নাজিরপুর উপজেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
নাজিরপুর
উপজেলা
নাজিরপুর বরিশাল বিভাগ-এ অবস্থিত
নাজিরপুর
নাজিরপুর
নাজিরপুর বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
নাজিরপুর
নাজিরপুর
বাংলাদেশে নাজিরপুর উপজেলার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২২°৪৪′৪০″ উত্তর ৮৯°৫৭′৫৫″ পূর্ব / ২২.৭৪৪৪৪° উত্তর ৮৯.৯৬৫২৮° পূর্ব / 22.74444; 89.96528স্থানাঙ্ক: ২২°৪৪′৪০″ উত্তর ৮৯°৫৭′৫৫″ পূর্ব / ২২.৭৪৪৪৪° উত্তর ৮৯.৯৬৫২৮° পূর্ব / 22.74444; 89.96528 উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
দেশ বাংলাদেশ
বিভাগবরিশাল বিভাগ
জেলাপিরোজপুর জেলা
আয়তন
 • মোট২৩৩.৬৩ কিমি (৯০.২১ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা [১]
 • মোট১,৮০,৪০৮
 • ঘনত্ব৭৭০/কিমি (২০০০/বর্গমাইল)
স্বাক্ষরতার হার
 • মোট৯২%
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
ওয়েবসাইটপ্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট Edit this at Wikidata

নাজিরপুর উপজেলা বাংলাদেশের পিরোজপুর জেলার অন্তর্গত একটি প্রশাসনিক এলাকা।

অবস্থান[সম্পাদনা]

উত্তরে টুঙ্গিপাড়া উপজেলা, র্পূবে নেছরাবাদ উপজেলা, দক্ষিণে পিরোজপুর জেলা ও পশ্চিমে বাগেরহাট জেলার কচুয়া উপজেলাচিতলমারী উপজেলা

প্রশাসনিক উপাত্ত[সম্পাদনা]

  • সংসদীয় এলাকা: ১টি, ১২৭-পিরোজপুর-১ (নাজিরপুর, পিরোজপুর সদর, নেছারাবাদ)
  • উপজেলা: ১টি
  • গ্রাম: ১৭১ টি
  • মৌজা: ৬৮ টি
  • ইউনিয়ন: ৯টি। দীর্ঘা, কলারদোয়ানিয়া, মাটিভাঙ্গা, মালিখালী, দেউ্লবাড়ি, শাখারিকাঠি, নাজিরপুর, সেখমাটিয়া, শ্রীরামকাঠি

বিবিধ[সম্পাদনা]

  • মসজিদ: ৩৬৫ টি
  • মন্দির: ২০২ টি
  • নদ-নদী : ৫ টি
  • হাট-বাজার: ৩২ টি
  • ব্যাংকশাখা: ৬ টি
  • পোষ্ট অফিস/সাব পোষ্ট অফিস: ২১ টি
  • টেলিফোন এক্সচেঞ্জ: ০১ টি
  • কমিউনিট ক্লিনিকঃ ৩৫ টি

ইতিহাস[সম্পাদনা]

বাংলাদেশের একটি নাম করা উপজেলা। নাজিরপুর উপজেলায় একটা স্বনামধন্য গ্রাম আছে বাংলার কাশ্মীর নামে যার পরিচিতি সারাদেশ জুড়ে। সবচেয়ে শিক্ষার দিক দিয়ে উন্নত এই গ্রামটি।

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

মোট জনসংখ্যা ১৮০৪০৮ জন। (পুরুষ-৮৯৭১১ জন, মহিলা- ৯০৬৯৭ জন)। জনসংখ্যার ঘনত্ব    ৭৮৯ জন (প্রতি বর্গ কি.মি.), জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার (বার্ষিক ) ০.০৯%। মোট ভোটার সংখ্যা ১২৩১১৩ জন (পুরুষ- ৬২৮৪০ জন, মহিলা- ৬০২৭৩ জন)।

শিক্ষা[সম্পাদনা]

প্রাথমিক বিদ্যালয় ১৭৩ টি, নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় ১০, টি, মাধ্যমিক বিদ্যালয় ৪৩ টি, মাদ্রাসা ১২ টি, কলেজ ০৯ টি, কারিগরি কলেজ ০১ টি, শিক্ষার হার ৫৯.৩% এবং স্বাক্ষরতার হার ৯২%। উল্লেখযোগ্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে;

১। শহীদ জননী মহিলা মহাবিদ্যালয়

২। শহীদ জিয়া ডিগ্রী কলেজ

৩। বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্যেসা মুজিব মহাবিদ্যালয়

৪। ইউনিয়ন একাডেমী মাধ্যমিক বিদ্যালয়

৫। দীর্ঘা মাধ্যমিক বিদ্যালয়

৬. দীঘিরজান মাধ্যমিক বিদ্যালয় ইত্যাদি।

কৃতি ব্যক্তিত্ব[সম্পাদনা]

১.দীর্ঘার এককালের ধনাঢ্য ব্যাবসায়ী অন্নদা মণ্ডল, ব্রিটিশ আমলেও তাঁর সুনাম ছিল দেশজোড়া।

২.মোস্তফা জামাল হায়দার, সাবেক মন্ত্রী । ১০-১২-১৯৮৮. -. ০৩-১২-১৯৯০।

৩. এডভোকেট শ. ম. রেজাউল করীম, সুপ্রিম কোট আইনজীবী সমিগির সাবেক সম্পাদক।

৪. ডাক্তার ক্ষিতিশ চন্দ্র মন্ডল, ত্রাণ ও পূনর্বাসন প্রতিমন্ত্রী ১৯৭৩-৭৫

৫. নীরোদ বিহরী নাগ, ১৯৬৪ সনে তৎকালীন প্রাদেশিক পরিষদের সদস্য

৬. দিলিপ কুমার বিশ্বাস, চলচিত্র পরিচালক।

৭.সাকিব জামাল, কবি ও গীতিকার।

৮. ফজলে রাব্বী, জাতীয় দলের ক্রিকেটার।

৯.জান্নাতুল ফেরদৌস ঐশী, মিস বাংলাদেশ ২০১৮।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসুত্র[সম্পাদনা]

  1. বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন (জুন, ২০১৪)। "এক নজরে নাজিরপুর"। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০১৫  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]