দারুন্নাজাত সিদ্দিকিয়া কামিল মাদরাসা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
দারুন্নাজাত সিদ্দিকিয়া কামিল মাদ্রাসা, ঢাকা
নীতিবাক্যআয় দারুন্নাজাতে আয়, আয় ইলমের সন্ধানে
ধরনএমপিও ভুক্ত
স্থাপিত১ জানুয়ারি, ১৯৯০
প্রতিষ্ঠাতাআ খ ম আবু বক্কর সিদ্দীক
অধিভুক্তিইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ(২০০৬- ২০১৬)
ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয় (২০১৬- বর্তমান)
অধ্যক্ষআ খ ম আবু বক্কর সিদ্দীক
শিক্ষায়তনিক ব্যক্তিবর্গ
১৩৪ জন
শিক্ষার্থী৬,০০০ (প্রায়)
ঠিকানা
সারুলিয়া বাজার ডেমরা থানা
, ,
বাংলাদেশ
শিল্পী গোষ্ঠীআন নাজাত শিল্পী গোষ্ঠী
ক্রীড়াক্রিকেট, ফুটবল, ভলিবল
ওয়েবসাইটhttp://dskm.ac.bd/

দারুন্নাজাত সিদ্দিকিয়া কামিল মাদ্রাসা ঢাকা শহরের ডেমরা থানার সারুলিয়া বাজারের কাছে অবস্থিত একটি বিখ্যাত কামিল মাদ্রাসা।[১][২] জেডিসি, দাখিল ও আলিম পরীক্ষায় এই মাদ্রাসা সারা দেশের মধ্যে উল্লেখযোগ্য ফলাফল করে থাকে।[৩][৪] বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষামন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ-২০১৭ এ জাতীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নির্বাচিত হয়েছিলো এই মাদ্রাসাটি। ১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়ে এই মাদ্রাসাটি সারা দেশের মধ্যে সুনাম অর্জন করেছে।[৫][৬][৭]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯৮৮ সালে করিম জুট মিলস লি. এর পেশ ইমাম আলহাজ্ব মাওলানা রুহুল আমীন সাহেবের নেতৃত্বে এলাকার ১৮ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি হজ্বব্রত পালনের জন্য মক্কা শরীফ গমন করেন এবং হজ্বব্রত পালন শেষে কাবা শরীফের চত্বরে বসে শুরুরসী গোরস্থানের পাশে একটি দ্বীনি মাদরাসা প্রতিষ্ঠার পরিকল্পনা গ্রহণ করেন। মদীনা শরীফে গিয়েও তারা মাদরাসার জন্য দোয়া করেন। অতঃপর পরিকল্পনা মোতাবেক ১৯৮৯ সালের সেপ্টেম্বর মাসে ফুরফুরার মুজাদ্দিদে জামান হযরত মাওলানা আবু বকর সিদ্দীকি আল কুরাইশী রহ. এর নাতী পীরে কামেল আলহাজ্ব মাওলানা আবুল আনসার মুহাম্মাদ আব্দুল কাহ্হার সিদ্দীকি রহ. মুজাদ্দিদে জামানের নামের সাথে মিলিয়ে নামকরণ করে দারুননাজাত সিদ্দীকিয়া কামিল মাদরাসার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। সেই থেকে শুরু হয় এ মাদরাসার অবিরাম পথ চলা।[৮]

১৯৯০ সালের ১ জানুয়ারি ঢাকার ডেমরার সারুলিয়ায় ইবতেদায়ী শাখা দিয়ে যাত্রা শুরু করে দারুন্নাজাত সিদ্দিকিয়া কামিল মাদরাসা। পর্যায়ক্রমে মাদ্রাসাটিতে দাখিল, আলিম ও ফাজিল শ্রেণী উন্মুক্ত হতে থাকে এবং অবশেষে ২০০৪ সালের জুলাই মাসে মাদ্রাসাটি সর্বোচ্চ ডিগ্রি কামিল পর্যায় অনুমোদন পায়, এবং কামিল মাদ্রাসায় পরিণত হয়।[৯] দাখিল ও আলিম স্তরে রয়েছে বিজ্ঞান ও মানবিক বিভাগ উভয়ই রয়েছে মাদ্রাসাটিতে। ২০০৬ সালে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশের অধীনে চার বছর মেয়াদি ফাযিল অনার্স কোর্স চালু হয়। এবং ২০১৬ সালে ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা হলে মাদ্রাসাটি উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত হয়।

