গিয়াস উদ্দিন সেলিম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(গিয়াসউদ্দিন সেলিম থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
গিয়াস উদ্দিন সেলিম
Giasuddin Selim (3).jpg
গিয়াস উদ্দিন সেলিম
জন্ম
জাতীয়তাবাংলাদেশী
জাতিসত্তাবাঙালি
নাগরিকত্ববাংলাদেশী
পেশানাট্যকার-নাট্যনির্মাতা ও চলচ্চিত্র পরিচালক
দাম্পত্য সঙ্গীনাসরীন আক্তার
পুরস্কারপূর্ণ তালিকা

গিয়াস উদ্দিন সেলিম হলেন একজন বাংলাদেশী নাট্যকার, নাট্যনির্মাতা ও চলচ্চিত্রকারমনপুরা (২০০৯) ও স্বপ্নজাল (২০১৮) সেলিম পরিচালিত উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্র। তিনি দুইবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার গ্রহণ করেছেন: একবার মনপুরার জন্য শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকার পুরস্কার এবং আরেকবার আধিয়ার (২০০৩) চলচ্চিত্রের কাহিনীর জন্য শ্রেষ্ঠ কাহিনীকার পুরস্কার। শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র বিভাগে মনপুরা ৩৪তম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করে।[১]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

জন্ম ও শিক্ষা[সম্পাদনা]

গিয়াস উদ্দিন সেলিম ফেনী সদর উপজেলার জাহানপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি উচ্চ মাধ্যমিক পর্যন্ত ছিলেন ফেনীতে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৯৮৭-৮৮ ব্যাচে মার্কেটিংয়ে ভর্তি হন।

পথনাট্য[সম্পাদনা]

বয়ঃসন্ধিকাল থেকে কবিতা লিখলেও ১৯৯২ সালে 'ঠ্যারো' নামে প্রথম পথনাটক লেখেন বিশ্ববিদ্যালয় থিয়েটারের জন্য। এখনো সে দলটি মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক এ নাটক মঞ্চস্থ করে। তখনই নাট্যরূপ দেন আখতারুজ্জামান ইলিয়াসের চিলেকোঠার সেপাই। নির্দেশনা দেন আহসান হাবিব টিটোর ক্বাহার এবং রবীন্দ্রনাথের রথের রশি। নিজ দলের প্রয়োজনেই হয়ে উঠেন নাট্যকার-নির্দেশক। তার এরশাদবিরোধী পথনাটক ছিল কাকলাম

প্রতিষ্ঠান ও থিয়েটার[সম্পাদনা]

ফেনী জেলাতে প্রথমত সুবচন নাট্যদলের সাথে কাজ করতেন। তখনকার সময় বন্ধুদের অনেকজন মিলে নাট্যদল গড়ে তুলেছিলেন। ঐ দলে কাজ করে মোট ১২ মঞ্চ নাটক করেন। ৩ জুন, ১৯৯০ তার সহপাঠী বন্ধু শাহ আজম শান্তনুসহ কয়েকজন মিলে প্রতিষ্ঠা করেন 'বিশ্ববিদ্যালয় থিয়েটার রাজশাহী' নামের নতুন থিয়েটার। সে বছরই প্রথম মঞ্চনাটক নির্দেশনা দেন। সেটি ছিল এসএম সোলায়মানের ইঙ্গিত। তাদের গড়া থিয়েটারটি এখনো আছে।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

