২০১৭ আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
২০১৭ আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি
২০১৭ আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি লোগো.jpg
ব্যবস্থাপক আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল
ক্রিকেটের ধরন একদিনের আন্তর্জাতিক
প্রতিযোগিতার ধরন রাউন্ড-রবিননক-আউট
আয়োজক  ইংল্যান্ড
 ওয়েল্‌স্‌
বিজয়ী  পাকিস্তান (১ম শিরোপা)
অংশগ্রহণকারীরা
খেলার সংখ্যা ১৫
প্রতিযোগিতার সেরা
খেলোয়াড়
পাকিস্তান হাসান আলী
সর্বোচ্চ রান ভারত শিখর ধাওয়ান (৩৩৮)
সর্বোচ্চ উইকেট পাকিস্তান হাসান আলী (১৩)
ইউডিআরএস হ্যাঁ

২০১৭ আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট প্রতিযোগিতাবিশেষ। পূর্ব-নির্ধারিত সময়সূচী মোতাবেক ইংল্যান্ড এবং ওয়েলসে ২০১৭ সালের ১ থেকে ১৮ জুন অনুষ্ঠিত হয়।[১] এটি প্রতিযোগিতার অষ্টম আসর। ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৫ তারিখ মোতাবেক আইসিসি ওডিআই চ্যাম্পিয়নশীপের শীর্ষ আট দল এতে অংশগ্রহণ করে। দলগুলো দুইটি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে একে-অপরের বিপক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অবতীর্ণ হয়। র‌্যাঙ্কিং নির্ধারণের পূর্বে বাংলাদেশ দল নবম অবস্থান থেকে অষ্টম স্থানে উত্তরণ ঘটিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে স্থানচ্যুত করে। এরফলে ২০০৬ সালের পর বাংলাদেশ আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে খেলার সুযোগ লাভ করে। অন্যদিকে, বৃহৎ সারির টেস্ট দল হিসেবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি খেলার সুযোগ থেকে বঞ্চিত হয়।

প্রতিযোগিতা শুরুর পূর্বে ম্যানচেস্টারে মার্কিন গায়িকা আরিয়ানা গ্রান্দের কনসার্টে বোমা হামলার প্রেক্ষিতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়। আইসিসি নিরাপত্তা ব্যবস্থার বিষয়টি তদারকী করার ঘোষণা দেয়।[২][৩]

অংশগ্রহণকারী দলসমূহ[সম্পাদনা]

স্বাগতিক দেশ ইংল্যান্ড স্বয়ংক্রিয়ভাবে এ প্রতিযোগিতায় খেলার যোগ্যতা অর্জন করে। তারা ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৫ তারিখে ওডিআই র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষস্থানীয় অপর সাতটি দলের সাথে খেলে।[৪]

২৫ এপ্রিল, ২০১৭ তারিখ বা তার পূর্বে অংশগ্রহণকারী আট দলের ১৫-সদস্যের তালিকা ঘোষণার কথা থাকে।[৫] ২৫ মে, ২০১৭ তারিখের পূর্বে দলগুলো তাদের মূল খেলোয়াড়দের পরিবর্তে দলে পরিবর্তন আনতে পারবে।[৬] ঐ তারিখের পর শুধুমাত্র চিকিৎসাজনিত কারণে ও অনুমোদনসাপেক্ষে পরিবর্তন ঘটানো যেতে পারে।[৬] ২৫ এপ্রিল সর্বশেষ তারিখে ভারত কারিগরী কারণে তাদের দল ঘোষণা করতে ব্যর্থ হয়।[৬] ভারতীয় ক্রিকেট নিয়ন্ত্রণ বোর্ড (বিসিসিআই) ২৭ এপ্রিল, ২০১৭ তারিখে আইসিসি পরিচালনা পরিষদের সভার পর তাদের দল ঘোষণার কথা জানায়।[৭] ৪ মে, ২০১৭ তারিখেও দল ঘোষণা না করায় প্রশাসকদের পরিষদ দ্রুত বিসিসিআইকে দল ঘোষণা করার আহ্বান জানায়।[৮] বিসিসিআই কর্তৃপক্ষ ৭ মে, ২০১৭ তারিখে আশু করণীয়ের বিষয়ে সাধারণ সভার আয়োজন করে।[৯] এ সভায় ভারতের প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।[১০] এরপর ৮ মে, ২০১৭ তারিখে দলের সদস্যদের তালিকা প্রকাশ করা হয়।[১১]

