রংপুর-৬

স্থানাঙ্ক: ২৫°২৫′ উত্তর ৮৯°১৯′ পূর্ব / ২৫.৪২° উত্তর ৮৯.৩১° পূর্ব / 25.42; 89.31
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
রংপুর-৬
জাতীয় সংসদ-এর
নির্বাচনী এলাকা
রংপুর-৬.svg
জেলারংপুর জেলা
বিভাগরংপুর বিভাগ
মোট ভোটার২,৯২,৯৯৭ (২০১৮)[১]
বর্তমান নির্বাচনী এলাকা
সৃষ্ট১৯৭৩
দলবাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
বর্তমান সাংসদশিরীন শারমিন চৌধুরী

রংপুর-৬ হল বাংলাদেশের জাতীয় সংসদের ৩০০টি নির্বাচনী এলাকার একটি। এটি রংপুর জেলায় অবস্থিত জাতীয় সংসদের ২৪নং আসন।

সীমানা[সম্পাদনা]

রংপুর-৬ আসন জেলার পীরগঞ্জ উপজেলা নিয়ে গঠিত।[২]

নির্বাচিত সাংসদ[সম্পাদনা]

নির্বাচন সদস্য দল
১৯৭৩ করিম উদ্দিন মোহাম্মদ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ[৩]
১৯৭৯ মজিবর রহমান বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল[৪]
সীমানা পরিবর্তন
১৯৮৬ আব্দুল জলিল প্রধান জাতীয় পার্টি[৫][৬]
ফেব্রু ১৯৯১ হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ জাতীয় পার্টি (এরশাদ)
সেপ্টে ১৯৯১ উপ-নির্বাচন শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন জাতীয় পার্টি (এরশাদ)
ফেব্রুয়ারি ১৯৯৬ শূন্য বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল
জুন ১৯৯৬ হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ জাতীয় পার্টি (এরশাদ)
সেপ্টেম্বর ১৯৯৬ উপ-নির্বাচন নুর মোহাম্মদ মণ্ডল জাতীয় পার্টি (এরশাদ)
২০০১ নুর মোহাম্মদ মণ্ডল ইসলামী জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট
২০০৮ শেখ হাসিনা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
২০০৯ উপ-নির্বাচন আবুল কালাম আজাদ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
২০১৪ শেখ হাসিনা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
জানু ২০১৪ উপ-নির্বাচন শিরীন শারমিন চৌধুরী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
২০১৮ শিরীন শারমিন চৌধুরী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ

নির্বাচন[সম্পাদনা]

২০১০-এর দশকে নির্বাচন[সম্পাদনা]

২০১৪ সালের সাধারণ নির্বাচনে শেখ হাসিনা দুটি আসনের জন্য দাঁড়িয়েছিলেন: রংপুর-৬, এবং গোপালগঞ্জ-৩। নির্বাচনে তিনি সব আসনে জয়ী হন, তবে তিনি গোপালগঞ্জ-৩ আসনকে প্রতিনিধিত্ব করার সিদ্ধান্ত নেন ও অন্যটি ছেড়ে দেন। ফেব্রুয়ারি ২০১৪ সালে উপ-নির্বাচন হবার কথা থাকলেও শিরীন শারমিন চৌধুরী ছাড়া আর কোন প্রার্থী না থাকায় শিরীন শারমিন চৌধুরী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন।[৭]

সাধারণ নির্বাচন ২০১৪: রংপুর-৬[৮]
দল প্রার্থী ভোট % ±%
আওয়ামী লীগ শেখ হাসিনা ১,৪৮,৫৯৯ ৯৬.৮
জাতীয় পার্টি (এ) নুর আলম মিয়া ৪,৯৫৯ ৩.২
সংখ্যাগরিষ্ঠতা ১,৪৩,৬৪০ ৯৩.৫
ভোটার উপস্থিতি ১,৫৩,৫৫৮ ৫৮.৪
আওয়ামী লীগ নির্বাচনী এলাকা ধরে রাখে

২০০০-এর দশকে নির্বাচন[সম্পাদনা]

২০০৮ সালের সাধারণ নির্বাচনে শেখ হাসিনা তিনটি আসনের জন্য দাঁড়িয়েছিলেন: বাগেরহাট-১, রংপুর-৬, এবং গোপালগঞ্জ-৩। নির্বাচনে তিনি সব আসনে জয়ী হন তবে তিনি গোপালগঞ্জ-৩ আসনকে প্রতিনিধিত্ব করার সিদ্ধান্ত নেন ও বাকীগুলি ছেড়ে দেন। ফলে বাকীগুলিতে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ২০০৯ সালের উপ-নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থী নূর মুহম্মদ মণ্ডলকে পরাজিত করে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের আবুল কালাম আজাদ নির্বাচনে নির্বাচিত হন।

