বানারীপাড়া উপজেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বানারীপাড়া
উপজেলা
বানারীপাড়া বরিশাল বিভাগ-এ অবস্থিত
বানারীপাড়া
বানারীপাড়া
বানারীপাড়া বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
বানারীপাড়া
বানারীপাড়া
বাংলাদেশে বানারীপাড়া উপজেলার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২২°৪৬′৪৭″ উত্তর ৯০°৯′৫১″ পূর্ব / ২২.৭৭৯৭২° উত্তর ৯০.১৬৪১৭° পূর্ব / 22.77972; 90.16417স্থানাঙ্ক: ২২°৪৬′৪৭″ উত্তর ৯০°৯′৫১″ পূর্ব / ২২.৭৭৯৭২° উত্তর ৯০.১৬৪১৭° পূর্ব / 22.77972; 90.16417 উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
দেশ বাংলাদেশ
বিভাগবরিশাল বিভাগ
জেলাবরিশাল জেলা
আয়তন
 • মোট১৩৪.৮৬ কিমি (৫২.০৭ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০০১)[১]
 • মোট১,৬০,৪৯৮
 • জনঘনত্ব১২০০/কিমি (৩১০০/বর্গমাইল)
সাক্ষরতার হার
 • মোট৬৭.২৫%
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
ওয়েবসাইটপ্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট Edit this at Wikidata

বানারীপাড়া বাংলাদেশের বরিশাল জেলার অন্তর্গত একটি উপজেলা

অবস্থান[সম্পাদনা]

বানারীপাড়ার অবস্থান ২২°৪৬′৫৫″ উত্তর ৯০°১০′০০″ পূর্ব / ২২.৭৮১৯° উত্তর ৯০.১৬৬৭° পূর্ব / 22.7819; 90.1667। উত্তরে উজিরপুর উপজেলা, পূর্বে উজিরপুর উপজেলা, দক্ষিনে নেছারাবাদ উপজেলা, পিরোজপুর সদর উপজেলা এবং ঝালকাঠি সদর উপজেলা, পশ্চিমে নাজিরপুর উপজেলা, পিরোজপুর সদর উপজেলা এবং উজিরপুর উপজেলা

জনসংখ্যার উপাত্ত এবং শিক্ষার হার[সম্পাদনা]

প্রশাসনিক এলাকা[সম্পাদনা]

বানারীপাড়ায় মোট ১১টি ওয়ার্ড, ৮৭টি মহল্লা এবং ৭৭টি গ্রাম রয়েছে। ১৯১৩ সালে বানারীপাড়া থানা প্রতিষ্ঠিত হয় এবং ১৯৮৩ সালে এটি উপজেলায় পরিণত হয়। মুক্তিযুদ্ধের সময় এই উপজেলার গাভায় ব্যাপক গণহত্যা পরিচালিত হয়। এই উপজেলার ইউনিয়নসমূহ হচ্ছে -

  1. বিশারকান্দি ইউনিয়ন
  2. ইলুহার ইউনিয়ন
  3. সৈয়দকাঠি ইউনিয়ন
  4. উদয়কাঠি ইউনিয়ন
  5. বাইশারী ইউনিয়ন
  6. বানারীপাড়া ইউনিয়ন
  7. সলিয়াবাকপুর ইউনিয়ন এবং
  8. চাখার ইউনিয়ন

ইতিহাস[সম্পাদনা]

বানারীপাড়া উপজেলা আয়তনের দিক দিয়ে বরিশালের মধ্যে সবচেয়ে ছোট। আয়তন ১৩৪.৩০ বর্গ কিলোমিটার এবং লোকসংখ্যা ১,৪৮,১৮৮ জন। এখানে থানা সদর দপ্তর প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯১৩ সালে। এই উপজেলার নামকরণের ক্ষেত্রে বিভিন্ন মত রয়েছে। কারো মতে ‘বাড়িয়া’ যার অর্থ ব্যবসায়ী, এ থেকে থানার নামকরণ হয়। কেননা এককালে এই অঞ্চলে ব্যবসায়ীদের খুব প্রতিপত্তি ছিল। স্থানীয় অধিবাসীদের মতে, এককালে এখানে প্রচুর বানর বাস করত, যা থেকে এই অঞ্চলের নাম বানারীপাড়া হয় বলে ধারণা করা হয়। এছাড়াও বলা হয়, এই অঞ্চলের মানুষ ছিল খুবই অতিথিপরায়ণ। এখানকার নারীগণও ছিল সুন্দরী। এক ব্রিটিশ কর্মকর্তা কোন এক বাড়ির আদর-আপ্যায়ন এবং রান্নায় খুবই খুশি হন। তিনি ঐ বাড়ির গৃহকর্ত্রীকে ‘বাহ্ নারী’ বলে প্রশংসা করেন। আর সেই বাহ্ নারী থেকেই বানারীপাড়া।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান[সম্পাদনা]

প্রতিষ্ঠানের ধরণ সংখ্যা
সরকারি কলেজ ০১
বেসরকারি কলেজ ০২
উচ্চ বিদ্যালয় ২৭
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ৮০
বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ৪১
মাদ্রাসা ৫৯
প্রতিবন্ধী স্কুল ০১
অর্থনৈতিক স্কুল ০১

ধর্মীয় অনুপাত[সম্পাদনা]

মোট জনসংখ্যার ১, ৪৩, ৮২৫ জনের মধ্যে ধর্মীয় অনুপাত রয়েছেঃ

ধর্ম অনুপাত
মুসলিম ৮২.৫৫%
হিন্দু ১৬.৭৫%
অন্যান্য ০.৭%

ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান[সম্পাদনা]

ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান সংখ্যা
মসজিদ ২৬৫
মন্দির ২০
গীর্জা ০৩
পবিত্র স্থান ০১

শিল্পকারখানা[সম্পাদনা]

শিল্প সংখ্যা
চালকল ১৬৮
ময়দাকল
বরফ কারখানা
করাতকল
ডালকল

রাস্তার অবস্থা[সম্পাদনা]

রাস্তার অবস্থা দৈর্ঘ্য(কি.মি.)-এ
পাকা ২৩
আধপাকা ৩৯
কাচা রাস্তা ৪২৭

বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন (জুন ২০১৪)। "এক নজরে বানারীপাড়া"। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। ৬ এপ্রিল ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ মার্চ ২০১৫ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]