন
সম্পাদকঅতীশ দে সরকার
পরিবেশকচ্যানেল আই
মুক্তি৩১ আগস্ট, ২০০৭[১]
দৈর্ঘ্য১২৬ মিনিট
দেশ বাংলাদেশ
ভাষাবাংলা ভাষা

দারুচিনি দ্বীপ এটি ২০০৭ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত একটি বাংলাদেশী চলচ্চিত্র[২] ছবিটি নিবেদন করেছে লাক্স। জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদ এর দারুচিনি দ্বীপ উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত এই ছবিটি পরিচালনা করেছেন বিখ্যাত টিভি অভিনেতা তৌকির আহমেদ

এটি শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জিতে নেয়।[৩] এছাড়াও সেরা অভিনেতা শাখায় পুরস্কার জিতে নেন রিয়াজ এবং অভিনেত্রী শাখায় জাকিয়া বারী মম[৪][৫][৬]

কাহিনী সংক্ষেপ[সম্পাদনা]

একদল স্বপ্নবাজ তরুন তরুনীর বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক, ভালোবাসার পাশাপাশি সহজ-সরল পারিবারিক জীবনের নানা ঘটনা উঠে এসেছে এর গল্পে। যে পরিবারগুলো আমাদের পরিচিত পরিবারগুলোর মতই। তারুন্যে পৌছে যাওয়া সন্তানেরা এই গল্পে গুরুত্ব পেয়েছে বেশি। ছেলেরা একদিন সিদ্ধান্ত নেয় দারুচিনি দ্বীপে বেড়াতে যাবে। মেয়েরাও তাদের সাথে যেতে চায়। একদল ছেলেমেয়ে, দারুচিনি দ্বীপে (সেন্ট মার্টিন্‌স দ্বীপ) যাবে।

-এই নিয়েই শুরু হয় নানা ঘটনা।

কুশীলব[সম্পাদনা]

মূল্যায়ন[সম্পাদনা]

চলচ্চিত্র উৎসব পুরস্কার[সম্পাদনা]

বালি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব পুরস্কার, ইন্দোনেশিয়া ২০১০
  • বিজয়ী: শ্রেষ্ঠ বিদেশী ভাষার চলচ্চিত্র - দারুচিনি দ্বীপ[১৯][২০]

চলচ্চিত্র পুরস্কার[সম্পাদনা]

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার
মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. 'দারুচিনি দ্বীপ' এর পর আসছে 'আমার আছে জল'[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  2. ইমপ্রেসের 'দারুচিনি দ্বীপ'[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  3. ২০০৭ সালে 'দারুচিনি দ্বীপ' সেরা চলচ্চিত্রের পুরস্কার জিতেছে[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  4. সেরা অভিনেতা, অভিনেত্রী রিয়াজ ও মম[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  5. "জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার- 'শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী' মম"। ২৩ এপ্রিল ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ নভেম্বর ২০১০ 
  6. "শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর জাতীয় পুরস্কার জয়ী 'মম'"। ২৫ নভেম্বর ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ নভেম্বর ২০১০ 
  7. "স্থপতি হতে চেয়ে নায়ক"Dhakatimes News। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-২৪ 
  8. "যুগ পেরিয়ে মম"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-২৪ 
  9. "অভিনয়ে এক যুগ মমর"Bonikbarta.net। ২০১৯-০৫-২৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-২৪ 
  10. BanglaNews24.com। "Print বালি ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে পুরস্কৃত 'দারুচিনি দ্বীপ'"banglanews24.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-২৪ 
  11. "ওজন সাড়ে তিন মণ!"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-২৪ 
  12. "উনিশের উচ্ছ্বাসে ইমপ্রেসের উনিশ ছবি"চ্যানেল আই অনলাইন (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-০৯-২৫। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-২৪ 
  13. "৭০-এর কোঠায় আসাদুজ্জামান নূর"Bhorer Kagoj। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-২৪ 
  14. "রাইমার স্বামী হতে কলকাতায় গেলেন বাবু!"RTV (Bangladeshi TV channel) (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-২৪ 
  15. "জেদ্দায় প্রদর্শিত হলো দারুচিনি দ্বীপ"Channel I (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৬-০৩-০৫। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-২৪ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  16. "জেদ্দায় প্রদর্শিত হলো দারুচিনি দ্বীপ"Channel I (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৬-০৩-০৫। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-২৪ 
  17. "৭৫ বছরে আবুল হায়াত"Jugantor। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-২৫ 
  18. প্রতিবেদক, নিজস্ব। "চ্যানেল আইতে দারুচিনি দ্বীপ"Daily Inqilab - দৈনিক ইনকিলাব (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-২৫ 
  19. বালি ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল এ দারুচিনি দ্বীপ পুরস্কৃত
  20. "'দারুচিনি দ্বীপ' পুরস্কৃত"। ২০১৮-০২-১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৯-০৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]