সাধারণ নির্বাচন ২০০৮: রংপুর-৬[৯][১০]
দল প্রার্থী ভোট % ±%
আওয়ামী লীগ শেখ হাসিনা ১,৭০,৫৪২ ৮০.০ +৩৫.৪
বিএনপি নুর মোহাম্মদ মণ্ডল ৩৮,৬৭২ ১৮.১ +১৫.১
জামায়াতে ইসলামী মোঃ শাহজাহান আলী ২,১৩৮ ১.০ প্র/না
কমিউনিস্ট পার্টি কামরুজ্জামান ১,১৯৯ ০.৬ +০.২
গণফোরাম হুমায়ুন ইজাজ লেভিন ৬৬৮ ০.৩ প্র/না
সংখ্যাগরিষ্ঠতা ১,৩১,৮৭০ ৬১.৮ +৫৪.৫
ভোটার উপস্থিতি ২,১৩,২১৯ ৯০.০ +৮.৯
ইসলামী জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট থেকে আওয়ামী লীগ অর্জন করে
সাধারণ নির্বাচন ২০০১: রংপুর-৬[১১]
দল প্রার্থী ভোট % ±%
ইসলামী জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নুর মোহাম্মদ মণ্ডল ৯০,৭৩০ ৫১.৯
আওয়ামী লীগ শেখ হাসিনা ৭৭,৯৯১ ৪৪.৬
বিএনপি আব্দুল জলিল প্রধান ৫,২৩৭ ৩.০
কমিউনিস্ট পার্টি কামরুজ্জামান ৬৭৩ ০.৪
জেপি (মঞ্জু) মোঃ আবু হোসেন সরকার ১৭১ ০.১
জাসদ মোঃ আবু আলম মিয়া ৮৯ ০.১
সংখ্যাগরিষ্ঠতা ১২,৭৩৯ ৭.৩
ভোটার উপস্থিতি ১,৭৪,৮৯১ ৮১.১
জাতীয় পার্টি (এ) থেকে ইসলামী জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট অর্জন করে

১৯৯০-এর দশকে নির্বাচন[সম্পাদনা]

জুন ১৯৯৬ সালের সাধারণ নির্বাচনে হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ পাঁচটি আসনে দাড়ান: রংপুর-২,[১২] রংপুর-৩,[১৩] রংপুর-৫,[১৪] রংপুর-৬, ও কুডিগ্রাম-৩।[১৫] সবগুলি আসনে জয়ী হবার পর, তিনি রংপুর-৩ আসনকে প্রতিনিধিত্ব করার জন্য বেছে নেন; এর ফলে বাকী চার আসনে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ১৯৯৬ সালের উপ-নির্বাচনে জাতীয় পার্টির নুর মোহাম্মদ মণ্ডল নির্বাচিত হন।[১৬]

সাধারণ নির্বাচন জুন ১৯৯৬: রংপুর-৬[১১]
দল প্রার্থী ভোট % ±%
জাতীয় পার্টি (এ) হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ ৬০,৬৬৫ ৫২.০
আওয়ামী লীগ মোঃ মতিউর রহমান ৩৭,৬৬১ ৩২.৩
বিএনপি মোঃ মতিউর রহমান চৌধুরী ৯,০৬৭ ৭.৮
জামায়াতে ইসলামী মোঃ আব্দুস সালাম প্রধান ৭,৫৭৭ ৬.৫
ইসলামী ঐক্য জোট মোঃ গোলাম মোস্তফা ৮৩২ ০.৭
জাকের পার্টি মোঃ আজগর আলী ৫৭৩ ০.৫
স্বতন্ত্র নুর মোহাম্মদ মণ্ডল ১১৭ ০.১
স্বতন্ত্র মোসাম্মৎ মেরিনা রহমান ৭৭ ০.১
সংখ্যাগরিষ্ঠতা ২৩,০০৪ ১৯.৭
ভোটার উপস্থিতি ১,১৬,৫৬৯ ৬৮.৩
জাতীয় পার্টি (এ) নির্বাচনী এলাকা ধরে রাখে

১৯৯১ সালের সাধারণ নির্বাচনে হুসেন মুহাম্মদ এরশাদ জেল থেকে পাঁচটি আসনের নির্বাচনে দাড়ান: রংপুর-১,[১৭] রংপুর-২,[১১] রংপুর-৩,[১৩] রংপুর-৫,[১৪] ও রংপুর-৬। সবগুলি আসনে জয়লাভের পর তিনি রংপুর-৩ আসনকে প্রতিনিধিত্ব করার বেছে নেন, ফলে বাকি চার আসনে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।[১৮] ১৯৯১ সালের উপ-নির্বাচনে জাতীয় পার্টির এস. এম. হোসেন নির্বাচিত হন।[১৯]