১০ মে, ২০১৭ তারিখে আইসিসি প্রতিযোগিতায় সকল দলের সদস্যদের তালিকার বিষয়টি নিশ্চিত করে। পাকিস্তানের শোয়েব মালিক উপর্যুপরি ষষ্ঠবারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে খেলছেন।[১২]

র‌্যাঙ্কিং[সম্পাদনা]

৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৫ তারিখে ওডিআই র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষ আট দল ২০১৭ সালের আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি খেলে। দলগুলো হলো:[১৩]

অবস্থান দল পয়েন্ট অতীতে অংশগ্রহণ সর্বশেষ অংশগ্রহণ পূর্ববর্তী সেরা ফলাফল
 অস্ট্রেলিয়া ১২৭ ২০১৩ চ্যাম্পিয়ন (২০০৬, ২০০৯)
 ভারত ১১৫ ২০১৩ চ্যাম্পিয়ন (২০০২, ২০১৩)
 দক্ষিণ আফ্রিকা ১১০ ২০১৩ চ্যাম্পিয়ন (১৯৯৮)
 নিউজিল্যান্ড ১০৯ ২০১৩ চ্যাম্পিয়ন (২০০০)
 শ্রীলঙ্কা ১০৩ ২০১৩ চ্যাম্পিয়ন (২০০২)
 ইংল্যান্ড ১০০ ২০১৩ রানার্স-আপ (২০০৪, ২০১৩)
 বাংলাদেশ ৯৬ ২০০৬ যোগ্যতা নির্ধারণী রাউন্ড (৯ম) (২০০৬)
 পাকিস্তান ৯০ ২০১৩ সেমি-ফাইনাল (২০০০, ২০০৪, ২০০৯)

মাঠসমূহ[সম্পাদনা]

মাঠসমূহের অবস্থান

১ জুন, ২০১৬ তারিখে ওভাল, এজবাস্টনসোফিয়া গার্ডেন্স - এ তিন মাঠে খেলাগুলো অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।[১৪] ১৮ মে, ২০১৭ তারিখে আইসিসি প্রত্যেক খেলা ও মাঠের জন্য আম্পায়ারদের তালিকা প্রকাশ করে।[১৫]

লন্ডন বার্মিংহাম কার্ডিফ
দি ওভাল এজবাস্টন ক্রিকেট গ্রাউন্ড সোফিয়া গার্ডেন্স
দর্শক ধারন ক্ষমতা: ২৬,০০০ দর্শক ধারন ক্ষমতা: ২৩,৫০০ দর্শক ধারন ক্ষমতা: ১৫,৬৪৩
Kia Oval Pavilion.jpg Edgbaston - view of new stand from the north.jpg Stadiwm SWALEC.JPG

প্রস্তুতিমূলক খেলা[সম্পাদনা]

স্বাভাবিকভাবে ওডিআই খেলাগুলোর তুলনায় প্রস্তুতিমূলক খেলার আইন-কানুন কিছুটা ভিন্ন প্রকৃতির হয়ে থাকে। ফলশ্রুতিতে ঐ খেলাগুলো ওডিআইয়ের মর্যাদা পায় না। একটি দল ইচ্ছে করলে সর্বোচ্চ ১৫ খেলোয়াড়কে অংশগ্রহণের অনুমতি দিতে পারে। তবে, প্রত্যেক ইনিংসে কেবলমাত্র ১১জন ব্যাট বা ফিল্ডিং করতে পারেন।

২৬ মে, ২০১৭
১০:৩০
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
৩১৮/৭ (৫০ ওভার)
 অস্ট্রেলিয়া
৩১৯/৮ (৪৯.৪ ওভার)
অ্যারন ফিঞ্চ ১৩৭ (১০৯)
নুয়ান প্রদীপ ৩/৫৭ (৯ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ২ উইকেটে বিজয়ী
দি ওভাল, লন্ডন
আম্পায়ার: ইয়ান গোল্ড (ইংল্যান্ড) ও সুন্দরম রবি (ভারত)
  • অস্ট্রেলিয়া টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২৭ মে, ২০১৭
১০:৩০
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
৩৪১/৯ (৫০ ওভার)
 পাকিস্তান
৩৪২/৮ (৪৯.৩ ওভার)
তামিম ইকবাল ১০২ (৯৩)
জুনায়েদ খান ৪/৭৩ (৯ ওভার)
শোয়েব মালিক ৭২ (৬৬)
মেহেদী হাসান ২/৩০ (৪ ওভার)
পাকিস্তান ২ উইকেটে বিজয়ী
এজবাস্টন, বার্মিংহাম
আম্পায়ার: রিচার্ড কেটেলবরা (ইংল্যান্ড) ও পল রেইফেল (অস্ট্রেলিয়া)
  • বাংলাদেশ টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

