জামিয়া মাদানিয়া আঙ্গুরা মুহাম্মদপুর

স্থানাঙ্ক: ২৪°৫১′৩৩″ উত্তর ৯২°০৭′০৫″ পূর্ব / ২৪.৮৫৯১° উত্তর ৯২.১১৮০° পূর্ব / 24.8591; 92.1180
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
জামিয়া মাদানিয়া আঙ্গুরা মুহাম্মদপুর
الجامعة المدنية أنغورا محمدفور
Angura muhammad pur madrasa.jpg
ধরনইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়
স্থাপিত১৯৬১
আচার্যজিয়া উদ্দিন [১]
অবস্থান
শিক্ষাঙ্গনগ্রামীণ
ওয়েবসাইটhttp://jamiaangura.com/bn

জামেয়া মাদানিয়া আঙ্গুরা মুহাম্মদপুর ('জামিয়া আঙ্গুরা' বা সাধারণভাবে 'আঙ্গুরা মাদ্রাসা 'হিসেবে পরিচিত), একটি বিখ্যাত কওমি মাদ্রাসা[২] যা বাংলাদেশের সিলেট অঞ্চলের বিয়ানীবাজারে অবস্থিত।[৩]

অবস্থান[সম্পাদনা]

সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলার কুড়ারবাজার ইউনিয়নের আঙ্গুরা মোহাম্মদপুর গ্রামে কুশিয়ারা নদীর দক্ষিণ তীরে মাদ্রাসাটির অবস্থান।[৩]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৫ই এপ্রিল ১৯৬১ সালে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন বিয়ানীবাজার উপজেলার গোবিন্দশ্রী গ্রামের শায়খ শিহাবুদ্দীন।[৪] মাদ্রাসাটি কয়েক দশক ধরে আলিম, দায়ী, লেখক, বক্তা, রাজনীতিক, মুসলিহ ও সমাজসেবক তৈরি করেছে। ইসলামী শিক্ষা, ওয়াজ-নসিহত, মসজিদ মাদরাসা পরিচালনা, লেখালেখি, রাজনীতিক সব সেক্টরেই নিরন্তর সেবা দিয়ে যাচ্ছে।[৪]

ক্যাম্পাস[সম্পাদনা]

জামিয়া মাদানিয়া আঙ্গুরা মুহাম্মদপুর এর মৌলিক কাজ হজ্ছে ইসলামী শিক্ষার প্রচার ও প্রসার। পাশাপাশি দাওয়াততাবলীগ, আত্মশুদ্ধি, সমাজ সংস্কার, মসজিদ-মকতব-মাদরাসা প্রতিষ্ঠা, ইসলামী মূল্যবোধ তৈরি, বই-পুস্তক রচনা, অনুবাদ, প্রকাশনা, ইসলামী সাহিত্যের বিকাশ ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য কার্যক্রম।[৫] মাদ্রাসায় রয়েছে একটি সমৃদ্ধ লাইব্রেরি। যেখানে প্রায় ১২,০০০ হাজার গ্রন্থ রয়েছে। [৩] দারসে নেজামীর সকল কিতাব এবং চার মাজহাবের উল্লেখযোগ্য কিতাবাদি গুরুত্বের সাথে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।[৬]

বিখ্যাত ছাত্র[সম্পাদনা]

উল্লেখযোগ্য কয়েকজন- [৪]

  • ফখরুদ্দীন সাদিক
  • ফয়যুল হাসান খাদিমানী
  • খায়রুল ইসলাম
  • হাফিজ ফখরুজ্জামান
  • আব্দুল মালিক কাসেমী
  • নুরুল ইসলাম ফাগুরবাড়ী রঃ গোয়াইনঘাট

শিক্ষার ধরণ[সম্পাদনা]

জামেয়া মাদানিয়া আঙ্গুরা মুহাম্মদপুর একদম শিশু শ্রেণী থেকে উচ্চতর পর্যায় পর্যন্ত শিক্ষাদান করে থাকে। শিক্ষাস্তর : ১. এ, সি, ই, একাডেমী (শিশু শ্রেণী) ২. হিফ্‌য-উল-কুরআন ৩. সাধারণ ইসলামি শিক্ষা[৭]

শিক্ষাবিভাগ তিন স্তরে বিভক্তঃ ১) কিতাব বিভাগ, ২) হিফয বিভাগ, ৩) এ,সি,ই একাডেমী (শিশুশিক্ষা বিভাগ)[৭]

কিতাব বিভাগে পাঁচটি মারহালা বা স্তরঃ ১.ইবতিদাইয়্যাহ (প্রাথমিক) ২.মুতাওয়াসসিতা (মাধ্যমিক) ৩.সানাবিয়্যা (উচ্চ মাধ্যমিক) ৪.ফযিলত (স্নাতক) ৫.তাকমীল (মাস্টার্স)।[৭]

হিফয বিভাগঃ হিফয বিভাগে হিফযে কুরআন[৭]

এ.সি.ই একাডেমী: এ.সি.ই একাডেমী হচ্ছে শিশুশিক্ষা বিভাগ। এই বিভাগে তিনবছর মেয়াদী কোর্সে কোমলমতি শিশুদেরকে ইসলামের বুনিয়াদী শিক্ষা দেয়া হয়। পাশাপাশি বাংলা, গণিত, ইংরেজিসহ সাধারণ শিক্ষার প্রাথমিক স্তরও পড়ানো হয়।[৭]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "শায়খুল হাদিস আল্লামা ইসহাকের ইন্তেকাল"old.dhakatimes24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৬-০৯ 
  2. Singh, N.K. (২০০৩)। Encyclopaedia Of Bangladesh (Set Of 30 Vols.)। Anmol Publications Pvt. Limited। পৃষ্ঠা 259। আইএসবিএন 9788126113903 
  3. "সংক্ষিপ্ত পরিচিতি – জামিয়া মাদানিয়া আঙ্গুরা মূহাম্মদপুর"। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৬-০৯ 
  4. QOWMIPEDIA (২০১৮-০৫-১৭)। "জামেয়া মাদানিয়া আঙ্গুরা মুহাম্মদপুর"QOWMIPEDIA। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৬-০৯ 
  5. "কার্যক্রম – জামিয়া মাদানিয়া আঙ্গুরা মূহাম্মদপুর"। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৬-০৯ 
  6. "গ্রন্থাগার – জামিয়া মাদানিয়া আঙ্গুরা মূহাম্মদপুর"। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৬-০৯ 
  7. "শিক্ষা সংক্রান্ত – জামিয়া মাদানিয়া আঙ্গুরা মূহাম্মদপুর"। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৬-০৯ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]