২০১৫ ভারত ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
২০১৫ ভারত ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফর
Flag of Bangladesh.svg
বাংলাদেশ
Flag of India.svg
ভারত
তারিখ ১০ জুন – ২৪ জুন, ২০১৫
অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম (টেস্ট)
মাশরাফি বিন মর্তুজা (ওডিআই)
বিরাট কোহলি (টেস্ট)
মহেন্দ্র সিং ধোনি (ওডিআই)
টেস্ট সিরিজ
ফলাফল ১-ম্যাচের সিরিজ ০–০ তে ড্র হয়
সর্বাধিক রান ইমরুল কায়েস (৭৯) শিখর ধাওয়ান (১৭৩)
সর্বাধিক উইকেট সাকিব আল হাসান (৪) রবীচন্দ্রন অশ্বিন (৫)
সিরিজ সেরা শিখর ধাওয়ান (ভারত)
একদিনের আন্তর্জাতিক সিরিজ
ফলাফল ৩-ম্যাচের সিরিজ বাংলাদেশ ২–১ এ জয়ী হয়
সর্বাধিক রান সৌম্য সরকার (১২৮) শিখর ধাওয়ান (১৫৮)
সর্বাধিক উইকেট মুস্তাফিজুর রহমান (১৩) রবীচন্দ্রন অশ্বিন (৬)
সিরিজ সেরা মুস্তাফিজুর রহমান (বাংলাদেশ)
২০১৪ (পূর্ববর্তী) (পরবর্তী) নির্ধারিত হয়নি →

ভারত ক্রিকেট দল পূর্ব-নির্ধারিত সময়সূচী মোতাবেক ৭ জুন থেকে ২৪ জুন, ২০১৫ তারিখ পর্যন্ত বাংলাদেশ সফর করে।[১] সফরে দলটি বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের বিপক্ষে ১টি টেস্ট ও ৩টি একদিনের আন্তর্জাতিকে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অবতীর্ণ হয়।[২] সিরিজটি বর্ষা মৌসুমে অনুষ্ঠিত হবে বিধায় একদিনের আন্তর্জাতিকের জন্য সংরক্ষিত দিনের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।[১] একমাত্র টেস্ট ড্র হয় ও একদিনের আন্তর্জাতিকের সিরিজে বাংলাদেশ ২-১ ব্যবধানে ভারতকে পরাভূত করে।

সম্প্রচারস্বত্ত্বের কারণ সিরিজটি জা’ন জি আইসক্রিম সিরিজ নামে পরিচিতি পায়।

দলের সদস্য[সম্পাদনা]

৪ জুন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ অনুশীলন চলাকালীন আঙ্গুলে ব্যথা পাওয়ায় সিরিজের বাইরে থাকেন।[৩] এর দুইদিন পর ভারতের লোকেশ রাহুল অসুস্থ হয়ে পড়ায় টেস্টের বাইরে অবস্থান করেন।[৪]

টেস্ট ওডিআই
 বাংলাদেশ[৫]  ভারত[৬][৭]  বাংলাদেশ[৮]  ভারত[৬][৭]

খেলা পরিচালনাকারী কর্মকর্তা[সম্পাদনা]

নিম্নবর্ণিত কর্মকর্তাগণ খেলা পরিচালনা করেন:[৯]

আম্পায়ার টিভি আম্পায়ার সংরক্ষিত আম্পায়ার ম্যাচ রেফারী

টেস্ট সিরিজ[সম্পাদনা]

একমাত্র টেস্ট[সম্পাদনা]

১০-১৪ জুন
স্কোরকার্ড
৪৬২/৬ডি (১০৩.৩ ওভার)
শিখর ধাওয়ান ১৭৩ (১৯৫)
সাকিব আল হাসান ৪/১০৫ (২৪.৩ ওভার)
২৫৬ (৬৫.৫ ওভার)
ইমরুল কায়েস ৭২ (১৩৯)
রবীচন্দ্রন অশ্বিন ৫/৮৭ (২৫ ওভার)
২৩/০ এফ/ও (১৫ ওভার)
তামিম ইকবাল ১৬* (৪১)
খেলা ড্র
খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম, নারায়ণগঞ্জ
আম্পায়ার: কুমার ধর্মসেনা (শ্রীলঙ্কা) ও নাইজেল লং (ইংল্যান্ড)
ম্যাচসেরা: শিখর ধাওয়ান (ভারত)
  • ভারত টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • ১ম দিন বৃষ্টির কারণে দেরীতে খেলা শুরু হয়। ২য় দিন বৃষ্টিতে পুরো দিন নষ্ট হয়। ৩য় দিন অধিকাংশ সময়ই বৃষ্টি নামে। ৪র্থ দিন বৃষ্টির কারণে মাত্র দুই ঘন্টা খেলা চলে। ৫ম দিনের প্রথম অংশের অধিকাংশ সময় বৃষ্টি হানা দেয়।
  • বাংলাদেশের পক্ষে লিটন দাসের টেস্ট অভিষেক ঘটে।
  • তামিম ইকবাল বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী হন।[১০]