২৮ মে, ২০১৭
১০:৩০
স্কোরকার্ড
নিউজিল্যান্ড 
১৮৯ (৩৮.৪ ওভার)
 ভারত
১২৯/৩ (২৬ ওভার)
লুক রঙ্কি ৬৬ (৬৩)
ভুবনেশ্বর কুমার ৩/২৮ (৬.৪ ওভার)
বিরাট কোহলি ৫২* (৫৫)
জেমস নিশাম ১/১১ (৩ ওভার)
ভারত ৪৫ রানে বিজয়ী (ডি/এল)
দি ওভাল, লন্ডন
আম্পায়ার: আলীম দার (পাকিস্তান) ও ব্রুস অক্সেনফোর্ড (অস্ট্রেলিয়া)
  • নিউজিল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • ভারতের ইনিংস চলাকালে বৃষ্টি আঘাত হানে।

২৯ মে, ২০১৭
১০:৩০
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
৫৭/১ (১০.২ ওভার)
  • অস্ট্রেলিয়া টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • বৃষ্টির কারণে উভয় দলের ইনিংস ৩৪ ওভারে নির্ধারণ করা হয়।
  • অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস চলাকালে পুণরায় বৃষ্টি নামলে আর খেলা সম্ভব হয়নি।

৩০ মে, ২০১৭
১০:৩০
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
৩৫৬/৮ (৫০ ওভার)
 নিউজিল্যান্ড
৩৫৯/৪ (৪৬.১ ওভার)
উপুল থারাঙ্গা ১১০ (১০৪)
ট্রেন্ট বোল্ট ২/৪৭ (৫ ওভার)
নিউজিল্যান্ড ৬ উইকেটে বিজয়ী
এজবাস্টন, বার্মিংহাম
আম্পায়ার: রিচার্ড কেটেলবরা (ইংল্যান্ড) ও পল রেইফেল (অস্ট্রেলিয়া)
  • নিউজিল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

৩০ মে, ২০১৭
১০:৩০
স্কোরকার্ড
ভারত 
৩২৪/৭ (৫০ ওভার)
 বাংলাদেশ
৮৪ (২৩.৫ ওভার)
দিনেশ কার্তিক ৯৪ (৭৭ ওভার)
রুবেল হোসেন ৩/৫০ (৯ ওভার)
ভারত ২৪০ রানে বিজয়ী
দি ওভাল, লন্ডন
আম্পায়ার: মারাইস ইরাসমাস (দক্ষিণ আফ্রিকা) ও নাইজেল লং (ইংল্যান্ড)
  • বাংলাদেশ টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

গ্রুপ পর্ব[সম্পাদনা]

১ জুন, ২০১৬ তারিখে খেলার সময়সূচী ঘোষণা করা হয়।[১৬][১৭]

গ্রুপ এ[সম্পাদনা]

দল
খেলা জয় পরাজয় ফলাফল হয়নি পয়েন্ট এনআরআর
 ইংল্যান্ড +১.০৪৫
 বাংলাদেশ ০.০০০
 অস্ট্রেলিয়া –০.৯৯২
 নিউজিল্যান্ড –১.০৫৮

     নক-আউট পর্বে উত্তরণ

১ জুন, ২০১৭
১০:৩০
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
৩০৫/৬ (৫০ ওভার)
 ইংল্যান্ড
৩০৮/২ (৪৭.২ ওভার)
তামিম ইকবাল ১২৮ (১৪২)
লিয়াম প্লাঙ্কেট ৪/৫৯ (১০ ওভার)
জো রুট ১৩৩* (১২৯)
সাব্বির রহমান ১/১৩ (১ ওভার)
ইংল্যান্ড ৮ উইকেটে বিজয়ী
দি ওভাল, লন্ডন
আম্পায়ার: এস. রবি (ভারত) ও রড টাকার (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: জো রুট (ইংল্যান্ড)
  • ইংল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে প্রথমবারের মতো ৩০০-এরও বেশি লক্ষ্যমাত্রা তাড়া করে কোন দল জয় লাভ করে।
  • পয়েন্ট: ইংল্যান্ড ২, বাংলাদেশ ০।

