জামেয়া তাওয়াক্কুলিয়া রেঙ্গা মাদ্রাসা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জামেয়া তাওয়াক্কুলিয়া রেঙ্গা
জামেয়া তাওয়াক্কুলিয়া রেঙ্গা মাদ্রাসা লোগো.jpg
ধরনমাদ্রাসা
স্থাপিত১৯১৯ (1919)
অধ্যক্ষমুহিউল ইসলাম বুরহান (ভারপ্রাপ্ত)
প্রশাসনিক ব্যক্তিবর্গ
৪২ (২০১৫)
শিক্ষার্থী১,৩৫০ (২০১৫)
অবস্থান,
২৪°৪৭′২০″ উত্তর ৯১°৫৪′২৯″ পূর্ব / ২৪.৭৮৯° উত্তর ৯১.৯০৮° পূর্ব / 24.789; 91.908স্থানাঙ্ক: ২৪°৪৭′২০″ উত্তর ৯১°৫৪′২৯″ পূর্ব / ২৪.৭৮৯° উত্তর ৯১.৯০৮° পূর্ব / 24.789; 91.908
শিক্ষাঙ্গনগ্রাম্য
ওয়েবসাইটrengamadrasah.com

জামেয়া তাওয়াক্কুলিয়া রেঙ্গা হচ্ছে সিলেট জেলার দক্ষিণ সুরমা উপজেলার মোগলা বাজারের পার্শ্ববর্তী রেঙ্গায় অবস্থিত একটি মাদ্রাসা। এই মাদ্রাসাটি বাংলাদেশের সিলেট শহর থেকে প্রায় ১৩ কিলোমিটার (৮.১ মা) দক্ষিণ দিকে, সিলেট-মৌলভীবাজার মহাসড়কের পাশে অবস্থিত।[১] ১৯১৯ সালে এই প্রতিষ্ঠান আরকান আলী প্রতিষ্ঠা করেন; অতঃপর এর কাজ তার ছেলে খলীফায়ে মাদানি হযরত মাওলানা বদরুল আলম চালিয়ে যান। এর বর্তমান অধ্যক্ষ মাওলানা শামছুল ইসলাম খলিল এবং ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাওলানা মুহিউল ইসলাম বুরহান।[২]

শিক্ষা স্তর[সম্পাদনা]

এই মাদ্রাসা প্রাথমিক, মাধ্যমিক, উচ্চমাধ্যমিক, স্নাতক, এবং স্নাতকোত্তর ইসলামী শিক্ষা প্রদান করে।

শিক্ষার ধরণ[সম্পাদনা]

জামেয়াতে একদম শিশু শ্রেণী থেকে উচ্চতর পর্যায় পর্যন্ত শিক্ষাদান করে থাকে। শিক্ষাস্তর : ১. নূরানি বিভাগ। ২. হিফ্‌য-উল-কুরআন ৩. সাধারণ ইসলামি শিক্ষা

শিক্ষাবিভাগ তিন স্তরে বিভক্তঃ ১) কিতাব বিভাগ, ২) হিফয বিভাগ, ৩) নূরানি বিভাগ

কিতাব বিভাগে পাঁচটি মারহালা বা স্তরঃ ১.ইবতিদাইয়্যাহ (প্রাথমিক) ২.মুতাওয়াসসিতা (মাধ্যমিক) ৩.সানাবিয়্যা (উচ্চ মাধ্যমিক) ৪.ফযিলত (স্নাতক) ৫.তাকমীল (মাস্টার্স)।

হিফয বিভাগঃ হিফয বিভাগে হিফযে কুরআন

ছাত্র-শিক্ষক[সম্পাদনা]

২০১৫ সালের মোতাবেক, এই প্রতিষ্ঠানে ৪২ জন কর্মকর্তা (প্রশাসনিক এবং শিক্ষা বিষয়ক) এবং প্রায় ১৩৫০জন শিক্ষার্থী রয়েছে।[৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Jamia Tawakkulia Renga Madrasah (Darul Hadith)। Wikimapia.org
  2. "Jamia Tawakkulia Renga at a Glance (page 1)"জামেয়া তাওয়াক্কুলিয়া রেঙ্গা (ইংরেজি ভাষায়)। ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  3. "Jamia Tawakkulia Renga at a Glance (page 2)"জামেয়া তাওয়াক্কুলিয়া রেঙ্গা (ইংরেজি ভাষায়)। ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা।