ফজলুর রহমান বাবু

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ফজলুর রহমান বাবু
Fazlur Rahman Babu at Pubali.jpg
ফজলুর রহমান বাবু পুবাইল এ শুটিং এর একটি মুহুর্তে। ।
জন্ম (1960-07-14) জুলাই ১৪, ১৯৬০ (বয়স ৫৮)
জাতীয়তাবাংলাদেশি
জাতিসত্তাবাঙালি
পেশাঅভিনেতা, কন্ঠশিল্পী
কার্যকাল১৯৮৩–বর্তমান
পুরস্কারজাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার (২ বার)
মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার (২ বার)

ফজলুর রহমান বাবু (জন্ম জুলাই ১৪, ১৯৬০) হলেন একজন বাংলাদেশী অভিনেতা এবং সঙ্গীতশিল্পী। তিনি সংক্ষেপে বাবু নামে অধিক পরিচিত। তিনি শতাধিক বাংলাদেশি টেলিভিশন নাটক, তার সাথে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র এবং বহু টেলিভিশন বিজ্ঞাপনে কাজ করেছেন। তিনি ২০০৪ সালে নাট্যধর্মী শঙ্খনাদ এবং ২০১৬ সালে মেয়েটি এখন কোথায় যাবে চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ পার্শ্বচরিত্রে অভিনেতা বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। তার অভিনীত অন্যান্য উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্র সমূহ হল দারুচিনি দ্বীপ (২০০৭), মনপুরা (২০০৯), অজ্ঞাতনামা (২০১৬), এবং হালদা (২০১৭)।[১][২][৩][৪]

শৈশব[সম্পাদনা]

তিনি বাংলাদেশের ফরিদপুর জেলায় জন্মগ্রহণ করেন এবং ওখানে তার শৈশবের বেশিরভাগ সময় কাটান। তার বাবার কর্মস্থল পরিবর্তনের ফলে তারা সেখান থেকে চলে আসেন।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

মঞ্চনাটক এবং ব্যাংকে কর্মজীবন (১৯৭৮-১৯৮৯)[সম্পাদনা]

তিনি ১৯৭৮ সালে ফরিদপুরে "বৈশাখী নাট্য গোষ্ঠিতে" যোগদানের মাধ্যমে তার অভিনয় জীবনের শুরু করেন। একই বছর, বাবু প্রথমবারের মত জাতীয় নাট্য উৎসবে অভিনয় পরিবেশন করে। এরমধ্যে, তিনি ১৯৮৩ সালে অগ্রণী ব্যাংকে যোগদান করেন এবং তার কর্মস্থল ঢাকায় স্থানান্তরিত হয়। ঢাকায় চলে আসার পর তিনি মামুনুর রশীদের "আরণ্যক নাট্যদল" মঞ্চ দলে যোগ দেন। মঞ্চে তার অভিনয়কৃত উল্লেখযোগ্য নাটক হল, নঙ্কার পালা, পাথার এবং ময়ুর সিংহাসন

টেলিভিশন (১৯৮৯-১৯৯৯)[সম্পাদনা]

তিনি ১৯৯১ সালে টেলিভিশনে অভিনয় শুরু করেন। তার অভিনীত প্রথম টেলিভিশন সোপ অপেরা হল মৃত্যুক্ষুধা[৫] এটি কাজী নজরুল ইসলামের রচিত মৃত্যুক্ষুধা অবলম্বনে নির্মিত এবং পরিচালনা করেছেন আবু জাফর সিদ্দিকী। এই নাটকটি বাংলাদেশ টেলিভিশনে (বিটিভি) প্রচারিত হয়। যাই হোক, মামুনুর রশীদের ইতিকথা (১৯৯১) টেলিভিশন নাটকে তিনি পরান মাঝির চরিত্রে অভিনয় করেন। এর ফলে, তিনি সুন্দরীদানব নাটকেও অভিনয়ের সুযোগ পান। বাবু তার হাস্যরসাত্মক চরিত্রে অভিনয়ের জন্যে বিখ্যাত কিন্তু তার দানব এবং জয় জয়ন্তীর মত মঞ্চ নাটকে তিনি গম্ভীর চরিত্রে অভিনয় করেন।

টেলিভিশনে সাফল্য ও চলচ্চিত্রে আগমন (২০০০-২০১০)[সম্পাদনা]

বাবু ২০০০ সাল পর্যন্ত নিরবিচ্ছিন্নভাবে টেলিভিশন এবং থিয়েটারে কাজ করে গেছেন, কিন্তু তিনি থিয়েটার অভিনয় ছেড়ে দেন যখন তার টেলিভিশনের কাজে মাসে পচিশ দিন তিনি ব্যস্ত থাকছেন। ২০০০ এবং ২০০১ সালের মধ্যবর্তী সময়ে বাবু প্রথম আব্দুল্লাহ আল মামুনের সাথে কাজ করেন, মঞ্চ নাটক বিহঙ্গ নাটকে। এছাড়া বাবু তৌকির আহমেদ পরিচালিত দারুচিনি দ্বীপ (২০০৭) চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। এই সিনেমার গল্পকার, সংলাপ রচয়িতা ও চিত্রনাট্যকার হলেন হুমায়ূন আহমেদ

সঙ্গীত[সম্পাদনা]

বাবু মনপুরা সিনেমায় দুইটি গান গাওয়ার মাধ্যমে সঙ্গীতশিল্পী হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন।[৬] বাবু তার প্রথম একক সঙ্গীত অ্যালবাম ইন্দুবালা (২০০৯)। এছাড়া তিনি মিশ্র সঙ্গীত অ্যালবাম মনচোর (২০০৮) এর চারটি গানে কণ্ঠ দিয়েছেন।

চলচ্চিত্র তালিকা[সম্পাদনা]

বছর চলচ্চিত্র ভূমিকা পরিচালক টীকা
২০০০ বিহঙ্গ
২০০৪ শঙ্খনাদ আবু সাইয়ীদ বিজয়ী: বাংলাদেশ জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার শ্রেষ্ঠ পার্শ্বচরিত্রে অভিনেতা
২০০৬ না বোলনা হাবুল দিদারুল আলম বাদল
২০০৭ আহা! সুলেমান এনামুল করিম নির্ঝর
দারুচিনি দ্বীপ মনিরুদ্দিন তৌকীর আহমেদ
মেড ইন বাংলাদেশ কবিরুল ইসলাম / শিল্পকলা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী
স্বপ্নডানায় সুরুজ গোলাম রাব্বানী বিপ্লব
২০০৯ বৃত্তের বাইরে গোলাম রাব্বানী বিপ্লব
মনপুরা পরীর বাবা গিয়াসউদ্দিন সেলিম
২০১৬ অজ্ঞাতনামা কিফায়েত উদ্দিন প্রামাণিক তৌকীর আহমেদ
একাত্তরের নিশান তাহের শিপন
২০১৭ মেয়েটি এখন কোথায় যাবে নাদের চৌধুরী বিজয়ী: বাংলাদেশ জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার শ্রেষ্ঠ পার্শ্বচরিত্রে অভিনেতা
হালদা মনু মিয়া তৌকীর আহমেদ
গহীন বালুচর ইসমাইল বদরুল আনাম সৌদ
২০১৮ স্বপ্নজাল আয়নাল গাজী গিয়াসউদ্দিন সেলিম খল চরিত্রে
পোড়ামন ২ রায়হান রাফী
নুরু মিয়া ও তার বিউটি ড্রাইভার পঙ্গু ভিক্ষুক মিজানুর রহমান লাবু [৭][৮]
দহন কবির রায়হান রাফী
আয়নাল ফকির

নাটকে অভিনয়[সম্পাদনা]

পুরস্কার ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

পুরস্কার বছর পুরস্কারের বিভাগ মনোনীত চলচ্চিত্র ফলাফল সূত্র
জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০০৪ শ্রেষ্ঠ পার্শ্বচরিত্রে অভিনেতা শঙ্খনাদ বিজয়ী [৯]
২০১৬ মেয়েটি এখন কোথায় যাবে বিজয়ী [১০]
মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার ২০০৩ শ্রেষ্ঠ টিভি অভিনেতা (সমালোচক) বিজয়ী [১১]
২০০৮ শ্রেষ্ঠ টিভি অভিনেতা দৈনিক তোলপাড় মনোনীত
২০০৯ মনোনীত
শ্রেষ্ঠ টিভি অভিনেতা (সমালোচক) পাঞ্জাবীওয়ালা বিজয়ী [১২]
২০১৬ শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র অভিনেতা (সমালোচক) অজ্ঞাতনামা মনোনীত [১৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "তামিল-তেলেগু ভাষায় মুক্তি পাচ্ছে ফজলুর রহমান বাবুর 'সিতারা'"চ্যানেল আই অনলাইন (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-০৫-০৯। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-১৮ 
  2. "তামিল-তেলেগু ভাষায় মুক্তি পাচ্ছে জাহিদ হাসান-বাবুর ছবি | বিনোদন"ittefaq। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-১৮ 
  3. "Fazlur Rahman Babu's upcoming ventures"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৮-০৫-১৪। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-১৮ 
  4. "BACHSAS celebrates golden jubilee"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-০৪-০৭। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-১৮ 
  5. Shazu, Shah Alam (১২ অক্টোবর ২০১২)। "Name and fame In conversation with Fazlur Rahman Babu"দ্য ডেইলি স্টার (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  6. Waheed, Karim (August 15, 2008). "Monpura — Rustic Soul Wrapped in Urban Sensitivity". The Daily Star. Accessed December 17, 2009.
  7. "'নুরু মিয়া ও তার বিউটি ড্রাইভার'"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-২০ 
  8. "DIVERGING PASSIONS BROUGHT TOGETHER"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-০৬-০৯। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-২০ 
  9. "National Film Awards for the last fours years announced"দ্য ডেইলি স্টার (ইংরেজি ভাষায়)। ১ সেপ্টেম্বর ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ২ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  10. "জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৬ : সেরা ছবি অজ্ঞাতনামা"দৈনিক কালের কণ্ঠ। ৫ এপ্রিল ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ৮ এপ্রিল ২০১৮ 
  11. "Meril-Prothom Alo Award handed over"দ্য ডেইলি স্টার (ইংরেজি ভাষায়)। ২২ মে ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ২ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  12. Alom, Zahangir (১১ এপ্রিল ২০১০)। "Meril Prothom Alo Awards"দ্য ডেইলি স্টার (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  13. "সমালোচকদের রায়ে সেরা চলচ্চিত্র অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী"দৈনিক প্রথম আলো। ২১ এপ্রিল ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২ ডিসেম্বর ২০১৭ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]