২ জুন, ২০১৭
১০:৩০
স্কোরকার্ড
নিউজিল্যান্ড 
২৯১ (৪৫ ওভার)
 অস্ট্রেলিয়া
৫৩/৩ (৯ ওভার)
কেন উইলিয়ামসন ১০০ (৯৭)
জোশ হজলউড ৬/৫২ (৯ ওভার)
  • নিউজিল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • শুরুতে বৃষ্টির কারণে ম্যাচ ৪৬ ওভারে নিয়ে আসা হয় এবং পরবর্তীতে আরও বৃষ্টির কারণে অস্ট্রেলিয়ার জন্য ৩৩ ওভারে ২৩৫ রানের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। পরে আবার বৃষ্টি নামলে কোন ফলাফল ছাড়াই ম্যাচ শেষ হয়।
  • জোশ হজলউড (অস্ট্রেলিয়া) ৫২ রানে ৬ উইকেট নিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতেদ্বিতীয় সেরা বোলিং করার কৃতিত্ব অর্জন করেন।
  • পয়েন্ট: অস্ট্রেলিয়া ১, নিউজিল্যান্ড ১।

৫ জুন, ২০১৭
১৩:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
১৮২ (৪৪.৩ ওভার)
 অস্ট্রেলিয়া
৮৩/১ (১৬ ওভার)
তামিম ইকবাল ৯৫ (১১৪ বল)
মিচেল স্টার্ক ৪/২৯ (৮.৩ ওভার)
ফলাফল হয়নি
দি ওভাল, লন্ডন
আম্পায়ার: ক্রিস গফানি (নিউজিল্যান্ড) ও নাইজেল লং (ইংল্যান্ড)
  • বাংলাদেশ টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • অস্ট্রেলিয়ার ইনিংসের সময় বৃষ্টির কারণে খেলা বন্ধ হয়ে যায়।
  • ডেভিড ওয়ার্নার (অস্ট্রেলিয়া) ইনিংসের ক্ষেত্রে দ্রুততম অস্ট্রেলীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে ৯৩টি ওডিআই ম্যাচ খেলে ৪০০০ রান করেন।[১৮]
  • পয়েন্ট: অস্ট্রেলিয়া ১, বাংলাদেশ ১।

৬ জুন, ২০১৭
১০:৩০
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড 
৩১০ (৪৯.৩ ওভার)
 নিউজিল্যান্ড
২২৩ (৪৪.৩ ওভার)
জো রুট ৬৪ (৬৫)
কোরে অ্যান্ডারসন ৩/৫৫ (৯ ওভার)
ইংল্যান্ড ৮৭ রানে জয়ী
সোফিয়া গার্ডেন্স, কার্ডিফ
আম্পায়ার: ব্রুস অক্সেনফোর্ড (অস্ট্রেলিয়া) ও পল রেইফেল (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: জ্যাক বল (ইংল্যান্ড)
  • নিউজিল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • পয়েন্ট: ইংল্যান্ড ২, নিউজিল্যান্ড ০
  • এই ম্যাচের ফলাফলে ইংল্যান্ড সেমি-ফাইনালে খেলার জন্য যোগ্যতা অর্জন করে।[১৯]

৯ জুন, ২০১৭
১০:৩০
স্কোরকার্ড
নিউজিল্যান্ড 
২৬৫ (৫০ ওভার)
 বাংলাদেশ
২৬৮/৫ (৪৭.২ ওভার)
রস টেলর ৬৩ (৮২)
মোসাদ্দেক হোসেন ৩/১৩ (৩ ওভার)
সাকিব আল হাসান ১১৪ (১১৫)
টিম সাউদি ৩/৪৫ (৯ ওভার)
বাংলাদেশ ৫ উইকেটে জয়ী
সোফিয়া গার্ডেন্স, কার্ডিফ
আম্পায়ার: ইয়ান গোল্ড (ইংল্যান্ড) ও নাইজেল লং (ইংল্যান্ড)
সেরা খেলোয়াড়: সাকিব আল হাসান (বাংলাদেশ)
  • নিউজিল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • মাহমুদুল্লাহসাকিব আল হাসান বাংলাদেশের হয়ে যেকোন উইকেটে সর্বোচ্চ রানের জুটি গড়েন (২২৪)।[২০]
  • পয়েন্ট: বাংলাদেশ ২, নিউজিল্যান্ড ০।
  • নিউজিল্যান্ড এই ম্যাচটির ফলে পরাজিত করা হয়।