শিক্ষা কার্যক্রম[সম্পাদনা]

দারুন্নাজাত মাদ্রাসায় হাফেজ ছাত্রদের সুবিধার জন্য তাখসিস জামাত। যারা কুরআন ও হাদীসের উপর আলেম হতে চান তাদের জন্য রয়েছে আলাদা নজর, সম্পূর্ণ দরসে নেজামি পদ্ধতিতে নবম শ্রেণি থেকে বিশেষভাবে পাঠদান করা হয়। আলিম শ্রেণির মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে বিখ্যাত হাদীস গ্রন্থ মিশকাতুল মাসাবিহ খতমের সুযোগ, এছাড়া ফাযিল ও কামিল শ্রেণিতে তাফসিরে জালালাইন, খতমে বুখারিসহ বিভিন্ন বিখ্যাত হাদিস ও তাফসির গ্রন্থ বাধ্যতামূলকভাবে খতম করা হয়।

দারুন্নাজাত মাদরাসায় জ্ঞান অর্জনের পাশাপাশি আমলের প্রতিও আলাদা গুরুত্ব দেয়া হয়। প্রত্যহ ফজর নামাজের পর আবাসিক শিক্ষার্থীদের কুরআন তিলাওয়াতসহ মাগরিব নামাজের পর আওয়াবিন সালাত, যিকির বাধ্যতামূলকভাবে করানো হয়ে থাকে।

শাখা প্রতিষ্ঠান[সম্পাদনা]

দারুন্নাজাত সিদ্দিকিয়া কামিল মাদ্রাসায় কয়েকটি শাখা আছে;

  • দারুন্নাজাত মহিলা শাখা
  • নেছারিয়া হিফজখানা
  • সালেহিয়া এতিমখানা ইত্যাদি।

সুযোগ-সুবিধা[সম্পাদনা]

  • লাইব্রেরীঃ মাদরাসার শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে ১০ হাজার বই সংবলিত সুবিশাল গ্রন্থাগার যাতে রয়েছে ইন্টারনেট সুবিধা। এই লাইব্রেরীতে বিভিন্ন ইসলামিক বই, গল্প, উপন্যাস, সাহিত্য, গবেষণা প্রবন্ধ, আন্তজার্তিক জার্নাল প্রভৃতি পাওয়া যায়।
  • ইসলামী প্রতিযোগিতাঃ মাদ্রাসার অভ্যন্তরে ছাত্রদের মধ্যে সাহিত্য মজলিস আলোচনা, সাপ্তাহিক জলসা, আরবি ও ইংরেজি বক্তৃতার প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।
  • আন নাজাত শিল্পী গোষ্ঠীঃ আন নাজাত শিল্পী গোষ্ঠী একটি ইসলামী গানের দল, যারা গান শিখতে চায় বা পরিবেশন করতে চায়, তারা এই সংগঠনে যুক্ত হয়ে ইসলামী গান পরিবেশন করতে পারে।

প্রকাশনা[সম্পাদনা]

প্রতি মাসে মাদরাসার ছাত্র শিক্ষকদের তত্ত্বাবধানে প্রকাশিত হয় বাংলা মাসিক পত্রিকা ‘বিকাশ’। এছাড়া ইংরেজিতে দক্ষ শিক্ষার্থীদের তত্ত্বাবধানে প্রকাশিত হয় ইংরেজি ম্যাগাজিন। এবং প্রতি মাসে প্রকাশিত হয় আরবি দেয়ালিকা।

পোশাক[সম্পাদনা]

