শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র অভিনেত্রীর জন্য মেরিল-প্রথম আলো সমালোচক পুরস্কার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র অভিনেত্রীর জন্য মেরিল-প্রথম আলো সমালোচক পুরস্কার
MPA - BD.jpg
মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার-এর লোগো
পুরস্কার দেওয়া হয়সমালোচকের দৃষ্টিতে সেরা চলচ্চিত্র অভিনেত্রীর পুরস্কার
দেশবাংলাদেশ
পুরস্কার দাতাবেসরকারী (মেরিল ও দৈনিক প্রথম আলো)
প্রথম পুরস্কার প্রদান২০০৪
শেষ পুরস্কার প্রদান২০১৮
বর্তমানে যার দ্বারা গৃহীতরুনা খান
(ছিটকিনি)
প্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইটprothom-alo.com/mpaward

শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র অভিনেত্রীর জন্য মেরিল-প্রথম আলো সমালোচক পুরস্কার বাংলাদেশের চলচ্চিত্র অভিনেত্রীদের অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে মেরিল ও দৈনিক প্রথম আলো প্রদান করে আসছে। ২০০৪ সালে প্রথমবার মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কারের অংশ হিসেবে ২০০৩ সালের চলচ্চিত্রের জন্য এই পুরস্কার প্রদান করা হয়।[১] এই বিভাগে প্রথমবার পুরস্কার লাভ করেন চন্দ্রকথা (২০০৩) চলচ্চিত্রের জন্য মেহের আফরোজ শাওন। এই বিভাগে কেউ একাধিকবার পুরস্কার অর্জন করেননি। ছিটকিনি (২০১৭) চলচ্চিত্রের জন্য পুরস্কার বিজয়ী রুনা খান এই বিভাগে সবচেয়ে সাম্প্রতিক পুরস্কার বিজয়ী।

বিজয়ীদের তালিকা[সম্পাদনা]

  • গাঢ় বর্ণ বিজয়ী নির্দেশ করে।
মেহের আফরোজ শাওন চন্দ্রকথা (২০০৩) চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য এই পুরস্কার লাভ করেন।
অপি করিম ব্যাচেলর (২০০৪) চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য এই পুরস্কার লাভ করেন।
পূর্ণিমা ধোঁকা (২০০৭) চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য এই পুরস্কার লাভ করেন।
বিদ্যা সিনহা সাহা মীম আমার আছে জল (২০০৮) চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য এই পুরস্কার লাভ করেন।
নুসরাত ইমরোজ তিশা থার্ড পারসন সিঙ্গুলার নাম্বার (২০০৯) চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য এই পুরস্কার লাভ করেন।
জয়া আহসান গেরিলা (২০১১) চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য এই পুরস্কার লাভ করেন।

২০০০-এর দশক[সম্পাদনা]

বছর অভিনেত্রী চলচ্চিত্র সূত্র.
২০০৩ (৬ষ্ঠ) মেহের আফরোজ শাওন চন্দ্রকথা [২]
২০০৪ (৭ম) অপি করিম ব্যাচলের
নাজমা আনোয়ার শঙ্খনাদ
পূর্ণিমা মেঘের পরে মেঘ
২০০৫ (৮ম) শশী হাজার বছর ধরে [৩]
পূর্ণিমা শাস্তি
শাবনূর দুই নয়নের আলো
২০০৬ (৯ম) সোহানা সাবা আয়না
২০০৭ (১০ম) পূর্ণিমা ধোকা
রোকেয়া প্রাচী স্বপ্নডানায়
শাবনূর আমার প্রাণের স্বামী
২০০৮ (১১তম) বিদ্যা সিনহা সাহা মীম আমার আছে জল [৪]
পূর্ণিমা আকাশ ছোঁয়া ভালোবাসা
মুনমুন আহমেদ আমার আছে জল
২০০৯ (১২তম) নুসরাত ইমরোজ তিশা থার্ড পারসন সিঙ্গুলার নাম্বার [৫]
ফারহানা মিলি মনপুরা
শিমলা গঙ্গাযাত্রা

২০১০-এর দশক[সম্পাদনা]

বছর অভিনেত্রী চলচ্চিত্র সূত্র.
২০১০ (১৩তম) মিরানা জামান
রাবেয়া আক্তার মনি
অপেক্ষা
রানওয়ে
২০১১ (১৪তম) জয়া আহসান গেরিলা [৬]
মৌসুমী প্রজাপতি
নিপুণ আক্তার আদরের জামাই
২০১২ (১৫তম) শামীমা নাজনীন ঘেটুপুত্র কমলা
জান্নাতুল ফেরদৌস পিয়া চোরাবালি
মেঘলা উত্তরের সুর
২০১৩ (১৬তম) নাজনীন হাসান চুমকি একই বৃত্তে [৭]
২০১৪ (১৭তম) মৌসুমী এক কাপ চা [৮]
মাহিয়া মাহি অগ্নি
সোহানা সাবা বৃহন্নলা
২০১৫ (১৮তম) জাকিয়া বারী মম ছুঁয়ে দিলে মন [৯]
অপর্ণা ঘোষ সুতপার ঠিকানা
জয়া আহসান জিরো ডিগ্রী
২০১৬ (১৯তম) সাঁঝবাতি শঙ্খচিল [১০]
কুসুম শিকদার শঙ্খচিল
মাসুমা রহমান নাবিলা আয়নাবাজি
২০১৭ (২০তম) রুনা খান ছিটকিনি [১১]
জয়া আহসান খাঁচা
নুসরাত ইমরোজ তিশা হালদা

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "কিছু টুকিটাকি..."দৈনিক প্রথম আলো। ৭ মে ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১৭ 
  2. "Meril-Prothom Alo Award handed over"দ্য ডেইলি স্টার। ২২ মে ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১৭ 
  3. "Meril-Prothom Alo awards for 2005 given"দ্য ডেইলি স্টার। ১৩ মে ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১৭ 
  4. "Meril-Prothom Alo Award ceremony held"দ্য ডেইলি স্টার। ১১ এপ্রিল ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১৭ 
  5. Alom, Zahangir (১১ এপ্রিল ২০১০)। "Meril Prothom Alo Awards"দ্য ডেইলি স্টার। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১৭ 
  6. Alom, Zahangir (৭ সেপ্টেম্বর ২০১৪)। "Constellation of stars"ঢাকা মিরর। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১৭ 
  7. "এক নজরে মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার ২০১৩"দৈনিক প্রথম আলো। ২৬ এপ্রিল ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১৭ 
  8. "Meril Prothom Alo Awards Gala Night"দৈনিক প্রথম আলো। ৯ মে ২০১৫। ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১৭ 
  9. "মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার পেলেন যাঁরা"দৈনিক প্রথম আলো। ২৯ এপ্রিল ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১৭ 
  10. "সমালোচকদের রায়ে সেরা চলচ্চিত্র অভিনেত্রী সাঁঝবাতি"দৈনিক প্রথম আলো। ২১ এপ্রিল ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৬ এপ্রিল ২০১৭ 
  11. "মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার ২০১৭: পাঠক জরিপে চলচ্চিত্রে সেরা তাঁরা"দৈনিক প্রথম আলো। ৩০ মার্চ ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২ এপ্রিল ২০১৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]