১০ জুন, ২০১৭
১০:৩০
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
২৭৭/৯ (৫০ ওভার)
 ইংল্যান্ড
২৪০/৪ (৪০.২ ওভার)
ট্রাভিস হেড ৭১* (৬৪)
মার্ক উড ৪/৩৩ (১০ ওভার)
বেন স্টোকস ১০২* (১০৯)
জোশ হজলউড ২/৫০ (৯ ওভার)
ইংল্যান্ড ৪০ রানে জয়ী (ডি/এল)
এজবাস্টন, বার্মিংহাম
আম্পায়ার: কুমার ধর্মসেনা (শ্রীলঙ্কা) ও ক্রিস গফানি (নিউজিল্যান্ড)
সেরা খেলোয়াড়: বেন স্টোকস (ইংল্যান্ড)
  • ইংল্যান্ড টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • ইংল্যান্ডের ইনিংসের সময় বৃষ্টির কারণে খেলা বন্ধ হয়ে যায়।
  • পয়েন্ট: ইংল্যান্ড ২, অস্ট্রেলিয়া ০।
  • এই ম্যাচের ফলাফলের কারনে অস্ট্রেলিয়া বাদ হয়ে যায় এবং বাংলাদেশ সেমি-ফাইনালে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে।[২১]

গ্রুপ বি[সম্পাদনা]

দল
খেলা জয় পরাজয় ফলাফল হয়নি পয়েন্ট এনআরআর
 ভারত +১.৩৭০
 পাকিস্তান -০.৬৮০
 দক্ষিণ আফ্রিকা +০.১৬৭
 শ্রীলঙ্কা –০.৭৯৮

     নক-আউট পর্বে উত্তরণ

৩ জুন, ২০১৭
১০:৩০
স্কোরকার্ড
দক্ষিণ আফ্রিকা 
২৯৯/৬ (৫০ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
২০৩ (৪১.৩ ওভার)
হাশিম আমলা ১০৩ (১১৫)
নুয়ান প্রদীপ ২/৫৪ (১০ ওভার)
উপুল থারাঙ্গা ৫৭ (৬৯)
ইমরান তাহির ৪/২৭ (৮.৩ ওভার)
দক্ষিণ আফ্রিকা ৯৬ রানে জয়ী
দি ওভাল, লন্ডন
আম্পায়ার: আলীম দার (পাকিস্তান) ও ইয়ান গোল্ড (ইংল্যান্ড)
সেরা খেলোয়াড়: ইমরান তাহির (দক্ষিণ আফ্রিকা)
  • শ্রীলঙ্কা টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • হাশিম আমলা (দক্ষিণ আফ্রিকা) ইনিংসের হিসেবে, ওডিআইতে দ্রুততম ২৫টি শতক করেন (১৫১)।
  • পয়েন্ট: দক্ষিণ আফ্রিকা ২, শ্রীলঙ্কা ০।

৪ জুন, ২০১৭
১০:৩০
স্কোরকার্ড
ভারত 
৩১৯/৩ (৪৮ ওভার)
 পাকিস্তান
১৬৪ (৩৩.৪ ওভার)
রোহিত শর্মা ৯১ (১১৯)
শাদাব খান ১/৫২ (১০ ওভার)
আজহার আলী ৫০ (৬৫)
উমেশ যাদব ৩/৩০ (৭.৪ ওভার)
  • পাকিস্তান টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • বৃষ্টির কারণে ম্যাচ ৪৮ ওভারে নিয়ে আসা হয়, পরে আবার বৃষ্টি নামলে পাকিস্তানের জন্য ৪১ ওভারে ২৮৯ রানের সংশোধিত লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হয়।
  • পয়েন্ট: ভারত ২, পাকিস্তান ০।

