চেতেশ্বর পুজারা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
চেতেশ্বর পুজারা
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামচেতেশ্বর অরবিন্দ পুজারা
জন্ম (1988-01-25) ২৫ জানুয়ারি ১৯৮৮ (বয়স ৩১)
রাজকোট, গুজরাত, ভারত
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি লেগ ব্রেক
ভূমিকাব্যাটসম্যান
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ২৮০)
৯ অক্টোবর ২০১০ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ টেস্ট২২ মার্চ ২০১৩ বনাম অস্ট্রেলিয়া
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১৯৮)
১ আগস্ট ২০১৩ বনাম জিম্বাবুয়ে
শেষ ওডিআই৩ আগস্ট ২০১৩ বনাম জিম্বাবুয়ে
ওডিআই শার্ট নং১৬
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০০৫-বর্তমানসৌরাষ্ট্র
২০০৮-২০১০কলকাতা নাইট রাইডার্স
২০১১-২০১৩রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর
২০১৪কিংস এলেভেন পাঞ্জাব
২০১৪ডার্বিশায়ের
২০১৫ইয়র্কশায়ার
২০১৭নটিংহামশায়ার
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ১৩ ৭৯ ৬১
রানের সংখ্যা ১১৮০ ১৩ ৬,৪৪০ ২,৭৩৫
ব্যাটিং গড় ৬৫.৫৫ ৬.৫০ ৬০.১৮ ৫৬.৯৭
১০০/৫০ ৪/৩ ০/০ ২০/২৪ ৮/১৭
সর্বোচ্চ রান ২০৬* ১৩ ৩৫২ ১৫৮*
বল করেছে - ১৫৩
উইকেট -
বোলিং গড় - ১৬.৬০
ইনিংসে ৫ উইকেট -
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং - ২/৪
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১০/– ০/- ৪৫/– ২৩/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো, ৩ আগস্ট ২০১৩

চেতেশ্বর অরবিন্দ পুজারা (গুজরাটি: ચેતેશ્વર પુજારા; জন্ম: ২৫ জানুয়ারি, ১৯৮৮) গুজরাটের রাজকোটে জন্ম একজন ভারতীয় ক্রিকেটার। ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে ভারত দলের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছেন। ডিসেম্বর, ২০০৫ তারিখে ঘরোয়া ক্রিকেটে সৌরাষ্ট্রের হয়ে প্রথম শ্রেণি ক্রিকেটে আত্মপ্রকাশ করেছিলেন এবং ৯ অক্টোবর, ২০১০ তারিখে ব্যাঙ্গালোরে অনুষ্ঠিত টেস্ট ক্রিকেটে অস্ট্রেলিয়া দলের বিপক্ষে অভিষিক্ত হন।[১]

তিনি ২০১০ গ্রীষ্মে ইংল্যান্ড সফরকারী ভারত এ দলে ছিলেন এবং এই সফরের সর্বোচ্চ রান করেন। ২০১১ সালের অক্টোবরে বিসিসিআই তাঁকে ডি গ্রেড জাতীয় চুক্তিতে নিযুক্ত করে। তিনি শীঘ্রই লম্বা ইনিংস খেলার কৌশল এবং স্বভাবের জন্য পরিচিত হতে থাকেন, তাঁর ফল সরূপ রাহুল দ্রাবিড় এবং ভিভিএস লক্ষ্মণের অবসরের পর ভারতীয় দলের মিডল অর্ডারে জায়গা পাওয়ার যোগ্য হিসাবে অন্যতম দাবিদার হন।[২]

আগস্ট ২০১২ সালে, তিনি তাঁর টেস্ট প্রত্যাবর্তনে, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সেঞ্চুরি করেন এবং নভেম্বরে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আহমেদাবাদে তাঁর প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি করেন।<[৩] তাঁর দুই নম্বর ডাবল সেঞ্চুরির জন্য বেশি অপেক্ষা করতে হয়নি, ২০১৩ সালের মার্চ মাসে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তিনি আরও একটি ডাবল সেঞ্চুরি করেন এবং দুবারই তাঁর হাত ধরে ভারত জয় পায় এবং তিনি ম্যান অফ দ্য ম্যাচের শিরোপা পান।[৪]

