মহিমাগঞ্জ আলিয়া কামিল মাদ্রাসা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Mahimaganj Alia Kamil Madrasha
মহিমাগঞ্জ আলিয়া কামিল মাদ্রাসা
Mohimaganj Madrasa.jpg
মাদ্রাসা ভবনের একাংশ
নীতিবাক্যশিক্ষাই জাতির মেরুদণ্ড
ধরনবিশ্ববিদ্যালয় মাদ্রাসা
স্থাপিত১৯৩৯ খ্রীস্টাব্দ
প্রতিষ্ঠাতাআহমেদ হোসেইন ( তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের কৃষি, বন ও মৎস্য মন্ত্রনালয়ের মন্ত্রী )
অধ্যক্ষমোঃ মোখলেসুর রহমান
অবস্থান
সংক্ষিপ্ত নামমহিমাগঞ্জ মাদ্রাসা
ক্রীড়াফুটবল, ক্রিকেট

মহিমাগঞ্জ আলিয়া কামিল মাদ্রাসা (ইংরেজি: Mahimaganj Alia Kamil Madrasha) মহিমাগঞ্জ ইউনিয়ন এ অবস্থিত একটি কামিল মাদ্রাসা[২] মাদ্রাসাটি ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত মাদ্রাসা।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

মহিমাগঞ্জ আলিয়া কামিল মাদ্রাসা উত্তরবঙ্গ তথা বাংলাদেশের একটি ঐতিহ্যবাহী ইসলামী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান । অবিভক্ত বাংলার কৃষিমন্ত্রী জনাব মরহুম আহমেদ হোসেইন সাহেব ০১/০১/১৯৩৯ ইং সালে প্রতিষ্ঠা করেন ।

তারপর কামিল, হাদিস, তাফসীর ও ফিকহ এবং ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ফাজিল বি.এস.সি তে রুপান্তরিত হয়। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ২০১৬ সাল পর্যন্ত স্থায়ী ছিলো। এরপর থেকে ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত হয়েছে।

শিক্ষা কার্যক্রম[সম্পাদনা]

সহশিক্ষা কর্মসূচী[সম্পাদনা]

  • স্কাউটিং
  • খেলাধুলা (অ্যাথলেটিক্স, ক্রিকেট ও ফুটবল)
  • বিতর্ক
  • সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান
  • শিক্ষা সফর ইত্যাদি

ইউনিফরম[সম্পাদনা]

অবকাঠামো[সম্পাদনা]

মাদ্রাসার অধিনে একটি ঈদগাহ মাঠ রয়েছে, যেটি গাইবান্ধা জেলার একটি ঐতিহ্যবাহী ঈদগাহ মাঠ । মাদ্রাসায় একটি মসজিদ রয়েছে । এই মসজিদটি আহমেদ হোসেইন ১৯৪৫ খ্রীস্টাব্দে প্রতিষ্ঠা করেন । এছাড়া মাদ্রাসার ছাত্রদের থাকার জন্য একটি ছাত্রাবাস রয়েছে ।

১৯৪৫ খ্রীস্টাব্দে প্রতিষ্ঠিত মহিমাগঞ্জ মাদ্রাসা মসজিদ

উল্লেখযোগ্য প্রাক্তন শিক্ষার্থী[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]