৭ জুন, ২০১৭
১৩:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
দক্ষিণ আফ্রিকা 
২১৯/৮ (৫০ ওভার)
 পাকিস্তান
১১৯/৩ (২৭ ওভার)
ডেভিড মিলার ৭৫* (১০৪)
হাসান আলী ৩/২৪ (৮ ওভার)
ফখর জামান ৩১ (২৩)
মরনে মরকেল ৩/১৮ (৭ ওভার)
  • দক্ষিণ আফ্রিকা টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • পাকিস্তানের ইনিংসের সময় বৃষ্টি হওয়ায় পরে আর খেলা হয়নি।
  • পয়েন্ট: পাকিস্তান ২, দক্ষিণ আফ্রিকা ০।

৮ জুন, ২০১৭
১০:৩০
স্কোরকার্ড
ভারত 
৩২১/৬ (৫০ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
৩২২/৩ (৪৮.৪ ওভার)
শিখর ধাওয়ান ১২৫ (১২৮)
লাসিথ মালিঙ্গা ২/৭০ (১০ ওভার)
শ্রীলঙ্কা ৭ উইকেটে জয়ী
দি ওভাল, লন্ডন
আম্পায়ার: রিচার্ড কেটেলবরা (ইংল্যান্ড) ও রড টাকার (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: কুশল মেন্ডিস (শ্রীলঙ্কা)
  • শ্রীলঙ্কা টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • এটি এই দুই দলের মধ্যকার ১৫০তম ওডিআই ম্যাচ ছিল।
  • পয়েন্ট: শ্রীলঙ্কা ২, ভারত ০।

১১ জুন, ২০১৭
১০:৩০
স্কোরকার্ড
দক্ষিণ আফ্রিকা 
১৯১ (৪৪.৩ ওভার)
 ভারত
১৯৩/২ (৩৮ ওভার)
শিখর ধাওয়ান ৭৮ (৮৩)
ইমরান তাহির ১/৩৭ (৬ ওভার)
ভারত ৮ উইকেটে জয়ী
দি ওভাল, লন্ডন
আম্পায়ার: আলীম দার (পাকিস্তান) ও পল রেইফেল (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: জসপ্রীত বুমরাহ (ভারত)
  • ভারত টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • পয়েন্ট: ভারত ২, দক্ষিণ আফ্রিকা ০।
  • এই ম্যাচের ফলাফলে ভারত সেমি-ফাইনালে যোগ্যতা অর্জন করে এবং দক্ষিণ আফ্রিকা বাদ পড়ে।

১২ জুন, ২০১৭
১০:৩০
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
২৩৬ (৪৯.২ ওভার)
 পাকিস্তান
২৩৭/৭ (৪৪.৫ ওভার)
সরফরাজ আহমেদ ৬১* (৭৯)
নুয়ান প্রদীপ ৩/৬০ (১০ ওভার)
পাকিস্তান ৩ উইকেটে জয়ী
সোফিয়া গার্ডেন্স, কার্ডিফ
আম্পায়ার: মারাইজ ইরাসমাস (দক্ষিণ আফ্রিকা) ও ব্রুস অক্সেনফোর্ড (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: সরফরাজ আহমেদ (পাকিস্তান)
  • পাকিস্তান টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • ফাহিম আশরাফ (পাকিস্তান)-এর ওডিআই অভিষেক হয়।
  • পয়েন্ট: পাকিস্তান ২, শ্রীলঙ্কা ০।
  • পাকিস্তান সেমি-ফাইনালে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে এবং শ্রীলঙ্কা বাদ পড়ে।

নক-আউট পর্ব[সম্পাদনা]

  সেমিফাইনাল ফাইনাল
                 
এ১   ইংল্যান্ড ২১১ (৪৯.৫ ওভার)  
বি২   পাকিস্তান ২১৫/২ (৩৭.১ ওভার)  
    সেমি১   পাকিস্তান ৩৩৮/৪ (৫০ ওভার)
  সেমি২   ভারত ১৫৮ (৩০.৩ ওভার)
এ২   বাংলাদেশ ২৬৪/৭ (৫০ ওভার)
বি১   ভারত ২৬৫/১ (৪০.১ ওভার)  

সেমি-ফাইনাল[সম্পাদনা]