২০১২ সালে এনকেপি সালভ চ্যালেঞ্জার ট্রফিতে তিনি দুটি সেঞ্চুরি এবং একটি অর্ধশতক করে সর্বোচ্চ রান করেন। তিনি মাত্র ১১ টেস্ট ক্রিকেট ম্যাচে এবং ১৮ তম টেস্ট ইনিংসে ১০০০ রান করেন তাঁর ফলে তিনি দ্রুততম ১০০০ রান করা ব্যাটসম্যানদের মধ্যে একজন হন। তিনি ২০১৩ সালে উদীয়মান ক্রিকেটার পুরস্কার লাভ করেন।[৫]

ফেব্রুয়ারী ২০১৭ সালে, বাংলাদেশের বিপক্ষে একটি টেস্ট ম্যাচ চলাকালীন, তিনি একটি ভারতীয় প্রথম-শ্রেণির মরসুমে ব্যাটসম্যানের দ্বারা সর্বাধিক রান করার একটি নতুন রেকর্ড গড়েন, তিনি ১,৬০৫ রান করেন। [৬] পূর্বের রেকর্ডটি ছিল চান্দু বোর্দের, তিনি ১৯৬৪-৬৫ মরসুমে ১,৬০৪ রান করেছিলেন।[৬] নভেম্বরে ২০১৩ সালে, তিনি প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে দ্বাদশ ডাবল সেঞ্চুরি করার সাথে সাথে, তিনি ভারতীয় ব্যাটসম্যান হিসাবে সর্বাধিক ডাবল সেঞ্চুরি করা বিজয় মার্চেন্টের রেকর্ডটি ভেঙে নতুন একটি রেকর্ড করেন।[৭][৮]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

২৫ জানুয়ারী ১৯৮৮ তারিখে গুজরাটের রাজকোটে পুজারা জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা অরবিন্দ শিবলাল পুজারা এবং তাঁর ভাইপো বিপিন শিবলাল পুজারা প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটার ছিলেন এবং তাঁরা সৌরাষ্ট্র দলের হয়ে ক্রিকেট খেলেন।। তাঁর বাবা এবং তাঁর মা, রিমা পুজারা ছোটবেলাতেই তাঁর প্রতিভা চিনতে পেরে ছিলেন এবং তাঁর পিতার তাঁকে সাথে নিয়ে অনুশীলন করাতেন। খেলাধুলার সাথে সাথে পড়াশুনো চলতে থাকে এবং পরবর্তীকালে তিনি বিবিএ করেন।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

পুজারার মা, রিমা পূজারা খুবই অল্প বয়সে মারা যান। তিনি যখন মাত্র সতের বছর বয়স, তখন তাঁর মা ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। পরবর্তীকালে, ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৩ তারিখে রাজকোটে পুজা পাবারি’র সাথে বিবাহ-বন্ধনে আবদ্ধ হন এবং ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ তারিখে দম্পতি একটি কন্যা সন্তান জন্ম গ্রহণ করে, তাঁর নাম রাখা হয় অদিতি। ফেব্রুয়ারী ২০১৪ সালে নির্বাচন কমিশন তাঁকে গুজরাট রাজ্যের 'ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর' হিসাবে নিযুক্ত করে।[৯]

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

২০১০ সালের গ্রীষ্মে ভারতের এ দলের হয়ে ইংল্যান্ড সফর করেন। দলের পক্ষে তিনি সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী ছিলেন। অক্টোবর, ২০১১ সালে বিসিসিআই জাতীয় পর্যায়ে খেলার জন্য তাকে গ-শ্রেণীভূক্ত খেলোয়াড় হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করে। দীর্ঘসময় ধরে ইনিংস খেলার জন্য ভারতের মাঝারি স্তরের ব্যাটসম্যান হিসেবে রাহুল দ্রাবিড়ভিভিএস লক্ষ্মণের অবসরের পর তাকে বিবেচনা করা হয়ে থাকে।[১০]