  • ছাত্রঃ সাদা পাজামা, সাদা পাঞ্জাবী, সাদা টুপি এবং সাদা জুতা-মোজা।[১০]

সাফল্য[সম্পাদনা]

২০১৮ সালের দাখিল পরীক্ষায় সর্বমোট ৪১১ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে এ+ পেয়েছে ১৮৯ জন। এ পেয়েছে ২১৮ জন। বিগত পরীক্ষাগুলোতেও এ মাদরাসা শীর্ষ দশে অন্তর্ভুক্ত ছিল।[১১][১২] ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বুয়েট, মেডিকেল কলেজ, চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ সহ দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে দারুন্নাজাত মাদ্রাসা থেকে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে ছাত্র ভর্তির সুযোগ পেয়ে থাকে।[১৩] এছাড়াও দেশের বাইরে আল আজহার, মদিনা বিশ্ববিদ্যালয়, কিং সাউদ বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন স্থানে রয়েছে দারুন্নাজাতের শিক্ষার্থীগণ স্কলারশিপ পেয়ে থাকে।

শিক্ষক[সম্পাদনা]

দারুন্নাজাত সিদ্দিকিয়া কামিল মাদ্রাসায় প্রায় ১০০ শিক্ষক রয়েছে। দারুন্নাজাত মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা প্রিন্সিপাল আ খ ম আবু বকর সিদ্দীক।

উল্লেখযোগ্য শিক্ষার্থী[সম্পাদনা]

আবাসিক হল[সম্পাদনা]

দারুন্নাজাত সিদ্দিকিয়া কামিল মাদ্রাসায় ১৭ টি আবাসিক হল রয়েছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "অন্যরকম এক দারুন্নাজাতের গল্প"our Islam। ২০১৭-০৮-০৭। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০১-৩০ 
  2. Dainikshiksha। "দারুন্নাজাত সিদ্দিকিয়া কামিল মাদরাসায় নতুন ভবন প্রয়োজন - দৈনিকশিক্ষা"Dainik shiksha। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০১-৩০ 
  3. "মাদ্রাসা বোর্ডে দেশসেরা ডেমরার দারুন্নাজাত | কালের কণ্ঠ"Kalerkantho। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৬-০২ 
  4. প্রতিবেদক, নিজস্ব। "মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৯১.৪৬%"Prothomalo। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৬-০২ 
  5. "অন্যরকম এক দারুন্নাজাতের গল্প"। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৬-০২ 
  6. Dainikshiksha। "দারুন্নাজাত সিদ্দিকিয়া কামিল মাদরাসায় নতুন ভবন প্রয়োজন - দৈনিকশিক্ষা"Dainik shiksha (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৬-০২ 
  7. "মাদ্রাসা বোর্ডে দারুন্নাজাত সিদ্দিকিয়া কামিল মাদ্রাসা শীর্ষে"jagonews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৬-০২ 
  8. "দারুননাজাত সিদ্দীকিয়া কামিল মাদরাসা"dskm.ac.bd। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৬-০২ 
  9. "দারুননাজাত সিদ্দীকিয়া কামিল মাদরাসা (তাখসীসি শাখা)"dskmtakhsisibranch.com। ২০২১-০৬-০২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৬-০২ 
  10. "দারুননাজাত সিদ্দীকিয়া কামিল মাদরাসা"dskm.ac.bd। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৬-০২ 
  11. "দারুননাজাত সিদ্দীকিয়া কামিল মাদরাসায় সাফল্যের ধারা অব্যাহত"DailyInqilabOnline। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০১-৩০ 
  12. "সর্বাধিক সংখ্যক জিপিএ-৫ পেয়েছে দারুননাজাত কামিল মাদরাসা"subhesadik24.com | সুবহে সাদিক ২৪। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০১-৩০ 
  13. "ডেমরার দারুন্নাজাত কামিল মাদ্রাসা শীর্ষে"NTV Online (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৫-০৫-৩০। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৬-০২