ওডিআই সিরিজ[সম্পাদনা]

১ম ওডিআই[সম্পাদনা]

১৮ জুন
৩:০০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
৩০৭ (৪৯.৪ ওভার)
 ভারত
২২৮ (৪৬ ওভার)
বাংলাদেশ ৭৯ রানে বিজয়ী
শের-ই-বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়াম, মিরপুর
আম্পায়ার: এনামুল হক (বাংলাদেশ) এবং রড টাকার (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: মুস্তাফিজুর রহমান (বাংলাদেশ)
  • বাংলাদেশ টস জিতে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেয়।
  • বাংলাদেশের ইনিংসে ১৬ তম ওভারে বৃষ্টির কারণে খেলা থেমে গেলেও শেষ পর্যন্ত কোন ওভার কাটা যায় নি।
  • বাংলাদেশের পক্ষে লিটন দাস এবং মুস্তাফিজুর রহমানের ওডিআই অভিষেক ঘটে।
  • এটি ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের সর্বাধিক সংগ্রহ।[১১]
  • মুস্তাফিজুর রহমান (বাংলাদেশ) অভিষেক ম্যাচে পাঁচটি উইকেট নেন।

২য় ওডিআই[সম্পাদনা]

২১ জুন
৩:০০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
 ভারত
২০০ (৪৫.০ ওভার)
বাংলাদেশ 
২০০/৪ (৩৮.০ ওভার)
  • ভারত টসে জয়ী হয় এবং ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয়।
  • ভারতের ইনিংসের ৪৪তম ওভারে বৃষ্টির কারণে খেলা বন্ধ হয়ে যায়। পরিবর্তীতে খেলা শুরু হলে, ওভার সংখ্যা কমিয়ে ৪৭ ওভার নির্ধারন করা হয় ও পরে ডাকওয়ার্থ-লুইস পদ্ধতিতে বাংলাদেশের জয়ের জন্য লক্ষ্যমাত্রা ২০০ নির্ধারন করা হয়।[১২]
  • মুস্তাফিজুর রহমান তার দ্বিতীয় ম্যাচে দ্বিতীয়বারের মত ৫ উইকেট লাভ করেন।
  • এই জয়ের ফলে, বাংলাদেশ ২০১৭ আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি প্রতিযোগিতায় খেলার জন্য যোগ্যতা অর্জন করে।[১২]

৩য় ওডিআই[সম্পাদনা]

২৪ জুন
৩:০০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
ভারত 
৩১৭/৬ (৫০ ওভার)
 বাংলাদেশ
২৪০ (৪৭ ওভার)
সৌম্য সরকার ৪০ (৩৪)
সুরেশ রায়না ৩/৪৫ (৮ ওভার)
  • বাংলাদেশ টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