সাধারণ নির্বাচন ১৯৯১: রংপুর-৬[১১]
দল প্রার্থী ভোট % ±%
জাতীয় পার্টি (এ) হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ ৩৫,২৬০ ৩৮.৪
আওয়ামী লীগ মোঃ মতিউর রহমান ৩৪,৯৩৫ ৩৮.১
জামায়াতে ইসলামী আব্দুস সালাম প্রধান ১০,০৯৫ ১১.০
স্বতন্ত্র আব্দুল জলিল প্রধান ৪,৬৫৮ ৫.১
জাসদ মোঃ আব্দুস সোবহান ২,৮৭০ ৩.১
বিএনপি নুর মোহাম্মদ মণ্ডল ২,৭৫০ ৩.০
জাকের পার্টি মোঃ আজগর আলী ১,১৯৮ ১.৩
সংখ্যাগরিষ্ঠতা ৩২৫ ০.৪
ভোটার উপস্থিতি ৯১,৭৬৬ ৫৫.৪
জাতীয় পার্টি (এ) নির্বাচনী এলাকা ধরে রাখে

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. এমরান হোসাইন শেখ (১০ অক্টোবর ২০১৮)। "কোন আসনে কত ভোটার"বাংলা ট্রিবিউন। ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  2. "জাতীয় সংসদীয় আসনবিন্যাস (২০১৩) গেজেট" (PDF)। নির্বাচন কমিশন বাংলাদেশ। ১৬ জুন ২০১৫ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ আগস্ট ২০১৫ 
  3. "১ম জাতীয় সংসদ সদস্যদের তালিকা" (PDF)বাংলাদেশ সংসদ। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  4. "২য় জাতীয় সংসদ সদস্যদের তালিকা" (PDF)বাংলাদেশ সংসদ। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০১৪ 
  5. "৩য় জাতীয় সংসদ সদস্যদের তালিকা" (PDF)বাংলাদেশ সংসদ। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০১৪ 
  6. "৪র্থ জাতীয় সংসদ সদস্যদের তালিকা" (PDF)বাংলাদেশ সংসদ। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০১৪ 
  7. "বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এমপি হলেন স্পিকার শিরিন শারমিন চেৌধুরী"www.jugantor.com। ২৮ জানুয়ারি ২০১৪। ২৫ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  8. "Rangpur-6"বাংলাদেশের নির্বাচনের ফলাফল ২০১৪ (ইংরেজি ভাষায়)। ঢাকা ট্রিবিউন। ১৯ এপ্রিল ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  9. "৯ম জাতীয় সংসদ নির্বাচন" (PDF)বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন। ২৮ নভেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ নভেম্বর ২০১৮ 
  10. "মনোনয়ন জমাদানের তালিকা"বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন। ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  11. "Parliament Election Result of 1991,1996,2001 Bangladesh Election Information and Statistics"ভোট মনিটর নেটওয়ার্ক (ইংরেজি ভাষায়)। ২৪ ডিসেম্বর ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  12. "Parliament Election Result of 1991,1996,2001 Bangladesh Election Information and Statistics"ভোট মনিটর নেটওয়ার্ক (ইংরেজি ভাষায়)। ২৪ ডিসেম্বর ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  13. "Parliament Election Result of 1991,1996,2001 Bangladesh Election Information and Statistics"ভোট মনিটর নেটওয়ার্ক (ইংরেজি ভাষায়)। ২৪ ডিসেম্বর ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  14. "Parliament Election Result of 1991,1996,2001 Bangladesh Election Information and Statistics"ভোট মনিটর নেটওয়ার্ক (ইংরেজি ভাষায়)। ২৪ ডিসেম্বর ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  15. "Parliament Election Result of 1991,1996,2001 Bangladesh Election Information and Statistics"ভোট মনিটর নেটওয়ার্ক (ইংরেজি ভাষায়)। ২৯ ডিসেম্বর ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  16. "৭ম জাতীয় সংসদ সদস্যদের তালিকা" (PDF)বাংলাদেশ সংসদ। সংগ্রহের তারিখ ৬ মার্চ ২০১৮ 
  17. "Parliament Election Result of 1991,1996,2001 Bangladesh Election Information and Statistics"ভোট মনিটর নেটওয়ার্ক (ইংরেজি ভাষায়)। ২৪ ডিসেম্বর ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  18. "৫ম জাতীয় সংসদ সদস্যদের তালিকা" (PDF)বাংলাদেশ সংসদ। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০১৮ 
  19. আখতার, মুহাম্মদ ইয়াহিয়া (২০০১)। Electoral Corruption in Bangladesh [বাংলাদেশে নির্বাচনী দুর্নীতি] (ইংরেজি ভাষায়)। আশগেট। পৃষ্ঠা ২৪৩। আইএসবিএন 0-7546-1628-2 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]