২০১৫-১৬ অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
২০১৫-১৬ অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফর
Flag of Bangladesh.svg
বাংলাদেশ
Flag of Australia.svg
অস্ট্রেলিয়া
তারিখ ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৫ – ২১ অক্টোবর, ২০১৫
অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম স্টিভ স্মিথ
টেস্ট সিরিজ
২০১১ (পূর্ববর্তী) (পরবর্তী) ২০১৭

অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল পূর্ব-নির্ধারিত সময়সূচী মোতাবেক ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে ২১ অক্টোবর, ২০১৫ তারিখ পর্যন্ত বাংলাদেশ সফর করার কথা ছিল। ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের বাংলাদেশে আসার কথা থাকলেও ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া নিরাপত্তা ঝুঁকির তথ্য পাওয়ার কথা জানিয়ে সফর পিছিয়ে দেয় ও অস্ট্রেলীয় দলের দেশত্যাগ বাতিল করে।[১] সফর পিছিয়ে দেওয়ায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) বিস্ময় প্রকাশ করে।[২] অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের নিরাপত্তা প্রধান শন ক্যারল বাংলাদেশের নিরাপত্তাব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ করতে, পাশাপাশি বাংলাদেশে অস্ট্রেলীয় হাইকমিশনারের দেখা করতে ও বাংলাদেশ সরকারের সাথে নিরাপত্তা বিষয়ে কথা বলতে ২৭ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশে আসে।[৩] সফর সংক্রান্ত চলমান উদ্বেগ সত্ত্বেও ২৮ তারিখ বিসিবি মুশফিকুর রহিমের নেতৃত্বে ১৪ সদস্যের বাংলাদেশ দল ঘোষণা করে।[৪] বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজামউদ্দিন চৌধুরী বলেন "অস্ট্রেলিয়া দল খানিকটা দেরিতে এলেও আশা করি ম্যাচের সূচীতে কোনো পরিবর্তন হবে না"।[৫] ৩০ সেপ্টেম্বর অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার তাদের ঘরোয়া খেলার রাজ্য স্কোয়াডে ফেরত পাঠানো হয়।[৬] অন্যদিকে বিসিবি জানায় "আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের জন্য প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ছাড়াও সরকার ক্রিকেট দলকে বাড়তি নিরাপত্তার ব্যাপারে অঙ্গীকার করেছে। যেই নিরাপত্তার মান রাষ্ট্রপ্রধানের (ভিভিআইপি) সমান।"[৭]

সূচী অনুযায়ী এই সফরে অস্ট্রেলিয়া দলের বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের বিপক্ষে দুইটি টেস্ট খেলায় প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অবতীর্ণ[৮] ও এরপূর্বে বিসিবি একাদশের বিপক্ষে তিনদিনের প্রস্তুতিমূলক খেলায় মুখোমুখি হওয়ার কথা ছিল।

১ অক্টোবর ২০১৬ তারিখে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার প্রধান নির্বাহী জেমস সাদারল্যান্ড আনুষ্ঠানিকভাবে এই সফর বাতিলের কথা জানায় এবং সুবিধাজনক সময়ে এই সফর আবার অনুষ্ঠিত হবে বলে আশাব্যক্ত করেন।[৯] ২০১৭ সালে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া সফরটি ২০১৭ সালের আগস্ট মাসে হবে বলে নিশ্চিত করে।[১০]

দলীয় সদস্য[সম্পাদনা]

 বাংলাদেশ[৪]  অস্ট্রেলিয়া[১১]

অস্ট্রেলিয়ার প্যাট কামিন্স পিঠের আঘাতে আক্রান্ত হওয়ায় সফর থেকে বাদ পড়েন। তার পরিবর্তে জেমস ফকনারের অন্তর্ভুক্তি ঘটে।[১২]

প্রস্তুতিমূলক খেলা[সম্পাদনা]

বিসিবি একাদশ ব অস্ট্রেলিয়া একাদশ[সম্পাদনা]

৩-৫ অক্টোবর, ২০১৫

টেস্ট সিরিজ[সম্পাদনা]

১ম টেস্ট[সম্পাদনা]

৯-১৩ অক্টোবর, ২০১৫

২য় টেস্ট[সম্পাদনা]

১৭-২১ অক্টোবর, ২০১৫

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "নিরাপত্তা 'ঝুঁকি': বাংলাদেশ সফর পেছাল অস্ট্রেলিয়া"বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম। সংগ্রহের তারিখ ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  2. "অস্ট্রেলিয়ার সিদ্ধান্তে বিস্মিত বিসিবি"বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম। সংগ্রহের তারিখ ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  3. "অস্ট্রেলিয়ার নিরাপত্তা পরিদর্শক দল ঢাকায়"আমার দেশ (অনলাইন)। ৫ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  4. "অনিশ্চয়তার মধ্যেই দল ঘোষণা"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  5. "অস্ট্রেলিয়া দলকে ভিভিআইপি নিরাপত্তার আশ্বাস"যুগান্তর। সংগ্রহের তারিখ ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  6. "Australian players sent back to state squads"ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  7. "BCB makes last-ditch appeal to Cricket Australia"ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  8. "BCB announces dates for Australia Tests"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২ আগস্ট ২০১৫ 
  9. "বাংলাদেশে আসছে না অস্ট্রেলিয়া"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ১ অক্টোবর ২০১৫ 
  10. "Australia name strong squad for Bangladesh tour"ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জুন ২০১৭ 
  11. "Fekete, Bancroft in Test Squad" Cricket Australia ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ (ইংরেজি)
  12. "Pat Cummins ruled out of Bangladesh tour"ইএসপিএনক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:অস্ট্রেলিয়া-বাংলাদেশ ক্রিকেট সিরিজ