২০১২ সালের আগস্টে পুণরায় টেস্টে ফিরে আসেন নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে সেঞ্চুরি করেন। নভেম্বর, ২০১২ সালে আহমেদাবাদে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অনুষ্ঠিত টেস্টে তিনি তার প্রথম দ্বি-শতক ইনিংস করেন।[৩] মার্চ, ২০১৩ সালেও অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে আরও একটি দ্বি-শতক রান করেন। উভয় খেলায়ই ভারত জয়ী হয় ও তিনি ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার লাভ করেন।[১১]

ইংলিশ কাউন্ট্রি[সম্পাদনা]

২০১৪ সালে ডার্বিশিয়ার কাউন্ট্রি দলের হয়ে ওভাল স্টেডিয়ামে সারের বিরুদ্ধে অপরাজিত ৯০ এবং ডার্বি কাউন্ট্রি গ্রাউন্ডে লেইসেস্টারসায়রের বিরুদ্ধে অপরাজিত ১০০ রানের ইনিংস খেলেন।

২০১৫ সালে ইয়র্কশায়ার দলের জন্য খেলেন। ইয়র্কশায়ার ডিভিশন ওয়ান চ্যাম্পিয়ন হয়। হেডিংলে গ্রাউন্ডে হাম্পশায়ারের বিরুদ্ধে অপরাজিত ১৩৩ রানের ইনিংস খেলেন।

কীর্তিগাঁথা[সম্পাদনা]

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে একমাসের মধ্যে তিনটি ত্রি-শতক হাঁকিয়ে অনন্য রেকর্ড স্থাপন করেন পুজারা।[১২] দ্রুততম ব্যাটসম্যান হিসেবে একহাজার রান করেন মাত্র ১১ টেস্টের ১৮ ইনিংসে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. http://www.espncricinfo.com/ci/content/player/32540.html
  2. Marks, Vic (১৬ নভেম্বর ২০১২)। "India can build their future on Cheteshwar Pujara"The Guardian। Ahmedabad। সংগ্রহের তারিখ ৪ ডিসেম্বর ২০১২ 
  3. "Spinners strike after Pujara double ton"। Wisden India। ১৫ নভেম্বর ২০১২। ১৬ ডিসেম্বর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ নভেম্বর ২০১২  উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ অবৈধ; আলাদা বিষয়বস্তুর সঙ্গে "wisdenindia1" নাম একাধিক বার সংজ্ঞায়িত করা হয়েছে
  4. "India vs Australia, 2nd Test at Hyderabad scorecard"। Wisden India। ৪ মার্চ ২০১৩। ১৮ অক্টোবর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ মার্চ ২০১৩ 
  5. The Guardian (১৩ ডিসেম্বর ২০১৩)। "Ashes captains Clarke and Cook both hit a ton and pick up an annual award"। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  6. "Pujara breaks record for most runs in an Indian first-class season"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  7. "Pujara back to old ways, scores 12th double-century"। ESPN Cricinfo। ২ নভেম্বর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২ নভেম্বর ২০১৭ 
  8. "Cheteshwar Pujara goes past Vijay Merchant's all-time double-ton record in FC cricket"। Scroll.in। ২ নভেম্বর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২ নভেম্বর ২০১৭ 
  9. Sarath (২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৪)। "Cheteshwar Pujara appointed as brand ambassador of Gujarat State Election Commission – Sportskeeda"। Sportskeeda.com। 
  10. Marks, Vic (১৬ নভেম্বর ২০১২)। "India can build their future on Cheteshwar Pujara"। Ahmedabad: The Guardian। সংগ্রহের তারিখ ৪ ডিসেম্বর ২০১২ 
  11. "India vs Australia, 2nd Test at Hyderabad scorecard"। Wisden India। ৪ মার্চ ২০১৩। ১৮ অক্টোবর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ আগস্ট ২০১৩ 
  12. Pujara slams third triple ton in a month, this time against Orissa. The Indian Express. Retrieved on 22 November 2012.

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]