১৪ জুন, ২০১৭
১০:৩০
স্কোরকার্ড
ইংল্যান্ড 
২১১ (৪৯.৫ ওভার)
 পাকিস্তান
২১৫/২ (৩৭.১ ওভার)
জো রুট ৪৬ (৫৬)
হাসান আলী ৩/৩৫ (১০)
আজহার আলী ৭৬ (১০০)
জ্যাক বল ১/৩৭ (৮ ওভার)
পাকিস্তান ৮ উইকেটে জয়ী
সোফিয়া গার্ডেন্স, কার্ডিফ
আম্পায়ার: মারাইজ ইরাসমাস (দক্ষিণ আফ্রিকা) ও রড টাকার (অস্ট্রেলিয়া)
সেরা খেলোয়াড়: হাসান আলী (পাকিস্তান)
  • পাকিস্তান টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • রুম্মান রইস-এর (পাকিস্তান) ওডিআই অভিষেক হয়
  • এটি প্রথমবারের মতো পাকিস্তান চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে যোগ্যতা অর্জন করে এবং ১৯৯৯ সালের পর কোন আইসিসি ওডিআই প্রতিযোগিতায় ফাইনালে উর্ত্তীর্ণ হয়।

১৫ জুন, ২০১৭
১০:৩০
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
২৬৪/৭(৫০ ওভার)
 ভারত
২৬৫/১ (৪০.১ ওভার)
তামিম ইকবাল ৭০ (৮২)
কেদার যাদব ২/২২ (৬ ওভার)
  • ভারত টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • কোন আইসিসি প্রতিযোগিতার সেমি ফাইনালে এটি বাংলাদেশের প্রথম উপস্থিতি।
  • যুবরাজ সিং তার ৩০০তম ওডিআই খেলেন।
  • বিরাট কোহলি (ভারত) ইনিংসের হিসেবে (১৭৫) সবচেয়ে দ্রুততম ব্যাটসম্যান হিসেবে ওয়ানডেতে ৮০০০ রানের মাইলফলকে পৌঁছান।

ফাইনাল[সম্পাদনা]

১৮ জুন, ২০১৭
১০:৩০
স্কোরকার্ড
 পাকিস্তান
৩৩৮/৪ (৫০ ওভার)
 ভারত
১৫৮ (৩০.৩ ওভার)
ফখর জামান ১১৪ (১০৬)
কেদার যাদব ১/২৭ (৩ ওভার)
পাকিস্তান ১৮০ রানে জয়ী
দি ওভাল, লন্ডন
আম্পায়ার: মারাইজ ইরাসমাস (দক্ষিণ আফ্রিকা) ও রিচার্ড কেটেলবরা (ইংল্যান্ড)
সেরা খেলোয়াড়: ফখর জামান (পাকিস্তান)
  • ভারত টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • ফখর জামান একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচে তার প্রথম সেঞ্চুরি করেন।
  • পাকিস্তানের ইনিংসের মোট রান কোন আইসিসি প্রতিযোগিতার ফাইনালে করা সর্বোচ্চ রান।
  • এটি কোন দল দ্বারা আইসিসি ওয়ানডে টুর্নামেন্টের ফাইনালে পাওয়া সবচেয়ে বড় ব্যবধানের জয়।

পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

টুর্নামেন্টের পরিসংখ্যান
ব্যাটিং[২২]
খেলোয়াড় দল ম্যাচ ইনিংস রান গড় সর্বোচ্চ ১০০ ৫০
শিখর ধাওয়ান  ভারত ৩৩৮ ৬৭.৬০ ১২৫
রোহিত শর্মা  ভারত ৩০৪ ৭৬.০০ ১২৩*
তামিম ইকবাল  বাংলাদেশ ২৯৩ ৭৩.২৫ ১২৮
জো রুট  ইংল্যান্ড ২৫৮ ৮৬.০০ ১৩৩*
বিরাট কোহলি  ভারত ২৫৮ ১২৯.০০ ৯৬*
বোলিং[২৩]
খেলোয়াড় দল ম্যাচ ওভার উইকেট গড় সেরা ৫ উই ১০ উই
হাসান আলী  পাকিস্তান ৪৪.৩ ১৩ ১৪.৬৯ ২/১৯
জোশ হজলউড  অস্ট্রেলিয়া ২৮.০ ১৫.৭৭ ৬/৫২
জুনায়েদ খান  পাকিস্তান ৩৩.৫ ১৯.৩৭ ৩/৪০
লিয়াম প্লাঙ্কেট  ইংল্যান্ড ৩৩.৩ ২৪.৫০ ৪/৫৫
আদিল রশিদ  ইংল্যান্ড ৩০.০ ২০.২৮ ৪/৪১