টেস্ট
ব্যাটিং[১৩]
খেলোয়াড় দল ম্যাচ ইনিংস রান গড় সর্বোচ্চ ১০০ ৫০
শিখর ধাওয়ান  ভারত ১৭৩ ১৭৩.০০ ১৭৩
মুরলী বিজয়  ভারত ১৫০ ১৫০.০০ ১৫০
অজিঙ্কা রাহানে  ভারত ৯৮ ৯৮.০০ ৯৮
ইমরুল কায়েস  বাংলাদেশ ৭৯ ৭৯.০০ ৭২
লিটন দাস  বাংলাদেশ ৪৪ ৪৪.০০ ৪৪
বোলিং[১৪]
খেলোয়াড় দল ম্যাচ ওভার উইকেট গড় সেরা ৫ উই ১০ উই
রবিচন্দ্রন অশ্বিন  ভারত ৩১ ১৯.০০ ৫/৮৭
সাকিব আল হাসান  বাংলাদেশ ২৪.৩ ২৬.২৫ ৪/১০৫
হরভজন সিং  ভারত ২২.৫ ২৫.০০ ৩/৬৪
জুবায়ের হোসেন  বাংলাদেশ ১৯ ৫৬.৫০ ২/১১৩
বরুণ আরন  ভারত ২৭.০০ ১/২৭
ওডিআই
ব্যাটিং[১৫]
খেলোয়াড় দল ম্যাচ ইনিংস রান গড় সর্বোচ্চ ১০০ ৫০
শিখর ধাওয়ান  ভারত ১৫৮ ৫২.৬৬ ৭৫
সৌম্য সরকার  বাংলাদেশ ১২৮ ৪২.৬৬ ৫৪
সাকিব আল হাসান  বাংলাদেশ ১২৩ ৬১.৫০ ৫২
মহেন্দ্র সিং ধোনি  ভারত ১২১ ৪০.৩৩ ৬৯
সুরেশ রায়না  ভারত ১১২ ৩৭.৩৩ ৪০
বোলিং[১৬]
খেলোয়াড় দল ম্যাচ ওভার উইকেট গড় সেরা ৫ উই ১০ উই
মুস্তাফিজুর রহমান  বাংলাদেশ ২৯.২ ১৩ ১১.৫৩ ৬/৪৩
রবিচন্দ্রন অশ্বিন  ভারত ৩০ ১৯.৬৬ ৩/৫১
মাশরাফি বিন মর্তুজা  বাংলাদেশ ২৭ ৪১.০০ ৩/৭৬
ধবল কুলকার্নি  ভারত ১৫ ২৫.৩৩ ২/৩৪
সুরেশ রায়না  ভারত ২০ ৩৩.০০ ৩/৪৫

সম্প্রচার ব্যবস্থা[সম্পাদনা]

দেশ টেলিভিশন সম্প্রচার রেডিও সম্প্রচার
 বাংলাদেশ জাতীয় বিটিভি
ক্যাবল/স্যাটেলাইট জিটিভি
বাংলাদেশ বেতার
রেডিও ভূমি
 পাকিস্তান পিটিভি স্পোর্টস
 ভারত স্টার স্পোর্টস ১
 মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র উইলো

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Fatullah to host India Test, Mirpur gets ODIs"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৪ মে ২০১৫ 
  2. "ধোনি-কোহলিরা আসছেন ৭ জুন"প্রথম আলো। ৪ মে ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৫ 
  3. "Mahmudullah ruled out of India series"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। ইএসপিএন স্পোর্টস মিডিয়া। ৪ জুন ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুন ২০১৫ 
  4. "Rahul to miss Bangladesh Test with illness"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। ইএসপিএন স্পোর্টস মিডিয়া। ৬ জুন ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুন ২০১৫ 
  5. "Rubel Hossain returns for India Test"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। ইএসপিএন স্পোর্টস মিডিয়া। ৩ জুন ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৩ জুন ২০১৫ 
  6. "বাংলাদেশ সিরিজে পূর্ণ শক্তির ভারত দল"bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৫ 
  7. "Harbhajan returns to India's Test squad"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। ইএসপিএন স্পোর্টস মিডিয়া। ২০ মে ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২০ মে ২০১৫ 
  8. "Mustafizur, Litton Das named in ODI squad"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। ইএসপিএন স্পোর্টস মিডিয়া। ১৩ জুন ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১৩ জুন ২০১৫ 
  9. "Match officials in test"ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১০ জুন ২০১৫ 
  10. "Tamim surpasses Bashar for Bangladesh record"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৩ জুন ২০১৫ 
  11. "Bangladesh post their best total against India"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৮ জুন ২০১৫ 
  12. "Mustafizur stars in landmark series win"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৫ 
  13. "Records / India in Bangladesh Test Match, 2015 / Most runs" (ইংরেজি ভাষায়)। ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৫-১৫ 
  14. "Records / India in Bangladesh Test Match, 2015 / Most wickets" (ইংরেজি ভাষায়)। ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৫-১৫ 
  15. "Records / India in Bangladesh ODI Series, 2015 / Most runs" (ইংরেজি ভাষায়)। ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৫-১৫ 
  16. "Records / India in Bangladesh ODI Series, 2015 / Most wickets" (ইংরেজি ভাষায়)। ক্রিকইনফো। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৫-১৫