দোয়ারাবাজার উপজেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
দোয়ারাবাজার
উপজেলা
দোয়ারাবাজার বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
দোয়ারাবাজার
দোয়ারাবাজার
বাংলাদেশে দোয়ারাবাজার উপজেলার অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৫°০৩′০০″উত্তর ৯১°৩৪′০০″পূর্ব / ২৫.০৫০০° উত্তর ৯১.৫৬৬৭° পূর্ব / 25.0500; 91.5667স্থানাঙ্ক: ২৫°০৩′০০″উত্তর ৯১°৩৪′০০″পূর্ব / ২৫.০৫০০° উত্তর ৯১.৫৬৬৭° পূর্ব / 25.0500; 91.5667
দেশ  বাংলাদেশ
বিভাগ সিলেট বিভাগ
জেলা সুনামগঞ্জ জেলা
আয়তন
 • মোট ২৬১.৫০ কিমি (১০০.৯৭ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা (২০১১)[১]
 • মোট ২,৩৭,১৮০
 • ঘনত্ব ৯১০/কিমি (২৩০০/বর্গমাইল)
স্বাক্ষরতার হার
 • মোট ৫৫.৪%
সময় অঞ্চল বিএসটি (ইউটিসি+৬)
ওয়েবসাইট অফিসিয়াল ওয়েবসাইট উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন

দোয়ারাবাজার বাংলাদেশের সুনামগঞ্জ জেলার অন্তর্গত একটি উপজেলা

অবস্থান[সম্পাদনা]

দোয়ারাবাজার উপজেলার উত্তরে ভারতের চেরাপুঞ্জি, মেঘালয় রাজ্য। পূর্বে ছাতক উপজেলা, দক্ষিণ ও পশ্চিমে সুনামগঞ্জ জেলা। সুনামগঞ্জ থেকে দোয়ারাবাযারের দূরত্ব প্রায় ৩৫ কিঃমিঃ । সিলেট থেকে প্রায় ৬৫ কিঃমিঃ। দোয়ারাবাজার সুরমা নদীর উত্তর পাড়ে হওয়ায় সড়ক পথে সরাসরি যোগাযোগ নেই। ভারত সীমান্তের কাছে হওয়ায় খুব শীত পড়ে এখানে।

প্রশাসনিক এলাকা[সম্পাদনা]

এই উপজেলার ইউনিয়ন সমূহঃ-

  1. বাংলাবাজার ইউনিয়ন
  2. নরসিংপুর ইউনিয়ন
  3. দোয়ারাবাজার ইউনিয়ন
  4. মান্নারগাঁও ইউনিয়ন
  5. পাণ্ডারগাঁও ইউনিয়ন
  6. দোহালিয়া ইউনিয়ন
  7. লক্ষীপুর ইউনিয়ন
  8. বোগলাবাজার ইউনিয়ন এবং
  9. সুরমা ইউনিয়ন

ইতিহাস[সম্পাদনা]

দোয়ারাবাজার নামটা এসেছে, একটা বাজার স্তানান্তরের মাধ্যমে।

নদনদী[সম্পাদনা]

দোয়ারাবাজার উপজেলায় রয়েছে ছয়টি নদী। সেগুলো হচ্ছে খাসিয়ামারা নদী, বগরা নদী, যাদুকাটা নদী, সুরমা নদী, নয়াগাঙ নদী এবং চিলাই নদী[২]

দর্শনীয় স্থান[সম্পাদনা]

বাঁশতলা শহীদ স্মৃতিসৌধ

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

শিক্ষা[সম্পাদনা]

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

কৃষি, ও মৎস্য, নির্ভর অর্থনীতির এ এলাকাটি বর্তমানে কিছুটা উন্নত হলেও প্রাকৃতিক সম্পদে ভরপুর ব্যাপক সম্ভবনাময় উপজেলাটি অবকাঠামোগত উন্নয়নহীনতা ও জনপ্রতিনিধিদের সুপরিকল্পিত উদ্যোগের অভাবে এখনো বাংলাদেশের পশ্চাৎ পদ উপজেলাগুলোর মধ্যে অন্যতম।উল্লেখ্য বাংলাদেশের অন্যতম বৃহৎ বন্ধ গ্যাসক্ষেত্র টেংরাটিলা এখানেই অবস্থিত। সর্বশেষ নাইকো দূর্নীতি মামলায় ইহা বন্ধ হয়।

কৃতি ব্যক্তিত্ব[সম্পাদনা]

  • কাকন বিবি, ১৯৭১ সালে সংঘটিত বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের এক বীরযোদ্দা, বীরাঙ্গনা ও গুপ্তচর।
  • বীরপ্রতীক অধ্যক্ষ ইদ্রিস আলী মুক্তিযোদ্ধা, শিক্ষক ও রাজনীতিবিদ।
  • বিশিষ্ট সমাজসেবক, পল্লী চিকিৎসক ও শিক্ষক মোঃ আবদুর রশীদ যিনি মুক্তিযুদ্ধকালীন মুক্তিযোদ্ধাদের আশ্রয় ও চিকিৎসা প্রদান এবং নব বাংলাদেশের দোয়ারাবাজারের প্রত্যন্ত এলাকায় শিক্ষাবিস্তারে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখেন।

বিবিধ[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন (জুন, ২০১৪)। "এক নজরে দোয়ারাবাজার"। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। সংগৃহীত ৫ জুলাই, ২০১৫ 
  2. ড. অশোক বিশ্বাস, বাংলাদেশের নদীকোষ, গতিধারা, ঢাকা, ফেব্রুয়ারি ২০১১, পৃষ্ঠা ৩৯৩।

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]