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "2017 ICC Champions Trophy Fixtures". 1 June 2016. Retrieved 1 June 2016.
  2. "ICC to review security in wake of Manchester bombing"ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগৃহীত ২৪ মে ২০১৭ 
  3. "South Africa reassured by increased security"ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগৃহীত ২৪ মে ২০১৭ 
  4. "Teams confirmed for ICC Champions Trophy 2017"ICC cricket (ইংরেজি ভাষায়) (International Cricket Council)। ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৫। সংগৃহীত ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  5. "Champions Trophy squad to be named after the ICC meet" (ইংরেজি ভাষায়)। The Indian Express। সংগৃহীত ২৩ এপ্রিল ২০১৭ 
  6. "India miss Champions Trophy squad submission deadline" (ইংরেজি ভাষায়)। ইএসপিএন ক্রিকইনফো। সংগৃহীত ২৬ এপ্রিল ২০১৭ 
  7. "BCCI to miss deadline for ICC Champions Trophy team submission" (ইংরেজি ভাষায়)। Hindustan Times। সংগৃহীত ২৫ এপ্রিল ২০১৭ 
  8. "COA tells BCCI to select Champions Trophy squad 'immediately'" (ইংরেজি ভাষায়)। ইএসপিএন ক্রিকইনফো। সংগৃহীত ৪ মে ২০১৭ 
  9. "To play, or not to play? BCCI set to decide" (ইংরেজি ভাষায়)। ইএসপিএন ক্রিকইনফো। সংগৃহীত ৬ মে ২০১৭ 
  10. "Uncertainty ends, India confirmed to play" (ইংরেজি ভাষায়)। ইএসপিএন ক্রিকইনফো। সংগৃহীত ৭ মে ২০১৭ 
  11. "Rohit, Ashwin, Shami return for Champions Trophy" (ইংরেজি ভাষায়)। ইএসপিএন ক্রিকইনফো। সংগৃহীত ৮ মে ২০১৭ 
  12. "Squads confirmed for ICC Champions Trophy" (ইংরেজি ভাষায়)। International Cricket Council। সংগৃহীত ১০ মে ২০১৭ 
  13. "Teams confirmed for ICC Champions Trophy 2017"ICC cricket (ইংরেজি ভাষায়) (ICC cricket)। ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৫। সংগৃহীত ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  14. "India to start ICC Champions Trophy title defence against Pakistan as event schedule announced with one year to go"ICC Cricket (ইংরেজি ভাষায়)। সংগৃহীত ২৬ অক্টোবর ২০১৬ 
  15. "ICC announces umpire and match referee appointments for ICC Champions Trophy 2017" (ইংরেজি ভাষায়)। International Cricket Council। সংগৃহীত ১৮ মে ২০১৭ 
  16. "India-Pakistan, Australia-England bouts in 2017 Champions Trophy". ইএসপিএন ক্রিকইনফো. Retrieved 1 June 2016.
  17. "India to start ICC Champions Trophy title defence against Pakistan". ICC. Retrieved 1 June 2016.
  18. "Warner breaks 27-year-old Australian record" (ইংরেজি ভাষায়)। Cricket Australia। সংগৃহীত ৫ জুন ২০১৭ 
  19. "Champions Trophy: England beat New Zealand to reach semi-finals" (ইংরেজি ভাষায়)। বিবিসি স্পোর্ট। সংগৃহীত ৬ জুন ২০১৭ 
  20. "Champions Trophy: Bangladesh produce a record stand to knock New Zealand out" (ইংরেজি ভাষায়)। বিবিসি স্পোর্ট। সংগৃহীত ৯ জুন ২০১৭ 
  21. "Champions Trophy: Ben Stokes hits century as England eliminate Australia" (ইংরেজি ভাষায়)। বিবিসি স্পোর্ট। সংগৃহীত ১০ জুন ২০১৭ 
  22. "ICC Champions Trophy, 2017 / Records / Most runs" (ইংরেজি ভাষায়)। ক্রিকইনফো। সংগৃহীত ২০১৭-০৬-১৮ 
  23. "ICC Champions Trophy, 2017 / Records / Most wickets" (ইংরেজি ভাষায়)। ক্রিকইনফো। সংগৃহীত ২০১৭-০৬-১৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]