বদরপুর নেছারিয়া ফাজিল মাদ্রাসা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বদরপুর নেছারিয়া ফাজিল মাদ্রাসা, কুমিল্লা
ধরনএমপিও ভুক্ত
স্থাপিত১ জানুয়ারি ১৯৯৫; ২৬ বছর আগে (1995-01-01)
প্রাতিষ্ঠানিক অধিভুক্তি
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ (২০০৬- ২০১৬)
ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয় (২০১৬- বর্তমান)
মাধ্যমিক অন্তর্ভুক্তিবাংলাদেশ মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড
শিক্ষার্থীআনু. ৮০০
ঠিকানা
বদরপুর বাজার, মাইজখার ইউনিয়ন
, , ,
শিক্ষাঙ্গনশহুরে
EIIN সংখ্যা১০৫৩৮০
ক্রীড়াক্রিকেট, ফুটবল, ভবিবল
ওয়েবসাইটhttp://105380.ebmeb.gov.bd/

বদরপুর নেছারিয়া ফাজিল মাদ্রাসা বাংলাদেশের কুমিল্লা জেলার চান্দিনা উপজেলার মাইজখার ইউনিয়নের বদরপুর বাজারে অবস্থিত একটি আলিয়া মাদ্রাসা[১] মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বাংলাদেশ মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ড কর্তৃক পরিচালিত এ মাদ্রাসাটি স্থানীয় মুসলিমদের সহযোগিতায় ১৯৫৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়।[২] মাদ্রাসাটির ফাজিল স্তর ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত।

স্থাপিত- ১৯৫৫ইং, ধরন-বেসরকারী, ঠিকানা - বদরপুর, চান্দিনা, কুমিল্লা, শিক্ষাবোর্ড - ঢাকা,

ইতিহাস[সম্পাদনা]

পাকিস্তান আমলে এলাকার ধর্মানুরাগী মুসলিম ব্যক্তিদের সহযোগীতায় ১৯৫৫ সালে মাদ্রাসা টি প্রতিষ্ঠিত হয়। এটা কুমিল্লা জেলার অন্যতম প্রাচীন মাদ্রাসা। মাদ্রাসাটি প্রতিষ্ঠা হবার পরে সরকারি স্বীকৃতি লাভ করে, এবং একসময় ফাজিল শ্রেণীর অনুমতি লাভ করে। এবং ফাজিল স্তরের জন্য ২০০৬ সালে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশের অধিভুক্তি লাভ করে এবং ২০১৬ সালের পর থেকে ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্তি রয়েছে।[৩]

নামকরণ[সম্পাদনা]

মাদ্রাসাটি উদ্বোধন করেন ছারছিনা দরবার শরীফের তৎকালীন পীর নেছার উদ্দীন আহমেদ। ঐ পীরের নাম অনুসারে মাদ্রাসার নামকরণ হয় বদরপুর নেছারিয়া ফাজিল মাদ্রাসা। এটি কুমিল্লা জেলার মধ্যে ২য় প্রতিষ্ঠিত মাদ্রাসা।[২]

অবকাঠামো[সম্পাদনা]

মাদ্রাসা টি প্রথম প্রতিষ্ঠিত হয় ১৫ শতাংশ জায়গার ওপর। পরবর্তীতে মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের স্থান সংকুলান না হওয়ায় এলাকার লোকজন আরও জায়গা দিয়ে মাদ্রাসা টি সম্প্রসারণ করা হয়। বর্তমানে মাদ্রাসাটির মোট সম্পতির পরিমান হলো ৩ একর ৬৬ শতাংশ। মাদ্রাসা টি এখন ২ একর ৩৬ শতাংশ জায়গার ওপর অবস্থিত। মাদ্রাসা টিতে একটি বড় আকারের খেলার মাঠ রয়েছে এবং দক্ষিণ পাশে রয়েছে একটি পুকুর। মাদ্রাসার উত্তর পাশে রয়েছে একটি মসজিদ। চান্দিনা উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান মনিরুল হক ১৯৯৭ সালে মাদ্রাসা টিতে দাখিল, জেডিসি ও এবতেদায়ী বোর্ড পরীক্ষার কেন্দ্র স্থাপন করে দেন। চান্দিনার দক্ষিণ ও পশ্চিমাঞ্চলের ১৫ টি মাদ্রাসার বোর্ড পরীক্ষা এই মাদ্রাসায় প্রতি বছর অনুষ্ঠিত হয়। প্রতি বছরের পরীক্ষায় ফলাফল শতভাগ।[৪]

ভবন[সম্পাদনা]

বর্তমানে মাদ্রাসাটির ৫ টি একাডেমিক ভবন রয়েছে। একটি একতল ভবণ পূর্ব পশ্চিমে দক্ষিণমূখী, একটি উত্তর ও দক্ষিণে যা পশ্চিমমূখী, আরেকটি পূর্ব ও পশ্চিমে দ্বীতল ভবণ, যা দক্ষিণ মূখী পাশে রয়েছে উত্তর ও দক্ষিণে লম্বা দ্বীতল ভবণ যা পূর্বমূখী।[৩]

শিক্ষাব্যবস্থা[সম্পাদনা]

এবতেদায়ী হতে ফাজিল (ডিগ্রী) পর্যন্ত লেখাপড়া করার সুব্যবস্থা রয়েছে সহশিক্ষা সহ।

শিক্ষক/শিক্ষিকা[সম্পাদনা]

ছাত্র - ছাত্রীদের পাঠদান করানোর জন্য রয়েছে ২৫ জন দক্ষ শিক্ষক ও শিক্ষিকা। ছাত্র -ছাত্রী ও শিক্ষক /শিক্ষিকাদের মধ্যে রয়েছে সুসম্পর্ক।

কম্পিউটার ল্যাব[সম্পাদনা]

প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীদের তথ্য প্রযুক্তিতে দক্ষ করে গড়ে তোলার জন্য রয়েছে আলাদা কম্পিউটার ল্যাব। যেখানে কম্পিউটার শিখানো হয়।

ছাত্র/ছাত্রী[সম্পাদনা]

মাদ্রাসা টি বর্তমানে ৮০০ ছাত্র / ছাত্রী রয়েছে।

ব্যবস্থাপনা কমিটি[সম্পাদনা]

মাদ্রাসা টি পরিচালনা করার জন্য রয়েছে একটি দক্ষ ব্যবস্থাপনা কমিটি। উক্ত কমিটির বর্তমান সভাপতি হচ্ছেন চান্দিনা উপজেলার সাবেক চেযারম্যান জনাব মনিরুল হক। যিনি সবসময় মাদ্রাসার উন্নয়নমূলক কাজ করে আসছেন আগ থেকে। তিনি এর আগেও কয়েকবার এ প্রতিষ্ঠানের সভাপতি ছিলেন।[২][৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "এসএসসিতে শতভাগ সাফল্য পেয়েছে যেসব স্কুল | সারাদেশ | The Daily Ittefaq"archive1.ittefaq.com.bd। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৮-১৯ 
  2. "দ্বীনের আলো ছড়িয়ে যাচ্ছে বদরপুর নেছারিয়া ফাজিল মাদ্রাসা"। সংগ্রহের তারিখ ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 
  3. "গভর্নিং বডি - চট্টগ্রাম"Islamic Arabic University (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-১৮ 
  4. "মাইজখার ইউনিয়নের মাদ্রাসা সমূহের তালিকা - তথ্য বাতায়ন"maijkharup.comilla.gov.bd। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-১৯ 
  5. "মাইজখার ইউনিয়ন"maijkharup.comilla.gov.bd। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১০-১৮