১৯৯৩ সালে পড়াশোনার পাঠ শেষে ঢাকায় এসে মাসুম রেজা এবং সালাউদ্দিন লাভলুর সাথে মিলে প্রতিষ্ঠা করেন 'স্ট্রিগ প্লাস' নামে একটি বিজ্ঞাপনী প্রতিষ্ঠান। ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ায় গিয়াস উদ্দিন সেলিম প্রথমে নাট্যকার হিসেবেই কর্মজীবন শুরু করেন। অধিকাংশ নাটকই প্রচার হয় সে সময়ের জনপ্রিয় টিভি চ্যানেল একুশে টিভিতে। তার প্রথম টিভি নাটক পৌনঃপুনিক[২] এটি পরিচালনা করেন কাওসার চৌধুরী। সব মিলিয়ে তিনি রাতারাতি তারকা নাট্যকারে পরিণত হন। পরিচালক হিসেবে প্রথম নির্মাণ করেন বিপ্রতীপ, যা টিনেজারদের নিয়ে দেশের প্রথম নাটক।[৩] ২০০৩ সালে তিনি আধিয়ার চলচ্চিত্রের কাহিনী ও সংলাপ রচনা করেন। ছবিটি পরিচালনা করেন সাইদুল আনাম টুটুল। এই ছবির জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ কাহিনীকার বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। ২০০৯ সালে তিনি নির্মাণ করেন মনপুরা চলচ্চিত্র। এতে প্রধান ভূমিকায় অভিনয় করেন চঞ্চল চৌধুরী, ফারহানা মিলি, মামুনুর রশীদ, ও ফজলুর রহমান বাবু। ছবিটি বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করে এবং ব্যবসাসফল হয়। সেলিম এই ছবির জন্য শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকার বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন।

২০১১ সালে ঈদের জন্য নির্মাণ করেন এক ঘণ্টার নাটক একটি সাধারণ প্রেমের গল্প। এতে অভিনয় করেছেন সমাপ্তি ওয়াদুদ, অদিতি ওয়াদুদ।[৪] ২০১৬ সালে তিনি মানিক বন্দ্যোপাধ্যায় রচিত কালোবাজারে প্রেমের দর গল্প অবলম্বনে নির্মাণ করেন আধুনিক প্রেম নাটক। এতে অভিনয় করেন মামুনুর রশীদ, চঞ্চল চৌধুরী, জিয়াউল ফারুক অপূর্ব ও রিমা। এই নাটক দিয়ে তিনি দুই বছর পর নাটক নির্মাণে ফিরেন।[৫] তার পরিচালিত স্বপ্নজাল চলচ্চিত্র নির্মাণাধীন রয়েছে।[৬] এতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন পরীমনি ও নবাগত ইয়াশ রোহান।[৭]

গবেষণাধর্মী নির্দেশনা[সম্পাদনা]

  • 'কাজল রেখা' (ময়মনসিংহ গীতিকা অবলম্বনে, গবেষণা চলছে )

চলচ্চিত্র[সম্পাদনা]

নাটক[সম্পাদনা]

  • পৌনঃপুনিক (টেলিভিশনে প্রচারিত তার প্রথম নাটক)
  • অবগুণ্ঠন (ধারাবাহিক, চ্যানেল আই,২০১১)
  • রোদ (ধারাবাহিক, চ্যানেল ২৪,২০১১)
  • দক্ষিণের ঘর
  • মাধবী
  • অন্যান্য
  • দ্বৈরথ
  • স্বপ্নশকট
  • প্রিতি(ওয়েব সিরিজ,বায়োস্কপ)।

পুরস্কার ও মনোনয়ন[সম্পাদনা]

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার
মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০০৯"দৈনিক জনকণ্ঠ। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১২-২১ 
  2. চৌধুরী, ইকবাল হোসাইন (২৯ আগস্ট ২০০৯)। "সময়ের তারকা গিয়াস উদ্দিন সেলিম"দৈনিক প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৭ 
  3. http://www.banglanews24.com/LifeStyle/detailsnews.php?nssl=584[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  4. "ঈদে গিয়াস উদ্দিন সেলিমের 'একটি সাধারণ প্রেমের গল্প'"দৈনিক সমকাল। ২৬ আগস্ট ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৭ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  5. "নাটকে ব্যস্ত গিয়াস উদ্দিন সেলিম"দৈনিক প্রথম আলো। ৮ জুন ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৭ 
  6. "শুটিং শুরু হচ্ছে গিয়াস উদ্দিন সেলিমের স্বপ্নজাল চলচ্চিত্রের"দৈনিক ইনকিলাব। ৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৭ 
  7. হক, রুদ্র (১৭ অক্টোবর ২০১৬)। "আমরাই মেইনস্ট্রিম: গিয়াস উদ্দিন সেলিম"বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুন ২০১৭ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]